বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

সিউড়ির জল সমস্যা দূর করতে আবারও বরাদ্দ ৬ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিনিধি, সিউড়ি: সিউড়ি শহরের জলের সমস্যা দূর করতে বরাদ্দ হয়েছে ৬ কোটি টাকা। এর আগেও একাধিকবার জলের জন্য মোটা অঙ্কের অর্থ বরাদ্দ হয়েছিল। কিন্তু তাতে সমস্যার কোনও সমাধান হয়নি। তাই এবার বরাদ্দ অর্থ যাতে ঠিক ভাবে কাজে লাগানো যায় তার উদ্যোগ নিচ্ছে পুরসভা। সিউড়ির তিলপাড়া থেকে সরাসরি চাঁদমারি মাঠের ট্যাঙ্কে জল পাঠানো হবে। এরপর সেই ট্যাঙ্ক থেকে জল স্থানীয় ওয়ার্ডগুলিতে পাঠানো হবে। অর্থাৎ দূর থেকে জল এনে সমস্যা সমাধানের পথে হাঁটতে রাজি নয় পুরসভা। 
সিউড়ি শহরের জলকষ্ট দীর্ঘদিনের। চেয়ারম্যান বদল হয় কিন্তু বদলায় না পরিস্থিতি। প্রতিবার ভোটের আগে প্রতিশ্রুতির বন্যা বয়ে যায়। কিন্তু অবস্থা বদলায় না। কোথাও গ্রীষ্মকালে জল পড়াই বন্ধ হয়ে যায়। শুধু গ্রীষ্মকালে নয়, শীতকালেও জলকষ্ট চলে সমানতালে। ৩, ৭, ১১, ১২, ১৪, ১৭ নম্বর ওয়ার্ড ও পঞ্চায়েত এলাকা থেকে যুক্ত হওয়া দু’টি নতুন ওয়ার্ডে জলকষ্ট চরমে। সকালের দিকে জল এলেও তা মেলে খুবই অল্প সময়ের জন্য। নতুন করে পুরসভার অধীনে আসা ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ডের জল সমস্যা এমন চরম পর্যায়ে যে সন্ধ্যা হলেই দেখা যায়, চাকুরীজীবীরা কাজ থেকে ফিরেই জল আনতে ছুটছেন। এই অবস্থার বদল কবে হবে সেদিকেই তাকিয়ে বাসিন্দারা। পুরসভার আশ্বাস, কয়েকমাসের মধ্যেই জল সমস্যা ‘ভ্যানিশ’ হয়ে যাবে। কেন না, অতি দ্রুত ৬ কোটি টাকার জলপ্রকল্প শুরু হতে চলেছে। এর জন্য প্রথমে ময়ূরাক্ষী নদী তীরবর্তী তিলপাড়া এলাকার পাম্প থেকে জল সরাসরি পাইপলাইনের মাধ্যমে আনা হবে শহরের চাঁদমারি মাঠ সংলগ্ন ট্যাঙ্কে। আগে পুরসভা অফিস সংলগ্ন ট্যাঙ্কগুলিতে জল এসে জমা হওয়ার পর তা পাইপ লাইনের মাধ্যমে চাঁদমারি ও অন্যান্য প্রান্তিক ওয়ার্ডের ট্যাঙ্কগুলিতে পাঠানো হতো। তাতে জলের চাপ কমে যেত। তাই এবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আলাদা আলাদা পাইপ লাইন ভাগ করে ওয়ার্ডগুলিতে সরাসরি জল পাঠানো হবে। এর ফলে মানুষের জল সমস্যার অনেকটাই সমাধান হবে। পুরসভার চেয়ারম্যান উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায় বলেন, নতুন করে ৬ কোটি টাকার একটা ডিপিআর করা হয়েছে। অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে এই অর্থ বরাদ্দ করানো হয়েছে। সিউড়ি শহরের জল সমস্যা দূর করতে পুরসভা বদ্ধপরিকর। 
সিউড়ির দুই বাসিন্দা রাধামনি সামন্ত, ইন্দ্রনীল মণ্ডল বলেন, আমরা তো চাই শহরে পর্যাপ্ত জল মিলুক। বেশিরভাগ ওয়ার্ডে বিকেলের দিকে জল মেলে না। খুবই অসুবিধা হয়। পাশাপাশি বাইক, গাড়ি ধোয়ার জন্য একের পর এক দোকান গজিয়ে উঠেছে। সেখানে বিপুল পরিমাণ পানীয় জল নষ্ট হয়। এই দিকেও প্রশাসনের নজর দেওয়া উচিত।

24th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ