Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

তবু কেন কন্যা সম্প্রদান? 

কন্যা সম্প্রদান আজকের যুগে কতটা যুক্তিযুক্ত? বিশ্লেষণ করলেন মহিলা পুরোহিত নন্দিনী ভৌমিক। তাঁর মুখোমুখি কমলিনী চক্রবর্তী।

আজ নারী শিক্ষিত। আজ নারী স্বনির্ভর। তবু আজও নারী স্বাধীন নয়। শিক্ষা ও স্বনির্ভরতা তাহলে নারীকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিতে ব্যর্থ! সনাতন প্রথামতে আজও তাই বিবাহের মন্ত্রে কন্যাকে সম্প্রদান করা হয় পাত্রের কাছে। অর্থাৎ পিতার কাছ থেকে নারী চলে যায় স্বামীর দায়িত্বে। আগেকার দিনে এই রীতি যদি বা সমর্থন করা যেত, এখন তো তা কোনওমতেই সমর্থনযোগ্য নয়। তবু প্রথাগত বিবাহের এই দিকটি নিয়ে ততটা প্রশ্ন ওঠে কি আমাদের সমাজে? মেয়েরাও কি এই নিয়ে আদৌ ভাবে? আজকের আধুনিক সমাজে কন্যা সম্প্রদান কি সত্যিই প্রয়োজনীয়? সাক্ষাৎকারে এমনই নানা প্রশ্নের উত্তর দিলেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃত বিভাগের অধ্যাপিকা তথা মহিলা পুরোহিত নন্দিনী ভৌমিক।
 আজকের আধুনিক সমাজেও কি কন্যা সম্প্রদান প্রথা যুক্তিযুক্ত?
 প্রথমেই বলে রাখি, বিয়েতে কন্যা সম্প্রদানের প্রথা বৈদিক যুগে ছিল না। পরবর্তীকালে নারী যখন শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত হতে শুরু করে, বাল্য বিবাহের রীতি যবে থেকে প্রচলিত হয়ে ওঠে আমাদের সমাজে, তবে থেকেই কন্যা সম্প্রদান প্রথাও চালু করা হয়। এক্ষেত্রে প্রথার পক্ষে বা বিপক্ষে কিছু বলার আগে সমাজের একটা চিত্র কল্পনা করে নেওয়া দরকার। তখন মেয়েদের আট-নয় বছরে বা তার চেয়েও ছোট বয়সে বিয়ে দেওয়া হতো। স্বামীটি কিন্তু সেই তুলনায় বয়স্ক। কলেজে পাঠরত তো বটেই, অনেকক্ষেত্রে আবার চাকরিও করে। বয়সের এই বিপুল ফারাকে স্বামী যে তার ছোট স্ত্রীয়ের দায়িত্ব নেবে সেটাই তো স্বাভাবিক। আর না নিলেও তো চলবে না, আট বছরের বালিকা কি নিজের দায়িত্ব নিতে পারে? এই অবস্থায় বাবার হাত থেকে মেয়েকে স্বামীর হাতে তুলে দেওয়া বা সম্প্রদান করার রীতি সমর্থনযোগ্যই বটে। কিন্তু ক্রমশ সমাজ বদলেছে। বাল্য বিবাহের রীতি আজ আর প্রচলিত নয়। মেয়েরাও এখন শিক্ষিত ও স্বনির্ভর। সেক্ষেত্রে আজকের দিনে কন্যা সম্প্রদান যে নেহাতই অমূলক তা বলাই বাহুল্য।
 সমাজের চোখে মেয়েরা কি তবে দানের বস্তু?
 একেকটা সময় একেকরকমভাবে মানুষের মূল্যায়ন করে। আর সময় যত পালটায়, মানুষের চিন্তাধারাও ততই বদলায়। তবে কন্যাকে সম্প্রদান করার অর্থ কখনওই দান নয়, বরং কন্যার ভার বা দায়িত্ব পিতার হাত থেকে স্বামীর হাতে সমর্পণ। এই ভার তুলে দেওয়া বা দায়িত্ব অন্যকে সমর্পণ করার রীতি কারও অপছন্দ হতেই পারে। তাই বলে এটা ধরে নেওয়া ঠিক নয় যে কন্যাকে সম্প্রদান করা হতো বলেই তাকে সমাজ দানের বস্তু হিসেবে দেখত। আর এখন তো সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি অনেকটাই বদলে গিয়েছে। কন্যাকে দানের বস্তু হিসেবে দেখা হলে ঘরে ঘরে কন্যাই একমাত্র সন্তান হতে পারত কি?
 নারীকে কি কখনও বাবা, কখনও স্বামী, কখনও বা পুত্রের অধীনে বলেই মনে করা হয়?
 খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। ভারতীয় মনোভাব অনুযায়ী এখনও নারীর ওপরেই সংসার সামলানোর দায়িত্ব বর্তায়। আগে মেয়েরা শুধুই অন্দরমহলের বাসিন্দা ছিলেন। শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত হয়ে রাঁধার পরে খাওয়া আর খাওয়ার পরে রাঁধা নিয়েই ছিল তাঁদের জীবন। সেই সময় নারীকে রক্ষা করার দায়িত্ব ছিল পুরুষের কাঁধে। এখন আর তেমন পরিস্থিতি নেই। মেয়েরা শিক্ষিত তো বটেই, অনেকক্ষেত্রেই স্বনির্ভরও। তবু সংসার পালনের মূল দায়িত্ব কিন্তু আজও মেয়েদের ওপরেই পড়ে। আর ছেলেরাও এখনও দায়িত্ব নেওয়ার অভ্যাসটা ঝেড়ে ফেলতে পারেনি। তাই সমাজ আজও নারীর অরক্ষিত রূপের সঙ্গেই অভ্যস্ত। আমাদের সমাজ এখনও ততটা উদার হতে পারেনি। তাই মেয়েরাও সম্পূর্ণ স্বাধীনতা পায়নি। এখনও মেয়েরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে। আজও মেয়েদের পুরুষরূপী রক্ষাকর্তার প্রয়োজন হয়। তাই এই উন্নততর সমাজে আজও নারী কখনও বাবা, কখনও স্বামী আর কখনও ছেলের অধীনে।
 হিন্দুধর্ম মতে বিবাহে কি কন্যা সম্প্রদান আবশ্যিক?
 হ্যাঁ। গতানুগতিক ধারা অনুযায়ী এই প্রথা আবশ্যিক। তবে হিন্দুধর্ম মতে বিয়ের অনুষ্ঠানে বদল আনা উচিত বলেই আমার মনে হয়। কারণ বৈদিক যুগেও তো হিন্দুধর্ম মতেই বিবাহ হতো এবং তাতে কন্যা সম্প্রদানের রীতি ছিল না। তাহলে এখনকার পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে কেন সম্প্রদান আবশ্যিক হবে? তবু আজও পুরোহিতরা মধ্যযুগীয় বিবাহপ্রথাকেই মেনে চলতে ভালোবাসেন। তাই গতানুগতিকতা বজায় রেখে কন্যা সম্প্রদান বিয়ের অঙ্গ হিসেবে চলছে, চলবে।
 প্রথাগত বিবাহে বদল আনার জন্য আপনি কতটা ও কীভাবে সচেষ্ট?
 আমি একা নই, আমাদের চারজনের একটি দল রয়েছে। নাম শুভমস্তু। আমরা সনাতন বৈদিক প্রথা অনুযায়ী বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন করি। কিছু মন্ত্র ও কিছু গানের মধ্য দিয়ে পাত্রপাত্রীর চার হাত এক হয়। আমাদের দলে আমি ছাড়া আরও যাঁরা আছেন তাঁরা হলেন রুমা, সেমন্তী ও পৌলমী।
আমরা কেউই পদবি ব্যবহার করি না। জাতপাতের বিভেদ এড়ানোর জন্যই পদবি বর্জন। রুমা আর আমি দু’জনেই সংস্কৃতের ছাত্রী। মন্ত্র পড়ার দায়িত্ব আমাদের। সেমন্তী আর পৌলমী সঙ্গীত পরিবেশন করেন। রবীন্দ্রনাথের গান ও মন্ত্রোচ্চারণের মাধ্যমে বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। কিছু আচার আমরা বাদ দিয়েছি। কন্যা সম্প্রদান, কনকাঞ্জলি আমাদের বিবাহ প্রথার অঙ্গ নয়। তাছাড়া বিয়ের অনষ্ঠানে যে শুধুই এওস্ত্রীরাই অংশ নিতে পারবেন, বিধবারা বাদ পড়বেন তাও আমরা মনে করি না। ‘শুভমস্তু’তে আমরা মনে করি বিবাহ নামক পুণ্য অনুষ্ঠানকে আনন্দময় করে তুলতে সকলের সমবেত উপস্থিতি জরুরি। তাছাড়া বিয়েতে আমরা পাত্র ও পাত্রী এবং তাদের পরিবারকে একই আসনে বসাই। বর ও কনের মায়ের উপস্থিতিও আমাদের বিবাহ অনুষ্ঠানের উল্লেখযোগ্য অংশ।
 হিন্দু নিয়মগুলো ভাঙার সময় বাধাপ্রাপ্ত হয়েছিলেন?
 যা-ই নতুন, তাকেই বিভিন্ন বাধা অতিক্রম করে আসতে হয়। আমাদেরও হয়েছে। প্রথমদিকে লোকে আমাদের নিয়মগুলো মেনে নেননি। তবে ক্রমশ সময় পাল্টাচ্ছে, লোকের চিন্তাধারা বদলাচ্ছে। এখন পাত্র ও পাত্রী আমাদের এই নতুন ধরনের বিবাহ প্রথা দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন এবং আমরা ক্রমশ সমাজে গৃহীত হচ্ছি।
 মধ্যযুগীয় হিন্দু বিবাহে বদল আনা দরকার এমনটা মনে হল কেন?
 অধ্যাপনা করতে গিয়ে প্রথম এই ভাবনাটা মনে এসেছিল। নতুন প্রজন্মকে ঘাঁটতে ঘাঁটতে, তাদের চিন্তা ভাবনার সঙ্গে মিশতে মিশতে দেখেছিলাম তারা বিভিন্ন প্রথার দিকে আঙুল তুলছে, তা নিয়ে প্রশ্ন করছে। তখনই মনে হয়েছিল মধ্যযুগীয় প্রথাগুলোর বদল দরকার। আর সেই বদলের জন্য আমাদের খুব একটা দূরে যেতে হয়নি। একটু পিছিয়ে গিয়ে বৈদিক বিবাহ প্রথাগুলো ঘেঁটে দেখলাম তা অনেক উন্নত। তখনই এই প্রথায় বিয়ে দেওয়ার কথা মনে হল। তারপর আলাপ আলোচনার মাধ্যমে আমাদের দল গড়ে উঠল। বছর তিনেক আমরা সক্রিয়ভাবে কাজ শুরু করেছি।
 কন্যা সম্প্রদান ব্যতীত বিবাহ পাত্র ও পাত্রীর বাড়িতে কতটা গৃহীত?
 পাত্র ও পাত্রী দু’জনেই এই নতুন প্রথাকে মুক্তহস্তে আলিঙ্গন করেছে। তাদের বাড়ির লোকেরাও অনেকেই উদারভাবে এই প্রথা মেনে নিচ্ছেন। আর আজকের মেয়েরা যে বাবার হাত থেকে স্বামীর হাতে সমর্পিত হতে চায় না তা তো বলাই বাহুল্য।
ছবি: শুভমস্তুর সৌজন্যে  
18th  January, 2020
ট্রোলিং নিষিদ্ধ হওয়া উচিত

সোশ্যাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্মগুলিতে প্রায়ই কোনও বিশেষ একটি বিষয় নিয়ে ট্রোলিং ব্যাপারটা সম্প্রতি একটু বেশি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। এটা যদিও সেলিব্রিটিদের ক্ষেত্রে বেশি মাত্রায় দেখা যায়, তবুও এর কোপ আমাদের মতো সাধারণ মানুষের উপরও এসে পড়ে। বিশদ

22nd  June, 2024
পদবির পরিবর্তে নামেই হোক পরিচয় 

নারীর পদবি বদলানো বা না বদলানোর সঙ্গে কি তার সামাজিক অবস্থান জড়িত? শিক্ষা ও সচেতনতাই কি তাঁকে বিভিন্ন সময় সাহসী পদক্ষেপ নিতে সাহায্য করেছে? বিশ্লেষণ করলেন সমাজতত্ত্ববিদ বুলা ভদ্র।
বিশদ

22nd  June, 2024
রান্নার গুণে সিঙ্গাপুর মাতিয়েছেন বঙ্গকন্যা

অর্চনা ছন্দক। কলকাতার এই বাঙালি কন্যে সিঙ্গাপুরের প্রবাসী বাঙালিদের কাছে সাক্ষাৎ দেবী অন্নপূর্ণা। কেন জানেন? তাঁর হাতের গুণে। দক্ষিণ কলকাতায় জন্ম ও বড় হওয়ার পর কাজের সূত্রে গত দুই দশক দেশের বাইরে কেটেছে অর্চনার। বিশদ

22nd  June, 2024
ছবি ও আলোচনা

বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন শিশু এবং তার বাবা-মাকে সমাজে নানা ধরনের প্রতিকূলতার মুখোমুখি হতে হয়। এই সব অসুবিধা বা প্রতিবন্ধকতা কীভাবে সামলে জীবন কাটান তাঁরা? অটিজম, অবসেসিভ বিহেভিয়ার এবং বয়ঃসন্ধিকালের একাকিত্ব এই ধরনের চ্যালেঞ্জের মধ্যে অন্যতম। বিশদ

22nd  June, 2024
চেহারা নিয়ে কটূক্তি, কী করবেন?

বডি শেমিং হলে আইনের দ্বারস্থ হওয়া যায়? জানালেন আইনজীবী রুমানিয়া বাগচী ঘোষ। বিশদ

15th  June, 2024
এক সাহসী ইহুদি মেয়ের গল্প 

বেঁচে থাকলে দিন তিনেক আগে তাঁর বয়স হতো ৯৫। ফিরে দেখা অ্যান ফ্র্যাঙ্ক-এর জীবনের কথা। বিশদ

15th  June, 2024
৩৬ বছর পর অরুণাচল প্রদেশে মহিলা মন্ত্রী

ইতিহাস তৈরি করলেন ৪৬ বছরের দাসাংলু পুল। তাঁর মাধ্যমেই ৩৬ বছর পর অরুণাচলপ্রদেশ পেল মহিলা মন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু জানিয়েছেন, মন্ত্রিসভায় দাসাংলুর যোগদান রাজ্যের মহিলাদের কাছে বড় বার্তা পৌঁছে দেবে। বিশদ

15th  June, 2024
নব্বইয়ের জোয়ান পেলেন ফোর্বস-এর স্বীকৃতি

জোয়ান পেডেন। হঠাৎ নামটা বললে হয়তো চিনবেন না। কিন্তু তাঁর সম্পর্কে শুনলে বিস্মিত হবেন অবশ্যই। ফোর্ব-এর সমীক্ষায় নাম লিখিয়ে ফেলেছেন এই নবতিপর মার্কিন মহিলা। আমেরিকার ‘সেলফ মেড’ ধনী মহিলাদের অন্যতম তিনি। বিশদ

15th  June, 2024
স্কুলপড়ুয়াদের জন্য বিজ্ঞান নিয়ে শিবির 

নেতৃত্ব দানের ক্ষমতা গড়ে তোলা, দক্ষতা বৃদ্ধি এবং স্টেম (সায়েন্স, টেকনোলজি, ইঞ্জিনিয়ারিং, আর্ট অ্যান্ড ডিজাইন, ম্যাথমেটিক্স) ক্ষেত্রে জনসংযোগ বাড়ানোর জন্য এক শিবিরের আয়োজন হয়েছিল দক্ষিণ ভারতীয় শহর কোচিতে। বিশদ

15th  June, 2024
তরুণ প্রজন্ম বাংলা ছবি কম দেখে

তরুণ প্রজন্ম বাংলা ছবি কম দেখে, তার কয়েকটি কারণ রয়েছে। প্রথমত, তারা আন্তর্জাতিক এবং বলিউড ফিল্ম দেখে বেশি আকৃষ্ট হয়, যা উন্নত প্রযুক্তি এবং উচ্চ বাজেটের জন্য জনপ্রিয়। বিশদ

08th  June, 2024
ভাগ করে নিতে শিখুক সন্তান

শিশুকে ‘ভালোমানুষ’ তৈরি করতে সাহায্য করে শেয়ার বা ভাগ করে নেওয়ার প্রবণতা। পরামর্শ দিলেন মনোবিদ ডাঃ অমিতাভ মুখোপাধ্যায়। বিশদ

08th  June, 2024
বাড়িতেই হোম স্টে তৈরি করছেন গ্রামের মহিলারা

মধ্যপ্রদেশ জুড়ে পর্যটনকে অগ্রসর করার জন্য এগিয়ে এসেছেন আঞ্চলিক মহিলারা। বিভিন্ন উপজাতির মহিলারা নিজেদের বাড়ির অংশ সাজিয়েগুছিয়ে গড়ে তুলছেন হোম স্টে। এই বিষয়ে ভোপালের বুড়ি বাই বিশেষ উল্লেখের দাবিদার। বিশদ

08th  June, 2024
বাঁধা গতের বাইরে চাকরির সুযোগ

নতুন বাড়ি কিনেছে অনন্যা। গৃহপ্রবেশের পুজোর পর জমাটি খাওয়াদাওয়ার দাবি তুলেছে আত্মীয়, বন্ধু সকলেই। ঋষভের ছেলের জন্মদিন। দশ বছর, বড় মাইলস্টোন। ‘বিগ পার্টি’র চাহিদা তাই অফিস থেকে বন্ধু সব মহলেই। রাজন্যার বহুদিনের শখ পূর্ণ হয়েছে অবশেষে। একটা বুটিক খুলতে চলেছে সে।
বিশদ

01st  June, 2024
সন্তান দত্তকের  সাতসতেরো
 

মশ সরছে দ্বিধা-দ্বন্দ্বের পর্দা। দত্তক সন্তান নিয়ে আগ্রহ বাড়ছে সমাজে। অথচ একটা সময় ছিল যখন কোনও দম্পতি সন্তান দত্তক নিয়েছেন শোনা গেলে ভ্রু-কুঞ্চিত হতো। কিন্তু এখন সময় বদলেছে। অনেক দম্পতিই বন্ধ্যাত্বের চিকিৎসায় অর্থ ও সময় ব্যয়ের বদলে দত্তক নেওয়ার দিকে এগচ্ছেন।
বিশদ

01st  June, 2024
একনজরে
দক্ষিণ কলকাতার লর্ডস মোড়ের কাছে প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডে তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের জমি জবরদখল মুক্ত করার নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্ন সভাঘরে রাজ্যের পুরসভাগুলির কাজকর্ম নিয়ে ডাকা প্রশাসনিক বিশেষ বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী এই জমির প্রসঙ্গ তোলেন। ...

নিয়ম রয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও অবসর গ্রহণের দিন পেনশন পেমেন্ট অর্ডার (পিপিও) হাতেই পাচ্ছেন না অনেক কর্মী পিএফ (ইপিএফ) গ্রাহক। ফলে সময়ে চালু হচ্ছে না ...

হাতে গড়া সোনা বা হিরের গয়নার কদর শুধু দেশীয় বাজারেই আটকে নেই। ভারতীয় কারিগরদের তৈরি গয়নার নামডাক বিশ্বজুড়েই। যাঁরা গয়না গড়েন, তাঁদের সিংহভাগই বাঙালি। কারিগরদের ...

দাপুটে জয়ে কোপা অভিযান শুরু করল উরুগুয়ে। সোমবার ভোরে গ্রুপ সি’র ম্যাচে পানামাকে ৩-১ গোলে হারাল তারা। সম্প্রতি দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন লুইস সুয়ারেজরা। বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে আর্জেন্তিনা ও ব্রাজিলকে হারিয়েছে তারা। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

মাতুলের থেকে বিত্তলাভ হতে পারে। কোনও বিষয়ের মানসিক উদ্বেগ কমবে। বিদ্যাচর্চায় বিশেষ শুভ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯০৩: ইংরেজ সাহিত্যিক জর্জ অরওয়েলের জন্ম
১৯২২: কবি ও ছড়াকার সত্যেন্দ্রনাথ দত্তের মৃত্যু
১৯২৪: সঙ্গীত পরিচালক মদন মোহনের জন্ম
১৯৩১: রাজনীতিবিদ এবং ভারতের অষ্টম প্রধানমন্ত্রী বিশ্বনাথ প্রতাপ সিংয়ের জন্ম
১৯৩২: ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে সর্বপ্রথম টেস্ট ক্রিকেট খেলা শুরু হয়
১৯৩৪: বিশিষ্ট সংবাদ পাঠক আবৃত্তিকার ও বাচিকশিল্পী দেবদুলাল বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯৬০: কবি সুধীন্দ্রনাথ দত্তের মৃত্যু
১৯৭৪: অভিনেত্রী করিশ্মা কাপুরের জন্ম
১৯৭৫: প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দেশে জরুরি অবস্থা জারি করলেন
১৯৮৩: কপিল দেবের অধিনায়কত্বে ভারতীয় ক্রিকেট দল ৪৩ রানে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয় করে
২০০৯: মার্কিন পপ সঙ্গীত শিল্পী মাইকেল জ্যাকসনের মৃত্যু
২০১৪: পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলা ভেঙ্গে আলিপুরদুয়ার জেলা তৈরি করা হয়।
২০২০: বাঙালি লেখক ও সাংবাদিক নিমাই ভট্টাচার্যের মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৮২.৬৬ টাকা ৮৪.৪০ টাকা
পাউন্ড ১০৩.৮৯ টাকা ১০৭.৩৫ টাকা
ইউরো ৮৭.৭৬ টাকা ৯০.৮৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৭২,২৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৭২,৬৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৬৯,০৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৮৯,২০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৮৯,৩০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১০ আষাঢ়, ১৪৩১, মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪। চতুর্থী ৪৫/৩৫ রাত্রি ১১/১২। শ্রবণা নক্ষত্র ২৩/৩৮ দিবা ২/৩৩। সূর্যোদয় ৪/৫৭/৪০, সূর্যাস্ত ৬/২০/৩৪। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৮ মধ্যে পুনঃ ৯/২৫ গতে ১২/৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৯ গতে ৪/৩৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩ মধ্যে পুনঃ ১২/০ গতে ২/৮ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ২/৪৫ গতে ৩/৩৯ মধ্যে পুনঃ ৪/৩৩ গতে ৫/২৭ মধ্যে। রাত্রি ৮/২৮ গতে ৯/৫৩ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৮ গতে ৮/১৯ মধ্যে পুনঃ ১/২০ গতে ৩/০ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৪০ গতে ৯/০ মধ্যে। 
১০ আষাঢ়, ১৪৩১, মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪। চতুর্থী রাত্রি ১/২। শ্রবণা নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/৪৪। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/২৪। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪২ মধ্যে ও ৯/২৯ গতে ১২/৯ মধ্যে ও ৩/৪২ গতেজ ৪/৩৫ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৫ মধ্যে ও ১২/৩ গতে ২/১১ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ২/৪৯ গতে ৩/৪২ মধ্যে ও ৪/৩৫ গতে ৫/২৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/৩০ গতে ৯/৫৫ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৭ গতে ৮/১৮ মধ্যে ও ১/২১ গতে ৩/২ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৪৩ গতে ৯/২ মধ্যে। 
১৮ জেলহজ্জ।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
অষ্টাদশ লোকসভার স্পিকার পদে মনোনয়ন জমা দিলেন এনডিএ প্রার্থী ওম বিড়লা

12:07:08 PM

স্পিকার পদে কংগ্রেস সাংসদ কে সুরেশকে প্রার্থী করল বিরোধী জোট ইন্ডিয়া

12:06:12 PM

স্পিকার পদ নিয়ে যা জানালেন রাহুল গান্ধী
লোকসভার স্পিকার কে হবেন? জল্পনা শুরু হয়েছে। সূত্রের খবর, এনডিএ-র ...বিশদ

11:52:40 AM

লোকসভার স্পিকার পদে এনডিএ-র সম্ভাব্য প্রার্থী ওম বিড়লা

11:15:38 AM

শারীরিক অবস্থার অবনতির কারণে হাসপাতালে ভর্তি দিল্লির জলমন্ত্রী আতিশি, ভাঙলেন অনশন

11:02:45 AM

সংসদে পৌঁছলেন সপা প্রধান তথা সাংসদ অখিলেশ যাদব

10:59:59 AM