বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

দুই জেলায় কাল ঢুকবে ১১ কোম্পানি বাহিনী

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান ও আসানসোল: ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়নি। নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ এখনও রাজ্যে এসে বৈঠক করেনি। এই পরিস্থিতিতে কাল, শুক্রবার দুই বর্ধমানে ১১ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আসছে। পূর্ব বর্ধমানে ছয় ও পশ্চিম বর্ধমানে পাঁচ কোম্পানি বাহিনী আসছে। শনি বা রবিবার থেকেই বিভিন্ন স্পর্শকাতর এলাকায় রুটমার্চ শুরু হওয়ার কথা। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, এক কোম্পানি বাহিনী বর্ধমান শহরে থাকবে। গোলাপবাগে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া নাদনঘাট, গলসি, রায়না, মঙ্গলকোট এবং মেমারিতেও কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। মঙ্গলকোটের নতুনহাট টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের হস্টেলে জওয়ানরা থাকবে। রায়নার কিষান মান্ডিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। গলসির একটি বিএড কলেজ ও পূর্বস্থলী-১ ব্লকের নিমতলা কিষান মান্ডিতে তাদের জন্য পরিকাঠামো তৈরি করা হয়েছে। তাদের সুবিধা অসুবিধা দেখার জন্য প্রতিটি থানা এলাকায় একজন এসআইকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। 
এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে জেলা পুলিস কয়েকদিন আগেই রুটমার্চ শুরু করেছে। রায়না, খণ্ডঘোষের প্রত্যন্ত এলাকায় পুলিস আধিকারিকরা ঘুরেছেন। এলাকার বাসিন্দাদের কারও কোনও সমস্যা থাকলে অভিযোগ জানানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কোন কোন এলাকায় কেন্দ্রীয় বাহিনী টহল দেবে, তার তালিকা জেলা প্রশাসন তৈরি করবে। 
প্রশাসন সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, প্রতিটি জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে কমিশন প্রতিদিনই রিপোর্ট নিয়েছে। কোনও এলাকায় কেন উত্তেজনা বা সংঘর্ষ হচ্ছে সেসম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য কমিশনের কাছে রয়েছে। সেইমতো তারা বাহিনী পাঠিয়েছে। ধাপে ধাপে জেলায় আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠানো হবে। 
কেন্দ্রীয় বাহিনীর বুটের শব্দ শোনা যাবে শিল্পাঞ্চলেও। কোন এলাকায় কত ফোর্স থাকবে সেবিষয়ে মুখ খুলতে চাননি পুলিসের শীর্ষকর্তারা। কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুট মার্চের আগে নাকা চেকিংও শুরু করেছে পুলিস। কোনওরকম অপ্রতিকর পরিস্থিতি এড়াতে বাংলা-ঝাড়খণ্ড সীমানা এলাকায় বাড়তি নজর দেওয়া হয়েছে। বুধবার সকাল থেকেই সীমানা ঘেঁষা সালানপুর এলাকায় তল্লাশি শুরু করেছে পুলিস। আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিস কমিশনারেটের ডিসি(হেড কোয়ার্টার) অরবিন্দ আনন্দ বলেন, ১ মার্চ পাঁচ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আসছে। রুটমার্চ করানো হবে। কমিশনের নির্দেশ মেনে সবরকম পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। 
জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানা গিয়েছে, ২ হাজার ৪৯৩টি বুথ রয়েছে। পাঁচটি অক্সিলারি বুথ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তা এখনও চূড়ান্ত অনুমোদন পায়নি। এই বুথগুলিতে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্র ও বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের একাংশের ভোটগ্রহণ হবে। কোন কোন বুথ স্পর্শকাতর, তা চিহ্নিত করার কাজ শুরু করেছে পুলিস-প্রশাসন। সেই তালিকা চূড়ান্ত হওয়ার আগেই কমিশনের নির্দেশে কেন্দ্রীয় বাহিনী ঢুকে পড়ছে জেলায়। সেকারণে  যেসব এলাকায় উত্তেজনার পরিস্থিতি রয়েছে প্রাথমিকভাবে সেখানেই ফোর্স রুটমার্চ করবে।  ফাইল চিত্র

29th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ