বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

২০২৪ সালে হ্যাটট্রিকের গ্যারান্টি: মোদি

 দিব্যেন্দু বিশ্বাস, নয়াদিল্লি: ‘সেমিফাইনাল’ থেকেই যেন ‘ফাইনাল’ ম্যাচের দামামা বাজিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আত্মপ্রচারেই দিলেন জয়ের হ্যাটট্রিকের গ্যারান্টি। রবিবার তিন রাজ্যের বিধানসভা ভোট জিতে বিজেপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে সাফ জানিয়ে দিলেন, আজকের হ্যাট্রিক ২০২৪ সালের জয়ের হ্যাট্রিকের গ্যারান্টি।  প্রবল আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই মোদি বুঝিয়ে দিলেন, ২০২৪ এর ভোটে তিনি জিতেই গিয়েছেন। সেইসঙ্গে তুলোধোনা করলেন বিরোধী জোটকে। বললেন, কিছু পরিবারবাদী দল একত্রিত হলে ভালো ছবি উঠতে পারে। কিন্তু তাতে দেশের ভালো হয় না। দুর্নীতি, তুষ্টিকরণ এবং পরিবারবাদ - এই তিনের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছেন দেশের মানুষ। নিয়োগ দুর্নীতি, পেপার লিকের মতো ঘটনায় যুক্ত ছিল বলেই তিন রাজ্যের শাসক দলকে ক্ষমতা থেকে সরে যেতে হয়েছে।  কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা নিয়েও তাৎপর্যপূর্ণ বার্তা দিয়েছেন মোদি। বিরোধীদের উদ্দেশে বলেছেন, কেন্দ্রীয় এজেন্সির বদনাম করবেন না। দেশের মানুষ সহ্য করবে না। দুধ আর জলের ফারাক তারা জানেন। শুধু হাওয়ায় কথা ভাসিয়ে এবং লোভ দেখিয়ে ভোটে জেতা যায় না। 
রবিবার সন্ধে ৭টা নাগাদ প্রধানমন্ত্রী বিজেপির সম্প্রসারিত কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে পৌঁছতেই উল্লাসে ফেটে পড়েন কর্মী-সমর্থকেরা। মূল গেট থেকে সভামঞ্চ পর্যন্ত রেড কার্পেটে পা দিয়ে হেঁটেই এগিয়ে যান মোদি। তাঁকে লক্ষ্য করে ছোঁড়া হয় লাল গোলাপের পাপড়ি। সঙ্গে ছিলেন বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা। ভাষণে বলেছেন, যেভাবে নাড্ডা রণনীতি তৈরি করেছেন, তার ফল এদিনের অভূতপূর্ব এবং ঐতিহাসিক  ফলাফল। ভোটের সময় তাঁর বাড়িতে দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছিল। তা সামলেও কাজ করে গিয়েছেন তিনি। তবে মোদির ভাষণে আত্মপ্রচার ছিলই। সেই তালিকায় এসেছে বন্দে ভার‍ত ট্রেন, এসেছে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প, এসেছে গ্রামীণ একাধিক প্রকল্পের উল্লেখ। তেলেঙ্গানায় ক্ষমতা দখল করতে না পারলেও বিজেপির ভোটপ্রাপ্তির হার বৃদ্ধির কথাও উল্লেখ করেছেন মোদি। 
রবিবার ফলাফলের ট্রেন্ড স্পষ্ট হতে শুরু করেছিল মোটামুটি সকাল থেকেই। দিল্লির করোলবাগ হোক কিংবা উত্তরপ্রদেশ সংলগ্ন জনপদ বসুন্ধরা - নয়াদিল্লির ৬-এ, দীনদয়াল উপাধ্যায় মার্গে বিজেপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ভিড় জমাতে শুরু করেছিলেন দলের কর্মী সমর্থকেরা। সেই ভিড়ে ছিলেন বিহারের বৈশালীর এক বাসিন্দা রতন রঞ্জনও। রতন বিহার থেকে দিল্লি এসেছেন সাইকেলে চেপে।  মোদির একটি মাঝারি সাইজের কাট-আউট এবং তার দুপাশে বিজেপির ঝাণ্ডা। বিজেপি কার্যালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে সেই কাট-আউটেই ফুল ছুঁড়ছেন, ধূপ দেখাচ্ছেন, দুধ ঢেলে পুজো করছেন। স্মৃতি ইরানি, পীযূষ গোয়েলদের মতো কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা জয়ের কৃতিত্ব মোদিকেই দিয়েছেন। 
হালুয়া, লাড্ডু, তাসা পার্টি, গেরুয়া আবির, আতশবাজি, মোদি মুখোশ। একঝলকে দেখে মনে হয়েছে, বিজেপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হয়তো অকাল বর্ষবরণ চলছে।  পিটিআই

4th     December,   2023
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ