কলকাতা

সেনাকর্তার ভুয়ো পরিচয় দিয়ে যোগীরাজ্যে
প্রতারণা, টাকা ফেরাল সাইবার সেল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: চিৎপুরের পরিবহণ ব্যবসায়ী আবেদ খানের খোয়া যাওয়া লক্ষাধিক টাকা ফেরালেন নর্থ ডিভিশনের সাইবার সেলের গোয়েন্দারা। উত্তরপ্রদেশের কানপুর ক্যান্টনমেন্টে লরিতে করে কলকাতা থেকে পণ্য পাঠাতে গিয়ে এই অভিনব প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন চিৎপুরের করিম বক্স লেনের বাসিন্দা আবেদ খান। ঘটনাটি ঘটেছিল ২০২২ সালের ৭ ডিসেম্বর। লরিতে করে কানপুরের আর্মি ক্যান্টনমেন্টে পণ্য পাঠাতে গিয়ে বিপাকে পড়েন পরিবহণ ব্যবসায়ী আবেদ খান। সেনাবাহিনীর ইন-চার্জ পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি ওই পরিবহণ ব্যবসায়ীকে ফোন করে সিকিউরিটি মানি হিসেবে ১ লক্ষ ৮ হাজার টাকা পাঠাতে বলেন। না হলে তিনি পণ্য খালাস করতে দেবেন না। সরল বিশ্বাসে আবেদ খান ওই ব্যক্তিকে আর্মির ইনচার্জ ভেবে ফোন-পে’র মাধ্যমে ওই টাকা পাঠান। কিন্তু টাকা পাঠানোর পর তাঁর সন্দেহ হয়। তিনি চিৎপুর থানায় গিয়ে অভিযোগ জানান। যার ভিত্তিতে চিৎপুর থানা ভুয়ো পরিচয়ে প্রতারণা, বিশ্বাসভঙ্গ, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের মতো একাধিক জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করে।চিৎপুর থানা থেকে এই অভিযোগ পাঠানো হয় নর্থ ডিভিশনের সাইবার সেলের গোয়েন্দাদের হাতে। সেখানে গোয়েন্দা অফিসার প্রিয়াঙ্ক মণ্ডলের নেতৃত্বে তদন্ত শুরু হয়। চিৎপুর থানার এক সূত্র জানাচ্ছে, এতকাল আর্মি অফিসার পরিচয় দিয়ে এই কায়দায় প্রতারণা সাধারণত রাজস্থানের ভরতপুর গ্যাংয়ের দুষ্কৃতীরাই করত। এই মামলা সেই ধারণা ভেঙে দিয়েছে। তদন্তে নেমে সাইবার সেলের গোয়েন্দারা প্রথমে খোয়া যাওয়া টাকা ‘ব্লক’ করতে পারেন। এরপর আদালতের নির্দেশে সেই টাকা পুরোটাই ওই ব্যবসায়ীকে ফিরিয়ে দিয়েছেন। তবে এখনও টাকা আত্মসাতে জড়িত ভুয়ো আর্মি অফিসারকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি চিৎপুর থানার পুলিস।
12Months ago
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

সৃজনশীল কর্মে উন্নতি ও প্রশংসালাভ। অপ্রয়োজনীয় ব্যয় যোগ। আধ্যাত্মিক ভাবের বৃদ্ধি ও আত্মিক তৃপ্তি।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৭৭ টাকা৮৪.৫১ টাকা
পাউন্ড১০৪.১৬ টাকা১০৭.৬৩ টাকা
ইউরো৮৮.০৭ টাকা৯১.১৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা