বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

যোগীরা‌জ্যে ১ কোটি ২০ লক্ষ ভুয়ো জব কার্ড! নীরব কেন? প্রশ্ন পঞ্চায়েতমন্ত্রীর 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দু’বছর ধরে ১০০ দিনের কাজের টাকা দিচ্ছে না মোদি সরকার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারই ৫৯ লক্ষ বঞ্চিত শ্রমিকের বকেয়া মজুরি দিয়েছে। এর জেরেই লোকসভা ভোটের আগে চাপে বিজেপি। ফলে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীকে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে ‘মিথ্যা তথ্য’ দিয়ে বাংলাকে কালিমালিপ্ত করতে হচ্ছে। মোদির ‘ভুয়ো জব কার্ড’ তত্ত্বকে এই ভাষাতেই কটাক্ষ করলেন রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার। পাশাপাশি প্রশ্ন তুললেন ডাবল ইঞ্জিন রাজ্য উত্তরপ্রদেশের ক্ষেত্রে বিজেপির পোস্টার বয়ের নীরবতা নিয়েও। শনিবার নদীয়ার সভা থেকে বাংলায় ২৫ লক্ষ ভুয়ো জব কার্ডে গরিবের টাকা লুট করার অভিযোগ তুলেছেন মোদি। অথচ, যোগীরাজ্যে এমন ঘটনা ঢের ঢের বেশি। কেন্দ্রীয় পোর্টালের তথ্য বলছে, ২০১৪ সাল থেকে উত্তরপ্রদেশে বাতিল হয়েছে ১ কোটি ২০ লক্ষ ৫৪ হাজার ৯৯৮টি জব কার্ড। আর বাংলায় সেই সংখ্যাটা মাত্র ৩৮ লক্ষ ৮৪ হাজার ৭০০। তাহলে বেছে বেছে পশ্চিমবঙ্গকে টার্গেট কেন? উত্তরপ্রদেশই বা টাকা পায় কিসের ভিত্তিতে? প্রশ্ন তুলেছেন প্রদীপবাবু।
নিয়ম অনুযায়ী, কেউ তিন বছরের বেশি কাজ না চাইলে বা বাসস্থান ছেড়ে অন্য কোথাও চলে গেলে কিংবা মারা গেলে জব কার্ড বাতিল হয়। এমন একাধিক কারণে সারা বছর ধরেই প্রতিটি রাজ্য জব কার্ড বাতিলের কাজ চালায়। সেই প্রসঙ্গ টেনেই এদিন রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রীর প্রশ্ন, স্বাভাবিক কারণে বাতিল হওয়া কার্ডকে একজন প্রধানমন্ত্রী ‘ভুয়ো’ বলেন কীভাবে? আর যদি সেগুলিকে ‘ভুয়ো’ ধরেও নেওয়া হয়, তাহলে তো এমন ঘটনা সর্বাধিক ধরা পড়েছে বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশে। তাঁর দাবি, ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে প্রতিটি রাজ্যকে ‘ভুয়ো’ জব কার্ড বাতিল করতে ‘মিশন মোডে’ অভিযান চালানোর নির্দেশ দেয় কেন্দ্র। বাংলায় সেই কাজের সিংহভাগই নির্দিষ্ট সময়ে শেষ হয়েছে। অথচ যোগীরাজ্যে চলতি অর্থবর্ষেও প্রচুর মাত্রায় কার্ড বাতিল হচ্ছে। কেন্দ্রের রিপোর্টে তা স্পষ্ট। প্রদীপবাবুর বিস্তারিত আলোচনায় উঠে এসেছে ২০২২-২৩ এবং ২০২৩-২৪ অর্থবর্ষের বাতিল হওয়া কার্ডের সংখ্যাও। গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, বিগত দু’বছরে (২ মার্চ ২০২৩ পর্যন্ত) উত্তরপ্রদেশে বাতিল হয়েছে ৭৮ লক্ষ ১৮ হাজার ৩৭৩টি জব কার্ড। একই সময়কালে পশ্চিমবঙ্গে বাতিল হওয়া কার্ডের সংখ্যা মাত্র ২৩ লক্ষ ৪৫ হাজার ৪৭৫টি। আরও দেখা যাচ্ছে, ২০২২-২৩’এ ২৩.৭৭ শতাংশ এবং ২০২৩-২৪-এ ২১.৭১ শতাংশ কার্ড বাতিল হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। সেখানে বাংলায় খারিজের শতকরা হার ১৫.৭৩ শতাংশ থেকে নেমে এসেছে মাত্র ১.২৪ শতাংশে।      
আবাস যোজনা নিয়েও প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে নস্যাৎ করে দিয়েছেন প্রদীপবাবু। তিনি বলেন, ২০১৪-২০২২ সাল পর্যন্ত এই প্রকল্পে কেন্দ্র দিয়েছে ২৯ হাজার ৮৩৪ কোটি টাকা। এছাড়াও রাজ্য খরচ করেছে ১৯ হাজার ৮৫২ কোটি। নির্মাণ সম্পূর্ণ হয়েছে ৪২ লক্ষ ২৯ হাজার ৭৯৭টি বাড়ির। 
 

3rd     March,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ