বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিকিকিনি
 

 টু  ক  রো  খ ব র

শ্যাম সুন্দর অ্যান্ড কোং-এর নতুন অফার
শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স-এর উদ্যোগে শুরু হল ‘শুভ বিবাহ উৎসব’। গত ১৭ জানুয়ারি থেকে এই উৎসব শুরু হয়েছে। চলবে ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এই উৎসবের সূচনা হয় ২০০৯ সালে, আগরতলায়। পরে কলকাতার কয়েকটি আবাসন ও ক্লাব এতে যুক্ত হয়। এরপরে কলকাতার শোরুমেও এই উৎসব শুরু হয়। এই উৎসবে সোনা এবং হীরের বিয়ের গয়নার এক নতুন সংগ্রহ নিয়ে এসেছে এই সংস্থা। যা শুধুমাত্র বিয়ের কথা ভেবেই বিশেষভাবে কারুকাজ করা হয়েছে। সম্প্রতি এই গয়নার এক প্রদর্শনীরও আয়োজন করেছিল এই অলঙ্কার প্রস্তুতকারী সংস্থা। এই উৎসবে উপলক্ষ্যে সোনার গয়না তৈরির মজুরিতে ২০ শতাংশ ছাড় পাবেন। হীরের গয়না তৈরির মজুরিতে ৫০ শতাংশ ছাড়। এছাড়া হীরের গয়নার কেনাকাটায় হীরের দামের ওপর থাকছে ৭ শতাংশ ছাড়। শুধু তা-ই নয়, প্রতি সপ্তাহের লাকি ড্র-এ থাকছে হীরে বসানো স্বর্ণমুদ্রা। মরশুমের মেগা ড্র-এ থাকছে  সুন্দর হীরের নেকলেস। এছাড়া প্রতিটি ক্রয়ের সঙ্গে থাকছে নিশ্চিত উপহার। এই প্রসঙ্গে শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্সের ডিরেক্টর অর্পিতা সাহা বলেন, ‘আসলে ভারতীয় বিবাহ অনুষ্ঠান হল একটি পরম্পরা ও আবেগ। এর সঙ্গে জুড়ে থাকে এক অদ্ভুত রোমান্টিসিজম। এজন্যই আমাদের এই প্রয়াস বিশেষ যত্নের।’ সংস্থার আর এক ডিরেক্টর রূপক সাহা বলেন, ‘বিয়ের মরসুমে আমাদের ‘শুভ বিবাহ উৎসব’ ভারতীয় ঐতিহ্যের এক বর্ণময় উদযাপন।’ অফারটি শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স- এর ত্রিপুরার  আগরতলা ও উদয়পুর শোরুম ছাড়াও কলকাতার সব ( গড়িয়াহাট, বেহালা ও বারাসাত) শোরুমে চলবে। 

আর্ট ও আড্ডা ফেস্টিভ্যাল কলকাতায় 
সম্প্রতি কলকাতায় অনুষ্ঠিত হল আর্ট ও আড্ডা ফেস্টিভ্যাল। গত ৫-৮ জানুয়ারি ফার্ন রোড গড়িয়াহাটে এই উপলক্ষ্যে একত্র হয়েছিলেন শিল্পজগতের বেশ কিছু মানুষ। অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট সঙ্গীত পরিচালক দেবজ্যোতি মিশ্র। পেশাগত জীবনে সুখসমৃদ্ধি ও সাফল্যের পরেও মানুষ কখনও মনে মনে একা। তাই তার সুপ্ত ইচ্ছে, অনুভূতি ভাগ করার জন্য একটি আলাদা প্রাঙ্গণ প্রয়োজন হয়ে পড়ে। গান, কবিতা, শিল্পকলা বা আড্ডা— যে কোনও মাধ্যমে নিজের মনের কথা পৌঁছনো, হতাশা কাটানো ও অনুভূতি ব্যক্ত করাই এমন ফেস্টিভ্যালের মূল উদ্দেশ্য। বিদেশে এমন প্রথার চল আছে। যাকে সকলে চেনে আর্ট থেরাপি বলে। আমাদের দেশে এমন থেরাপির প্রয়োগ খুবই কম। এখানে কিছু মানুষ একসঙ্গে জড়ো হয়ে ছবি আঁকেন, একে অপরের সঙ্গে  ভাবনা আদান প্রদান করেন। শিল্পী প্রণব রায়ের নেতৃত্বে একটি দল এমন এক ফেস্টিভ্যালের আয়োজন করল। প্রণব রায়ের মতে, ‘কারও সন্তান বিদেশে থিতু, কেউ আবার কর্মব্যস্ত দিনভর। সারাদিনের পর একটু মি-টাইম খুঁজতেই এখানে জড়ো হওয়া। ভবিষ্যতেও এমন নিখাদ আড্ডার আয়োজন থাকবে।’ 

আবোল তাবোল-এর সূচীকাজের প্রদর্শনী
প্রিয়জনের জন্য বানানো রুমালে নকশা তুলে লিখে দেওয়া, ‘মনে রেখো’ কিংবা ঘরের দেওয়ালে মোটা সুতোর টানে লেখা ‘তোমায় আমায় মিলে’। কয়েক দশক আগেও এমন সূচীশিল্পে সেজে উঠত বাঙালির অন্দর। ৮৯ বছরের প্রবীণ সংগ্রাহক পরিমল রায়কে আকর্ষণ করত এমন সূচীকাজ। নিজের দিদির সংগ্রহ ঘাঁটতে ঘাঁটতে একদিন হঠাৎই দেখা পান এমন সূচীকাজের। তারপর আগ্রহ জন্মায়। ক্রমে হাতে এসে পৌঁছায় গোটা আবোল তাবোল-এর সব কবিতার সূচীকাজ। চমকে উঠেছিলেন পরিমলবাবু ও এই কাজে তাঁর সঙ্গী আর এক সংগ্রাহক জয়ন্ত কুমার ঘোষ। এই কাজ জনসমক্ষে আনতে প্রথমে তৈরি করেন একটি ক্যালেন্ডার। সেই সব ছবি এবার প্রদর্শনীর আকারে নিয়ে আসছেন তাঁরা। আজ, ২০ জানুয়ারি থেকে সুকুমার সৃষ্ট আবোল তাবোল-এর সব কবিতার সূচীশিল্প প্রদর্শিত হবে নেহরু চিলড্রেন্স মিউজিয়ামে। প্রদর্শনী চলবে আগামী 
৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। 

নতুন ডায়াপার আনল প্যাম্পারস
প্রিমিয়াম মানের নরম ডায়াপার নিয়ে এল দেশের অন্যতম জনপ্রিয় ব্র্যান্ড প্যাম্পারস। প্রকটার অ্যান্ড গ্যাম্বল সংস্থার এই ব্র্যান্ড বরাবরই শিশু ও তার মা বাবার কাছে বিশেষ পছন্দের। তাই নতুন ডায়াপার তৈরির সময় শিশুর আরাম ও স্বাস্থ্যের দিকটিই মাথায় রাখে এই সংস্থা। দিনের বেশিরভাগ সময় ডায়াপার পরে শিশু। তাই সেই অবস্থায় যাতে সে আরামে ঘোরাফেরা করতে পারে, স্বচ্ছন্দে ঘুমাতে পারে, ডায়াপারের আর্দ্রতা থেকে তার যাতে ঠান্ডা না লাগে এই সব দিক খতিয়ে দেখে নতুন ডায়াপার বাজারে আনা হয়েছে। এই ডায়াপারের পুরোটাই সুতির। খুব নরম ও হালকা। শিশুর ত্বকের সুরক্ষায় এতে অ্যালোভেরা লোশন সমৃদ্ধ র‌্যাশরোধক  রয়েছে। ডায়াপারটি আকারে বড়। লিকেজ প্রতিরোধী। শুকানোর ক্ষমতাও দ্বিগুণ। এই ডায়াপারের আনুষ্ঠানিক বাজারিকরণ করলেন সদ্য অভিভাবক হয়েছেন এমন দুই সেলেব্রিটি, দিশা পারমার ও রাহুল বৈদ্য। তাঁরা দু’জনেই এই ডায়াপারের সুবিধা ও স্বাচ্ছন্দ্যের কথা তুলে ধরেন।

চিত্র-অঙ্গন-এর বার্ষিক প্রদর্শনী 
সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হল চিত্র অঙ্গন আর্ট স্কুলের ৩২তম বার্ষিক চিত্র প্রর্দশনী। নজরুল তীর্থ আর্ট গ্যালারিতে সম্পন্ন হল চারদিন ব্যাপী এই প্রদর্শনী। উপস্থিত ছিলেন নামী চিত্রশিল্পী বাদল পাল,  রামানুজ বিশ্বাস, চিত্রশিল্পী সঞ্জীব দাস,  সমীর দাস, সুধাংশু কুমার রায় এবং চিত্র-অঙ্গন আর্ট স্কুলের কর্ণধার ও প্রধান শিক্ষক  চিত্রশিল্পী স্বপন দেবনাথ ও  রীতা দেবনাথ। চার থেকে আশি বছর বয়সি প্রায় ২৫০ জন শিল্পীর ২৫০টি ছবি ও হাতের কাজ স্থান পায় এই প্রদর্শনীতে। জল রং, অ্যাক্রেলিক, প্যাস্টেল ও তেল রঙের সমাহারে সেজেছিল ছবিগুলি। নিসর্গ, জীবনের নানা মুহূর্ত, মানবজীবন, দেবদেবী, বিদ্রোহ ও নৈর্ব্যক্তিক নানা ছবি দর্শকদের মন জয় করে।

ত্বকের বন্ধু ভিএলসিসি-র নতুন সিরাম 
সৌন্দর্য ও লাবণ্যের জগতে ভিএলসিসি বেশ জনপ্রিয়। এবার নতুন ফেস সিরাম আনল এই সংস্থা। এতে পাবেন স্যালিসাইলিক অ্যাসিড সিরাম, ভিটামিন সি সিরাম ও হায়ালুরোনিক অ্যাসিড সিরাম। এই তিন উপাদানের সমন্বয়ে ত্বকের প্রায় সব ধরনের সমস্যা মেটে। যাঁদের ব্রণর সমস্যা বেশি তাঁদের কথা ভেবে এসেছে ব্রণ প্রতিরোধী রেঞ্জ। নিম, তুলসী, হলুদ, কমলালেবুর খোসা ইত্যাদি থেকে তৈরি সিরাম কাজে দেবে তাঁদের। উজ্জ্বল ত্বকের জন্য পাবেন ভিটামিন সি সিরাম। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে প্রয়োজন হায়ালুরোনিক অ্যাসিড। দু’ধরনের প্যাকে এই সিরাম মিলবে। দিন ও রাত উভয় সময়ে ব্যবহারের জন্য এএম-পিএম কম্বো প্যাকে এই সিরাম পাবেন। দাম ঘোরাফেরা করবে ৯৯ টাকা থেকে ২৯৯ টাকার মধ্যে।

20th     January,   2024
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ