বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বর্ষবরণ। অ্যাকাডেমি অব ফাইন আর্টসের সামনে অতূণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের তোলা ছবি। 

মন্ত্রী হবেন? বিধায়ক হুমায়ুনকে টোপ, লক্ষাধিক টাকার প্রতারণা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বহরমপুর: মুর্শিদাবাদের রাজনীতিতে হুমায়ুন কবীর কোনও নতুন নাম নয়! কখনও কংগ্রেস, কখনও তৃণমূল, কখনও আবার স্রেফ ‘বিক্ষুব্ধ’ হয়েই সংবাদ শিরোনামে এসেছেন ভরতপুরের বিধায়ক। তবে এবার তিনি আলোচনার কেন্দ্রে উঠে এলেন প্রতারিত হয়ে! মন্ত্রিত্ব পাওয়ার ‘টোপ’ গিলে খোয়ালেন লক্ষাধিক টাকা। প্রতারণায় অভিযুক্ত যুবককে অবশ্য গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। ধৃতের নাম অঞ্জন সরকার। শক্তিপুর থানার পুলিস শনিবার উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামে বাড়ি থেকে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, নির্বাচনী পরামর্শদাতা সংস্থা আইপ্যাকের নাম ভাঙিয়ে বিধায়ককে ফাঁদে ফেলেছিল ওই যুবক। মন্ত্রী হওয়ার আশায় তিন দফায় মোট ১ লক্ষ ১১ হাজার টাকা দেন রাজনীতিতে পোড় খাওয়া হুমায়ুন। প্রতারক আরও টাকা চাইতেই তাঁর সন্দেহ হয়।
ভরতপুরের বিধায়ক হলেও হুমায়ুন থাকেন শক্তিপুর থানা এলাকায়। শনিবার সকালে তিনি সেখানকার পুলিসকে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন। মোবাইল নেটওয়ার্কের অবস্থান দেখে এদিনই অভিযুক্তকে পাকড়াও করে পুলিস। মুর্শিদাবাদের অতিরিক্ত পুলিস সুপার (সদর) মাজিদ ইকবাল খান বলেন, ‘বিধায়কের হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে বারবার কল করে আইপ্যাকের নামে টাকা চাওয়া হচ্ছিল। আমরা অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছি। ধৃতকে সাতদিনের পুলিস হেফাজত দিয়েছে বহরমপুর আদালত।’ পুলিস সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, আইপ্যাকের পশ্চিমবঙ্গ ইনচার্জ প্রতীক জৈনের নাম করে বিধায়ককে টোপ দিত অঞ্জন। হুমায়ুনকে সে বলেছিল, ১০ লক্ষ টাকা দিলেই মন্ত্রিত্ব ‘কনফার্ম’। এমনকী, রাজ্যের প্রথম সারির কয়েকজন মন্ত্রীর নাম নিয়েও হুমায়ুনকে আশ্বস্ত করে সে। প্রথম ফোনটি সে করেছিল বছরখানেক আগে। দু’দফায় তাঁকে যথাক্রমে ৫৬ হাজার ও ৩০ হাজার টাকা তুলে দেন হুমায়ুন। গত বৃহস্পতিবার ফোন করে আরও ১০ লক্ষ টাকা চাওয়া হয়। সেই নম্বর ব্লক করে দিলেও অন্য নম্বর থেকে ফোন করে টাকা চাওয়া চলতে থাকে বলে অভিযোগ। শেষমেষ দেড় লক্ষ টাকা চেয়ে বিধায়ককে বলা হয়, বাকি টাকা মন্ত্রিসভার নয়া তালিকা ঘোষণার পর দিলেও হবে। বিধায়ক তখন ২৫ হাজার টাকা ফোন পে’র মাধ্যমে ট্রান্সফার করেন। তারপরও লাগাতার ফোন আসতে থাকায় পুলিসের দ্বারস্থ হন তিনি। 
আইপ্যাকের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, অভিযুক্তের সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই। তারা বিধায়কের সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই যুবকের সঙ্গে কথোপকথনের অডিও ক্লিপ পুলিসকে তুলে দেয়। হুমায়ুন বলেন, ‘আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে আগেও দু’বার টাকা নিয়েছে। বারবার বলছে, আমাকে মন্ত্রী করে দেবে। ও দেড় লক্ষ চাইছিল। যাতে আর বিরক্ত না করে, তাই আমি ২৫ হাজার টাকা দিয়েছি। তারপরেও লাগাতার ফোন আসতে থাকায় পুলিসে অভিযোগ জানাতে বাধ্য হলাম।’ 

25th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ