বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
খেলা
 

লিগ-শিল্ডের রং সবুজ মেরুন, মুম্বইকে টেক্কা মোহন বাগানের

শিবাজী চক্রবর্তী, কলকাতা:  কলকাতার চড়া গরম মুম্বইকে আরও ভালোভাবে টের পাইয়ে দিল মোহন বাগান। যুবভারতীর সবুজ-মেরুন টর্পেডোয় ডুবল পিটার ক্র্যাটকির জাহাজ। মুম্বইকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিমিত্রি পেত্রাতোসরাই লিগ-শিল্ডের বাদশা। ২২ ম্যাচে ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শীর্ষে মোহন বাগান। এক পয়েন্টে পিছিয়ে মুম্বই। ডুরান্ড কাপ জেতার পর লিগ-শিল্ড খেতাব জয়। সত্যিই, যুবভারতী এখন মোহন ভারতী! উল্লেখ্য, ডুরান্ড কাপে হারলেও আইএসএলে সবুজ-মেরুন ব্রিগেডের বিরুদ্ধে এতদিন অপরাজিত ছিল মুম্বই। সেই মিথ ভেঙে খানখান। মুম্বই গাঁট উপড়ে রাহুল ভেকে, মেহতাব সিংদের দুর্গের এক একটা খিলানে ফাটল ধরালেন সাদিকু, কামিংসরা। জ্বালা জুড়ানোর ম্যাচে নায়ক কে? সবুজ মখমলে ফুল হয়ে ফুটল এগারোটা সবুজ-মেরুন জার্সি। এই জয়ের সুবাদে আগামী মরশুমে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে (টু) খেলবে মোহন বাগান।
স্টার ওয়ার! দেশের হেভিওয়েট দুই ফুটবল দলের লড়াই। তার উপর লিগ-শিল্ড খেতাব জয়ের ম্যাচ। বিকেল থেকেই  ইএমবাইপাস সেজে উঠেছিল সবুজ-মেরুনে। লাউড স্পিকারে গান বাজছে, ‘চিরকাল রেলায় আছে, থাকবে মোহন বাগান।’ যুবভারতীর ৯০ মিনিটেও দিমিত্রিরা দাপট দেখালেন। ম্যাচ শুরুর আগেই ডাগ-আউটে এলেন হাবাস। পেলেন জনগর্জন। চার্জড গোটা দল। পছন্দের ৩-২-৪-১ স্ট্র্যাটেজিতে দল সাজান সবুজ-মেরুন সারথি। তিন ব্যাক আনোয়ার, ইউস্তে ও শুভাশিস। ঠিক উপরে ডিফেন্সিভ ব্লকার অভিষেক সূর্যবংশী। বক্স টু বক্স মিডিও অনিরুদ্ধ থাপাও রইলেন প্রথম এগারোয়। দুই উইং-হাফ মনবীর ও লিস্টনের সঙ্গে জনি কাউকো আর দিমিত্রি। সিঙ্গল স্ট্রাইকার সাদিকু। শুরুতেই আকাশ মিশ্রকে টপকে গ্যালারি জাগিয়ে দেন মনবীর। তাঁর বিপজ্জনক মাইনাস কোনওক্রমে ক্লিয়ার করেন তিরি। ম্যাচের ২০ মিনিটে পোস্ট বাধা না হলে লিড নিতেই পারত পালতোলা নৌকো। অনিরুদ্ধ থাপা শরীর মুচড়ে চমৎকার সেন্টার রাখেন বিপক্ষ বক্সে। শরীর ছুড়ে নেওয়া লিস্টনের অনবদ্য হেড পোস্টে ধাক্কা খায়। মুম্বই রক্ষণের খনি লাল-হলুদের প্রাক্তনী মেহতাব সিং। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তাঁর ভুল করার উদাহরণও প্রচুর। আর তা বুঝেই তাঁকে টার্গেট করলেন লিস্টন। বহু কাঙ্ক্ষিত লিড এল ৩০ মিনিটে। মেহতাবকে ইনসাইড-আউটসাইড ডজে কার্যত মাটি ধরিয়ে ডান পায়ে কামান দাগেন গোয়ানিজ ফুটবলার। বল জাল থেকে কুড়িয়ে আনা ছাড়া কিছুই করার ছিল না মুম্বই গোলরক্ষক লাচেনপার (১-০)। বিরতির আগে অবশ্য সমতা ফেরানোর সুযোগ পায় মুম্বই। 
চেন্নাইয়ানের বিরুদ্ধে এক গোলে লিড নিয়েও হারতে হয়েছিল মোহন বাগানকে। সেবার আল্ট্রা ডিফেন্সিভ স্ট্র্যাটেজি মুখ থুবড়ে পড়ে। মুম্বইয়ের বিরুদ্ধেও একই ফর্মুলায় হাঁটল থিঙ্কট্যাঙ্ক। এই পর্বে ক্লান্ত কাউকো ও সাদিকুকে তুলে যথাক্রমে হামিল ও কামিংসকে নামান হাবাস। অন্যদিকে, জয়েশ রানে ও ভালপুইয়াকে এনে গতি বাড়িয়ে মোক্ষম চাল দেন মুম্বই কোচ ক্র্যাটকি। ডিফেন্সিভ খেলতে গিয়ে ঘাড়ের উপর চাপ ডেকে আনে মোহন বাগান। ৮০ মিনিটে প্রেসার কুকার থেকে দলকে টেনে বার করলেন জেসন কামিংস। এক্ষেত্রে দিমিত্রির ৩০ গজের লম্বা বল ধরে বরফশীতল মাথায় জাল কাঁপান অজি বিশ্বকাপার (২-০)। কামিংসের ফিনিশে মুম্বই ভ্যানিশ। ৮৯ মিনিটে ছাংতে ব্যবধান কামলেও লাভের লাভ হয়নি (২-১)। শেষপর্বে লাল কার্ড দেখেন হামিল। চাপের মুখে অবশ্য রক্ষণ অক্ষত রাখলেন ইউস্তেরা। গ্যালারি জুড়ে হাজার হাজার মোবাইলের আলো জানিয়ে দিল এসিএল টু-তে স্বাগত মোহন বাগান। লিগ-শিল্ড জয়ের পুরস্কার স্বরূপ সাড়ে তিন কোটি টাকা পাবেন দিমিত্রিরা।
মোহন বাগান: বিশাল, আনোয়ার, ইউস্তে, শুভাশিস, অনিরুদ্ধ থাপা (হামতে), অভিষেক (টাংরি), জনি (হামিল), মনবীর, দিমিত্রি, লিস্টন (আশিস)ও সাদিকু (কামিংস)।
    মোহন বাগানের জোড়া ফলা লিস্টন ও পেত্রাতোস।

মোহন বাগান-২                       :                          মুম্বই সিটি-১
(লিস্টন, কামিংস)                                                      (ছাংতে)

16th     April,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ