বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

পরীক্ষায় ফেল ৯০ শতাংশের বেশি পাশের দাবিতে বিক্ষোভ এনবিইউয়ে

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: স্নাতকের প্রথম সেমেস্টারে ৯০ শতাংশ পরীক্ষার্থী ফেল করেছেন। পাশ করিয়ে দেওয়ার দাবিতে বুধবার উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে বিভিন্ন কলেজের পড়ুয়ারা এসে তুমুল বিক্ষোভ দেখালেন। সকাল ১০টা থেকেই ক্যাম্পাসে ভিড় জমাতে থাকেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন বিভিন্ন কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। দুপুর ১টা নাগাদ প্রশাসনিক ভবনের সামনে জমায়েত হন ওই পড়ুয়ারা। সোয়া ১টায় ফেল করা পড়ুয়ারা পাশ করিয়ে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করেন। 
বিক্ষোভে শামিল হন আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, দার্জিলিং জেলার পড়ুয়ারা। আলিপুরদুয়ার জেলা থেকেই আটটি কলেজের পড়ুয়ারা এসেছিলেন বিক্ষোভে কর্মসূচিতে। শিলিগুড়ি কলেজ, সূর্য সেন কলেজ, বাগডোগরা কলেজ সহ সমতলের বেশকিছু কলেজের ছাত্রছাত্রীরা বিক্ষোভে যোগ দেন। বিক্ষোভসূচীতে কোনও রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠন সরাসরি যুক্ত না থাকলেও টিএমসিপি, এবিভিপির মতো সংগঠন ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছে। প্রায় চারঘণ্টা বিক্ষোভ চালানোর পর সোয়া ৫টা নাগাদ পড়ুয়াদের একটি প্রতিনিধি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত কলেজ পরিদর্শক দেবাশিস দত্তের কাছে স্মারকলিপি জমা দেয়। আন্দোলনকারীদের তরফে অভিযোগ করা হয়, খাতা দেখা নিয়ে পরীক্ষকদের একাংশের গাফিলতির জন্যই এই ফলাফল। অবিলম্বে সমস্ত খাতা ফের খতিয়ে দেখতে হবে। 
কলেজ পরিদর্শক বলেন, ছাত্রদের বলেছি আরটিআই করে নিজেদের খাতা নিয়ে কলেজের অধ্যাপকদের দেখাতে। যদি মনে হয় মূল্যায়ন ঠিক হয়নি তবে মাথা পেতে নেব। পাশাপাশি আন্দোলনকারীরা পুনর্মূল্যায়ন ফি মকুবের দাবি করেছে। সেটা আমার হাতে নেই। এ বিষয়ে উপাচার্য সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। 
সম্প্রতি কলেজগুলিতে স্নাতকস্তরের প্রথম সেমেস্টারের ফল প্রকাশিত হয়েছে। ৪৯টি কলেজের ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ৬৬০ জন ছাত্রছাত্রী পরীক্ষায় বসেছিলেন। ফলাফলে দেখা গিয়েছে মাত্র ১০ শতাংশ পড়ুয়া উত্তীর্ণ হয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে ৪ মার্চ একটি জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। সেখানেই পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে আলোচনা করবে কর্তৃপক্ষ। বৈঠকে সব কলেজের প্রিন্সিপালকে ডাকা হয়েছে। 
মালবাজার পরিমল মিত্র মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রী মধুরিমা সরকার বলেন, খাতা দেখার গাফিলতির জন্য এ ধরনের ফল হয়েছে। খাতা পুনর্মূল্যায়নের জন্য প্রতি বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ১০০ টাকা করে ধার্য করেছে। আমরা এত টাকা দেব কোথা থেকে। পড়ুয়াদের বিক্ষোভের জেরে প্রশাসনিক ভবনে কাজকর্ম কার্যত ব্যাহত হয়। এদিনের বিক্ষোভে শামিল ছিলেন প্রায় ৫০০ ছাত্রছাত্রী। শিলিগুড়ি কলেজের প্রিন্সিপাল সুজিত ঘোষ বলেন, নতুন সিলেবাসে ছাত্রছাত্রীরা পড়ার সুযোগ পায়নি। কলেজে শেষ ভর্তি নেওয়া হয়েছে ২০ সেপ্টেম্বর। পরীক্ষা শুরু হয়েছিল ১৩ ডিসেম্বর। নিজেদের কোর্স শেষ করতে না পাড়াতেই এই ফল। আমারও মনে হয়, ওদের আরও সময় দেওয়া উচিত ছিল। - নিজস্ব চিত্র

29th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ