বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

সর্বদল বৈঠকে মহুয়া ইস্যু নিয়ে বিজেপিকে আক্রমণ তৃণমূলের

নয়াদিল্লি: সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন। তার আগে শনিবার সর্বদল বৈঠকের ডেকেছিল সরকার। অর্থের বিনিময়ে প্রশ্ন বিতর্কে আসন্ন অধিবেশনেই ভাগ্য নির্ধারণ হতে পারে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের। এদিনের সর্বদল বৈঠকে মহুয়ার প্রসঙ্গ সহ একাধিক ইস্যু নিয়ে শাসকদল বিজেপির উপর চাপ বাড়ল ঘাসফুল শিবির। গত মাসে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপের আর্জি জানিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ নিশিকান্ত দুবে। তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ব্যবসায়ী দর্শন হিরানন্দানির কাছ থেকে টাকা নিয়ে তিনি সংসদে কেন্দ্রকে নিশানা করে প্রশ্ন তুলেছেন। সব ঠিকঠাক থাকলে সোমবার এবিষয়ে রিপোর্ট পেশ করবে সংশ্লিষ্ট কমিটি। এদিকে শনিবার টাকার বিনিময়ে প্রশ্ন বিতর্কে মহুয়ার পাশে দাঁড়িয়ে লোকসভার অধ্যক্ষকে চিঠি দিলেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী। চিঠিতে সংশ্লিষ্ট ইস্যুতে নিরপেক্ষ তদন্তের আর্জি জানিয়েছেন বাংলার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি।
এদিন মহুয়াকে নিয়ে তৈরি রিপোর্ট ফাঁস করা নিয়ে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়ান তৃণমূলের দুই সাংসদ ডেরেক ও’ ব্রায়েন ও সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিযোগ, লোকসভায় আলোচনার আগেই সংবাদমাধ্যমের কাছে পৌঁছে গিয়েছে রিপোর্ট। এবিষয়ে তৃণমূল সাংসদদের তোপ, ‘লোকসভায় আলোচনা না হওয়া পর্যন্ত সংসদীয় কমিটির কোনও রিপোর্ট জনসমক্ষে পেশ করা উচিত নয়। যদিও এথিক্স কমিটির সাম্প্রতিকতম রিপোর্ট ইতিমধ্যেই মিডিয়ার হাতে এসে গিয়েছে। আমাদের দলের কয়েকজন এমপিকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তারইমধ্যে আরও একজনের বহিষ্কারের জল্পনা নিয়ে খবর করছে সংবাদমাধ্যমগুলি। বিষয়টি নিয়ে লোকসভায় বৈঠক হতে পারে। তারপরই এবিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া যেতে পারে।’ পাশাপাশি এদিন কেন্দ্রের কাছে আসন্ন অধিবেশনে ভারতীয় দণ্ডবিধি সংক্রান্ত তিনটি নতুন বিল পেশ না করারও আর্জি জানিয়েছেন বাংলার শাসকদলের প্রতিনিধিরা। প্রসঙ্গত, এই তিনটি বিল ছাড়াও একাধিক বিল পেশ করতে চলেছে মোদি সরকার। তালিকায় রয়েছে মুখ্য নির্বাচনী কমিশনার এবং অন্যান্য নির্বাচন কমিশনারদের নিয়োগ সংক্রান্ত বিল। সব মিলিয়ে কেন্দ্র-বিরোধী তরজায় সরগরম হতে চলেছে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন। শনিবার অবশ্য বিরোধীদের তোলা ইস্যুগুলি নিয়ে অধিবেশনে আলোচনার আশ্বাস দিয়েছে মোদি সরকার। 
মহুয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার সময় ২০০৫ সালে টাকার বিনিময়ে প্রশ্ন কেলেঙ্কারির কথা উল্লেখ করেছিলেন নিশিকান্ত। অধ্যক্ষকে দেওয়া চিঠিতে সেকথা উল্লেখ করেন অধীর। এবিষয়ে তিনি লেখেন, ‘সংশ্লিষ্ট ঘটনার সঙ্গে ২০০৫ সালের মামলার বিস্তর ফারাক রয়েছে।’ এখানেই না থেমে তাঁর বক্তব্য, ‘সাংসদের পোর্টালে প্রশ্ন দিয়ে নিজের কার্যসিদ্ধি করেছিলেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী। তা সত্ত্বেও পরবর্তীকালে কেন তিনি মহুয়ার বিপক্ষে গেলেন তা স্পষ্ট নয়। উপহার আদান-প্রদান খুব স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। তাই উদ্দেশ্য সাধনের সঙ্গে এই বিষয়টিকে যুক্ত করা খুবই শক্ত।’ 

3rd     December,   2023
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ