বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

নববর্ষের প্রস্তুতি। শুক্রবার কুমোরটুলিতে তোলা নিজস্ব চিত্র।

ভোট-নির্ঘণ্ট পুনর্বিবেচনা চায় হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘোষণার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ভোট-নির্ঘণ্ট বদলের সম্ভাবনা চরমে! সৌজন্যে কলকাতা হাইকোর্ট। প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ প্রাথমিকভাবে মনে করছে, মনোনয়ন দাখিলের জন্য যে সময় দেওয়া হয়েছে, তা পর্যাপ্ত নয়। সময়সীমা বৃদ্ধি করা উচিত। এবিষয়ে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের জবাব তলব করা হয়েছে। তবে পঞ্চায়েত ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহার করা হবে কি না, সেব্যাপারে রাজ্যের কোর্টেই বল ঠেলেছে উচ্চ আদালত। আগামী সোমবার আদালতকে বিষয়টি জানাতে হবে। 
বৃহস্পতিবার পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছিলেন রাজ্যের নয়া নির্বাচন কমিশনার রাজীব সিনহা। ভোটের বিজ্ঞপ্তি জারি হয় শুক্রবার সকালেই। আর তার কয়েক মিনিটের মধ্যে মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় বৃদ্ধি, কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন সহ মোট পাঁচ দফা দাবিতে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়ে কংগ্রেস ও বিজেপি। দু’পক্ষই একযোগে জরুরি ভিত্তিতে শুনানির আবেদন জানায়। প্রধান বিচারপতি টি এস শিবজ্ঞানম ও বিচারপতি হিরণ্ময় ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চে শুরু হয় মামলা। দ্বিতীয়ার্ধে তার শুনানিতে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে মনোনয়নে দাখিলার জন্য কম সময় দেওয়া হয়েছে। সময়সীমা বাড়ানো উচিত। তাছাড়া জেলাশাসক বা কমিশনের অফিসে মনোনয়ন জমা দেওয়ার যে দাবি জানানো হয়েছে, সেই ব্যবস্থা করা যায় কি না তা কমিশনকে দেখতে হবে।’ পাশাপাশি আদালত এও জানিয়ে দেয়, স্বচ্ছ নির্বাচনের স্বার্থে মনোনয়ন জমা থেকে ভোটগ্রহণ ও গণনা পর্যন্ত গোটা প্রক্রিয়ার ভিডিওগ্রাফি হওয়া উচিত। অনলাইনে মনোনয়নের পক্ষেও সওয়াল করেন প্রধান বিচারপতি। বলেন, ‘প্রযুক্তি ব্যবহারে অ্যালার্জি থাকা উচিত নয়। অনলাইনে মনোনয়ন হলে আখেরে লাভ কমিশনেরই।’
কমিশনের আইনজীবী জানিয়েছেন, সোমবার এব্যাপারে তাঁদের তরফে বক্তব্য জানানো হবে। যদিও এদিন রাজ্য নির্বাচন কমিশনার রাজীব সিনহা জানিয়েছেন, ‘মনোনয়ন পর্ব শুরু হয়েছে। আইনে সম্ভব হলে সময় বৃদ্ধি করা হবে।’ পঞ্চায়েত নির্বাচন আইনের ৪৩(১) নম্বর ধারা অনুযায়ী, মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ থেকে ২১ দিনের মধ্যে ভোটগ্রহণ বাধ্যতামূলক। সেক্ষেত্রে আইন অনুযায়ী কমিশনের কাছে মনোনয়ন জমার সময় আরও দু’দিন বৃদ্ধির সংস্থান রয়েছে। নতুবা ভোটের দিনক্ষণে বদল আনতে হবে। 
পঞ্চায়েত নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহারের বিষয়টি নিয়ে রাজ্যের উপর সিদ্ধান্ত ছেড়েছে হাইকোর্ট। আগামী সোমবার তা নিয়ে আদালতে রিপোর্ট জমা দিতে হবে রাজ্যকে। পাশাপাশি চুক্তিভিত্তিক কর্মী ও সিভিক ভলান্টিয়ারদের ভোটে ব্যবহার করার ক্ষেত্রে আইন মানতে হবে বলেও জানিয়েছে হাইকোর্ট। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় বাহিনী নয়, রাজ্য পুলিস দিয়েই ভোট হবে। রাজ্য পুলিসে ডিএসপি থেকে কনস্টেবল পদে রয়েছে মোট প্রায় সাড়ে ৭৭ হাজার কর্মী। এছাড়া আছে কলকাতা পুলিসের প্রায় ৩০ হাজার পুলিস কর্মী। পাশাপাশি ভিন রাজ্য থেকে পুলিস আনতে ইতিমধ্যেই বিহার, ওড়িশা এবং ঝাড়খণ্ডের মতো পড়শি রাজ্যগুলিকে চিঠি দিয়েছে নবান্ন। পঞ্চায়েত নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত রাজ্য পুলিস কর্মীদের ছুটি বাতিলের নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।  
এদিন স্বরাষ্ট্র সচিব ও রাজ্য পুলিসের ডিজি-র সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল কমিশন। সেখানে ভোট নিরাপত্তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। পরে তঁারা মুখ্যসচিবের সঙ্গেও বৈঠক করেন। প্রাথমিকভাবে স্থির হয়েছে প্রতি বুথে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন রাখা হবে। প্রয়োজনে রাজ্যের সমস্ত বুথকে স্পর্শকাতর ধরে নির্বাচনের পথে হাঁটবে কমিশন। পাশাপাশি সব বুথে সিসি ক্যামেরা বা ভিডিওগ্রাফির ব্যবস্থা রাখার কথাও ভাবা হচ্ছে।

10th     June,   2023
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ