বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

পুরসভার পাশেই ট্রান্সফরমারের নীচে দোকানপাট, দুর্ঘটনার শঙ্কা

নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদহ: ইংলিশবাজার পুরসভার পাশেই বিদ্যু঩তের ট্রান্সফরমারের নীচে বিপজ্জনকভাবে দোকানপাট গজিয়ে উঠেছে। পুরসভার মূল গেটের পাশেই বেআইনিভাবে ওইসব দোকানপাট বসেছে। যে কোনও সময় শর্ট সার্কিট থেকে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে স্থানীয়দের আশঙ্কা। সেক্ষেত্রে বড়সড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাও ঘটতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন। পুর কর্তাদের নাকের ডগায় এভাবে জবরদখল করে দোকান বসানো নিয়ে নানা মহলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এর পিছনে কারও কোনও স্বার্থ রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখার দাবিও উঠেছে। 
এব্যাপারে ইংলিশবাজার পুরসভার ভা‌ইস চেয়ারপার্সন সুমালা আগরওয়াল বলেন, বিষয়টি আমার নজরে পড়েনি। আমি দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।
বিদ্যুৎ বণ্টন কোম্পানির মালদহ রিজিয়নের ম্যানেজার উজ্জ্বল রায় বলেন, ট্রান্সফরমারের নীচে বেআইনিভাবে দোকান বসানোর প্রবণতা মারাত্মক। ফলে যে কোনও দিন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। আমরা সংশ্লিষ্টদের নোটিস দিয়ে সরে যেতে বলব। প্রয়োজনে প্রশাসনের সাহায্য নেওয়া হবে। 
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই চত্বরের একটি দোকানের মালিক বলেন, ওয়ার্ডে মেলা, উৎসবের নাম করে কাউন্সিলারদের একাংশ আমাদের কাছ থেকে জোর করে চাঁদা আদায় করেন। চাঁদা না দিলে কাউন্সিলার অফিসে ডেকে পাঠিয়ে ধমক দেওয়া হয়। কাউকে কাউকে মারধরের হুমকিও দেওয়া হয়। চাঁদা দিলেই কার্যত ‘সাত খুন মাফ’ হয়ে যায়। 
উল্লেখ্য, ইংলিশবাজার শহরে জবরদখল অন্যতম বড় সমস্যা। শহরে প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১৫ হাজার মানুষ বাস করে। সেই তুলনায় শহরের রাস্তাঘাট অনেক কম। বেশিরভাগ রাস্তা সংকীর্ণ। তার উপর জবরদখলের কারণে যাতায়াতের পথ আরও সঙ্কুচিত হয়ে গিয়েছে। এর আগে পুর কর্তৃপক্ষের তরফে শহরে জবরদখল উচ্ছেদ চালানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। সেই অনুযায়ী কিছু কাজ হয়। শহরের একাধিক রাস্তাঘাট সম্প্রসারণের কাজও শুরু হয়। কিন্তু খোদ পুর কর্তাদের চোখের সামনে বিপজ্জনকভাবে দোকানপাট গজিয়ে ওঠায় বিতর্ক দানা বেঁধেছে। 
পুরসভার মূল প্রবেশপথের বাঁ দিকে একাধিক গুমটি ও দোকান রয়েছে। বিদ্যুতের ট্রান্সফরমারের খুঁটির মধ্যে থাকা দোকানগুলিকে নিয়ে শহরবাসী বেশি চিন্তিত। দোকানের ছাউনি হিসেবে ব্যবহৃত কালো ত্রিপলের পাশেই রয়েছে ট্রান্সফরমারের সরঞ্জাম। সম্প্রতি ট্রান্সফরমারের নীচে একটি দোকান আবার ঝুপড়ি থেকে কর্গেট টিনের পাকাপোক্ত কাঠামো দিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে। অবিলম্বে বিদ্যুৎবাহী তার ও সরঞ্জামের পাশে থাকা ওইসব দোকানপাট সরিয়ে দেওয়ার দাবি উঠেছে। ফলে রাস্তায় পথচারীদেরও সুবিধা হবে। কারণ দোকানের সামনে ক্রেতাদের বাইক, সাইকেল দাঁড়িয়ে থাকায় যাতায়াতে সমস্যা হয়। ক্রেতাদের বসার জন্য কোনও কোনও দোকানের কাঠের বেঞ্চ কার্যত রাস্তার উপর রাখা হয়। তাতে সমস্যা বৃদ্ধি পায়। পুরভবনের সামনেই নিয়ম বহির্ভূতভাবে দোকানপাট গজিয়ে উঠলে শহরের অন্যান্য অংশের হাল আরও খারাপ হবে বলে ওয়াকিবহাল মহলের অভিমত।  নিজস্ব চিত্র।

5th     March,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ