বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বিভাজনকারীদের বিসর্জন দেওয়ার ডাক অভিষেকের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মেরুকরণের রাজনীতিতে বিশ্বাসী বিভাজনকারীদের বিসর্জন দেওয়ার ডাক দিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার সকালে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই রেড রোডের জমায়েতে মানুষকে ঈদের শুভেচ্ছা দিতে গিয়েছিলেন অভিষেক। মমতার পরে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতা রাখেন তিনি। আর তাতেই বিজেপির নাম না করেই দেশের মানুষের মধ্যে বিভেদ ছড়ানোর প্রতিবাদে সুর চড়ান তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড। তাঁর সাফ কথা, ‘যে বা যারা হিন্দু এবং মুসলমানের মধ্যে বিভাজন তৈরি করে, ভাই-ভাইয়ের মধ্যে লড়াই করাতে চায়, আগামী দিনে তাদের বিসর্জন হবেই। দেশে এবার পরিবর্তন হবে।’ অভিষেকের এদিনের গোটা বক্তৃতাতেই ছিল সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্বের বার্তা। প্রসঙ্গত, এর আগে একাধিকবার গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে রাজ্যে দাঙ্গা করানোর চেষ্টা করার অভিযোগ তুলেছে রাজ্যের শাসক দল। মানুষকে কোনও প্ররোচনায় পা না দেওয়ার আর্জি জানানো হয়েছে। শুধু রাজ্যই নয়, সারা দেশে সিএএ-এনআরসি’র আড়ালে মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির জোর চেষ্টা বিজেপি চালাচ্ছে বলেও সাধারণ মানুষকে সতর্ক করেছে তৃণমূল শিবির। 
সেই আবর্তেই, অভিষেকের প্রত্যয়ী বার্তা,  ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলার পরে আমার আর বেশি কিছু বলার নেই। শুধু যাঁরা ভাবছেন, ভাই-ভাইয়ের মধ্যে লড়াই লাগিয়ে সমাজে বিভাজন তৈরি করবেন, তাঁদের উদ্দ্যেশে দু’একটা কথা বলতে চাই।’ এরপর রাহাত ইন্দোরির উর্দু শায়েরির অংশ উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, ‘কিরায়াদার হ্যায় সাথি, মাকান থোরি হ্যায়, জো সরকার আপনে চুনী হ্যায় জনতা মালিক হ্যায়, সরকার কিরায়াদার হ্যায়।’ অর্থাৎ, যারা এই (কেন্দ্র) সরকার চালাচ্ছে, তারা ভাড়াটে।  আর মালিক আসলে জনগণ। জানবেন, আসন্ন নির্বাচনে জনতাই শেষ কথা বলবে। ভ্রাতৃত্বের বার্তা দিতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘যে চাঁদ দেখে ঈদ হয়, সেই চাঁদ দেখেই করওয়াচৌথও হয়। চাঁদের যেমন কোনও ধর্ম হয় না, একইভাবে যে জল আমরা পান করি, তারও কোনও ধর্ম হয় না। যে হাওয়ায় শ্বাস নিই, তারও কোন ধর্ম নেই।’ তাই মনে রাখতে হবে- ‘সব কা খুন হ্যায় ইস মিট্টি মে সামিল, হিন্দুস্তান কিসি কা বাপকা থোরিই হ্যায়!’ রেড রোডে উপস্থিত সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে অভিষেক বলেন, ‘আপনারা এক মাস ধরে উপবাস করেছেন। আজ ঈদ, শুভেচ্ছা রইল। পরিবার ও সকলের সঙ্গে আনন্দ করুন। আপনারা সবাই এক থাকুন । বাংলার মধ্যে যে ভ্রাতৃত্বের পরিবেশ আছে, তা যেন বজায় থাকে!’

12th     April,   2024
 
 
অক্ষয় তৃতীয়া ১৪৩১
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ