রাজ্য

রেশন স্লিপ নিয়ে এবার কেন্দ্র-রাজ্য নয়া সংঘাত

কৌশিক ঘোষ, কলকাতা: আর্থিক বঞ্চনা, রাজনৈতিক স্বার্থে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ব্যবহার সহ  বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্র-রাজ্য ঠোকাঠুকি লেগেই রয়েছে। এবার রেশন গ্রাহকদের স্লিপে কী লেখা থাকবে, তা নিয়েও তৈরি হল সংঘাত। রেশন গ্রাহকদের স্লিপে প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনার (পিএমজিকেওয়াই) নাম ও লোগো রাখতে চাইছে কেন্দ্র। পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশা ছাড়া দেশের বাকি রাজ্যে  ইতিমধ্যে এই ব্যবস্থা চালু হয়েছে। কেন্দ্র তাই দুই রাজ্যকে এই নিয়ম চালুর জন্য রীতিমতো চাপ দিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ সরকার পাল্টা প্রস্তাব দিয়েছে কেন্দ্রকে। তারা বলেছে, স্লিপে কেন্দ্রের প্রকল্পের নাম ও লোগো থাকলে রাজ্য সরকারের নিজস্ব লোগো এবং ‘খাদ্যসাথী’ প্রকল্পের নামও রাখতে হবে। প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে কেন্দ্রের কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও না জানা গেলেও এই ইস্যুতে দুই সরকারের চাপানউতোর নতুন মাত্রা পেতে পারে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। 
গত জানুয়ারি থেকে জাতীয় খাদ্য সুরক্ষার (এনএফএসএ) আওতাধীন রেশন গ্রাহকদের পিএমজিকেওয়াই প্রকল্পে বিনা পয়সায় খাদ্যশস্য সরবরাহ শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। তারা জানিয়েছে, কেন্দ্রের সৌজন্যেই যে এভাবে বিনা পয়সায় রেশন মিলছে, তা গ্রাহকদের স্লিপে উল্লেখ করতে হবে। সেই সঙ্গে লিখতে হবে কেন্দ্রের দেওয়া ভর্তুকির পরিমাণও। এখানেই আপত্তি রাজ্য সরকারের। খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ জানিয়েছেন, জাতীয় প্রকল্পের গ্রাহকদের কেন্দ্র বিনা পয়সায় খাদ্য সরবরাহ করলেও রাজ্যের মধ্যে পরিবহণ খরচ এবং ডিলার-ডিস্ট্রিবিউটরদের কমিশনের অর্ধেক টাকা রাজ্য সরকারকেই দিতে হয়। স্লিপে কেন্দ্রীয় সরকারের ভর্তুকির উল্লেখ থাকলে এই খাতে রাজ্য সরকারের যে খরচ হচ্ছে, তাও জানাতে হবে। দিল্লিকে বিষয়টি ইতিমধ্যে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, রেশন গ্রাহকদের স্লিপে বিশ্ববাংলার লোগো রাখতে চাইছে খাদ্যদপ্তর। রাজ্য সরকারের খাদ্যসাথী প্রকল্পেরও নিজস্ব লোগো রয়েছে। সেটিও রাখা হতে পারে। 
মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে এনএফএসএ এবং রাজ্য খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্পের (আরকেএসওয়াই) আওতায় মোট ৮ কোটি ৮০ লক্ষ রেশন গ্রাহক বিনা পয়সায় চাল-গম পান। এর মধ্যে জাতীয় প্রকল্পের আওতায় আছেন ৬ কোটি ২ লক্ষ গ্রাহক। আরকেএসওয়াই গ্রাহকদের বিনা পয়সায় রেশন দেওয়ার ক্ষেত্রে পুরো ভর্তুকি রাজ্যই বহন করে। প্রসঙ্গত, গত বছর পর্যন্ত জাতীয় প্রকল্পের গ্রাহকদের জন্য ৩ টাকা কেজি দরে চাল ও ২ টাকা কেজি দরে গম সরবরাহ করত কেন্দ্র। পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাতে অতিরিক্ত ভর্তুকি যোগ করে গ্রাহকদের বিনা পয়সায় সেই সামগ্রী তুলে দিত। এই ব্যবস্থা দেশের মধ্যে একমাত্র এ রাজ্যেই ছিল।
9Months ago
কলকাতা
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

মাতুলের থেকে বিত্তলাভ হতে পারে। কোনও বিষয়ের মানসিক উদ্বেগ কমবে। বিদ্যাচর্চায় বিশেষ শুভ।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৬৬ টাকা৮৪.৪০ টাকা
পাউন্ড১০৩.৮৯ টাকা১০৭.৩৫ টাকা
ইউরো৮৭.৭৬ টাকা৯০.৮৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
25th     June,   2024
দিন পঞ্জিকা