বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

বাজেয়াপ্ত হওয়া ৮০ হাজার
কেজি বাজি ডাম্পিং গ্রাউন্ডে
বিপদের শঙ্কায় ঘুম উড়েছে মহেশতলার

সংবাদদাতা, বজবজ ও উলুবেড়িয়া: আদতে ডাম্পিং গ্রাউন্ড। সেখানে পরে থাকে ময়লা। এখন তা পরিণত হয়েছে বাজি ও তার মশলার ঢিপিতে। চিত্রটা মহেশতলা ডাম্পিং গ্রাউন্ডের। এমন খোলা আকাশের নিচে বিস্ফোরকের স্তূপ কি আদৌ সুরক্ষিত? রাজ্যে একাধিক জায়গায় বাজি কারখানায় বিস্ফোরণের ঘটনার পর মহেশতলায় এই দৃশ্য দেখে আতঙ্কে কাঁপছে এলাকাবাসী। 
গত কয়েকদিনে মহেশতলা থানা এলাকার বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা বিপুল বাজি ও কাঁচামাল। উদ্ধারের পরিমাণ প্রায় ৮০ হাজার কেজি। বাজেয়াপ্ত কাঁচামালের মধ্যে রয়েছে পটাসিয়াম নাইট্রেট ও বেরিয়ামের মতো বিপজ্জনক উপকরণ। এই সব কাগজের পেটিতে করে মহেশতলা থানার চত্বরেই ছিল। তাতে থানায় বিস্ফোরণ সম্ভবনা প্রবল। এই আশঙ্কাতেই সমস্তটাই সরানো হয়েছে মহেশতলার ডাম্পিং গ্রাউন্ডে। কিন্ত সেখানেও কি নিরাপদ? প্রশ্ন উঠেছে তা নিয়েও। স্থানীয়দের কথায়, কারণ মহেশতলা পুরসভার ডাম্পিং গ্রাউন্ডে মাঝেমধ্যেই জঞ্জালের তলা থেকে মিথাইল গ্যাস বেরনোর জন্য অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সেখানেই বাজি ডাঁই করা হল কোন যুক্তিকে? তা নিয়ে তীব্র আতঙ্কে ভুগছেন সাধারণ মানুষ। প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবারও বজবজ, মহেশতলা, বারুইপুর সহ দক্ষিণ ২৪ পরগনার একাধিক জায়গা এবং হাওড়া, হগলি জেলাতেও বাজির তল্লাশি অভিযান চলে। হাওড়া ও হুগলি থেকে উদ্ধার হয়েছে প্রায় ১৮ হাজার কেজি বাজি। 
পুলিস সূত্রের খবর, বজবজ থানা এখনও পর্যন্ত ৭০ হাজার কেজি কাঁচামাল ও বাজি উদ্ধার করেছে। বজবজ থানার ভিতরেই তা রাখা ছিল। কয়েকদিন আগে বিস্ফোরক ভর্তি একটি ড্রামে আচমকাই আগুন ধরে যায়। তাতে তীব্র আতঙ্ক তৈরি হয়। তবে তা দ্রুত নিভিয়ে বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাওয়া গিয়েছে। তড়িঘড়ি এই বিশাল বাজি বজবজ থানা থেকে সরিয়ে গঙ্গার ধারে রাখা হয়েছে। বারুইপুর থানাতেও কয়েকদিন আগে এমন ঘটনা ঘটে। নোদাখালি থানা এখন পর্যন্ত সাড়ে চার হাজার কেজি মশলা সহ বাজি উদ্ধার করেছে। তবে থানা থেকে সতর্কতা হিসেবে একটু দূরে ফাঁকা মাঠে একটু ঘেরাটোপের ভিতর রাখা হয়েছে। 
পশ্চিমবঙ্গ আতসবাজি ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক শুকদেব নস্কর সরাসরি বলেন, এরকমভাবে বাজি রাখা ঠিক নয়। গরমের তাপে বা কোনওভাবে আগুনের ফুলকি থেকে ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণ হতে পারে। জেলা প্রশাসন ও পুলিসের দুই শীর্ষ কর্তা জানান, এই সব বাজি নষ্ট করার জন্য হলদিয়াতে ওয়েস্ট বেঙ্গল ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড বলে একটি সংস্থা আছে। এই বিস্ফোরক নষ্ট করার পরিকাঠামো আছে। সংশ্লিষ্ট সংস্থার সঙ্গে কথা চলছে। পাশাপাশি এব্যাপারে কোর্টের অর্ডার লাগে। 
অন্যদিকে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাশাপাশি, হাওড়া ও হুগলিতে প্রচুর পরিমাণে বাজি ও কাঁচামাল উদ্ধার করে পুলিস। গত কয়েকদিনে হাওড়া গ্রামীন জেলার জয়পুর, রাজাপুর, পাঁচলা, জগৎবল্লভপুরের বিভিন্ন জায়গা থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল পরিমানে নিষিদ্ধ বাজি। সেইরকম বুধবার রাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে হাওড়া গ্রামীণ জেলা পুলিস পাঁচলা থানার শেখ বাপির বাড়িতে তল্লাশি চালায়। হাওড়া গ্রামীণ জেলা পুলিস সূত্রে খবর এদিনের অভিযানে ১৬ হাজার ২০০ কেজি বিভিন্ন নিষিদ্ধ বাজি উদ্ধার করা হয়েছে। এদিকে, বৃহস্পতিবার চুঁচুড়ার কাপাসডাঙ্গার একটি বাড়ির থেকে উদ্ধার হয় দু’হাজার কেজি বাজি ও ২০০ কেজি কাঁচামাল। পুলিস জানতে পেরেছে বাপ্পাদিত্য নাথ নামে এক কারখানার মালিক সহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। 
পাঁচলার একটি বাজির গুদামে পুলিসি অভিযান। -নিজস্ব চিত্র

26th     May,   2023
 
 
অক্ষয় তৃতীয়া ১৪৩১
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ