Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

রাজনীতির বলি বিদ্যাসাগর

ষোড়শ লোকসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ৩ জুন। সপ্তদশ লোকসভা গঠনের জন্য দেশজুড়ে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে ১১ এপ্রিল। ইতিমধ্যে ছয় দফার ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। আগামী ১৯ মে, রবিবার সপ্তম তথা শেষ দফার ভোট। ২৩ মে ভোট গণনার পরই স্পষ্ট হবে লোকসভার চেহারাটা কী হতে চলেছে। কোন দল বা জোট নতুন সরকার গড়বে আর কাদের বসতে হচ্ছে বিরোধী আসনে। নরেন্দ্র মোদি এই ভোটেও এনডিএ তথা বিজেপির মুখ। ২০১৪-র মতো তিনিই ফের তাদের প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী। তাঁর সঙ্গে লড়াইটা এনডিএ বা বিজেপি-বিরোধী সমস্ত দলের। মোদি বনাম এই যে সর্ববৃহৎ গণতান্ত্রিক যুদ্ধ, তাতে বাকি কোনও দলই এখনও খোলসা করেনি তারা জিতলে দেশ কাকে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পাবে। বিজেপি-বিরোধীদের মধ্যে সবচেয়ে সাড়া জাগানো দু’টি দল হল রাহুল গান্ধীর কংগ্রেস এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস। কংগ্রেস এখনও ভরসা করে বলতে পারেনি যে তারাই নিরঙ্কুশ গরিষ্ঠতা পাবে এবং তারা রাহুল গান্ধীকেই প্রধানমন্ত্রী পদে বসাতে তৈরি। আবার সারা দেশে নির্দিষ্ট জোট গড়েও ভোটে লড়ছে না কংগ্রেস। ভোট-পরববর্তী কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট সম্পর্কেও নির্দিষ্ট ধারণা তারা দিতে পারেনি।
অন্যদিকে, নির্বাচনী লড়াইয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল সবচেয়ে বেশি জোর দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের উপর। রাজ্যবাসীর কাছে তৃণমূল সুপ্রিমোর আবেদন, তাঁরা যেন বাংলার ৪২টি আসনই তাঁকে উপহার দেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্ব যদি এইমতো সফল হয় তবে বিজেপি এবং কংগ্রেস-বিরোধী অনেক আঞ্চলিক দল তাঁর নেতৃত্বে কেন্দ্রে সরকার গড়তে আগ্রহ প্রকাশ করেছে আগাম। বিজেপি-বিরোধী সরকারের চেহারা যেমনই হোক না কেন, সোনিয়া গান্ধীও আলাদাভাবে সেই সরকারের প্রতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশীর্বাদ প্রার্থনা করে রেখেছেন। অন্যদিকে, যে বিজেপি পশ্চিমবঙ্গের ভোটে কোনোদিনই বিশেষ প্রাসঙ্গিক বলে গণ্য হয়নি তারা এখান থেকে ২৩টি আসন সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ময়দানে নেমেছে। বিজেপির ক্ষমতার উৎস উত্তরপ্রদেশকে কেন্দ্র করে গোবলয়। বিজেপির আশঙ্কা, উত্তর ভারত এবার আগের মতো প্রসন্ন নাও হতে পারে মোদির প্রতি। অতএব দলের পুরোধাপুরুষ শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের বাংলার দিকেই নজর ঘুরিয়েছেন অমিত শাহরা। স্বয়ং নরেন্দ্র মোদি এবং অমিত শাহ বার বার ছুটে আসছেন ভোটের প্রচারে। বিগ্রেডে মিটিং করেছেন। বাংলার নানা প্রান্তে তাঁরা জনসভা করছেন। বাংলার দিকে দিকে পদ্মফুল ফুটিয়ে গোবলয়ের আসন ঘাটতি পূরণ করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন তাঁরা। কিন্তু, এবার কতটা সাফল্য বিজেপি পাবে তা নিয়ে নেতৃত্বের মধ্যেই সংশয় রয়েছে। বস্তুত, এক ঢিলে দুই পাখি মারার মতো করেই লক্ষ্য স্থির করেছে তারা। বিজেপির এই চালটি নিঃসন্দেহে দীর্ঘমেয়াদি। লোকসভার ভোটে এক বা একাধিক আসন হলে হল। তাতেই খুশি থাকবেন নেতৃত্ব। বিজেপির পাখির চোখ কিন্তু ২০২১ সালের রাজ্য বিধানসভার ভোট—এবার বপন করা বীজ থেকে দু’বছর বাদে গোলা ভরার খোয়াব দেখছেন আমিত শাহরা। রাহুল গান্ধীর কংগ্রেস পার্টি তৃণমূলের থেকে বড় হলেও বিজেপি এবং মোদি-বিরোধিতার প্রশ্নে এই মুহূর্তে সারা দেশের প্রধান মুখ হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমন কোনও ইস্যু নেই যাতে মোদিকে ছেড়ে কথা বলছেন তিনি। সব মিলিয়ে এবারের ভোটে উত্তরপ্রদেশ বা হিন্দি বলয় নয়, বাংলাই আলোচনার কেন্দ্রে জায়গা করে নিয়েছে। ২০১৯-এর ভোটের কেন্দ্রীয় চরিত্রের নামও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ছয় দফা খুব শান্তিতে কেটেছে বলা যাবে না। প্রচারে বাধা দেওয়া থেকে সংঘর্ষ, খুন, জখম, ভোট লুট সবই হয়েছে কমবেশি। দু’পক্ষই দুষেছে দু’পক্ষকে। সবচেয়ে বড় ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার। উত্তর কলকাতায় অমিত শাহের রোড শো-কে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কাণ্ড। হয়েছে দু’পক্ষের মধ্যে তীব্র সংঘর্ষ, রক্তারক্তি, মোটরবাইকে অগ্নিসংযোগ, একটি কলেজে হামলা। সবচেয়ে লজ্জার ব্যাপার, সংকীর্ণ রাজনীতির বলি হলেন সমস্ত রাজনীতির ঊর্ধ্বে প্রতিষ্ঠিত আমাদের প্রাতঃস্মরণীয় বিদ্যাসাগর—তাঁর জন্মের দ্বিশতবর্ষের মতো এক পুণ্য মুহূর্তে! বিদ্যাসাগর কলেজের বিধান সরণি ক্যাম্পাসে রক্ষিত বিদ্যাসাগরের একটি মূর্তি ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে রাজনীতির পুতুল কিছু যুবক। ঘটনাটি নিয়ে চাপান-উতোর পৌঁছেছে দিল্লি অবধি। কিন্তু, সাধারণ মানুষ রাজনীতির এই নোংরামি নিশ্চয় চাইছেন না। ক্ষমতার শূন্য আসন শান্তিপূর্ণ স্বচ্ছ গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াতেই যাতে পূরণ হয়, সেটাই মানুষের একান্ত আকাঙ্ক্ষা। রাজনৈতিক দলগুলি মানুষের অতি সামান্য এই চাহিদা পূরণ করার যোগ্যতা কবে অর্জন করবে?
মানবিক মুখ

 বাঘাযতীন ব্রিজের একদম মুখে একটা বাইক পড়ে রয়েছে। অদূরে পড়ে এক যুবক। হেলমেট তার পাশেই গড়াগড়ি খাচ্ছে। যুবকের মুখ থেকে রক্ত গড়িয়ে পড়ছে। পায়েও রক্ত। অচৈতন্য অবস্থায় তিনি। নিজের ইউনিফর্মে লাগানো ক্যামেরা, অর্থাৎ বডি ক্যামের আলো জ্বেলে দেখার চেষ্টা করলেন যিনি তিনি গড়িয়া ট্রাফিক গার্ডের একজন সার্জেন্ট।
বিশদ

15th  May, 2019
নির্বিঘ্ন হোক গণতন্ত্রের লড়াই 

ষষ্ঠ দফার ভোট সম্পন্ন হয়েছে। আর পড়ে রয়েছে মাত্র শেষ দফার ভোট। তারপরই জানা যাবে কারা বসছে সিংহাসনে। কিন্তু মনে রাখা দরকার, গণতন্ত্রের খেলাটা খুব শান্ত বা নির্বিঘ্ন থাকেনি। বলতেই হয়, বিচ্ছিন্ন হলেও অশান্তি বা হিংসা এড়ানো যায়নি। এই ভোট ঘিরে হিংসা, অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ এমনকী প্রাণ চলে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।  
বিশদ

14th  May, 2019
রেকর্ড ছাপিয়ে বিশ্বরেকর্ড!

 আমেরিকার মুদ্রা ডলারের নিরিখে টাকার দাম যতই তলানিতে ঠেকুক না কেন, ডলারের দেশে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রকাশ্যে যত খরচ হয়েছিল তাকে ছাপিয়ে গিয়েছে ভারতের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের প্রকাশ্য ব্যয়। ‘প্রকাশ্য’ কথাটা বলা দরকার, কারণ দেশের প্রায় সকলেই জানে পর্দার পিছনের খরচটাই আসল।
বিশদ

13th  May, 2019
টাইম ম্যাগাজিন ও মোদি

 ধর্মীয় মেরুকরণ। সামাজিক মেরুকরণ। রাজনৈতিক মেরুকরণ। ভারতের গণতন্ত্রের সবচেয়ে বড় উৎসবের চিত্রনাট্যটা ধীরে ধীরে যেন এই তিন সুরে বাঁধা হয়ে গিয়েছে। ধর্মীয় মেরুকরণের সৌজন্যে বিজেপি। যে অভিযোগ বিরোধীরা দীর্ঘদিন ধরে তুলে এসেছেন, রাজ্যে পাঁচ দফা ভোট হয়ে যাওয়ার পর সেটাই যেন পায়ের নীচে আরও বেশি জমি পাচ্ছে।
বিশদ

12th  May, 2019
বাঙালির শিক্ষক বিদ্যাসাগর 

এই উপমহাদেশে জাতি হিসেবে বাঙালি নিজেকে বিশিষ্ট বলে দাবি করে থাকে। মনীষী গোপালকৃষ্ণ গোখলের উক্তির প্রতিধ্বনি আমাদের অনেকের কথায়—‘‘বাঙালি আজ যা ভাবে ভারত ভাবে তা কাল।’’ অর্থাৎ আমরা বোঝাতে চাই—চিন্তা চেতনার জগতে বাঙালিই হল সবচেয়ে অগ্রণী।   বিশদ

11th  May, 2019
মহাবৈঠকের ভবিষ্যৎ কী?

 দেখতে দেখতে নির্বাচন প্রক্রিয়া প্রায় শেষের পথে। আর দু’দফা ভোটের পরই ২৩ মে সব রহস্যের, সব লড়াইয়ের, সব গালমন্দ-কুকথার অবসান হবে। কিন্তু, সত্যিই হবে কী? কারণ, এ পর্যন্ত ভোটের প্রবণতা দেখে সব রাজনৈতিক দল আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে জয়ের প্রত্যয় ব্যক্ত করছে।
বিশদ

10th  May, 2019
এইচআইভি: মানবিক সরকার

 মানুষের দেহে এইচআইভি ভাইরাস সংক্রমণ প্রথম লক্ষ করা যায় ১৯৮০-৮১ সালে। এইচআইভি সংক্রমণ ঘটে একাধিক ভাবে। তার মধ্যে একটি বড় কারণ হল আক্রান্ত নারী বা পুরুষের সঙ্গে অসুরক্ষিত যৌনসংসর্গ। এছাড়া এই ধরনের অসুস্থ ব্যক্তির রক্ত নিলে কিংবা এই ধরনের অসুস্থ ব্যক্তির দেহে ব্যবহৃত সুচ, অস্ত্র একজন সুস্থ ব্যক্তির দেহে ব্যবহৃত হলেও এইচআইভি সংক্রমণের আশঙ্কা থাকে।
বিশদ

09th  May, 2019
পরিবেশ কেন ব্রাত্য

 কেউ বলছেন বিকাশ ও সংস্কারের কথা। এই সংস্কার সামাজিক ও অর্থনৈতিক হতে পারে। কারও লক্ষ্য উন্নয়ন, আবার কেউ গরিবের ন্যূনতম আয়ের ব্যবস্থা করতে প্রস্তুত। সবারই আসল লক্ষ্য কিন্তু ভোট। কাদের ভোট? মানুষের অর্থাৎ জনগণের দেওয়া ভোট, যা জয়-পরাজয় নির্ধারণ করে দেবে একজন প্রার্থীর এবং রাজনৈতিক দলের।
বিশদ

08th  May, 2019
নিত্যপণ্য নিয়ন্ত্রণে থাক

ভোটের চড়া উত্তাপে আগুন বাজারও। গত কয়েকদিন ধরেই লক্ষ্য করা যাচ্ছে, যে কোনও ধরনের সব্জিতেই হাত দেওয়ার উপায় নেই। মুরগির মাংসের দাম সেই যে কেজিপ্রতি ২০০ টাকার গণ্ডি ছাড়িয়েছে, তা আর নামার নাম নেই। একদিকে বাজারে মাছের আকাল। তারপরেও আবার যেটুকু মিলছে, তার দাম আকাশছোঁয়া।
বিশদ

07th  May, 2019
বাঞ্ছনীয় নয়

 শনিবার দেশের দুই প্রান্তের দুটি বিশেষ ঘটনা বহু মানুষেরই নজরে পড়েছে। একটি রাজধানী নয়াদিল্লির। অন্যটি পশ্চিমবঙ্গের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার। ওইদিন দিল্লির একটি এলাকায় লোকসভা ভোটের প্রচারে রোড শো করছিলেন ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। বিশদ

06th  May, 2019
সন্ত্রাসের আঁতুড় 

করাচির ক্লিফটন এলাকায় বাড়িটার নাম হোয়াইট হাউস। বাসিন্দার নাম দাউদ ইব্রাহিম। ১৯৯৩ মুম্বই বিস্ফোরণ সহ ভারতের মাটিতে ঘটে যাওয়া একের পর এক নাশকতায় অন্যতম অভিযুক্ত। বহাল তবিয়তে পাকিস্তানে। সেদেশের প্রশাসন যার সামনে নতজানু, সবরকম রাজনৈতিক ও পারলে কূটনৈতিক সাহায্য দিতে তৎপর। সমান্তরাল অর্থনীতি চলে তার পাকিস্তানে। 
বিশদ

05th  May, 2019
পাকিস্তান শোধরাবার বান্দা!

মাসুদ আজহারকে ‘আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী’ ঘোষণাসহ তাকে ‘নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের নেতা’ হিসেবে নথিভুক্ত করল রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ। জিন্নার দেশের এই ‘হিরের’ টুকরোটিকে ভারত টানা পনেরো বছর যাবৎ আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণার দাবি জানিয়ে আসছে।
বিশদ

04th  May, 2019
কেন ধৃতরাষ্ট্রের ভূমিকা?

 কঠিন বাস্তব হলেও ফের আবার একটি সত্য উদ্ঘাটিত হল। ডেঙ্গু নিয়ে ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রচারই সার, শেষমেশ বারবারই বাঘের ঘরে ঘোগের বাসা বেরিয়ে পড়ছে। অথচ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা বছর রাজ্যজুড়ে মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধ কর্মসূচিতে জোর দিতে বলেছেন।
বিশদ

03rd  May, 2019
স্বাস্থ্য পরিষেবায় আরও নজর

সকলের জন্য শিক্ষা, সকলের জন্য স্বাস্থ্য। যে-কোনও জনকল্যাণকামী রাষ্ট্রেই এই দুটি ক্ষেত্রের উপর বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করা হয়। শিক্ষা প্রসারে দেশ বা রাজ্য পিছিয়ে থাকলে যেমন সেখানকার অগ্রগতি সম্ভব হয় না, ঠিক তেমনি সেখানকার মানুষের সুস্থ শরীর ও মন একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।
বিশদ

01st  May, 2019
সৌজন্যটুকু অন্তত বেঁচে থাক 

ভোট মানেই দুই বা একাধিক পক্ষের যুদ্ধ। এক গণতান্ত্রিক পদ্ধতির মধ্য দিয়ে সেই যুদ্ধ চলে। সব পক্ষই ভোটারদের কাছে আর্জি রাখে তাদের দলকে ভোট দেওয়ার জন্য। এই আর্জির দুটি দিকই আছে। একটি পজিটিভ।  
বিশদ

30th  April, 2019
আজকের ভোটে অনেক প্রশ্নের জবাব তৈরি হবে

 গোটা দেশের সঙ্গে রাজ্যে আজ সোমবার লোকসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ হবে। এই দফায় রাজ্যে মুর্শিদাবাদ জেলার একটি কেন্দ্রসহ নদীয়া, বীরভূম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান জেলায় ভোটগ্রহণ। বিভিন্ন কারণে আজকের ভোটটি রাজ্য-রাজনীতির পক্ষে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।
বিশদ

29th  April, 2019
একনজরে
বীরেশ্বর বেরা, কলকাতা: বালিগঞ্জ ফার্ন রোডের অভিজাত এলাকায় সাদা রঙের দোতলা বাড়ির বাসিন্দা মিতা চক্রবর্তী। এবার তিনি কলকাতা দক্ষিণ কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী। প্রথমবার নির্বাচনে দাঁড়ালেও ...

 ব্রিস্টল, ১৫ মে: জাতীয় দলের জার্সিতেও আইপিএলের দুরন্ত ফর্ম বজায় রেখেছেন জনি বেয়ারস্টো। ব্রিস্টলে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ান ডে’তে তাঁর অনবদ্য সেঞ্চুরিতে ভর করে ...

 সংবাদদাতা, মালবাজার: ফুল ঝাড়ুকেই এখন প্রধান অর্থনৈতিক ফসল হিসাবে বেছে নিয়েছেন কালিম্পং জেলার গোরুবাথান ব্লকের সামসিং ফরেস্ট কম্পাউন্ড বস্তির কয়েকশ চাষি। অন্যান্য ফসলের তুলনায় সকলেই এখন ঝাড়ুকেই বেশি প্রাধান্য দিচ্ছেন। কারণ ঝাড়ু ফলিয়ে তাঁরা এখন বেশি লাভের মুখ দেখছেন। একবার ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উপস্থিত বুদ্ধি ও সময়োচিত সিদ্ধান্তে শত্রুদমন ও কর্মে সাফল্য। ব্যবসায় গোলযোগ। প্রিয়জনের শরীর-স্বাস্থ্যে অবনতি। উচ্চশিক্ষায় ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৩১: বঙ্গ নাট্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা যতীন্দ্রমোহন ঠাকুরের জন্ম
১৯৭০: টেনিস খেলোয়াড় গ্যাব্রিয়েলা সাবাতিনির জন্ম
১৯৭৫: প্রথম মহিলা হিসেবে এভারেস্ট জয় করলেন জুঙ্কো তাবেই
১৯৭৮: অ্যাথলিট সোমা বিশ্বাসের জন্ম





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৪৯ টাকা ৭১.১৮ টাকা
পাউন্ড ৮৯.১৯ টাকা ৯২.৪৬ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৪ টাকা ৮০.৩৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,৮১৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩১,১৩৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩১,৬০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৭,৩৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৭,৪৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৬ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার, দ্বাদশী ৮/৮ দিবা ৮/১৬। চিত্রা ৫৮/১০ রাত্রি ৪/১৬। সূ উ ৫/০/৮, অ ৬/৫/৪৪, অমৃতযোগ দিবা ৩/২৮ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৬/৪৯ গতে ৯/০ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৫ গতে ২/৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৪ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ২/৪৯ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/৩৩ গতে ১২/৫৫ মধ্যে।
১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৬ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার, দ্বাদশী ৫/৩২/৪৭ দিবা ৭/১৩/২৬। চিত্রানক্ষত্র ৫৭/১১/১৩ রাত্রি ৩/৫২/৪৮, সূ উ ৫/০/১৯, অ ৬/৭/১৫, অমৃতযোগ দিবা ৩/৩৪ গতে ৬/৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৫৮ গতে ৯/৪ মধ্যে ও ১১/৫৬ গতে ২/৪ মধ্যে ও ৩/৩০ গতে ৫/০ মধ্যে, বারবেলা ৪/২৮/৫৩ গতে ৬/৭/১৫ মধ্যে, কালবেলা ২/৫০/৩১ গতে ৪/২৮/৫৩ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/৩৩/৪৭ গতে ১২/৫৫/২৫ মধ্যে।
১০ রমজান
এই মুহূর্তে
ঝড়-বৃষ্টিতে তার ছিঁড়ে অন্ধকারে ডুবল জলপাইগুড়ি
জলপাইগুড়ি শহরের বিস্তীর্ন অংশ ডুবে রয়েছে অন্ধকারে। সন্ধ্যা থেকে ঝড়-বৃষ্টির ...বিশদ

08:10:08 PM

ডায়মন্ডহারবারের এসডিপিও এবং আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার ওসিকে সরিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন

07:27:00 PM

বিমান সংস্থার উপর চটলেন শ্রেয়া
বিমানে বাদ্যযন্ত্র নিয়ে যেতে বাধা দেওয়া হয় সঙ্গীতশিল্পী শ্রেয়া ঘোষালকে। ...বিশদ

06:21:47 PM

ভোটের দিন গরম বাড়বে
উত্তর বঙ্গের পাঁচ জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকলেও ভোটের দিন কিন্তু ...বিশদ

06:10:39 PM

এবার কমিশনের তোপের মুখে খোদ সিইও দপ্তরের আধিকারিকরাই
রাজনৈতিক দল ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নয়। এবার নির্বাচন কমিশনের তোপের ...বিশদ

05:49:03 PM

সল্টলেকে ৪০ লক্ষ টাকা সহ ধৃত ১
রবিবার ভোট। ঠিক তার মুখে আজ বৃহস্পতিবার সল্টলেকের এফ ই ...বিশদ

05:39:55 PM