বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

গরম নিয়ে উদ্বেগ, প্রচারের মাঝেই সায়নীকে ভিডিও কল করলেন বাবা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নেই হুড খোলা জিপ। শুক্রবারের সকালে কাঠফাটা রোদে একেবারে পায়ে হেঁটে প্রচার চালালেন যাদবপুরের তৃণমূল প্রার্থী সায়নী ঘোষ। যাদবপুরের পালবাজার থেকে শুরু হয়ে মিছিল গিয়েছিল সন্তোষপুর বটতলায়। এমন তীব্র গরমে মেয়ে প্রচারে ব্যস্ত, বাড়িতে বাবার তো চিন্তা হয়। তাই মিছিলের পথেই ভিডিও কল এল বাবার। সায়নীও কথা বলে নিলেন। বললেন, প্রচারে আছি বাবা। ফিরে কথা বলছি। তখন রাস্তায় দাঁড়ানো এক মহিলা সায়নীর দিকে এগতে গিয়েও দাঁড়ালেন। প্রার্থী ফোন রেখে মহিলাকে বললেন, বাবা ফোন করেছিল।
এই এলাকা সায়নীর চেনা। হাঁটতে হাঁটতে দেখা হয়ে যাচ্ছে পরিচিত কারও সঙ্গে। দীর্ঘদিন বাদে দেখা, কুশল বিনিময়ও হচ্ছে। এদিনের পথে সায়নী একাধিকবার দাঁড়িয়ে মিনিটখানেকের জন্য পথসভাও করেছেন। এলাকাবাসীদের কাছে তাঁর বক্তব্য, আমি আপনাদের ঘরের মেয়ে উঠব। প্রচারের মাঝেই হঠাত্ দোতলা থেকে এক মহিলা সায়নীকে দেখে নামগান শুরু করে দিলেন। প্রার্থী সেই গান দাঁড়িয়ে শুনলেনও। সায়নীকে একবার দেখার জন্য অলি-গলি থেকে বড়রাস্তায় এসে দাঁড়িয়েছিলেন এলাকার বাসিন্দারা। আর তাঁদের কাছে সায়নীর অনুরোধ, একবার ভোট দিয়ে দেখুন। তবে অভিযোগও শুনতে হল যুবনেত্রীকে। এক মহিলা তাঁকে বললেন, মিমি চক্রবর্তীকে এলাকায় দেখতে পাইনি। আপনি ভোটে জিতলে আবার আসবেন তো? সায়নীর উত্তর, আমি আপনাদের ঘরের মেয়ে হয়ে উঠব। মিলিয়ে নেবেন। এদিন সায়নীর মিছিলে সঙ্গে ছিলেন যাদবপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক দেবব্রত মজুমদার। মিছিল শেষে তিনিও বক্তব্য রাখেন। 
সকালে যাদবপুরে মিছিলের পর বিকেলে সায়নী চলে যান সোনারপুর উত্তর বিধানসভা এলাকায়। সেখানে রাজপুর-সোনারপুর পুরসভার ৩৩ ও ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে দু’টি পথসভা করেন তিনি। ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের হনুমান মন্দিরে হনুমান চালিসাও পাঠ করলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন এলাকার বিধায়ক ফিরদৌসি বেগম।-নিজস্ব চিত্র

13th     April,   2024
 
 
অক্ষয় তৃতীয়া ১৪৩১
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ