বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

নেতা-মন্ত্রীদের পরিচয় এবার মোদির নামে

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: তিনি ইন্দিরা গান্ধীর সবথেকে বড় সমালোচক। অথচ পরোক্ষে সেই ইন্দিরারই পথে হাঁটছেন নরেন্দ্র মোদি। লালুপ্রসাদ যাদবের একটি মন্তব্যকে সামনে রেখে বিজেপিকে প্রায় আনুষ্ঠানিকভাবেই ‘নিজের নামাঙ্কিত দল’ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে দিলেন তিনি। বিজেপির নেতা-মন্ত্রীদের তাঁর বার্তা, ‘নিজেদের নাম এবং দলের পাশে এবার থেকে আপনারা লিখবেন মোদি পরিবার।’ এই নির্দেশনামার নেপথ্যে প্রধানমন্ত্রীর ঢাল তাঁর নিজেরই একটি মন্তব্য—‘এখন গোটা দেশ মনে করে তারা মোদির পরিবার।’ তাহলে এই পরিবারকে প্রতিষ্ঠার দায়িত্ব নিতে হবে কাকে? তাঁরই দলের এমপি-এমএলএ’দের। তাই দল এবং বিজেপি সরকারের প্রতিনিধিরা সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে নিজেদের নামের পাশে বন্ধনীর মধ্যে লিখে ফেলছেন ‘মোদির পরিবার’। ভোটের আগে নতুন প্রচার। 
বিহারে বিরোধীদের জনবিশ্বাস সভার মঞ্চ থেকে লালুপ্রসাদ যাদব বলেছিলেন, ‘মোদি সব সময়ই বিরোধীদের পরিবারতান্ত্রিক হিসেবে আক্রমণ করেন। আমাদের সবার পরিবার আছে। সন্তান আছে। মোদিকে প্রশ্ন করা উচিত, তাঁর পরিবার কোথায়?’ এই মন্তব্যেই তোলপাড় শুরু হয় গেরুয়া শিবিরের অন্দরে। সোমবার সকাল থেকেই বিজেপির পক্ষ থেকে চলতে থাকে প্রতিবাদ এবং সমালোচনা। সেই প্রচারপর্বের আঁচেই হাওয়া দেন নরেন্দ্র মোদি। তেলেঙ্গানার আদিলাবাদের সভা থেকে তাঁর ঘোষণা, ‘অনেক বড় স্বপ্ন নিয়ে আমি সব ছেড়ে বেরিয়ে এসেছিলাম। আজ গোটা দেশ বলছে তারা মোদির পরিবার। আজ দেশ আমার পরিবার। দেশের স্বপ্ন আমার স্বপ্ন।’
১৯৭৫ সালের জুন মাসে দিল্লির বোট ক্লাবের জনসভা থেকে কংগ্রেস সভাপতি দেবকান্ত বড়ুয়া স্লোগান দিয়েছিলেন, ‘ইন্দিরা ইজ ইন্ডিয়া... ইন্ডিয়া ইজ ইন্দিরা।’ এখনও দলের থেকে নেতানেত্রীকে বৃহৎ আসনে বসানোর চরম তুষ্টিকরণের রাজনৈতিক প্রচারে সেরা স্লোগান এটাই। জরুরি অবস্থার আবহে তাঁকে সর্বোচ্চ জনপ্রিয় ও প্রভাবশালী নেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠার প্রয়োজন ছিল। তাই তাঁর অনুগামীরা প্রাণপণে চেষ্টা করেছিলেন ইন্দিরাকে লার্জার দ্যান লাইফ হিসেবে দেখানোর। যদিও ১৯৭৭ সালের নির্বাচনে দলের ভরাডুবি হয়। ১৯৭৮ সালে জনতা দলের সরকার যখন টালমাটাল, তখন ফের ঘুরে দাঁড়ান ইন্দিরা গান্ধী। এবং কংগ্রেস দলের পরিচয় নিজের নামের সঙ্গেই যুক্ত করে দেন। ১৯৭৮ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন কমিশন প্রকৃত কংগ্রেস হিসেবে স্বীকৃতি দেন ইন্দিরা গান্ধীর নেতৃত্বাধীন অংশকে। দলের নাম হয় কংগ্রেস (ইন্দিরা)। প্রতীক দেওয়া হয় হাত। তখন থেকেই বলা শুরু হয়—ইন্দিরা কংগ্রেস। ২০২৪ সালের লোকসভা ভোটের ঠিক আগে তেমনই এক রাজনৈতিক আঁচ পাওয়া যাচ্ছে। বিজেপি নেতৃত্ব এবং সরকারের মন্ত্রীরা আনুষ্ঠানিকভাবেই নিজেদের পরিচয় দিচ্ছেন মোদির নামে। এই তালিকায় যেমন আছেন স্বয়ং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, তেমনই মোদির পরিবারে সদস্য হিসেবে নিজেকে জাহির করেছেন ‘দাগি’ ব্রিজভূষণও। অর্থাৎ, এতদিন ধরে বিজেপি শুধু মুখেই ছিল মোদির দল বা মোদি জনতা পার্টি। রাজনৈতিক চর্চার সীমাবদ্ধতা ছাড়িয়ে এবার বদলে যাচ্ছে বিজেপি। দল নয় ব্যক্তি বড়।সিলমোহর মোদিতন্ত্রে। 

5th     March,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ