কলকাতা

ফলাফলের অঙ্ক কষতে গিয়ে খাবি খাচ্ছে সবুজ ও গেরুয়া দুই শিবিরই

নিজস্ব প্রতিনিধি, চুঁচুড়া: হুগলি লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের নিরিখে অন্যতম নির্ণায়ক বিধানসভার নাম বলাগড়। আর ভোট পরবর্তী সমীক্ষায় সেই বলাগড়ই শাসক, বিরোধী উভয়ের কাছেই ধাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রকাশ্যে তৃণমূল কংগ্রেস বা বিজেপি নেতৃত্ব যাই দাবি করুক, অঙ্ক কষতে গিয়ে নিশ্চিত উত্তর দিতে পারছে না কেউই। অতীত থেকে বর্তমান, নানা রকম মানদণ্ডে বিচার চলছে। কিন্তু বলাগড় বিধানসভার জনমতের পূর্বানুমান করতে গিয়ে খেই হারাচ্ছেন গেরুয়া তো বটেই সবুজবাহিনীর ভোট ম্যানেজারাও। তবে বলাগড়ই নির্ণায়ক, এই তত্ত্বও মানতে নারাজ তৃণমূল এবং বিজেপি। যদিও দুই শিবিরের নেতারাই ঘুরে ফিরে খোঁজ নিচ্ছেন বলাগড়ের ফল কী হবে!
বলাগড়ের পোড়খাওয়া তৃণমূল নেতা শ্যামাপ্রসাদ রায় বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের অন্দরে তাঁকে বলাগড়ের ভোট রাজনীতির চলমান অভিধান বলা হয়। তিনি বলেন, ২০১৯ সালের পরিস্থিতি এবার ছিল না। বলাগড় এবার তৃণমূলকে লিড দেবে। অন্তত ১৫ হাজার ভোটে রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই বিধানসভা থেকে আমরা জিতিয়ে দেব। তবে তিনিও বলছেন, অনেকগুলি ফ্যাক্টর আছে বলেই বলাগড় একটি ধাঁধা হয়ে উঠেছে। বিজেপির রাজ্যনেতা স্বপন পাল বলেন, সন্দেহ নেই বলাগড়ে অনেকরকম সমীকরণ আছে। কিন্তু তারপরেও বলাগড় থেকে আমরাই লিড পাব।
রাজনৈতিক মহল বলছে, বলাগড় ধাঁধার অন্যতম বড় কারণ ২০১৯ সালে হুগলি লোকসভার মধ্যে বলাগড় থেকেই সবচেয়ে বেশি ভোটে তৃণমূল প্রার্থী হেরেছিলেন। সেবার প্রায় ৩৪ হাজার ভোটের ব্যবধানে বিজেপির লকেট চট্টোপাধ্যায় জিতেছিলেন। গত বিধানসভাতে তৃণমূল জয় পেলেও লিড ছিল মাত্র ছ’হাজারের কাছাকাছি। ফলে, আত্মবিশ্বাস আছে। কিন্তু তা ইস্পাতকঠিন, এমন দাবি করার লোক মেলা ভার। আবার, বিজেপির জন্য সঙ্কট তাঁদের প্রার্থী নিজেই। সাফল্যের বলাগড়ে গত পাঁচ বছরে সেভাবে সাংসদকে পাওয়া যায়নি। এমন অভিযোগ প্রতিটি মহল্লার। মূলত, হিন্দু বাঙালিদের বাস বলাগড়ে। কিন্তু তারপরেও বসতির মধ্যে ভিন্নতা আছে। সেই সব সমীকরণ ২০১৯ সালে মণিকাঞ্চণ যোগের মতো একত্র হয়েছিল বিজেপির পক্ষে। গেরুয়া শিবিরের অন্দরের মূল্যায়ন, এবার সব সমীকরণ মেলেনি। আবার মহিলা ভোটের একটি অঙ্ক ফসকে যাওয়ার তত্ত্বও দলীয় সমীক্ষায় উঠে আসছে। ফলে, ভরসা আছে কিন্তু ভয়ও কাজ করছে পদ্মপার্টির অন্দরে। রাজনৈতিক মহলের দাবি, বলাগড়ের বিপুল লিড হাতছাড়া হলে দ্বিতীয়বার হুগলিতে পদ্ম ফোটা কঠিন। তাৎপর্যপূর্ণ এই যে, বলাগড় ধাঁধার একটি সূত্র বামেদের ঘরেও আছে। বামেদের দাবি, তাদের ভোটব্যাঙ্ক এবার ঘরে ফিরবে। তা সত্যি হলে বিজেপির বাড়া ভাতে ছাই পড়া অসম্ভব নয়। পাশাপাশি তাতে ধাঁধাটাও সহজ হয়। কিন্তু বামেদের দাবির সেই পুরনো বিশ্বাসযোগ্যতা তলানিতে এসে ঠেকেছে। ফলে ধাঁধা থাকছেই। 
25d ago
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

মাতুলের থেকে বিত্তলাভ হতে পারে। কোনও বিষয়ের মানসিক উদ্বেগ কমবে। বিদ্যাচর্চায় বিশেষ শুভ।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৭৭ টাকা৮৪.৫১ টাকা
পাউন্ড১০৪.১৬ টাকা১০৭.৬৩ টাকা
ইউরো৮৮.০৭ টাকা৯১.১৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
22nd     June,   2024
দিন পঞ্জিকা