বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিদেশ
 

‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’ প্রকল্প থেকে সরে দাঁড়াল ইতালি, বিপাকে চীন

রোম: চীনের স্বপ্নের প্রকল্পে বড় ধাক্কা। ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’ প্রকল্প থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল ইতালি। ইতিমধ্যেই জি জিনপিংয়ের দেশকে একথা জানিয়ে দিয়েছে ইতালির জর্জিয়া মেলোনির সরকার। সূত্রের খবর, তিনদিন আগেই এই সিদ্ধান্তের কথা বেজিংকে জানানো হয়। যদিও রোমের তরফে তা সরকারিভাবে ঘোষণা করা হয়নি। বৃহস্পতিবার এব্যাপারে মুখ খুলেছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী মেলোনি। তিনি সাফ জানিয়েছেন, ওই প্রকল্প থেকে প্রত্যাশিত ফল পাওয়া যায়নি। তবে প্রকল্প থেকে সরে দাঁড়ালেও চীনের সঙ্গে রাজনৈতিক আলোচনার পথ খোলা রেখেছে ইতালি। মেলোনি এদিন বাণিজ্য ও অর্থনীতির ক্ষেত্রে চীনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা প্রসারের কথা বলেছেন। 
উল্লেখ্য,  বাণিজ্য ও পরিকাঠামো ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন আনতে ২০১৩ সালে ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’ প্রকল্পের কথা ঘোষণা করে চীন। ২০১৯ সালে সেই প্রকল্পে জি-৭ গোষ্ঠীর একমাত্র দেশ হিসেবে যোগ দেয় ইতালি। যা নিয়ে সমালোচনায় সরব হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ একাধিক দেশ। তারপরেও অনড় ছিল ইতালি। সরকারের যুক্তি ছিল, এই প্রকল্পের মাধ্যমে দু’দেশের বাণিজ্য আরও বাড়বে। সেই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী জর্জিয়া মেলোনি সহ অনেকে। তাঁদের দাবি ছিল, এই প্রকল্পকে সামনে রেখে ইতালির রাজনীতিতে প্রভাব খাটানোর কৌশল নিচ্ছে বেজিং। গত নির্বাচনে ইতালিতে পালাবদল ঘটে। ইতিহাস গড়ে ইতালিতে ক্ষমতায় আসে দক্ষিণপন্থীরা। দেশের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মেলোনি। এর পরেই ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’ প্রকল্প নিয়ে পুনর্বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছিলেন তিনি। জানা গিয়েছে, চলতি বছরের মধ্যে ইতালি কোনও সিদ্ধান্ত না নিলে ২০২৪ সালের মার্চ মাসে এই চুক্তিটি পুনর্নবীকরণ হয়ে যেত। তার আগেই এই পদক্ষেপ। যদিও বিষয়টি নিয়ে ইতালির সংস্থাগুলিকে নিয়ে বেজিং কী পদক্ষেপ নেবে, তা নিয়ে কিছুটা চাপে মেলোনি সরকার। সূত্রের খবর, সেই কারণেই চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানোর বিষয়টি নিয়ে সরকারিভাবে প্রকাশ্যে কোনও ঘোষণা করা হয়নি। চুক্তি বাতিল নিয়ে কোনও মন্তব্য না করলেও বেজিংয়ের সঙ্গে রোম নতুনভাবে কৌশলগত সম্পর্ক গড়ে তুলতে চাইছে বলে জানান সেদেশের বিদেশমন্ত্রী আন্তোনিও তাজানি। 
অন্যদিকে, এই প্রকল্পের প্রভাব সারা বিশ্বজুড়ে বলে দাবি চীনের। সেদেশের বিদেশ মন্ত্রক বলেছে, এই প্রকল্প সম্পর্কে যে কোনও ধরনের বদনামের চেষ্টার তীব্র বিরোধিতা করবে জি জিনপিং প্রশাসন।

8th     December,   2023
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ