খেলা

সুনীল-আবেগের ঢেউ তুলে শহরে হাজির স্টিমাচ ব্রিগেড

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা:  বুধবার দুপুর দুটো। দমদম বিমানবন্দর গমগম করছে। জাতীয় পতাকা, ঢাক-ঢোল ও ব্যানার হতে প্রায় শ’দুয়েক সমর্থককে দেখে অনেকেই অবাক। কেউ বা সুনীল ছেত্রীর নামে জয়ধ্বনি শুনে ট্রলি হাতে দাঁড়িয়ে পড়লেন। ভারতীয় অধিনায়ককে এক ঝলক দেখাই উদ্দেশ্য। লাউঞ্জ বেয়ে স্টিমাচ-ব্রিগেড বেরতেই শুরু পুষ্পবৃষ্টি। বুঝতে অসুবিধা হয় না, সুনীল ছেত্রীর ফেয়ারওয়েল ম্যাচের আগে ক্রমশই পারদ চড়ছে শহরে। অন লাইনে টিকিট বিকিয়েছে হট কেকের মতো। সামান্য কিছু সংখ্যক টিকিট অফ লাইনেও বিক্রী করার চেষ্টায় আইএফএ। 
ভুবনেশ্বর থেকে দুপুরে কলকাতায় পা রাখে ভারতীয় দল। বাইপাসের ধারে পাঁচতারা হোটেলে পৌঁছে বিশ্রাম নেন গুরপ্রীত, সাহালরা। বৃহস্পতিবার সেন্টার অব এক্সিলেন্সে শুরু হবে কুয়েত বধের চূড়ান্ত প্রস্তুতি। গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচ না জিতলে পরের রাউন্ডে পৌঁছানোর পথ আরও কঠিন হবে সুনীল ছেত্রীদের।  পাশাপাশি ২০২৭ এএফসি কাপের যোগ্যতা অর্জনও অনেকটা কুয়েত ম্যাচের উপর নির্ভরশীল। তার সঙ্গে যোগ হয়েছে সুনীল ছেত্রীর বিদায়ী ম্যাচের আবেগ। সকলেই তাই সেরাটা মেলে ধরতে মরিয়া। সুনীল তাঁর পায়ের তলার জমি শক্ত করেছিলেন কলকাতায়। সেই তিলোত্তমায় আন্তর্জাতিক অবসর। ৬ জুন একটা বৃত্ত সম্পূর্ণ হবে যুবভারতীতে।  ফুটবলের শহরে পা রাখতেই অবেগ বাঁধ মানল না তারকা স্ট্রাইকারের। সোশ্যাল সাইটে তাঁর পোস্ট, ‘পারলে এই অনুভূতি আমি বাক্সবন্দি করে রাখতাম। যতদিন ফুটবল খেলব, এই মুহূর্তগুলো প্রেরণা জোগাবে। আর মাত্র কয়েকটা দিন। জাতীয় দলের প্রতিটা মুহূর্ত অনুভব করতে চাই। কুয়েতের বিরুদ্ধে সেরাটা উজাড় করে দেওয়াই লক্ষ্য। জিতে বিশ্বকাপের পরের রাউন্ডের টিকিট নিশ্চিত করেই বিদায় নিতে চাই।’ 
21d ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

উচ্চশিক্ষায় নামী স্বদেশি/ বিদেশি প্রতিষ্ঠানে সুযোগ পেতে পারেন। স্ত্রীর স্বাস্থ্য বিষয়ে চিন্তা। কর্মে অগ্রগতি।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার ৮২.৫৬ টাকা৮৪.৩০ টাকা
পাউন্ড১০৪.৩৩ টাকা১০৭.৮১ টাকা
ইউরো৮৮.০৪ টাকা৯১.১৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা