বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

ক্যাম্প করে ইডব্লুএস শংসাপত্র প্রদান মেয়র গৌতমের, ভোটের মুখে উচ্ছ্বসিত ভূমিহীনরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: এবার জমির অধিকার পাবেন আরও ১০৪০ জন ভূমিহীন। তাঁরা শিলিগুড়ি শহরের ৪৭টি ওয়ার্ডে বসবাস করেন। তাঁরা অর্থনৈতিক ভাবে দুর্বল শ্রেণিভুক্ত। শুধু জমি নয়, তাঁরা নিজ ভূমি নিজ গৃহ প্রকল্পে বাড়িও পাবেন। এজন্য সোমবার ক্যাম্প করে তাঁদের হাতে অর্থনৈতিক দুর্বল শ্রেণির (ইডব্লুএস) শংসাপত্র প্রদান করেন মেয়র গৌতম দেব। লোকসভা ভোটের মুখে এ নিয়ে উচ্ছ্বসিত ভূমিহীনরা। তাঁরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের পাশে থাকার বার্তা দেন। 
শহরে গরিব ও ভূমিহীনদের জমির পাট্টা দেওয়ার দাবি বহুদিনের। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সেই দাবি পূরণে এবার তৎপর হয়েছে শিলিগুড়ি পুরসভা। তারা ইতিমধ্যে ভূমিহীন দরিদ্র নাগরিকদের নামের তালিকা প্রস্তুত করেছে। মেয়র বলেন, পুরসভার ক্ষমতায় আসার পরই আমরা ভূমিহীনদের জমির পাট্টা দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করি। ইতিমধ্যে বেশকিছু নাগরিককে জমির অধিকার দেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে নিজ ভূমি নিজ গৃহ প্রকল্পে আরও বেশকিছু নাগরিককে জমির অধিকার দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য এদিন আবদেনকারীদেরকে ইডব্লুএস শংসাপত্র প্রদান করা হয়েছে। এরপর তাঁদেরকে জমির পাট্টা বা লিজ ডিড প্রদান করা হবে। 
ভৌগোলিক কারণে শিলিগুড়ি শহরের একাংশ জলপাইগুড়ি জেলার রাজগঞ্জ ব্লক ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের অধীনে। আবার কিছু অংশ শিলিগুড়ি মহকুমা এবং মাটিগাড়া ব্লক ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের অধীনে। সম্প্রতি সংশ্লিষ্ট তিন দপ্তরের সঙ্গে বৈঠক করে পুরসভা প্রায় ১০৪০ জন ভূমিহীনের তালিকা প্রস্তুত করেছে। লোকসভা ভোটের মুখে এদিন ক্যাম্প করে সংশ্লিষ্ট নাগরিকদের হাতে ইডব্লএসের শংসাপত্র তুলে দেওয়া হয়। বাঘাযতীন পার্কের রবীন্দ্র মঞ্চে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ক্যাম্প চলে। মেয়র ছাড়াও ক্যাম্পে ডেপুটি মেয়র রঞ্জন সরকার, পুরসভার চেয়ারম্যান প্রতুল চক্রবর্তী সহ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। 
এদিন শংসাপত্র পেয়ে উচ্ছ্বসিত নাগরিকদের কেউ কেউ বলেন, সিএএ, এনআরসি নিয়ে মাঝেমধ্যেই জিগির তোলে বিজেপি শাসিত কেন্দ্রীয় সরকার। যার জেরে রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছে। এবার মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে মেয়রের তৎপরতায় জমির অধিকার পেতে চলেছে। এখন কিছুটা হলেও নিশ্চিন্তে ঘুমতে পারব। আবার কেউ কেউ বলেন, দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে বসবাস করলেও জমির পাট্টা পাইনি। বহুবার দাবি জানানোর পর পুরসভা এবার সেই অধিকার দিতে চলেছে। সকলেরই বক্তব্য, জমির পাশাপাশি ঘরও তৈরি করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে পুরসভা। তাই বাংলার সরকারের এই পদক্ষেপে আমরা খুশি। সর্বদা ‘দিদির’ সরকারের পাশে আছি। 
প্রশাসন সূত্রের খবর, রাজগঞ্জ ব্লক ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের অধীনে থাকা পাঁচটি ওয়ার্ডে ভূমিহীনের সংখ্যা সর্বাধিক, ৯৪৮। যারমধ্যে ২ নম্বর ওয়ার্ডের বাঘাযতীন কলোনিতে ২৮৫, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সাউথ বাঘাযতীন কলোনিতে ১০০, ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের রায়পাড়া, হকারপাড়া ও জনতাপাড়ায় ২২৩, ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডের সুকান্তনগরে একজন ও ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের দশরথপল্লি, পরেশনগর, জনতানগর ও বিদ্যাচক্র কলোনিতে ৩৩৯ জন রয়েছেন। মাটিগাড়া ব্লক ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের অধীনে ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের ঢাকনিকাটা, উৎপলনগর, পবিত্রনগর ও প্রমোদনগরে ২৯ জন এবং শিলিগুড়ি মহকুমা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের অন্তর্গত ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের নর্মদাবাগানে ৬৩ জন রয়েছেন।

5th     March,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ