বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

মন্দিরের অনুদানে চাপল কর, কর্ণাটকে রাজনৈতিক তরজায় বিজেপি-কংগ্রেস

বেঙ্গালুরু ও নয়াদিল্লি: মন্দিরের অনুদানের উপর চাপছে কর। কর্ণাটকে কংগ্রেস সরকারের এই পদক্ষেপ ঘিরে রাজনৈতিক তরজা তুঙ্গে। লোকসভা ভোটের আগে বিজেপির অভিযোগ, ‘হিন্দু বিরোধী’ নীতি নিয়েছে রাজ্যের কংগ্রেস সরকার। হাত শিবিরের পাল্টা তোপ, সব কিছুতেই ধর্মীয় বিভাজনের রাজনীতি করছে বিজেপি।
মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধারামাইয়ার নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকার বিধানসভায় ‘হিন্দু ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও দাতব্য বৃত্তি’ নামে একটি বিল পাশ করিয়েছে। নয়া আইন অনুযায়ী, মন্দিরগুলিতে এক কোটি টাকার বেশি অনুদানের উপর ১০ শতাংশ কর চাপবে। অনুদানের পরিমাণ ১০ লক্ষ থেকে এক কোটি টাকার মধ্যে হলে পাঁচ শতাংশ কর দিতে হবে। কর্ণাটক সরকারের এই পদক্ষেপ ঘিরেই কংগ্রেস ও বিজেপির মধ্যে বাগযুদ্ধ শুরু হয়েছে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি বিজয়েন্দ্র ইয়েদুরাপ্পা এক্স হ্যান্ডলে লিখেছেন, কংগ্রেস সরকার রাজ্যে অনবরত হিন্দু বিরোধী নীতি নিয়ে চলেছে। তারা এখন হিন্দু মন্দিরগুলির অনুদানের উপরও বাঁকা দৃষ্টিতে তাকাচ্ছে। সেই কারণেই এই বিল পাশ করা হয়েছে। মন্দিরের উন্নয়ন জন্য ও দেবতার প্রতি উৎসর্গ করে ভক্তরা অনুদান দেন। এই টাকা মন্দির সংস্কার ও তীর্থযাত্রীদের সুবিধা প্রদানের কাজে ব্যবহার হওয়া উচিত। এই অর্থ অন্য কাজে ব্যবহার হলে তাতে মানুষের আধ্যাত্মিক বিশ্বাসে আঘাত লাগবে। এর ফলে হিংসা ছড়াবে, জালিয়াতি হবে। বাকি সম্প্রদায়গুলির ধর্মীয় স্থানগুলিকে বাদ রেখে কেন শুধু হিন্দু মন্দিরের অনুদানেই কর চাপানো হল, সেই প্রশ্নও তুলেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি। পাল্টা তোপ দেগেছেন কর্ণাটকের কংগ্রেস নেতা তথা মন্ত্রী রামলিঙ্গ রেড্ডি। তাঁর প্রশ্ন, বিজেপি কেন সব কিছু নিয়ে ধর্মীয় রাজনীতি করে? রেড্ডির দাবি, রাজনৈতিক স্বার্থেই কংগ্রেসকে ‘হিন্দু বিরোধী’ বলে প্রচার করে চলেছে বিজেপি। যদিও বাস্তবে কংগ্রেসই সর্বদা হিন্দু মন্দির ও হিন্দুদের স্বার্থ রক্ষা করে এসেছে।

23rd     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ