বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

নাগরিকত্ব নিয়ে বিজেপির রাজনীতি, পথে মতুয়ারা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কৃষ্ণনগর: নাগরিকত্ব আইন তৈরি হয়েছে আজ পাঁচ বছর হতে চলল। কিন্তু, সেই আইনের বাস্তবায়ন হয়নি। সারা বছর সেই আইনের বাস্তবায়ন নিয়ে কোনও উচ্চবাচ্চ করে না কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু, রাজ্যে ভোটে এলেই সিএএ ঝুলি বের করে আনা হয়। নাগরিকত্বের ‘গাজর’ দেখিয়ে ভোট আদায়ে মরিয়া হয় বিজেপি। ভোট পেরলেই আবার যে কে সেই। কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের এই নাগরিকত্বের রাজনীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে এবার পথে নামল মতুয়া ও আদিবাসী সংগঠনগুলি। বৃহস্পতিবার কৃষ্ণনগরে এই সংগঠনগুলি মিলিতভাবে বিশাল মিছিল করে। জেলাশাসক অফিসের সামনে জনসভাও করেন। জনসভা থেকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে, নিঃশর্ত নাগরিকত্ব প্রদানের দাবি জানানো হয়। মতুয়া ও আদিবাসী সম্প্রদায়ের ছ’টি সংগঠন এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়। 
হরিচাঁদ-গুরুচাঁদ ঠাকুরের ছবি গলায় ঝুলিয়ে এদিন প্রতিবাদ মিছিলে শামিল হন মতুয়া সম্প্রদায়ের বহু মানুষ। এছাড়াও পতাকা নিয়ে মিছিলে হাঁটেন আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষজন। কমবেশি প্রায় তিন হাজার মানুষ এই মিছিলে শামিল হন। তাঁদের হুঁশিয়ারি, নাগরিকত্ব নিয়ে রাজনীতি করা হলে আগামী দিনে কৃষ্ণনগরে আরও বড় প্রতিবাদ মিছিল করা হবে। পাঁচ বছর ধরে  সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের জীবন নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার রাজনীতি করছে বলে তাঁরা অভিযোগ করেন।
অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহা সঙ্ঘের নদীয়ার দক্ষিণ শাখার সাধারণ সম্পাদক নরেশচন্দ্র বিশ্বাস বলেন, নাগরিকত্ব নিয়ে আমাদের আশার আলো দেখানো হয়েছিল। কিন্তু, আজ পর্যন্ত তা দেওয়া হয়নি। প্রতিবাদ জানিয়ে আদিবাসী, মতুয়া সবাই আমরা অরাজনৈতিকভাবে সমবেত হয়েছি। কেন্দ্রীয় সরকার নাগরিকত্ব নিয়ে যে কথা বলছে, তা এখনও কার্যকর হয়নি। শুধু মুখেই নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু, বাস্তবে কিছুই হচ্ছে না। আমরা নিঃশর্ত নাগরিকত্ব চাই। তবে কোনও সম্প্রদায়কে বাদ দিয়ে নয়। আগামী দিনেও আমরা এই আন্দোলন চালিয়ে যাব।
প্রসঙ্গত, নদীয়া জেলায় মতুয়া ভোটের পাশাপাশি আদিবাসী ভোট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নদীয়া জেলার বিভিন্ন ব্লকে বহু আদিবাসী মানুষ বসবাস করেন। লোকসভা ভোটের আগে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তাঁদের এই সমাবেশ বিজেপির কাছেও অশনি সংকেত বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।
বিজেপির কৃষ্ণনগর সাংগঠনিক জেলার সহ সভাপতি সৈকত সরকার বলেন, মোদিজি যখন বলেছেন, তখন অবশ্যই সিএএ লাগু হবে। এনিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই। তৃণমূল অযথা নোংরা রাজনীতি করছে।
তৃণমূলের নদীয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার সভাপতি দেবাশিস গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, বিজেপি মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। মতুয়াদের ভুল বুঝিয়ে ভোট আদায় করেছে। আসন্ন ভোটেই মতুয়ারা এর জবাব দেবে। • নিজস্ব চিত্র

23rd     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ