বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

বিষ্ণুপুরের লালবাঁধে চালু দিদির হেঁশেল

সংবাদদাতা, বিষ্ণুপুর: সামনেই পর্যটনের মরশুম। তাই পর্যটকদের আপ্যায়নে তৈরি বিষ্ণুপুরের ঐতিহাসিক লালবাঁধ। খাওয়া-দাওয়ার ঢালাও আয়োজন—বাঙালি, চাইনিজ সহ দক্ষিণী থালি নিয়ে হাজির ৩০ জন স্বয়ংসিদ্ধা মহিলা। যেখানে খাওয়া-দাওয়া হবে সেটা ‘দিদির হেঁশেল’।
মঙ্গলবার বিষ্ণুপুর পুরসভার উদ্যোগে লালবাঁধে ‘দিদির হেঁশেল’ নামে তিনটি ক্যান্টিন চালু হল। ১ নম্বর ক্যান্টিনে মিলবে বাঙালি খাবার। ২ নম্বর ক্যান্টিনে চাইনিজ এবং ৩ নম্বর ক্যান্টিনে সাউথ ইণ্ডিয়ান। দায়িত্বে রয়েছেন ৩০ জন স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা।  খাবার তৈরি থেকে শুরু করে পরিবেশন—সবই করবেন তাঁরা। রাজ্য নগর জীবিকা মিশনের আর্থিক সহায়তায় তৈরি দিদির হেঁশেলের এদিন উদ্বোধন করেন বিষ্ণুপুরের মহকুমাশাসক অনুপকুমার দত্ত। উপস্থিত ছিলেন বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তন্ময় ঘোষ, পুরসভার চেয়ারম্যান গৌতম গোস্বামী প্রমুখ। 
মহকুমাশাসক বলেন, ঐতিহাসিক গুরুত্ব থাকলেও একটা সময় লালবাঁধ ঝোঁপঝাড়ে ভর্তি ছিল। পরবর্তীকালে পর্যটনের উন্নয়নে মুখ্যমন্ত্রীর ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে লালবাঁধে সৌন্দর্যায়ন ঘটানো হয়েছে। বাঁধের পাড়ে ঢালাই রাস্তা হয়েছে। পাড় বরাবর রেলিং বসানো হয়েছে। এবার পর্যটকদের খাবারের জন্য স্বনির্ভর গোষ্ঠী পরিচালিত তিনটি ক্যান্টিন তৈরি করা হয়েছে। সেখানে সুলভ মূল্যে বাঙালি, চাইনিজ ও সাউথ ইণ্ডিয়ান খাবার পাওয়া যাবে। 
পুরসভার চেয়ারম্যান বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায় পুরসভা প্রাঙ্গনে প্রথমে ‘দিদির হেঁশেল’ নামে একটি ক্যান্টিন চালু করা হয়। স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা তা পরিচালনা করেন। সুলভ মূল্যে সেখানে খাবার পাওয়া যায়। তাতে সাফল্য পাওয়ায় এবার লালবাঁধের পাড়ে আরও তিনটি ‘দিদির হেঁশেল’ চালুর পরিকল্পনা করা হয়। সেই মতো তিনটি পৃথক স্টল তৈরি করা হয়। এদিন সেগুলির উদ্বোধন করা হল। 
স্বনির্ভর গোষ্ঠীর এক সদস্যা মধুমিতা হালদার বলেন, পর্যটনের শহর বিষ্ণুপুর। আর লালবাঁধ তার অঙ্গ। এখানে প্রচুর পর্যটক বেড়াতে আসেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে তাঁরা আসেন। তাই আমরা বাঙালি, চাইনিজ ও সাউথ ইণ্ডিয়ান এই তিন ধরনের খাবারই রাখছি। আশা করি পর্যটকদেরকে সুলভ মূল্যে আমরা তাঁদের পছন্দের খাবার তুলে দিতে পারব। 
লালবাঁধের পাড়ে গিয়ে দেখা গেল, নির্দিষ্ট দূরত্ব অনুযায়ী তিনটি ‘দিদির হেঁশেল’। আদতে তিনটি ক্যান্টিন। মেনু তালিকা বেশ লম্বা। ১ নম্বর ক্যান্টিনে রয়েছে চা, কফি থেকে শুরু করে রুটি, সবজি, মাংস, পিঠে সহ নানা বাঙালি পদ। ২ নম্বর ক্যান্টিনে  চাউমিন, অমলেট, টোষ্ট, চিকেন পকোড়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন চাইনিজ খাবার। ৩ নম্বর ক্যান্টিনে রয়েছে ইডলি, ধোসা, দইবড়া, মালপোয়া, মোমো সহ দক্ষিণ ভারতে প্রচলিত নানা পদ।  দেশের যে প্রান্ত থেকেই পর্যটক আসুক, নিজেদের পছন্দের খাবার লালবাঁধে পেয়ে যাবেন।   নিজস্ব চিত্র

26th     September,   2023
 
 
অক্ষয় তৃতীয়া ১৪৩১
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ