বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষে উত্তেজনা লক্ষ্মীপুর হাইস্কুলে ভাঙচুরের অভিযোগ

সংবাদদাতা, কালিয়াগঞ্জ: উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষে কালিয়াগঞ্জ শহর লাগোয়া লক্ষ্মীপুর মহিমচন্দ্র হাইস্কুলে ভাঙচুরের অভিযোগ উঠল পরীক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে। ক্লাসরুমের তিনটি ফ্যান, শৌচালয়ের দরজা, ট্যাপকল, পাইপলাইন ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। পাল্টা বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বিরুদ্ধে খারাপ আচরণ করার অভিযোগ তুলে প্রতিবাদে সরব হয়েছে পড়ুয়া এবং তাদের অভিভাবকরা।  খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন কালিয়াগঞ্জের বিডিও প্রশান্ত রায়। পরীক্ষাকেন্দ্রে উত্তেজনার খবর পেয়ে কালিয়াগঞ্জ থানার পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিস মোতায়েন করা হয়েছিল এদিন।
বিডিও প্রশান্ত রায় বলেন, আমি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে দেখব ঠিক কী ঘটেছিল। তারপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব। 
পুলিস ও স্কুল সূত্রে খবর, লক্ষ্মীপুর মহিমচন্দ্র হাইস্কুলে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সিট পড়েছিল কালিয়াগঞ্জ পার্বতী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ের। পরীক্ষার দিনগুলিতে বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা কড়া গার্ড দিয়েছেন বলে অভিযোগ করে পরীক্ষার্থীরা।
অভিভাবক দেবযানী ঘোষ বলেন, আমার মেয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিল। এই বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন। কখনও পরীক্ষার খাতা আটকে রেখেছেন, আবার বেঞ্চ সরিয়ে দিয়েছেন তাঁরা। এর ফলে পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষায় মন দিতে পারেনি। এটা ঠিক হয়নি।
পরীক্ষায় কড়া গার্ড দেওয়ার কারণেই কি ভাঙচুর করা হয়েছে বিদ্যালয়ে? মহিমচন্দ্র হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক সুজিত পাল বলেন, আমাদের স্কুলের শিক্ষকরা নিয়ম মেনেই পরীক্ষার হলে গার্ড দিয়েছেন। এটাই তাঁদের দায়িত্ব। কিন্তু বিদ্যালয়ে এভাবে ভাঙচুর করা ঠিক হয়নি। পরীক্ষার্থীরা ক্লাসরুমের ফ্যান ভেঙেছে, জলের পাইপ, ট্যাপকল ভেঙে দেওয়া হয়েছে। ছাত্রছাত্রীদের এমন আচরণ মেনে নেওয়া যায় না। 
অন্যদিকে, কালিয়াগঞ্জের পার্বতী সুন্দরী হাইস্কুলের পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠায় বিদ্যালের প্রধান শিক্ষক নন্দন সাহা বলেন, আমরা বিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের সিট পড়েছিল লক্ষ্মীপুর মহিমচন্দ্র হাইস্কুলে। তবে আমি বিদ্যালয়ে পরীক্ষার কাজে ব্যস্ত ছিলাম। কোনও অভিযোগ পাইনি। এই বিষয়ে খোঁজ না নিয়ে মন্তব্য করব না। 
বিদ্যালয়ের ভাঙচুর ও উত্তেজনার খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিস মোতায়েন করা হয়েছিল লক্ষ্মীপুর মহিমচন্দ্র স্কুলে। কালিয়াগঞ্জ থানার আইসি দেবব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে নিরাপত্তার জন্য পুলিস চাওয়া হয়েছিল। তাই অতিরিক্ত পুলিস দেওয়া হয়।  নিজস্ব চিত্র

29th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ