বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
সম্পাদকীয়
 

ছক ভাঙা অঙ্ক

ছাত্রজীবনে স্কুলের অঙ্ক পরীক্ষায় তিনি কত নম্বর পেতেন, একমাত্র জনস্বার্থ মামলা ছাড়া তা জানার কার্যত কোনও উপায় নেই। কিন্তু ভোটের অঙ্ক মেলাতে নরেন্দ্র মোদি যে একের পর এক ‘তাস’ খেলে চলেছেন, দেশবাসী তা বিলক্ষণ বুঝতে পারছে। ’২৪-এর লোকসভা ভোটে জিতে মোদির তৃতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হওয়াটা সময়ের অপেক্ষা বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের। স্বয়ং মোদি মনে করছেন, ‘অব কি বার ৪০০ পার’ করবে এনডিএ। সঙ্ঘ পরিবারের দাবি, ২২ জানুয়ারি রামমন্দির উদ্বোধনের সঙ্গে সঙ্গে শুধু হিন্দুত্বের আবেগই ভাসিয়ে নিয়ে যাবে আসমুদ্রহিমাচলকে। অন্তত প্রকাশ্যে তাই বিরোধী পক্ষকে কোনও নম্বর দিতেই নারাজ গেরুয়া শিবির। তবু যেন সব অঙ্ক ফর্মুলা মেনে মিলছে না! তাই কখনও আত্মসম্মান এমপাওয়ারমেন্টের কথা বলে মহিলাদের বাড়তি গুরুত্ব দেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর মুখে, আবার বেকার যুবদের হতাশা ও কৃষকের ক্ষোভ প্রশমনে অন্তর্বর্তী বাজেটে কিছু ঘোষণার কথা শোনা গিয়েছে। ‘হিন্দুরাষ্ট্র’ গঠনে তৎপর মোদির মুখে শোনা যাচ্ছে ‘ধর্মনিরপেক্ষতার’ নতুন সংজ্ঞাও! তবু কোথাও যেন ‘কিন্তু’ থেকেই যাচ্ছে। অতএব, অঙ্ক মেলাতে এখন ‘ভারতরত্ন’-কেও ভোট রাজনীতির ‘অস্ত্র’ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটের আগে জনসঙ্ঘ নেতা নানাজি দেশমুখ, কংগ্রেস নেতা ও প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় ও সঙ্গীতশিল্পী ভূপেন হাজারিকাকে ভারতরত্ন দিয়ে বিজেপি বোঝাতে চেয়েছিল, দলীয় রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। চলতি বছরে রেকর্ড সংখ্যক অর্থাৎ ৫ জনকে ভারতরত্ন দিয়ে তিনিই আবার পরিষ্কার ভোটের বার্তা দিয়েছেন। ভারতরত্ন হল দেশের সর্বোচ্চ অসামরিক নাগরিক সম্মান। যে কোনও ক্ষেত্রে কৃতী, উজ্জ্বল, দৃষ্টান্তস্থাপনকারী নাগরিকদের জীবদ্দশায় অথবা মরণোত্তর এই সম্মান দেয় রাষ্ট্র। ভারতরত্ন সম্মান তাই যে কোনও ব্যক্তির কাছে জীবনের সবচেয়ে গৌরবময় প্রাপ্তি। জনগণের চোখে তিনি সব অর্থে কৃতী ‘ভারত সন্তান’। এমন এক সম্মানজনক পুরস্কারকে ভোটের ঘুঁটি করতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী। সংকীর্ণ রাজনীতির এ এক নজিরবিহীন নজির হয়ে থাকবে।
শুক্রবার চৌধুরী চরণ সিং, পি ভি নরসিমা রাও এবং এসএস স্বামীনাথনের নাম ভারতরত্ন হিসাবে ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এর মধ্য দিয়ে দক্ষিণ ভারত ও কৃষকদের মন জয়ের চেষ্টা করা হল বলে মনে করা হচ্ছে। উত্তরপ্রদেশের প্রথম অ-কংগ্রেসি মুখ্যমন্ত্রী চরণ সিং একজন জাঠ সম্প্রদায়ের কৃষকনেতা ছিলেন। প্রবল কংগ্রেস-বিরোধী এই নেতা তৈরি করেছিলেন লোকদল পার্টি। সন্দেহ নেই, জাঠ সম্প্রদায় ও কৃষকসমাজ তাঁকে একজন বরেণ্য নেতার চোখেই দেখেন। তাই চরণ সিংকে সর্বোচ্চ সম্মান দিয়ে একসঙ্গে দু’পক্ষকে বার্তা দিতে চাইলেন মোদি। বিজেপি জমানায় কৃষক আন্দোলন যে মোদির ইমেজের যথেষ্ট ক্ষতি করেছে তা কারও অজানা নয়। তাই এই সিদ্ধান্তে শুধু জাঠ অধ্যুষিত পশ্চিম উত্তরপ্রদেশ নয়, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়ের মতো রাজ্যেও এর প্রভাব পড়বে বলে মনে করছে বিজেপি। একইভাবে ভারতে ‘সবুজ বিপ্লব’-এর জনক কৃষিবিজ্ঞানী স্বামীনাথনকে ভারতরত্ন দিয়ে কৃষকসমাজ ও দক্ষিণ ভারতকে পাশে পেতে চাইছেন মোদি। কৃষকদের ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য নির্ধারণ করার পদ্ধতি বের করেছিলেন স্বামীনাথন। তাই তাঁকে কৃষকসভা ভগবানের চোখে দেখে। তাঁকে ভারতরত্ন দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে এই বার্তা দেওয়া হল, মোদি সরকার গুণীর সম্মান করতে জানে। একইভাবে গান্ধী পরিবারের নেক নজরে না থাকা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নরসিমা রাওকে ভারতরত্ন দিয়ে দক্ষিণ ভারতের মনোরঞ্জন করে আসন বাড়াতে চাইছে বিজেপি। রাও কংগ্রেসি প্রধানমন্ত্রী হলেও সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে তাঁর আদৌ সুসম্পর্ক ছিল না। তাই তাঁকে ভারতরত্ন দিয়ে কংগ্রেসকে অস্বস্তিতে ফেলতে চাইলেন মোদি। প্রসঙ্গত, বিহারে ভোটের অঙ্ক মেলাতে কয়েকদিন আগে কর্পূরী ঠাকুরকে ভারতরত্ন দিয়েছে মোদি সরকার। আবার রামমন্দির নির্মাণে তাঁর অবদানের মূল্য চোকাতে ভারতরত্ন দেওয়া হয়েছে বিজেপির প্রবীণ নেতা এল কে আদবানিকে। দুর্বল অঞ্চলে জমি শক্ত করতে অঙ্ক কষেই প্রতিটি পদক্ষেপ!
কিন্তু এই পুরস্কার ঘোষণা করে নিজেই কিছু প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। যে স্বামীনাথনকে ভারতরত্ন দেওয়া হচ্ছে, তাঁর দেখানো পথে ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের দাবি আজও মানেনি মোদি সরকার। কৃষকরা তাই ফের দেশজুড়ে আন্দোলনের পথে নামছে। বলতে হয়, স্বামীনাথনের নীতিকে মান্যতা না দিয়ে এ কেমন সম্মান প্রদর্শন! একইভাবে, যাঁর আমলে ১৯৯২ সালে অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ধ্বংস হল, বিতর্ক হল, সেই নরসিমা রাওকে ভারতরত্ন দেওয়ায় অনেকেই অবাক! প্রশ্ন উঠছে, যেভাবে ভোটের ফায়দা লুটতে ‘ভারতরত্নের’ মতো সর্বোচ্চ সম্মান নিয়ে ভোটের অঙ্ক মেলানোর চেষ্টা হচ্ছে তাতে কি এই সর্বোচ্চ পুরস্কারের গরিমা রক্ষিত হবে? ভারতরত্নকে রাজনৈতিক লাভক্ষতির পাটিগণিতে বদলে দিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী! এখন ফায়দা লুটতে ভোটের আগে আরও কেউ ভারতরত্ন পাবেন কি না, সেটাই দেখার।

11th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ