বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

জাতীয় সঙ্গীত অবমাননার অভিযোগ, বিজেপি বিধায়কদের বিরুদ্ধে এফআইআর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বুধবারের পর ফের বৃহস্পতিবার বিধানসভায় বিজেপি বিধায়কদের বিরুদ্ধে জাতীয় সঙ্গীত অবমাননার অভিযোগ উঠল। তৃণমূল বিধায়করা যখন জাতীয় সঙ্গীত গাইছিলেন, তখন বিজেপি বিধায়করা থালা-বাটি বাজিয়ে ‘চোর’ স্লোগান তুলছিল বলে অভিযোগ। পরিষদীয় মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় গোটা ঘটনা তুলে ধরে বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানান। বুধবারেও একই ঘটনা ঘটেছিল। যার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি বিধায়কদের বিরুদ্ধে জাতীয় সঙ্গীত অবমাননার অভিযোগ এনে হেয়ার স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন বিধানসভার সচিব সুকুমার রায়। অভিযোগ দায়ের হয়েছে এদিনও। সামগ্রিক ঘটনাটি পুলিসকে তদন্ত করে দেখতে বলেছেন অধ্যক্ষ। পাল্টা আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিজেপি। একইসঙ্গে তৃণমূল ও বিজেপির ‘চোর’ স্লোগানের তরজায় বৃহস্পতিবার তপ্ত ছিল বিধানসভা। 
এদিন বিকাল ৩টায় আম্বেদকর মূর্তির সামনে কেন্দ্রীয় বঞ্চনা ইস্যুতে ধর্নায় বসেন তৃণমূল বিধায়করা। কাঁসর-ঘণ্টা, থালা-চামচ বাজিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলেন তাঁরা। কিন্তু তৃণমূলের দিক থেকে আসা ‘চোর’ স্লোগান শুনে বিধানসভার গেটের সামনে থেকে ফিরে আসেন বিরোধী দলনেতা। বিজেপি বিধায়কদের নিয়ে বিরোধী দলনেতা গাড়ি বারান্দার সামনে বসে পড়েন। বাটি, খঞ্জনি বাজিয়ে ‘চোর’ স্লোগান তোলেন তাঁরাও। পাঁচটায় তৃণমূল কর্মসূচি শেষ করে। তৃণমূল বিধায়করা যখন জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করছিলেন, তখনও বিজেপির স্লোগান চলছিল। পরে রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, বিজেপি বিধায়করা দেশদ্রোহী। ওদের জেলে যাওয়া উচিত। যদিও বিজেপি বিধায়ক শঙ্কর ঘোষ পাল্টা দাবি করেন, তৃণমূল বিধায়কদের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন শুনতে পাইনি। 
তবে প্রথম দিনে ১১ জন, দ্বিতীয় দিনে সাতজন বিজেপি বিধায়কের নামে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এদিন বিধানসভায় এসেছিলেন কলকাতা পুলিসের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। কলকাতা পুলিস জানিয়েছে, এই কেসের তদন্তভার গ্রহণ করছে গোয়েন্দা পুলিস। ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরার ফুটেজও সংগ্রহ করা হচ্ছে। আইন মেনে তদন্ত প্রক্রিয়া চলবে বলে জানিয়েছেন কলকাতা পুলিসের ভারপ্রাপ্ত গোয়েন্দাপ্রধান সৈয়দ ওয়াকার রাজা।  বিরোধী দলনেতার বিরুদ্ধে কোনও মামলা রুজু করার ক্ষেত্রে রক্ষাকবচ রয়েছে হাইকোর্টের। লালবাজার জানিয়েছে, সে কারণেই বিধানসভায় সংশ্লিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করার আর্জি নিয়ে উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছে পুলিস। 
অভিযোগের তালিকায় বিধায়ক সুমন কাঞ্জিলালের নাম রয়েছে। তিনি বিজেপি ছেড়ে কিছুদিন আগে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। আবার বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়ের নাম রয়েছে। জাতীয় সঙ্গীত অবমাননার সময় তাঁরা বিধানসভায় ছিলেন কি না, তা পুলিসি তদন্তে উঠে আসবে বলে বিধানসভার অধ্যক্ষ জানিয়েছেন।

1st     December,   2023
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ