বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

সচেতনতার অভাবে পথ দুর্ঘটনা বাড়ছে, সতর্ক করছে পুলিস

সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: শীত পড়তেই উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ মহকুমার কালিয়াগঞ্জ, হেমতাবাদ,  রায়গঞ্জ,  ইটাহার, করণদিঘি  থানা এলাকায়   পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু ও জখমের সংখ্যা বাড়ছে। স্বাভাবিকভাবে উদ্বেগ ছড়িয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে। কুয়াশার প্রভাবে দৃশ্যমানতা কমে যাওয়ায় দুর্ঘটনার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। 
ইটাহার থানার ট্রাফিক ওসি কৌশিক দে বলেন, গত তিন মাসে ১০-১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সচেতনতা মূলক প্রচার করে ব্লকজুড়ে ২৯ কিমি জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনা অনেকটা কমানো সম্ভব হয়েছে। শীতে কুয়াশার জন্য দুর্ঘটনা বাড়তে পারে। সাধারণ মানুষকে আরও সচেতন হতে হবে।
রায়গঞ্জ মহকুমার ইটাহার থানা এলাকার মধ্যে দুর্ঘটনা সবচেয়ে বেশি।  পুলিস ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে নানা পদক্ষেপ করা হলেও দুর্ঘটনার সংখ্যা কমেনি। সাধারণ মানুষের বক্তব্য, ইটাহার থানায় এলাকায় সাধারণ মানুষের সচেতনতার অভাবের জন্য প্রতি বছর দুর্ঘটনা বেশি ঘটে। অনেকেই ট্রাফিক আইন মানেন না। এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ফোর লেন হয়েছে। সেই রাস্তায় নিয়ম না মেনে টোটো, রিকশ, ঠেলা, সাইকেল, বাইক নিয়ে চলাফেলা করেন এলাকার কিছু মানুষ। তাছাড়া রাস্তার অংশ দখল করে আড্ডা মারা, তাস খেলায় মত্ত থাকেন অনেকে। পাশাপাশি, সন্ধ্যা ঘনিয়ে এলে ডিভাইডারের ফাঁকা জায়গায় মদের আসরও বসতে দেখা যায়।  মদ খেয়ে রাস্তা পারাপারের সময় অনেকেই দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। ডিভাইডারের ধারে ইট পেতে বাইক, সাইকেল নিয়ে পারাপার করে। এসব অনিয়ম করতে গিয়েই মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। অথচ মানুষের হুঁশ ফিরছে না।  রাস্তার অংশ দখল করে জমির ফসল, জামাকাপড় শুকানোর কাজেও ব্যবহার করা হচ্ছে জাতীয় সড়ক। স্থানীয় বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম, অনন্ত দাসরাও দুর্ঘটনার জন্য বাসিন্দাদের একাংশের অসচেতনতাকেই দায়ী করছেন। 
ইটাহার থানার আইসি সুকুমার ঘোষ বলেন, আমরা নিয়মিত নজরদারি করছি। কিন্তু মানুষ সচেতন না হলে কী করা যাবে।  লোকজন রাস্তার মধ্যে উঠে আড্ডা মারে, শিশুরা খেলাধুলো করে। পুলিস গেলেই রাস্তা থেকে সরে দাঁড়ায়। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়েছি। রায়গঞ্জ পুলিস জেলার ডিএসপি রিপন বল বলেন,  সচেতনতার অভাবে  অনেক সাধারণ মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন।  আমরা নিয়মিত জাতীয় সড়কে টোটো চলাচল বন্ধ করা, নিয়ম মেনে চলাচল ও পারাপার সহ নানা বিষয়ে সচেতন করি। সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ এর মতো কর্মসূচি রয়েছে। তবে, সাধারণ মানুষ সচেতন না হলে এধরনের ঘটনা রোধ করা সম্ভব নয়।

6th     December,   2023
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ