বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
খেলা
 

স্পট বোলিংয়ে ফর্ম খোঁজার চেষ্টায় স্টার্ক, শহরে বিরাট কোহলি, রবিবারের ম্যাচ ঘিরে চড়ছে পারদ

সুকান্ত বেরা, কলকাতা: ইডেনের ঘড়িতে তখন প্রায় বিকেল পাঁচটা। কয়েকজন সাপোর্ট স্টাফের সঙ্গে মাঠে ঢুকলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর কোচ অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার। সোজা পিচের সামনে। রবিবারের ম্যাচে তাঁর দলকে কেমন উইকেটে খেলতে হবে, সেটাই পরখ করে নিচ্ছিলেন বিরাট কোহলিদের হেড স্যর। ফ্লাওয়ারকে দেখে এগিয়ে গেলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের মেন্টর গৌতম গম্ভীর। সৌজন্য সাক্ষাৎ। করমর্দনের পর দু’জনে কথা বলছিলেন মূল পিচের ঠিক পাশে দাঁড়িয়ে। খানিকটা দূরে প্র্যাকটিস পিচে তখন টকাস টকাস করে ছক্কা মারছেন আন্দ্রে রাসেল। কাউকেই রেয়াত করছেন না। কথা থামিয়ে রাসেলের দিকে তাকালেন ফ্লাওয়ার। মেপে নিলেন ক্যারিবিয়ান তারকাকে। এটা যদি পূর্বাভাস হয়, তাহলে সেটা রবিবাসরীয় ইডেনে কী করে সামাল দেওয়া যাবে, তা নিশ্চয়ই টিম হোটেলে ফিরতে ফিরতে ভাবছিলেন আরসিবি কোচ।
ম্যাচ যেহেতু রবিবার বিকেলে, তাই চড়া রোদেই প্র্যাকটিস সিডিউল রেখেছিল কেকেআর টিম ম্যানেজমেন্ট। নাইটদের টিম বাস যখন ক্লাব হাউসের সামনে এসে দাঁড়াল, তখন রোদের তেজে গোষ্ঠপাল সরণির পিচের রাস্তায় যেন লাভাস্রোত বইছে। এমন গরমের তোয়াক্কা না করেই চলল নাইটদের মহড়া। তবে একটু দেরিতে অনুশীলনে যোগ দেন স্টার্ক, রাসেলরা। দুই ভাবে দলের ইডেনে আগমনের পিছনে হোটেলে জিম সেশনের প্রসঙ্গই সামনে আসছে। 
গত ম্যাচে ২২৩ রান তুলেও রাজস্থানের কাছে হারতে হয়েছিল। ডুবিয়েছিল বোলিং। বিশেষ করে মিচেল স্টার্কের অফ ফর্ম চিন্তায় ফেলেছে কেকেআর টিম ম্যানেজমেন্টকে। তাই বোলিং কোচ ভরত অরুণকে দেখা গেল ক্লাব হাউসের বাঁ দিকের নেটে স্পট বোলিং প্র্যাকটিস করাচ্ছেন। তিনটি স্পটে তিন রংয়ের প্লাস্টিকের বস্তা রাখা। সেই মতো বল করছেন অজি তারকা। দেখে বোঝা যাচ্ছিল, আরও নিখুঁত নিশানায় বোলিং করার মহড়া চলছে জোর কদমে। ইয়র্কার, ইনসু্ইংয়ের পাশাপাশি গুড লেংথ ডেলিভারিতে জোর দিলেন স্টার্ক। আসলে কলকাতার গরমের মতোই সমর্থকদের ক্ষোভের উত্তাপ বেশ ভালোই টের পাচ্ছে তিনি। তবে অজি তারকা ম্যাচ উইনার। একবার ছন্দ ফিরে পেলে তাঁকে সামলানো কঠিন হবে। সেই প্রত্যাশাতেই তো ২৪.৭৫ কোটি দিয়ে স্টার্ককে দলে নেওয়া।
নীতীশ রানা ছাড়া চোট সমস্যার তেমন কোনও খবর নেই কেকেআর শিবিরে। রিঙ্কু সিং ফিট। পুরো দমে অনুশীলন করলেন। ফুরফুরে মেজাজে পাওয়া গেল সুনীল নারিনকে। তিনিই এখন কেকেআরের প্রাণভোমরা। রবিবারের ইডেনেও তাঁকে ঘিরে উন্মাদনা থাকবে।
শুক্রবার দুপুরে কলকাতায় পা রাখে আরসিবি। ফলে এদিন প্র্যাকটিসের সুযোগ ছিল না ক্যামেরন গ্রিন, দীনেশ কার্তিকদের সামনে। দলের সঙ্গে আসনেনি বিরাট কোহলি। তিনি মুম্বই থেকে আলাদা বিমানে বিকেল চারটের পর শহরে পৌঁছান। ছিলেন খোশ মেজাজে। কেকেআর-আরসিবি ম্যাচে আকর্ষণের কেন্দ্রে কোহলিই। তাঁকে ঘিরে উন্মাদনার পারদ তুঙ্গে। বাড়ছে টিকিটের চাহিদাও, যা চব্বিশের আইপিএলে এখনও পর্যন্ত দেখা যায়নি। শুক্রবার সিএবি’তে দেখা গেল না বড় কর্তাদের। টিকিটের চাহিদা মেটাতে তাঁরা হিমশিম খাচ্ছেন। তাই অনেকেই আন্ডারগ্রাউন্ডে। 
শনিবার কোহলিরা প্র্যাকটিসে নামার পর এই উত্তাপ যে আরও কয়েক ডিগ্রি বাড়বে, সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

20th     April,   2024
 
 
অক্ষয় তৃতীয়া ১৪৩১
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ