বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

বারাসতের নবপল্লীতে শিবমন্দিরে পুজো। -নিজস্ব চিত্র

মাকে দাহ করে ফিরতেই অশান্তি, লিভ ইন সঙ্গীর হাতে খুন যুবক

নিজস্ব প্রতিনিধি, বরানগর: মাকে দাহ করে ফিরেছিলেন লিভ-ইন সঙ্গিনীর কাছে। কিন্তু সেই রাতটাও আর কাটল না ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কর্মী সার্থক দাসের। ‘পার্টনার’ সঙ্গতির হাতেই নৃশংসভাবে খুন হতে হল তাঁকে। ঘটনাটি দমদমের মধুগড়ের। খুনে যুক্ত থাকার অভিযোগে যুবকের সঙ্গিনী, পেশাদার মেকআপ আর্টিস্টকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। পুলিস জানিয়েছে, নিহত যুবকের নাম সার্থক দাস। উত্তর কলকাতার হাতিবাগান এলাকার বাসিন্দা বছর তিরিশের সার্থক মধুগড়ের একটি ভাড়ার ফ্ল্যাটে সঙ্গতি পাল ওরফে ডিম্পির সঙ্গে পরিবারের অমতেই বছরখানেক ধরে লিভ-ইন করছিলেন। ডিভোর্সি সঙ্গতির সঙ্গে থাকত তাঁর সাত বছরের ছেলেও। পুলিসের ওই সূত্রটি জানিয়েছে, শহরের বিভিন্ন নামী-দামি সংস্থার হয়ে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের কাজ করতেন সার্থক। পেশাদার ফটোগ্রাফার হিসেবেও পরিচিতি ছিল তাঁর। লিভ-ইনে থাকা এই পার্টনারের মধ্যে প্রায়শই ঝগড়া-বিবাদ লেগে থাকত বলে প্রতিবেশীদের সূত্রে জানা গিয়েছে। মঙ্গলবার রাতেও তাঁদের ফ্ল্যাট থেকে চিৎকার-চেঁচামেচির আওয়াজ শোনা গিয়েছিল। হাতিবাগানের একটি বড় দুর্গাপুজো কমিটির সদস্য সার্থকের পরিবার এলাকায় বেশ সম্ভ্রান্ত। তাঁর দাদা স্কুল শিক্ষক। 
পুলিস জানিয়েছে, নিজস্ব মেকআপ সংস্থা থাকার পাশাপাশি রেস্তরাঁ ব্যবসাতেও যুক্ত ছিলেন সঙ্গতি। তাঁর বাড়ি দক্ষিণ দমদম এলাকায়। কয়েক বছর আগে তাঁর বিয়ে হয়েছিল দক্ষিণেশ্বরের এক যুবকের সঙ্গে। ডিভোর্সি সঙ্গতি কাছাকাছি থাকলেও, বাবা-মা’র সঙ্গে তাঁর কোনও সম্পর্ক ছিল না। বছর তিনেক আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় সার্থকের সঙ্গে পরিচয় হয়েছিল সঙ্গতির। পুলিস জানিয়েছে, সোমবার রাতে সার্থকের মা প্রয়াত হন। নিমতলা শ্মশানে তাঁর দাহ সেরে মঙ্গলবার মধুগড়ের ফ্ল্যাটে ফেরেন সার্থক। রাতেই সঙ্গতির সঙ্গে বিবাদ হয় তাঁর। নিত্যদিনের ঝগড়া ভেবে খুব একটা মাথা ঘামাননি পড়শিরা। ভোর সাড়ে পাঁচটা নাগাদ পুলিস আসার পরে, গোটা ঘটনাটি জানতে পারেন তাঁরা। নাগেরবাজার থানার পুলিস জানিয়েছে, ভোর চারটে নাগাদ ১০০ ডায়াল করে ফ্ল্যাটে একটি ঘটনা ঘটেছে বলে জানান সঙ্গতি নিজেই। ফ্ল্যাটের ঠিকানা দিয়ে দ্রুত আসার আর্জি জানিয়ে ফোন কেটে দেন তিনি। পুলিস এসে দেখে, বহুতলের তৃতীয় তলার সিঁড়িতে পড়ে রয়েছে সার্থকের রক্তাক্ত দেহ। আর চারতলার ঘরে ছেলেকে নিয়ে বসেছিলেন সঙ্গতি। পুলিসের জিজ্ঞাসাবাদে ‘বহিরাগত দুষ্কৃতী’র হামলা সহ বিভিন্ন তথ্য খাড়া করে প্রথমে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চালান তিনি। পরে অবশ্য জেরার মুখে ভেঙে পড়েন। সঙ্গতি জানান, ধারালো ছুরি দিয়ে লাগাতার সার্থককে আঘাত করেছেন। একটা সময় দরজা খুলে পালানোর চেষ্টা করতে গিয়ে সিঁড়িতেই পড়ে যান সার্থক।

29th     February,   2024
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ