Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

বৈষ্ণব ভক্ত

এক বৈষ্ণব ভক্তের কথা শুনলাম—তিনি তোমার মূর্ত্তি ছাড়া অন্য মূর্ত্তি দর্শন করেন না। তাঁর গৃহে একখানি কালীর ছবি ছিল, তিনি সেখানি গৃহ হতে ফেলে দিয়ে নিশ্চিন্ত হয়েছেন। শক্তির প্রসাদ পর্য্যন্ত গ্রহণ করেন না। আমি ভক্তিহীন—সেজন্য “আমি শ্যাম, আমি শ্যামা” বলে বুঝলে, তাঁদের ত বুঝাতে পারি না। তাঁদের কাছে সেজে ‘আমি শ্যাম’ বললেও তাঁরা তোমায় গৃহ হতে বের ক’রে দেবেন। দেখ, আমি এ ব্যাপারটা ঠিক বুঝতে পারি না।
কেন, আমি পূর্ব্বেই বলেছি—ভাবের প্রতিষ্ঠার জন্য গুরুদত্ত ইষ্ট লয়ে থাকতে হয়; ইষ্টমূর্ত্তি দর্শন, ইষ্টের প্রসাদ ভোজন, পাদোদক পান করতে হয় এবং ভাব-রাজ্যে স্থান লাভ করবার জন্য দিবারাত্র ইষ্টনাম জপ করতে হয়, তাহলে ভাবময় দেহ ধারণ করে আমার সহিত অনুক্ষণ ক্রীড়া করতে পারে। আমার এ বৈষ্ণবভক্ত এখনও সাধন-ভক্তির স্তরে দাঁড়িয়ে বা’র লয়ে ঘুরছে। আমার মূর্ত্তি ভিন্ন সে যদি দর্শন না করে তাহলে তার সদাসর্ব্বদা চক্ষু মুদ্রিত করে থাকা উচিত। গৃহ-দ্বার, আত্মীয়-স্বজন, পশু-পক্ষী, স্ত্রী-পুত্র কেমন করে দেখে? সে সব ত আমি নই। তাদের কেন দূর করে দেয় না? বাইরের ঘরের কালীমূর্ত্তি দূর করবার আগে মনোমন্দিরে দিবারাত্র নামের উজ্জ্বল দীপ জ্বেলে রাখতে হয়—এসব অন্ধকার থাকে না। বেদে, উপনিষদে, রামায়ণে, মহাভারতে, পুরাণে—সর্ব্বত্রই বলেছি “এক আমি”। যে আমি রুদ্র, সেই উমা, বিষ্ণু। এক দেবতাকে আশ্রয় করে অন্য দেবতাকে যে অবজ্ঞা করে আমি তার প্রতি প্রীত হই না, তথাপি তারা তাই করে এবং দুঃখ পায়।
এ ত তারা নিজেরা করে না—তুমিই ত গুরুরূপে শিখিয়েছ!
হাঁ, আমি গুরুরূপে উপদেশ দিয়েছি যে—অন্য দেবতা বোধে প্রসাদ গ্রহণ করবে না, পূজা করবে না। ‘সবই আমার ইষ্ট’ এ বিশ্বাস স্থির রাখবে। তারা ত পারে না; বৈষ্ণব কালী-নামে ছুটে পালায়, শাক্ত—বৈষ্ণবকে ব্যঙ্গ করে। আবার—নমোহস্ত্বনন্তায় সহস্রমূর্ত্তয়ে/ সহস্রপাদাক্ষিশিরোরুবাহবে।/ সহস্রনাম্নে পুরুষায় শাশ্বতে/ সহস্রকোটিওযুগধারিণে নমঃ।।
এই বলে অথবা ‘সর্বস্বরূপে সর্বেশে সর্বশক্তিসমন্বিতে’—বলে প্রণামও করে। দেখ, এই একজনকে ধরতে না পারায় এ দুর্গতি। গুরুরূপে জপ করতে বলেছি, তা করে না; সেইজন্য এদের অন্ধকার যায় না, দাগা বুলান শেষ হয় না, আজন্ম ‘ক’ ‘খ’-ই লেখে।
আমার আজ্ঞা সবই পালন করতে হয়, নিজের ইচ্ছামত একটু-আধটু পালন করলে দুঃখ নিবৃত্তি হয় না। তোর অপরের সংবাদে প্রয়োজন কি? তুই নাম কর্‌, যাবৎ স্থির হতে না পারিস্‌ তাবৎ নাম কর্‌। তোর পদতল হতে পৃথিবী সরে যাক্‌ অথবা মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ুক, কিংবা সর্ব্বনাশ হোক্‌ কোনদিকে ভ্রূক্ষেপ না করে অহর্নিশি নাম কর্‌। ইহা তুই স্থির জানিস্‌ তুই আমার কোলে আছিস্‌, আমি তোকে বুকে করে রক্ষা করছি। নাম কর্‌।
হে নাথ! আমি শরণাগত, নিরাশ্রয়, আমি তোমার—তোমার—তোমারি গো—হরে মুরারে মধুকৈটভারে/ গোপাল গোবিন্দ মুকুন্দ শৌরে।/যজ্ঞেশ নারায়ণ কৃষ্ণ বিষ্ণো/ নিরাশ্রয়ং মাং জগদীশ রক্ষ।। মাভৈঃ।
আমাতে সম্ভব অসম্ভব কিছু কল্পনা করিস্‌ না। আমি মৃণালতন্তুতে হস্তিবন্ধন করতে পারি; গোষ্পদে পর্ব্বত নিমজ্জিত করতে পারি; আমার গতি নির্ণয় করে এমন শক্তি কারও নেই। সংসারচিন্তা অর্থচিন্তা দেহের চিন্তা, ঋণের চিন্তা ত্যাগ কর্‌—আমি তার ব্যবস্থা করেছি। তোর আমি আছি। ডাক্‌, আমায় ডাক্‌। তোর সব জ্বালা দূর হবে। মাভৈঃ—মাভৈঃ—মাভৈঃ।
‘শ্রী ওঙ্কারনাথ-রচনাবলী’(৩য়) থেকে
 
নাম

নীরব কেন? নাম কর্‌! এই রাম নাম—এই কৃষ্ণ নাম—মধুর হতেও মধুর, একথা কি জন্য বলছি জানিস্‌? দেখ্‌, মধুর কোন দ্রব্য জিহ্বায় রাখলে তার মাধুর্য্য অল্পক্ষণ থাকে, কিছুক্ষণ পরে আর জিহ্বাতে স্বাদ থাকে না; কিন্তু এই যে নাম—প্রথম বৈখরীতে জিহ্বায় রাখ, জিহ্বায় জপ করতে করতে এর মধুরত্ব শতগুণ বৃদ্ধি পাবে, জিহ্বা কৃতার্থ হবে, কণ্ঠ ধন্য হবে।  বিশদ

01st  December, 2019
 দেহ

দেখ্‌, আমার এ নাম প্রাণপ্রয়াণের পাথেয়। তুই নাম কর্‌। আজ তোর দেহে প্রাণ আছে, কিন্তু চিরদিন তো থাকবে না। তোর এমন একটা দিন আসছে যেদিন তোর হস্তপদাদি সঞ্চালনের শক্তি থাকবে না, তোর চক্ষু আর কিছু দেখবে না, তোর জিহ্বা রস গ্রহণ করতে পারবে না বা কোন শব্দ উচ্চারণ করতে পারবে না। প্রাণ তোর দেহকে ত্যাগ করে চলে যাবে।
বিশদ

30th  November, 2019
শিক্ষা

বাহ্যিক স্নেহ-প্রেম-ভালবাসা ও আদর-আপ্যায়ন তাহাদের জন্যই প্রয়োজন অধিক। কিন্তু, যাঁরা উচ্চকোটী সাধক, আচার্য্যদেব তাঁহাদিগকে করুণা করেন ভাল খাওয়াইয়া ভাল পরাইয়া নয়; পরন্তু অন্যভাবে।  বিশদ

29th  November, 2019
কর্ম

 এ জগৎ কর্মময়। এখানে মানুষ কর্ম করিতে আসে। তবে প্রকৃত কর্ম কি, এ সম্বন্ধে পণ্ডিতগণও মোহগ্রস্থ হন। প্রকৃত কর্মের সন্ধান না পাইলে উদ্দেশ্য বিহীন ভাবে কর্ম করিয়াও কোন লাভ হয় না। এইরূপ সম্মেলনের মাধ্যমেই সেই প্রকৃত কর্মের সন্ধান পাওয়া যায়।
বিশদ

28th  November, 2019
উচ্চকীর্ত্তন ও নামজপ 

‘‘মহাপ্রভু শ্রীগৌরাঙ্গ নাম-কীর্ত্তনের দ্বারা জীবের মুক্তি বিধান করিতে চাহিয়াছেন, ইহা সত্য। তিনি নিজেই ত্রিসত্য করিয়া বলিয়া গিয়াছেন,—হরের্নাম হরের্নাম হরের্নামৈব কেবলম্‌, কলৌ নাস্ত্যেব নাস্ত্যেব নাস্ত্যেব গতিরন্যথা।   বিশদ

27th  November, 2019
 যুক্তি

 অনেকে ঈশ্বরের প্রমাণে এই যুক্তি দেন—জগতের মধ্যে একটি শৃঙ্খলা বা নিয়মের সন্ধান পাই। সকল নিয়মেরই একজন নিয়ামক থাকতে হয়। আবার জগতের এই সুব্যবস্থিত অগ্রগতির পিছনে কোনও এক উদ্দেশ্য নিশ্চয়ই আছে। কোনও একটি পরিণামের দিকে এ জগৎ অবশ্যই চালিত হচ্ছে। বিশদ

26th  November, 2019
এক আর একে দুই

মহাত্মা কবিরদাস বলেছেন—কবির যো ওহ এক ন জানিয়া,/ তও সব জানে ক্যা হোয়,/ এক হিঁতে সব হোঁত হায়,/ সবতে এক ন হোয়। এক আর একে দুই, দু আর একে তিন। এইরূপ এক থাকলে দুই, তাও আবার একে একে মিলিয়ে দুই হয়। পূর্বের এক পরের একের সঙ্গে না মিললে দুই হয় না। আর এই দুই যা বলছি তাও ভ্রম, কারণ পূর্বেও এক পরেও এক। এক ছাড়া আর কিছুই নেই, জোর করে দুই বলা মাত্র। বস্তুতঃ এক ব্যতীত দুই নেই। 
বিশদ

25th  November, 2019
 বেদ

‘বেদ’ অর্থে আত্মজ্ঞান বা ব্রহ্মবিদ্যা। পাঠ অর্থে অনুশীলন। এই ব্রহ্মবিদ্যা বা যোগশাস্ত্র যিনি অনুশীলন করেন তিনিই বেদ পাঠ করেন। তাই গীতার প্রতিটি অধ্যায়ের শেষে বলা আছে—‘‘ইতি ব্রহ্মবিদ্যায়াং যোগশাস্ত্রে শ্রীকৃষ্ণার্জ্জুন সংবাদে...’’ অতএব, বেদ নামক ছাপা পুস্তকখানিকে বিধিপূর্বক মুখের উচ্চারণ করে অথবা মনে মনে পাঠ করাকে বেদপাঠ করা বোঝায় না। এটা সনাতন ধর্মের বাহ্যদিক।
বিশদ

24th  November, 2019
ভগবান দয়াল 

নিজের ইচ্ছায় কিছু করতে নেই। ভগবান দয়াল, তোমাকে রক্ষার ব্যবস্থাও তিনি করেছেন। আঘাত একটা দিলেন, নইলে জ্ঞান হোত না। সত্য রক্ষা করতে হয়, প্রভু সকলেরই ব্যবস্থা করবেন। দীন কাঙাল হয়ে তাঁকে কোনো কথা জানালে, তিনি তা রাখেন। 
বিশদ

23rd  November, 2019
 সংসার ধর্ম

তিনি শ্রী ভগবান তবু এই কথা তুলে ধরা এই জন্য যে তাঁদেরও বিস্মৃতি ছিল অথবা মানুষ জন্ম গ্রহণ করিয়া মানুষের দোষগুণ ইচ্ছাকৃত ভাবে নিজের মধ্যে দেখাইয়া তাহা হইতে উত্তরণের পথ দেখাইয়াছেন।
বিশদ

22nd  November, 2019
 শ্রীহরি

 ব্রজের পিতা মাতার স্নেহের সংবাদ অনেকেই অল্পবিস্তর জানেন। উদ্ধবও নিশ্চয়ই অবগত আছেন। ব্রজদেবীদের কথা কিন্তু অনেকেই জানেন না, তাই একটু সবিস্তারে বলিতেছেন তাঁহাদের কথা উদ্ধবের কাছে নিজ শ্রীমুখেই। এই সুযোগে শ্রীশুকদেবেরও শুনিবার ও শোনাইবার অবকাশ হইতেছে গোপীদের কৃষ্ণানুরাগের কথা প্রাণবল্লভের নিজ শ্রীকণ্ঠ হইতেছে। বিশদ

21st  November, 2019
অমৃতকথা 

কৃষ্ণ বলছেন, পরমপুরুষকে যে মানুষ যেভাবে চায় অর্থাৎ পরম পুরুষের কাছ থেকে যে মানুষের যে ধরনের আকাঙ্ক্ষা সে সেই রকমের জিনিসই পায়। কারুর ইচ্ছে—খুব খাবো, পরমপুরুষ তার ইচ্ছে পূর্ণ করবেন।  বিশদ

20th  November, 2019
মন কিভাবে বিশুদ্ধ হয় 

মনকে উদ্দেশ্য ধরে রাখতে হবে। অনেকের মতে, তাকে প্রথমে কোন সাধারণ বাহ্যিক বিষয়ে স্থির করা ভাল, কিন্তু এরূপ যন্ত্রবৎ অভ্যাস খুব নিম্নজাতীয় ধ্যান এবং তা স্বল্প ফল দান করে মাত্র। 
বিশদ

19th  November, 2019
প্রত্যক্ষদর্শী

ব্রহ্মচারী। কেউ যদি পথের খবর ব’লে দেয় তবে তাকে প্রত্যক্ষদর্শী বলা যায় কি না? মা। হাঁ যে পথের খবর বলে সে দুরকম ভাবে বল্‌তে পারে। এক বই পুস্তকে প’ড়ে ট’ড়ে কিম্বা নিজে প্রত্যক্ষ ক’রে। যে যতটুকু গিয়েছে সে সকল ততটুকুর কথা বল্‌তে পারে। যেমন যে বাল্য-শিক্ষা ছাড়িয়া আর একখান বই পড়েছে সে বাল্য-শিক্ষা পড়াতে পারে।
বিশদ

18th  November, 2019
 গীতা

গীতা থেকে আমরা নিজেদের জীবনের জন্য কি পেতে পারি? মহাভারতের যুগ থেকেই গীতা আমাদের অমূল্য সম্পদ। খ্রীস্ট্রীয় অষ্টম শতাব্দীতে শঙ্করাচার্য জনসাধারণের জন্য তার ব্যাখ্যা লিখে রেখে গেছেন। তিনি গীতাভাষ্যের উপক্রমণিকায় বলেছেন, গীতা সমস্ত বেদার্থের সার-সংগ্রহ স্বরূপ। বিশদ

17th  November, 2019
 প্রীতি

প্রীতি-ভালবাসা পায়, সেইখানেই থাকিতে চায় মানুষ। কম ভালবাসার স্থানে যাইতে চায় না মানুষ বেশী ভালবাসার ক্ষেত্র ছাড়িয়া। ইহা মানবের স্বভাব বটে। কিন্তু এরূপ স্বভাব নহে শ্রীভগবানের। যে তাঁহাকে ভালবাসে তিনি তাহাকে ভালবাসেন। যাহার প্রীতি যতখানি গভীর, তিনি তাহার প্রতি ততখানি গভীর ভাবের প্রীতি বিনিময় করেন।
বিশদ

16th  November, 2019
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বিধায়ক এলাকা উন্নয়ন তহবিলে বরাদ্দ অর্থ বৃদ্ধির দাবি উঠল বিধানসভায়। সোমবার প্রশ্নোত্তর পর্বে বিরোধী কংগ্রেস এবং সিপিএমের কয়েকজন বিধায়ক এই প্রসঙ্গটি তোলেন। সেই সময় টেবিল চাপড়িয়ে অর্থ বরাদ্দ বাড়ানোর প্রস্তাবকে সমর্থন করতে দেখা যায় তৃণমূল কংগ্রেসের কয়েকজন ...

 নয়াদিল্লি, ২ ডিসেম্বর (পিটিআই): কমিশন এজেন্টের কাছ থেকে ১০০ টাকা ঘুষ চাওয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে ডাক বিভাগের সংশ্লিষ্ট অফিসারদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। ঘটনাটি উত্তপ্রদেশের প্রতাপগড় জেলার কুন্দা সাব পোস্ট অফিসের। ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...

সংবাদদাতা, বিষ্ণুপুর: কেন্দ্রীয় হারে মহার্ঘ্যভাতা, সংশোধিত বেতনক্রম চালু সহ মোট ৯ দফা দাবিতে পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সদস্যরা সোমবার বাঁকুড়া জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের অফিসে অবস্থান ও প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করেন। এদিন সকাল ১০টা থেকে অফিসের সামনে শিক্ষকরা ধর্নায় বসেন। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

দীর্ঘদিনের পরিশ্রমের সুফল আশা করতে পারেন। শেয়ার বা ফাটকায় চিন্তা করে বিনিয়োগ করুন। ব্যবসায় ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব এইডস দিবস
১৯৪১: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আক্রমণে চূড়ান্ত অনুমোদন দিলেন জাপানের সম্রাট হিরোহিতো
১৯৫৪: সমাজকর্মী মেধা পাটেকরের জন্ম
১৯৬৩: ভারতের ১৬তম রাজ্য হিসাবে ঘোষিত হল নাগাল্যাণ্ড
১৯৬৫: প্রতিষ্ঠিত হল বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ)
১৯৭৪: স্বাধীনতা সংগ্রামী সুচেতা কৃপালিনীর মৃত্যু
১৯৮০: ক্রিকেটার মহম্মদ কাইফের জন্ম
১৯৯৭: বিহারের লক্ষ্মণপুর-বাথে অঞ্চলে ৬৩জন নিম্নবর্গীয়কে খুন করল রণবীর সেনা
১৯৯৯: গায়ক শান্তিদেব ঘোষের মৃত্যু

01st  December, 2019


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৯৪ টাকা ৭২.৬৫ টাকা
পাউন্ড ৯১.০৫ টাকা ৯৪.৩৪ টাকা
ইউরো ৭৭.৬১ টাকা ৮০.৬১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৪৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৫১০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,০৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৩ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, সপ্তমী ৪২/৫৩ রাত্রি ১১/১৪। ধনিষ্ঠা ২০/২৯ দিবা ২/১৭। সূ উ ৬/৪/৫৩, অ ৪/৪৭/২৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৬ মধ্যে পুনঃ ৭/২৯ গতে ১১/৪ মধ্যে। রাত্রি ৭/২৭ গতে ৮/২০ মধ্যে পুনঃ ৯/১৩ গতে ১১/৫২ মধ্যে পুনঃ ১/৩৯ গতে ৩/২৫ মধ্যে পুনঃ ৫/৫২ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৭/২৫ গতে ৮/৪৫ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৭ গতে ২/৭ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৬ মধ্যে। 
১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৩ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, সপ্তমী ৪২/৪৮/৩২ রাত্রি ১১/১৩/৪৯। ধনিষ্ঠা ২২/৪৯/২৩ দিবা ৩/১৪/৯, সূ উ ৬/৬/২৪, অ ৪/৪৭/৫২, অমৃতযোগ দিবা ৭/০ মধ্যে ও ৭/৪২ গতে ১১/১৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩২ গতে ৮/২৬ মধ্যে ও ৯/২০ গতে ১২/১ মধ্যে ও ১/৪৯ গতে ৩/৩৬ মধ্যে ও ৫/২৪ গতে ৬/৭ মধ্যে, কালবেলা ১২/৪৭/১৯ গতে ২/৭/৩০ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৭/৪১ গতে ৮/৭/৩০ মধ্যে। 
৫ রবিয়স সানি  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আজকের রাশিফল 
মেষ: দীর্ঘদিনের পরিশ্রমের সুফল আশা করতে পারেন। বৃষ: বন্ধুস্থানীয় কোনও ব্যক্তির সাহায্যে ...বিশদ

07:11:04 PM

ইতিহাসে আজকের দিনে 
বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস১৮৮২: চিত্রশিল্পী নন্দলাল বসুর জন্ম১৮৮৯: বিপ্লবী ক্ষুদিরাম বসুর ...বিশদ

07:03:20 PM

শহরে এটিএম জালিয়াতি, আরও ১৪টি অভিযোগ দায়ের 
যাদবপুরের পর এবার চারু মার্কেট থানা এলাকা। শহরে ফের জাঁকিয়ে ...বিশদ

05:13:00 PM

বাংলায় এনআরসি হবে না, ধর্মের ভিত্তিতে ভাগাভাগি করা যাবে না: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

04:06:10 PM

বুলবুল: রাজ্যকে আর্থিক সাহায্য পাঠাল কেন্দ্র
বুলবুল-এ ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য হিসাবে পশ্চিমবঙ্গকে আর্থিক সাহায্য পাঠাল কেন্দ্র। রাজ্যকে ...বিশদ

03:42:00 PM

আগামী ২ দিন বসবে না বিধানসভা অধিবেশন
রাজভবনে আটকে রয়েছে বিল । সেখান থেকে বিল না আসায় ...বিশদ

03:36:00 PM