বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
আমরা মেয়েরা
 

নারী ক্ষমতায়ন ও শিশুদের শিক্ষা 

লকাতার দরিদ্র শ্রেণির মহিলা ও শিশুদের নিয়ে যেসব স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা কাজ করছে তাদের হাত শক্ত করার জন্য নানারকম পদক্ষেপ নিচ্ছে সোশাল ভেঞ্চার পার্টনার (এসভিপি) নামে এক জনহিতকর সংগঠন। সম্প্রতি কলকাতার মহিলা ও শিশুকেন্দ্রিক েস্বচ্ছাসেবী সংস্থাগুলোকে নিয়ে সেতু প্রকল্প চালু করেছে এই সংগঠনটি। সমাজে নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করার জন্য মহিলারা অবিরাম লড়া‌ই করছেন। তবু অনেক মহিলাই সমাজের এমন স্তরে বাস করেন যেখানে নারী স্বাধীনতার কোনও গুরুত্বই নেই। সেই ধরনের মহিলা ও শিশুদের পাশেই দাঁড়াতে চায় এসভিপি। মহিলা ও শিশুদের সার্বিক উন্নতিই এই সংগঠনটির উদ্দেশ্য। 
কলকাতায় আপাতত ১৪টি েস্বচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে কাজ করছে এসভিপি। এই সংস্থাগুলো মহিলাদের ক্ষমতায়ন ও শিশুদের থাকা খাওয়ার সংস্থান ইত্যাদি বিষয়ে কাজ করে। এসভিপি-র সদস্যরা সরাসরি সেইসব মহিলাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের প্রয়োজনটা জানার চেষ্টা করছে। তাতে দু’রকম সুবিধে হচ্ছে জানালেন এসভিপি-র মেন্টর রবীন্দ্র চামারিয়া। প্রথমত দরিদ্র মহিলাদের অসুবিধেগুলো জেনে তাদের সাহায্য করা সহজে সম্ভব হচ্ছে। আর দ্বিতীয়ত, মহিলাকেন্দ্রিক েস্বচ্ছাসেবী সংস্থাগুলোকেও আরও ভালোভাবে সাহায্য করা যাচ্ছে। তাদের কোথাও কোনও ঘাটতি থাকলে তা পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে।  তিনি বলেন, ‘ঈশ্বর যখন কারও উপর কৃপা করেন তখন সেই ব্যক্তির উচিত নিজেরটুকু রেখে বাকিটা জনকল্যাণের কাজে লাগানো। সেই জনকল্যাণই আমাদের মূল উদ্দেশ্য।’ 
আমাদের রাজ্যের অনুন্নত মহিলাদের নিয়ে যাঁরা সরাসরি কাজ করছেন তাঁরা একটা সমস্যার কথা বারবার বলছেন, মহিলাদের মধ্যে সচেতনতার অভাব। তাঁদের কথায়, ‘অনেক মহিলা এমনও আছেন যাঁরা নিজেদের উন্নতির আশাও করেন না। অবদমিত জীবনযাপন করতে করতে এতটাই অভ্যস্ত হয়ে গিয়েছেন যে তার বাইরেও যে অন্য কোনও রকমভাবে বেঁচে থাকা সম্ভব তা তাঁরা জানেনই না। আর জানতে খুব একটু ইচ্ছুকও নন। এই ধরনের মহিলাদের আগে নিজেদের অধিকার সম্বন্ধে জানাতে হয়। তারপর তাঁদের নিয়ে কাজ করা যায়।’ তবে সমাজ ক্রমশ উন্নত হচ্ছে এটাই আশার কথা। এখন গ্রামেও অনেক মহিলাই এমন আছেন যাঁরা নিজেদের জীবন উন্নত করতে চান বা নাই চান, সন্তানের উন্নত জীবন কামনা করেন। তাঁদের ক্ষেত্রে সচেতনতা বৃদ্ধি অনেকটাই সহজ হয়ে যায়।  
মহিলাদের তুলনায় শিশুদের অবস্থা যে খুব একটা উন্নত তা কিন্তু নয়। ভিভান এমন একটি েস্বচ্ছাসেবী সংস্থা যারা মহিলা ও শিশু পাচার নিয়ে কাজ করে। তাদের অন্যতম সদস্যর কাছ থেকে জানা গেল যে শুধু অল্পবয়সি মহিলা নয়, শিশুরাও এখন পাচারকারীদের নজরে রয়েছে। সেটা আটকানো অসম্ভব কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে। শিশুদের পাচারের বিরুদ্ধে সচেতন করতে হলে তাদের পাচার বিষয়ে আগে বোঝাতে হয়। কীভাবে সজাগ থাকবে সে সম্পর্কে জানাতে হয়। এই ধরনের প্রশিক্ষণের জন্য কিছু কর্মশালার আয়োজন করা হয়। সেইসব কর্মশালার মূল উদ্দেশ্য শিশুদের সচেতনতা বাড়িয়ে তোলা। 
গ্রাম ও মফস্‌সলের মেয়েদের শিক্ষিত করে তুলতে পারলে নারী ক্ষমতায়ন অনেকটাই সহজ হবে বলে মনে করে েস্বচ্ছাসেবী সংস্থা ক্যালকাটা ফাউন্ডেশন। এই সংস্থার মতে, নারী শিক্ষার পরিস্থিতি ক্রমশ উন্নত হচ্ছে। গ্রামের মহিলাদের শিক্ষিত করে তোলার জন্য চিরকালই নাইট ক্লাসের আয়োজন করত ক্যালকাটা ফাউন্ডেশন। কিন্তু সেখানে মহিলারা খুব একটা যেতে চাইত না। এই চিত্রটা এখন বদলে গিয়েছে। মেয়েরা নিজে থেকেই শিক্ষিত হতে আগ্রহী। গ্রামের অনেক মহিলাই মনে করেন তাদের রোজগারের মাধ্যমে সংসার সচ্ছল করা সম্ভব। সেই কারণেই তাঁরা শিক্ষিত হতে চাইছেন। প্রাইমারি শিক্ষাটাই অনেক, জানালেন ক্যালকাটা ফাউন্ডেশনের মুখপাত্র। তাঁর মতে প্রাথমিক শিক্ষা থাকলে মেয়েদের ঠকানো বা তাদের দিয়ে কাজ করিয়ে নেওয়া কঠিন হয়। তাছাড়া সামান্য শিক্ষা থাকলেই মেয়েরা শ্রমের সঠিক মূল্য পায়। ফলে নারী শিক্ষাই নারী ক্ষমতায়নের প্রথম ধাপ। 
এছাড়াও গ্রাম ও মফস্‌সলের শিশুদের নিয়ে নিরন্তর কাজ করছে শিশুকেন্দ্রিক েস্বচ্ছাসেবী সংস্থা ‘হেল্প আস হেল্প দেম’। এই সংস্থাটি বাচ্চাদের শিক্ষা প্রদানের ক্ষেত্রে খুবই সক্রিয় ভূমিকা নেয়। পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে শিশু শিক্ষার প্রচার করে। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী, শিশুদের শিক্ষার ক্ষেত্রে মায়ের উৎসাহ ক্রমশ বেড়ে যাচ্ছে। ফলে শিশু শিক্ষার পরিস্থিতি অনেকটাই উন্নত হয়েছে।       
এই ধরনের প্রচেষ্টাগুলোকেই আরও সুদৃঢ় করার প্রতি সচেষ্ট এসভিপি। সেতুর মাধ্যমে েস্বচ্ছাসেবী সংস্থাগুলোর কাজ আরও ভালো হবে এটাই কাম্য। মহিলা ও শিশু কল্যাণের মতো ভালো কাজে যত অর্থ দেওয়া যায় আমাদের সমাজও ততই সচ্ছল হবে বলে মনে করেন সংস্থার চেয়ারপার্সন সুনীল ভান্ডারি। তিনি বলেন নারী ও পুরুষ মিলে একটা সমাজ তৈরি করে। সেক্ষেত্রে তাদের কেউ যদি অবদমিত হয়, পিছিয়ে থাকে তাহলে সেই সমাজ কখনওই সব দিক দিয়ে উন্নত হতে পারে না। ফলে সমাজের সার্বিক উন্নতির জন্যই নারীর অধিকারের দিকে নজর দেওয়া প্রয়োজন।

18th     November,   2023
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ