Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

বিষের নাম প্লাস্টিক

বাজার করতে হলে প্লাস্টিকের ব্যাগ, মিষ্টির প্যাকেটও প্লাস্টিকের, জলের বোতল, এমনকী খারাপ থালা-গ্লাসও প্লাস্টিকের। দৈনন্দিন জীবনের একেবারে গভীরে ঢুকে গিয়েছে পলিথিনের ব্যবহার। ব্যবহারও করছি কিচ্ছু না ভেবে। আমাদের অজান্তেই এভাবে প্লাস্টিক ক্রমশ গ্রাস করছে গোটা পৃথিবীটাকেই। সেইদিন দূরে নয় যখন প্লাস্টিকই প্রাণহীন করে ফেলবে নীল গ্রহকে। প্লাস্টিকের সর্বগ্রাসী দূষণ রুখতে বিকল্প পথ কী? জানালেন সেন্ট্রাল পলিউশন কন্ট্রোল বোর্ডের প্রাক্তন সহযোগী অধিকর্তা ও বায়ুদূষণ নজরদারি বিভাগের প্রধান দীপঙ্কর দাস।

 পরিবেশের সঙ্গে কীভাবে মেশে এই প্লাস্টিকের বিষ?
 প্লাস্টিক তাপের প্রতি অত্যন্ত সংবেদনশীল। অর্থাৎ, তাপের তারতম্যের সঙ্গে সঙ্গে প্লাস্টিকেরও রাসায়নিক পরিবর্তন ঘটে। এই রাসায়নিক পরিবর্তন অথবা বিক্রিয়াই নানা ভাবে পরিবেশের উপর প্রভাব ফেলে। অনেকসময় এই বিক্রিয়ার কুফল সরাসরি মানুষের শরীরেও পরে। যা থেকে ক্যান্সার সহ অন্যান্য মারণ রোগ ছড়ায়।
 কীভাবে?
 এই যেমন ধরুন রেস্তোরাঁ থেকে প্লাস্টিকের কন্টেনারে আসা খাবার আমরা হামেশাই খাই। এমনকী, চায়ের দোকানে প্লাস্টিকের কাপে গরম চা-ও সাত-পাঁচ না ভেবেই খেয়ে ফেলি আমরা। কিংবা, দুগ্ধপোষ্য শিশুকেও সেই প্লাস্টিকের বোতলেই দুধ দিয়ে থাকি। আর এখানেই মারাত্মক ভুলটা করি আমরা। এই গরম খাবার বা পানীয় ওই প্লাস্টিকের পাত্রে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যে বিক্রিয়া ঘটে তা থেকে বিষ বা টক্সিন নিঃসৃত হয়। যা থেকে ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে। মাইক্রোওয়েভে প্লাস্টিকের পাত্রে খাবার গরম করাও ঠিক নয়।
 মাইক্রোওয়েভ-প্রুফ প্লাস্টিক কী আদৌ আছে?
 সবগুলি মোটেই নয়। কিছু আছে। তবে, কোনও প্লাস্টিকের বক্সই মাইক্রোওয়েভে ব্যবহার করা উচিত নয়। এতে খাবারে বিষক্রিয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।
 এ তো গেল খাদ্যদ্রব্যকে প্লাস্টিকের ছোঁয়াচ থেকে বাঁচিয়ে রাখার কথা। কিন্তু, পরিবেশে ছড়িয়ে থাকা প্লাস্টিক কীভাবে ক্ষতি করে?
 দেখুন, প্লাস্টিক ‘প্রায় অবিনশ্বর’ বস্তু। পুড়িয়ে বা মাটির তলায় চাপা দিয়ে রাখলেও প্লাস্টিককে সম্পূর্ণ নষ্ট হতে কয়েক দশক পর্যন্ত লেগে যাতে পারে। প্লাস্টিক পোড়ালে তা সম্পূর্ণ বিনষ্ট তো হয়ই না, উল্টে যে বিষাক্ত হাইড্রো-কার্বন নির্গত হয়, তা বায়ুমণ্ডলের সঙ্গে মিশে জীবজগতের ক্ষতি করে। মানুষের ফুসফুসে এই কার্বন ঢুকলে তা থেকে মারাত্মক অসুখ হতে পারে।
 খোলা পরিবেশে প্লাস্টিক ফেলার ক্ষতির দিকগুলি কী কী?
 প্রতমত, যত্রতত্র প্লাস্টিক বা তা দিয়ে তৈরি জিনিসপত্র ফেললে নিকাশিতে সমস্যা তৈরি হয়। বিশেষ করে একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকে ক্ষতির পরিমাণ অনেকটাই বেশি হয়। বাজার থেকে মাছ বা মাংসটা কিনে আনার সময় এইধরনের পলিথিনের ব্যাগ খুব কাজে লাগলেও আদতে যে সেটা কতটা ভয়ঙ্কর তা আমরা ভেবে দেখি না। দ্বিতীয়ত, রাস্তাঘাটে ঘুরে বেড়ানো বহু গবাদি পশু (গোরু, ছাগল) খাবার ভেবে এই প্লাস্টিক খেয়ে ফেলে। যা থেকে তাদের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটে। সমুদ্রেও প্লাস্টিকের দূষণ সেখানকার স্বাভাবিক জীববৈচিত্র সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দিতে পারে। বর্ষাকালে প্লাস্টিকের আবর্জনায় নিকাশি নালা আটকে শহর বানভাসি হলে সরকার ও জনতা একে অপরকে দোষারোপ করেন। কিন্তু, তাতে লাভ কিছু হয় না।
 সকালে ঘুম থেকে উঠে টুথব্রাশ মুখে দেওয়া থেকে শুরু করে রাতে ঘুমোতে যাওয়ার সময় মশারি টাঙানো পর্যন্ত আমাদের দৈনন্দিন জীবনের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে প্লাস্টিক। এই পরিস্থিতিতে প্লাস্টিক সম্পূর্ণ বর্জন করা কী আদৌ সম্ভব?
 না, আমি তা মনে করি না। আমি প্লাস্টিকের ব্যবহার সম্পূর্ণ তুলে দেওয়াকে সমর্থন করি না। পেট্রোলিয়ামের একটা বাইপ্রোডাক্ট হল প্লাস্টিক। আধুনিক মানবসমাজে এর উপযোগিতা অনস্বীকার্য। জলভর্তি লোহার বালতি তোলা থেকে আপনি তুলনায় হাল্কা প্লাস্টিকের বালতিই ব্যবহার করতে চাইবেন।
 তাহলে সমস্যাটা কোথায়?
 গলদটা হল ব্যবহার আর তা নিষ্পত্তির পদ্ধতিতে। অর্থাৎ, কোন প্লাস্টিক ব্যবহার করব আর কোনটা করব না, সেটা আগে বুঝতে হবে। এরপর আসে সেই প্লাস্টিকের নিষ্পত্তি বা ডিসপোজালের বিষয়টি। খোলা মাটিতে প্লাস্টিক ফেলার প্রত্যক্ষ প্রভাব পড়ে ভূগর্ভস্থ জলে। কারণ, বৃষ্টির জলকে এই প্লাস্টিক মাটির তলা পর্যন্ত পৌঁছতেই দেয়। এর পাশাপাশি প্লাস্টিক মাটির তাপমাত্রাও বাড়িয়ে দেয়। সাধারণত যা তাপমাত্রা হওয়া উচিত, তার থেকে অন্তত ৪-৫ ডিগ্রি তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয় প্লাস্টিক। ফলে কোনও উদ্ভিদ বা প্রাণীর বেড়ে ওঠার জন্য যে আদর্শ তাপমাত্রার প্রয়োজন, প্লাস্টিক তাকে নষ্ট করে দেয়। এতে জীববৈচিত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
 বিকল্প কিছু আছে কী?
 সলিউবল (যা জলে দ্রবীভূত হয়) বা বায়ো-ডিগ্রেডেবল ইত্যাদি নানান ধরনের প্লাস্টিক আবিষ্কৃত হয়েছে। যেগুলি সত্যি পরিবেশে কোনও কুপ্রভাব ফেলে না। কিন্তু, বাজারে এইধরনের প্লাস্টিক তেমন সহজলভ্য নয়। তাছাড়া এর দামও তুলনায় অনেকটাই বেশি। ইন্টারনেটের দু’-একটি ওয়েবসাইট থেকে আপনি এগুলি কিনতে পারবেন। কিন্তু, যতক্ষণ না গণহারে এর উৎপাদন হচ্ছে এবং এর দাম নিম্নবিত্ত বা মধ্যবিত্তের নাগালের মধ্যে আসছে ততক্ষণ এগুলিকে বিকল্প হিসেবে ধরার ব্যাপারে আমার আপত্তি আছে।
 তাহলে এখন কী নিয়ে বাজারে ঢুকব আমরা?
 আমাদের দেশে কিন্তু অনেক আগে থেকেই চট বা কাপড়ের ব্যাগের চল রয়েছে। বিশেষ করে বাঙালি সমাজে আগেকার দিনে মা-মাসিরা কাপড় কেটে সেটা সেলাই করে মাছ-মাংসের জন্য আলাদ ব্যাগ তৈরি করতেন। সেই রেওয়াজই আবার নতুন করে চালু করার সময় এসেছে। এছাড়াও কাগজের ঠোঙা বা বাটার পেপারও (যে কাগজে মাখন মুড়ে রাখা হয়) প্লাস্টিকের ভালো বিকল্প হতে পারে।
 কিন্তু, এর সঙ্গে সচেতনতা কতটা জরুরি?
 অনেকটাই। আমার মতে, পুরো বিষয়টাই দাঁড়িয়ে আছে সচেতনতার উপর। যেমন ধরুন, এই মুহূর্তে বায়ো ডিগ্রেডেবল প্লাস্টিক মানুষ কেনা শুরু করলেন, আবার সেই প্লাস্টিক তারা আগের মতোই রাস্তাঘাটে, নদীতে-পুকুরে ফেলতে শুরু করলেন। তাহলে কিন্তু ঘুরে-ফিরে আমরা সেই আগের জায়গাতেই ফিরে আসব। মানছি, এই প্লাস্টিক পরিবেশের ক্ষতি করে না। কিন্তু, এদেরও সম্পূর্ণ বিনষ্ট হওয়ার একটা নির্দিষ্ট সময়সীমা থাকে। ততদিন পর্যন্ত ওই প্লাস্টিক যদি খোলা পরিবেশে পড়ে থাকে, তাহলে তার প্রভাব পরিবেশের উপর কতটা পড়বে, সে সম্পর্কিত গবেষণা কিন্তু এখনও তেমন হয়নি। মাটিতে থাকা বিভিন্ন উপকারি ব্যাক্টেরিয়াদের এই বায়ো ডিগ্রেডেবল প্লাস্টিক ক্ষতি করবে কিনা, সেটাও এখনও পুরোপুরি পরিষ্কার নয়। এর আবিষ্কর্তারা শুধু বলছেন, সাধারণ প্লাস্টিকের মতো এই প্লাস্টিক ‘প্রায় অবিনশ্বর’ নয়। এটা মাটিতে সম্পূর্ণ মিশে যায়। কিন্তু, মাটিতে সম্পূর্ণ মিশে গেলেই পরিবেশের উপর তার কোনও কুপ্রভাব পড়বে এমনটা আমি বলতে পারব না। তাই, প্লাস্টিকের বিকল্প খোঁজার চেয়ে বরং নিজেদেরকে সচেতন হওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। সেই সঙ্গে দরকার রাষ্ট্র বা সরকারের সদিচ্ছার। বিদেশে যেমন প্লাস্টিক বা প্লাস্টিকজাত দ্রব্য ফেলার নির্দিষ্ট জায়গা রয়েছে, আমাদের শহরেও সেটা চালু করা যেতে পারে।
সাক্ষাৎকার: নীতীশ চক্রবর্তী
10th  January, 2019
দেরি করে ঘুম থেকে
ওঠার বিপদ কী কী?

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, দেরি করে ঘুম থেকে ওঠার কারণে নানা মানসিক ও শারীরিক জটিলতার শিকার হতে হয়। বিজ্ঞানীরা এই সংক্রান্ত গবেষণার জন্য চার ধরনের মানুষকে বেছে নিয়েছিলেন। তাঁরা হল, যাঁরা প্রতিদিন নিয়মিত সকালে ওঠেন, যাঁরা মাঝে মধ্যে সকালে ওঠেন, যাঁরা মাঝে মাঝে দেরি করে ঘুমান এবং যাঁরা প্রতিরাতে নিয়মিত রাত জাগেন।
বিশদ

10th  January, 2019
হিমোফিলিয়া সোসাইটির উদ্যোগ

হিমোফিলিয়া সোসাইটি দুর্গাপুর চ্যাপ্টারের মহিলাদের পক্ষ থেকে হিমোফিলিয়ায় আক্রান্ত ও তাঁদের পরিবারের উদ্দেশ্যে দু’দিন ব্যাপী শিক্ষামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। বিষয় ছিল— ‘মানসিক-সামাজিক কাউন্সেলিং এবং ফিজিওথেরাপির গুরুত্ব’।
বিশদ

10th  January, 2019
কাশির সঙ্গে রক্ত চিকিৎসা কী ?

 শীতকাল মানেই কমবেশি কাশির উপদ্রব ঘরে ঘরে। অনেক কারণেই কাশতে কাশতে কফের সঙ্গে রক্ত বেরিয়ে আসতে পারে। আর রক্ত ওঠা মানেই, সমস্যাকে একদম অবহেলা নয়। সঠিক সময়ে চিকিৎসার আওতায় এলে এমন বহু সমস্যারই সমাধান সম্ভব। জানাচ্ছেন রায়গঞ্জ সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের টিবি ইউনিটের মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ দেবব্রত রায়।
বিশদ

03rd  January, 2019
ত্বকের স্বাস্থ্য ধ্বংস করছে
স্মার্টফোনের পর্দা

কেউ যদি ভেবে থাকেন ঘরবাড়ি বা অফিস-আদালতে টয়লেটই হল সবচেয়ে নোংরা জায়গা, যেখানে জীবাণুরা মনের আনন্দে নেচে বেড়ায়, তাহলে তিনি নিজের স্মার্টফোনটা একবার পরীক্ষা করিয়ে নিতে পারেন। কারণ আপনার খালি চোখ সেটা ধরতে পারবে না।
বিশদ

03rd  January, 2019
 অটিজম নিয়ে

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ২০১৭ সালের এক রিপোর্টে জানাচ্ছে, সারা বিশ্ব জুড়ে প্রতি ১৬০ জন বাচ্চার মধ্যে ১ জন স্নায়ু এবং বিকাশজনিত রোগ অটিজম বা অটিজম স্পেকট্রাম ডিজঅর্ডারে (এএসডি) আক্রান্ত। ভারতের ক্ষেত্রে চিত্রটা আরও দুর্ভাগ্যজনক।
বিশদ

03rd  January, 2019
টিবিতেও আইভিএফ

জেনিটাল টিবি’তে আক্রান্ত হওয়ার পরও কি আইভিএফ (ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন) পদ্ধতিতে সন্তানধারণ সম্ভব? হ্যাঁ, এমনটাই বলছে কলকাতার ইন্দিরা আইভিএফ হাসপাতাল। সংস্থার পক্ষ থেকে সম্প্রতি এক প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়, টিবি সাধারণত ফুসফুসকে আক্রান্ত করে।
বিশদ

03rd  January, 2019
 সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাডিকশন নিয়ে সেমিনার

  ইন্টারনেটের দৌলতে ফেসবুক, ট্যুইটার সহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। সমস্যা হল, অনেকের ক্ষেত্রেই সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার চলে যাচ্ছে নেশার পর্যায়ে। সম্প্রতি ব্রেনমাইন্ডিয়া হোমিওপ্যাথি নিউরো-সাইকিয়াট্রি ক্লিনিকের পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাডিকশনের উপর একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছিল।
বিশদ

03rd  January, 2019
দৃষ্টি ফেরাল দৃষ্টিদীপ

প্রতিদিনের মতো সেদিনও ছেনি-হাতুড়ি নিয়ে কাজ করছিলেন পেশায় রাজমিস্ত্রি প্রবীর দাস। হঠাৎই ঘটে গেল অঘটন। চোখে একটি ছোট লোহার টুকরো ঢুকে হল ইন্টারনাল হেমারেজ। দৃষ্টিশক্তি হারানোর জোগাড়! এমন পরিস্থিতিতে ডানকুনির দৃষ্টিদীপ আই হাসপাতালের ডাঃ সুবিজয় সিনহা করলেন জটিল সার্জারি।
বিশদ

03rd  January, 2019
এক ঝলকে

ইন্ডিয়ান সোসাইটি অব থার্ড পার্টি রিপ্রোডাকশন (ইনস্টার)-এর পঞ্চম বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হল। থার্ড পার্টি রিপ্রোডাকশন-এর অধীনে ইনভিট্রো ফার্টিলাইজেশন, স্পার্ম ডোনেশন, এগ ডোনেশন এবং সারোগেসির বিষয়ে সহায়তা করা হয়। 
বিশদ

27th  December, 2018
 স্বাস্থ্যের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে হিপ পকেটের মানিব্যাগ

 পার্স বা মানিব্যাগ কোথায় রাখেন আপনি? নিশ্চয়ই বুক পকেটে নয়। প্যান্টের পিছনের পকেটে পার্স রেখে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকেন? আর ঠিক এ কারণেই নিজের সর্বনাশ ডেকে আনছেন আপনি। কেননা এভাবে আপনার পক্ষাঘাতগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। যখন আপনি বাইরে বের হন পার্স থাকে হিপ পকেটে।
বিশদ

27th  December, 2018
লিভারের সমস্যা মেটাতে নতুন গবেষণাকেন্দ্র

 লিভারের সমস্যা মেটাতে এবার তৈরি হচ্ছে গবেষণা কেন্দ্র। শহরতলির দক্ষিণে সোনারপুরে এক মার্কিন নাগরিকের অনুদান নিয়ে শুরু হচ্ছে প্রস্তাবিত গবেষণাকেন্দ্রটি। সম্প্রতি সেটির আনুষ্ঠানিক সূচনা হয়। বছরকয়েক আগে লিভারের চিকিৎসার জন্য সোনারপুরে লিভার ফাউন্ডেশন চালু করা হয়।
বিশদ

27th  December, 2018
 দাড়ি না কাটার মাস

পুরুষের ক্যান্সার সম্বন্ধে মানুষকে সচেতন করতে নভেম্বর মাসটিকে পালন করা হয় ‘নো শেভ নভেম্বর’ হিসেবে। সারা বিশ্ব জুড়ে ‘নো শেভ নভেম্বর’ পালন করা পুরুষ গোটা মাস দাড়ি কাটেন না। দাড়ি না কেটে জমানো টাকা খরচ করেন পুরুষের মধ্যে প্রস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধ ও প্রাথমিক পর্যায়ে রোগ নির্ণয় সম্বন্ধে সচেতনতা তৈরির উদ্দেশ্যে।
বিশদ

27th  December, 2018
শরীরে রোদ লাগাবেন কেন?

 আমরা দিনের পর দিন রোদ থেকে বাঁচার উপায় খুঁজে চলেছি সানস্ক্রিন লোশনে, ছাতায়, এয়ার কন্ডিশনার সমৃদ্ধ ঘরে! অথচ প্রতিদিন আধঘণ্টা রোদে বেরলে মেলে হাজার উপকার। জানাচ্ছেন এসএসকেএম হাসপাতালের ডার্মাটোলজি বিভাগের প্রাক্তন প্রধান ত্বক রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ রথীন্দ্রনাথ দত্ত।
বিশদ

27th  December, 2018
শীত বাড়তেই বাড়ছে বয়স্কদের কষ্ট

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: শীত বাড়তেই কষ্ট বাড়ছে বয়স্কদের। এমনকী বাড়ছে মৃত্যুও। গত ক’দিন ধরে বহু বিশিষ্টজনের মৃত্যুতে এই কথাটাই ফের ঘুরেফিরে আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে। চিকিৎসকদের একাংশও বলছে, বহু বছর ধরেই দেখা যাচ্ছে, শীত এবং বয়স্কদের মৃত্যু অনেকাংশেই সমার্থক।
বিশদ

26th  December, 2018
একনজরে
সংবাদদাতা, বিষ্ণুপুর: দীর্ঘ ৮ বছর পর স্থায়ী পদে শিক্ষিকা পেয়ে বৈতল গার্লস হাইস্কুলে কার্যত উৎসবের আমেজ। ২০১১ সালে চালু হওয়া ওই হাইস্কুলে এতদিন কোনও স্থায়ী শিক্ষক ছিল না। অতিথি শিক্ষক দিয়ে স্কুল চলেছে।  ...

 ইসলামাবাদ, ১১ জানুয়ারি (পিটিআই): প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি, সিন্ধ প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মুরাদ আলি শাহ সহ পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)-এর একাধিক নেতার বিদেশ ভ্রমণের উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখল পাক সরকার। ...

 সিডনি, ১১ জানুয়ারি: এশিয়ার প্রথম অধিনায়ক হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টেস্ট সিরিজ জয়ের মুকুট সদ্য তাঁর মাথায় উঠেছে। তবু অজিদের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজে খেলতে নামার আগে মন ভালো নেই বিরাট কোহলির। চোখে মুখে ধরা পড়েছে বিষণ্ণতার ছাপ। খানিক অপ্রস্তুতও বটে। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: জামিন অযোগ্য ‘গ্রেপ্তারি পরোয়ানা’ জারি হয়েছিল আগে। হুগলির পুরশুড়ায় এক বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থার সেই কর্তা শেখ সারাফাত আলিকে অবশেষে গ্রেপ্তার করল পুলিস। শুক্রবার ধৃতকে ব্যাঙ্কশালের সেবির বিশেষ আদালতে তোলা হয়। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিতর্ক বিবাদ এড়িয়ে চলা প্রয়োজন। প্রেম পরিণয়ে মানসিক স্থিরতা নষ্ট। নানা উপায়ে অর্থ উপার্জনের সুযোগ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

জাতীয় যুব দিবস
১৮৬৩: স্বামী বিবেকানন্দের জন্ম
১৯৩৪: মাস্টারদা সূর্য সেনের ফাঁসি
১৯৫০: কলকাতায় চালু হল চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতাল  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৬০ টাকা ৭১.২৯ টাকা
পাউন্ড ৮৮.২২ টাকা ৯১.৪৩ টাকা
ইউরো ৭৯.৬৯ টাকা ৮২.৭০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,৬৬৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩০,৯৯০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩১,৪৫৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৯,৩০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৯,৪০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

আজ স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৭তম আবির্ভাব দিবস
২৭ পৌষ ১৪২৫, ১২ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার, ষষ্ঠী ৩৯/১৫ রাত্রি ১০/৫। নক্ষত্র- পূর্বভাদ্রপদ ৫/৫০ দিবা ৮/৪৩, সূ উ ৬/২২/৫৮, অ ৫/৬/৩০, অমৃতযোগ দিবা ঘ ৭/৬ মধ্যে পুনঃ ৭/৪৯ গতে ৯/৫৭ মধ্যে পুনঃ ১২/৬ গতে ২/৫৮ মধ্যে পুনঃ ৩/৪০ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ১/৪ গতে ২/৫০। বারবেলা ঘ ৭/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১/৪ গতে ২/২৪ মধ্যে পুনঃ ৩/৪৪ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ঘ ৬/৪৫ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৩ গতে উদয়াবধি।
আজ স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৭তম আবির্ভাব দিবস
২৭ পৌষ ১৪২৫, ১২ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার, ষষ্ঠী রাত্রি ৫/৫১/২৯। উত্তরভাদ্রপদনক্ষত্র অহোরাত্র। সূ উ ৬/২৪/১, অ ৫/৪/৪২, অমৃতযোগ দিবা ঘ ৭/৬/৪৪ মধ্যে ও ঘ ৭/৪৯/২৮ থেকে ঘ ৯/৫৭/৩৮ মধ্যে ও ১২/৫/৪৮ থেকে ২/৫৬/৪২ মধ্যে ও ৩/৩৯/২৫ থেকে ৫/৪/৫২ মধ্যে এবং রাত্রি ১/৪/২২ থেকে ঘ ২/৫০/৫৫ মধ্যে। বারবেলা ১/৪/৩৩ থেকে ২/২৪/৩৯ মধ্যে, কালবেলা ৭/৪৪/৭ মধ্যে ও ঘ ৩/৪৪/৪৫ থেকে ৫/৪/৫২ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৪৪/৪৬ মধ্যে ও ঘ ৪/৪৪/১৬ থেকে ৬/২৪/১০ মধ্যে।
 
এই মুহূর্তে
ভর সন্ধ্যায় শ্যুটআউট পার্কসার্কাসে
ভর সন্ধ্যায় পার্কসার্কাস স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় গুলি করে খুন করা ...বিশদ

09:59:38 PM

কলকাতায় চিতা বাঘের চামড়া সহ ধৃত ২

শনিবার বিকালে উত্তর কলকাতার একটি বাড়ি থেকে চিতা বাঘের চামড়া ...বিশদ

06:20:00 PM

আইলিগ: নেরোকাকে ১-০ গোলে হারাল মোহন বাগান 

04:09:04 PM

পথ দুর্ঘটনায় জখম উঃদিনাজপুরের জেলাশাসক
পথ দুর্ঘটনায় জখম হলেন উঃদিনাজপুরের জেলাশাসক অরবিন্দ কুমার মিনা। তবে ...বিশদ

04:05:22 PM

৩৪ রানে হারল ভারত 
ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম একদিনের ম্যাচ ৩৪ রানে জিতল অস্ট্রেলিয়া  ...বিশদ

03:56:27 PM

 প্রথম ওয়ান ডে: ভারত ২১৪/৬ (৪৫ ওভার)

03:31:36 PM