রাজ্য

আবাস দিয়েছি: মোদি

সুমন তেওয়ারি,পুরুলিয়া: ‘মোদি সবাইকে নিজের প্রকল্পের সুবিধা পৌঁছে দিয়েছে। পাকা ঘর সবাই পেয়েছে। কোনও ভেদাভেদ করিনি।’ এই মন্তব্য স্বয়ং নরেন্দ্র মোদির। আর সেটাও বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়ে। রবিবার পুরুলিয়ার মঞ্চ থেকে তিনি যখন এ কথা বলছেন, তখন এই পশ্চিমবঙ্গেরই ১১ লক্ষ পরিবার মাথার উপর ছাদের আশায় দিন গুনছে। কেন? নরেন্দ্র মোদির সরকার তাদের পাকা ঘর তৈরির টাকা আটকে দিয়েছে। রাজ্য সরকার বারবার দরবার করেছে, কেন্দ্রীয় টিম এসে অভিযোগ খতিয়ে দেখে কিছুরই সারবত্তা পায়নি, কিন্তু এত কিছু সত্ত্বেও প্রাপ্য পায়নি বাংলা। তারপরও অবশ্য প্রধানমন্ত্রী সেই বঞ্চিত মানুষদের সামনে দাঁড়িয়েই বিভেদ না করার বার্তা দিয়েছেন! শুধু তাই নয়, হিন্দু-মুসলিমে ভেদাভেদ তিনি করেন না বলেও বার্তা দিয়েছেন তিনি। এমন মন্তব্য অবশ্য গত কয়েদিন ধরেই করে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী। আর তারপরই দাবি করেছেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেস দলিত আদিবাসীদের সংরক্ষণ কেড়ে নিতে চাইছে। ধর্মীয় সংরক্ষণ চালু করতে চাইছে। কংগ্রেস কর্ণাটকে ওবিসির সংরক্ষণ মুসলিমদের দিয়ে দিয়েছে।’ তৃণমূলের কটাক্ষ, এই বক্তব্য কি সাম্প্রদায়িক বৈষম্যমূলক নয়? তাহলে মেরুকরণ কাকে বলে?
রবিবার নির্ধারিত সময়ের প্রায় তিন ঘণ্টা পর সভাস্থলে আসেন মোদি। আর এসেই দাবি করেন, তিনি যেন ভোটটা জিতেই গিয়েছেন। বলেন, ‘দিল্লির এসি ঘরে বসে হিসেব কষার দরকার নেই। ৪ জুন কী হচ্ছে এই জনসভা থেকে স্পষ্ট।’ তাঁর কথায়, ‘ইন্ডি জোট সংবিধান শেষ করতে চাইছে। অনুপ্রবেশকে উৎসাহ দিয়ে সিএএ’র বিরোধিতা করছে।’ এরপরই শুরু করেন তৃণমূলকে আক্রমণ। বলেন, ‘টিএমসি এখন মা-মাটি-মানুষকে ভক্ষণ করছে। সন্দেশখালির মেয়েদের চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলছে।’ মোদির তোপ, ‘শিক্ষা দুর্নীতির জন্য চাকরি পাওয়ার টাকা জোগাড় করতে যুবসমাজ ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। গ্রামের স্কুলের শিক্ষক নেই, ভবিষ্যৎ চুরি হয়েছে। তৃণমূল ও কংগ্রেস এক্ষেত্রে একই থালার অংশ। ৪ জুনের পর নতুন সরকার গঠন হলে দুর্নীতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ আরও তীব্র হবে। ওঁদের জীবন কাটাতে হবে জেলে।’
তবে মোদি এদিন বারবার প্রমাণ করতে চেয়েছেন, বৈষম্য তিনি করেননি। বলেছেন, ‘টয়লেট বা গ্যাসের সংযোগ সবাই পেয়েছে। বৈষম্য করিনি। মোদি সবাইকে রেশন দিয়েছে। ব্যাঙ্কের খাতা খুলতে মোদি কোনও বৈষম্য করেছে?’ অথচ, সম্প্রতি উজ্জ্বলা যোজনার সংযোগ দেওয়ার জন্য দেশজুড়ে ‘অভিযান’ চালিয়েছিল কেন্দ্র। সেক্ষেত্রে কিন্তু বাংলা সুযোগ পায়নি। রেশন দিয়েছেন, কিন্তু রাজ্যকে সাফ বলা হয়েছে, দোকানে ও ব্যাগে মোদির ছবি ব্যবহার করতে হবে। অর্থাৎ, রাজ্য সরকারের অংশ বেমালুম চেপে দেওয়ার উদ্যোগ। আর জনধন অ্যাকাউন্ট? মূল্যবৃদ্ধি ও বেকারত্বের জ্বালায় যে আম জনতা ভুগছে, তাঁদের অ্যাকাউন্টে টাকা আছে তো? এই প্রশ্ন কিন্তু করছে বিরোধীরা। 
1Month ago
কলকাতা
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

উচ্চশিক্ষায় নামী স্বদেশি/ বিদেশি প্রতিষ্ঠানে সুযোগ পেতে পারেন। স্ত্রীর স্বাস্থ্য বিষয়ে চিন্তা। কর্মে অগ্রগতি।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার ৮২.৫৬ টাকা৮৪.৩০ টাকা
পাউন্ড১০৪.৩৩ টাকা১০৭.৮১ টাকা
ইউরো৮৮.০৪ টাকা৯১.১৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা