বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বর্ষবরণ। অ্যাকাডেমি অব ফাইন আর্টসের সামনে অতূণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের তোলা ছবি। 

রাজ্যের ‘দুর্বল’ ২২ আসনের প্রার্থী নিয়ে টানাপোড়েন বিজেপি শিবিরে

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: রাজ্যের ২২টি ‘দুর্বল’ লোকসভা আসনে বিজেপির প্রার্থী বাছাই নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল টানাপোড়েন। সূত্রের খবর, ২৯ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিটির বৈঠকে বসতে চলেছে বিজেপি। তারপরেই প্রথম দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করবে দল। প্রথম দফায় কমবেশি ১০০টি আসনে প্রার্থী ঘোষণা হতে পারে। প্রকাশ করা হবে নরেন্দ্র মোদি এবং অমিত শাহের আসনও। প্রথম দফার ওই ১০০টি আসনের মধ্যেই বাংলার ‘দুর্বল’ কেন্দ্রগুলির অধিকাংশতেই প্রার্থী ঘোষণার সম্ভাবনা রয়েছে। আর তা স্থির করতেই একপ্রকার নাজেহাল হয়ে পড়েছে বঙ্গ বিজেপি। ২০১৯ সালের নির্বাচনে বাংলায় ১৮টি লোকসভা আসনে জিতেছিল বিজেপি। যে ২৪টিতে তারা জেতেনি, তার মধ্যে ২২টিই হারতে হয়েছে তৃণমূলের কাছে। এবারের লোকসভা নির্বাচনে তাই নির্দিষ্ট করে ওই ২২টি আসনের উপরই সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে বিজেপি। শনিবার দিনভর বিজেপির বিভিন্ন রাজ্যের লোকসভা পর্যবেক্ষক এবং সহ-পর্যবেক্ষকদের নিয়ে বৈঠক করেন নাড্ডা। সেখানে তিনি জানান, যাঁরা টিকিট পাবেন না, তাঁদের অসন্তোষ সামলাতে হবে দায়িত্বপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক, সহ পর্যবেক্ষকদের। গোষ্ঠী কোন্দলের সম্ভাবনা নিয়ে বাংলার দায়িত্বপ্রাপ্তদের সচেতন থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
শনিবার দিল্লিতে বৈঠকে হাজির ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা সুনীল বনসল, মঙ্গল পান্ডে, আশা লাকরা এবং অমিত মালব্য। বঙ্গ বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) অমিতাভ চক্রবর্তী ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) সতীশ ধন্দও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বিরোধী দলনেতাও হাজির ছিলেন বলে বিজেপি সূত্রের দাবি। বাংলায় দুর্বল লোকসভা আসনে বাজিমাত করতে নির্বাচনী চমকের কথাও চিন্তাভাবনা করছে বিজেপি। দুর্বল কেন্দ্রগুলির বেশ কয়েকটিতে তারকা-প্রার্থী দাঁড় করানো যায় কি না, তা নিয়েও শুরু হয়েছে চর্চা। 
বাংলার পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, ছত্তিশগড়ের দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গেও চলে বৈঠক। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ছিলেন বৈঠকে। সূত্রের খবর, উত্তরপ্রদেশে হেমা মালিনী, সন্তোষকুমার গঙ্গোয়ার, বরুণ গান্ধী, মানেকা গান্ধীর টিকিট এবার অনিশ্চিত। কারণ স্থানীয় নেতৃত্বই চাইছে না। সদ্য এনডিএতে যোগ দেওয়া আরএলডির জয়ন্ত চৌধুরী চেয়েছেন মথুরা আসন। যেকারণে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছে বিজেপি। চিন্তা রয়েছে দাক্ষিণাত্য নিয়েও। দক্ষিণের ১৩০টির মধ্যে ১০১টি আসনেই বিজেপির সংগঠন প্রায় নেই। বিজেপির জন্য কয়েকটি আসন ফাঁকা রেখে এদিনই তড়িঘড়ি প্রথম দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দিয়েছে তেলুগু দেশম ও জন সেনা পার্টি। টিডিপি সুপ্রিমো চন্দ্রবাবু স্পষ্টই জানিয়েছেন, বিজেপির জন্য অপেক্ষা করা হচ্ছে। কিন্তু বেশিদিন সেই অপেক্ষা সম্ভব নয়। ফলে চাপে গেরুয়া শিবির। তবে তামিলনাড়ু এবং কেরল বিজেপিকে সামান্য আশার আলো দেখাচ্ছে। যদিও সবমিলিয়ে দেশের দাক্ষিণাত্য এবং পূর্বাঞ্চলে সংগঠন শক্তপোক্ত করতে না পারলে বিজেপির একার পক্ষে ৩৭০টি আসনের গণ্ডি পেরনো মুশকিল।

25th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ