বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

ইউটিউব ভিডিও দেখে বাড়িতে প্রসব, কেরলে মৃত্যু মা ও সদ্যোজাতের

তিরুবনন্তপুরম: ইউটিউবের ভিডিওতে দেখা বিদ্যে ফলিয়ে বাড়িতেই প্রসবের চেষ্টা। এমন কাণ্ডজ্ঞানহীন কাজের পরিণতি হল ভয়ঙ্কর। মৃত্যু হল প্রসূতির। বাঁচানো যায়নি সদ্যোজাত শিশুটিকেও। মৃতার নাম শেমিরা বিবি। মঙ্গলবারের এই মর্মান্তিক ঘটনাটি কেরলের তিরুবন্তপুরমের। অভিযোগ, অন্তঃসত্ত্বা শেমিরাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে চাননি তাঁর স্বামী নায়াস। অথচ, স্বাস্থ্যকর্মীরা তাঁকে বারবার সতর্ক করেছিলেন। কারণ, এর আগে তিনবার সিজারিয়ান ডেলিভারি হয়েছে শেমিরার। তাই এবার তাঁর পক্ষে স্বাভাবিকভাবে সন্তান প্রসব করা কোনওভাবেই  সম্ভব নয়। কিন্তু স্বাস্থ্যকর্মীদের সতর্কবার্তা কানে তোলেননি নায়াস। উল্টে দাবি করেছিলেন ইউটিউবের সাহায্য নিয়ে বাড়িতেই প্রসব করানো সম্ভব। আর সেটাই কাল হল। এই হঠকারিতার জন্য বুধবার নায়াসকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। তাঁর বিরুদ্ধে খুন সহ একাধিক অভিযোগে দায়ের হয়েছে মামলা। পাশাপাশি খতিয়ে দেখা হচ্ছে ধৃতের প্রথম স্ত্রী সহ পরিবারের অন্য সদস্যদের ভূমিকাও। 
পুলিস জানিয়েছে, নায়াসের দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী ছিলেন শেমিরা। মঙ্গলবার দুপুর থেকেই প্রসব বেদনা শুরু ওই মহিলার। পরে বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে শুরু রক্তক্ষরণ। গত দু’সপ্তাহ ধরে ওই বাড়িতেই ছিলেন নায়াসের প্রথম স্ত্রী। তিনি বাওড়িতে শেমিরার প্রসবের ব্যবস্থা করেন। তা অবশ্য সফল হয়নি। কিছুক্ষণ পরেই কোমায় চলে যান ওই মহিলা। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে তড়িঘড়ি স্ত্রীকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান নায়াস। সেখানেই মা ও সদ্যোজাতকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। 
তিরুবনন্তপুরমের কাউন্সিলার ইউ দীপিকার অভিযোগ,‘শামিরার সঙ্গে দেখা করতে ওই বাড়িতে গিয়েছিলেন আশাকর্মীরা। কিন্তু স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে দেননি নায়াস। তিনি দাবি করেন, ইউটিউব ভিডিওর সাহায্যে বাড়িতে প্রসব সম্ভব।’ দীপিকা আরও বলেন, ‘হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা করাতে চেয়েছিলেন শেমিরা। কিন্তু কথা না শুনলে তাঁকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন অভিযুক্ত। তাই বাধ্য হয়ে স্বামীর সিদ্ধান্ত মেনে নেন ওই মহিলা।’ 
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বীণা জর্জ বলেন, ‘মা ও সদ্যোজাতকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হয়েছে। এটা হত্যাকাণ্ড ছাড়া কিছু নয়। কেরলে এই ধরনের ঘটনা কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। এখানকার মানুষ সবসময় স্বাস্থ্য পরিষেবা পেতে আগ্রহী।’

23rd     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ