বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিনোদন
 

 অ্যানিমাল: শিউরে ওঠা অ্যাকশন কি ক্লান্তিকর নয়?

যে আমার বাবাকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছে সে যেখানেই থাকুক তাকে খুঁজে বের করব। তারপর নিজের হাতে তার গলা কাটব। দেশের অন্যতম বৃহৎ স্টিল কারখানা স্বস্তিক-এ দাঁড়িয়ে একথা বলছে বিজনেস টাইকুন বলবীর সিংয়ের (অনিল কাপুর) ছেলে রণবিজয় সিং (রণবীর কাপুর)। বাবার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই সম্পর্ক খারাপ রণবিজয়ের। তাই স্ত্রী গীতাঞ্জলি (রশ্মিকা মান্দানা) এবং পুত্র-কন্যাকে নিয়ে আমেরিকায় থাকে সে। ফলে বলবীরের বিপুল সম্পত্তি, ব্যবসার দায়িত্বভার নিজের কাঁধে তুলে নেয় বড় মেয়ের বর। বকলমে সে সমস্ত কিছুর সর্বেসর্বা হয়ে ওঠে। এরমধ্যেই আততয়ীরা গুলি করে বলবীরকে। গুরুতর জখম হয়ে ভর্তি হয় হাসপাতালে। খবর পেয়ে সপরিবারে হাসপাতালে উপস্থিত হয় রণবিজয়ও। কিছুদিনের মধ্যেই সে বুঝতে পারে যে ঘরের কেউই এই হামলার সঙ্গে জড়িত। ধীরে ধীরে নিজের টিম তৈরি করতে থাকে সে। নির্বিচারে খুন-জখম করতে শুরু করে। লক্ষ্য একটাই, প্রতিশোধ। বাবাকে যে গুলি করেছে, তার মৃত্যু। এরমধ্যেই দেখা মেলে আবরারের (ববি দেওল)। মশা মারার মতো যে মানুষ খুন করে। সে রণবিজয়ের গোটা পরিবারকে খুন করতে চায়। কিন্তু কেন? 
অ্যানিমাল ছবির পরিচালক সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গা। লুক, লোকেশন, কাস্টিংয়ে অনেক পরিচালকই তারিফ অর্জন করেন। এই পরিচালকও তার অন্যথা নয়। কিন্তু সন্দীপ সবার থেকে এগিয়ে রয়েছেন অ্যাকশনে। খুন-জখম-গুলিগোলার বাড়বাড়ন্ত দেখেই অনেকেই রীতিমতো শিউরে উঠবেন। যে কোনও হলিউডের অ্যাকশন ছবির খুনের দৃশ্যও ‘অ্যানিমাল’-এর কাছে লজ্জা পাবে। গলায় নির্মমভাবে ছুরি চালানো হোক, চপার দিয়ে একের পর এক আঘাত করা হোক বা মাউন্টেন গান চালানো— সবেতেই বারংবার ভীত-শঙ্কিত হতে দেখা যাবে দর্শককে। এইসব ভয়ানক দৃশ্য ক্লান্তিকর নয় কি? তবে এটা শুধু অ্যাকশন ছবি নয়। এতে রয়েছে বাবা-ছেলের সম্পর্কের টানাপড়েনও। রক্ত যে জলের চেয়ে ঘন সে বার্তা ছবির পরতে পরতে বুঝিয়ে দিয়েছেন পরিচালক। 
কিশোর অবস্থায় রণবীর ছিলেন বাবা অন্ত প্রাণ। কিন্তু অনিল কাপুরের সেদিকে হুঁশ নেই। ব্যবসা সামলাতে ব্যস্ত। ছেলেকে অকারণ শাসন করতে ব্যস্ত। মারধর নিত্যদিনের ঘটনা। ফলে স্বাভাবিকভাবেই পরবর্তীকালে ছেলে মারমুখী হয়ে ওঠে। সবেতেই রীতিমতো তারিফ কুড়িয়েছেন রণবীর। তাঁর লুক অনবদ্য। অ্যাকশন, প্রেম, সম্পর্কের টানাপোড়েন, উত্তেজক দৃশ্য সবেতেই তাঁর দুর্দান্ত অভিনয়ই বুঝিয়ে দিয়েছে তিনি জাত অভিনেতা। শিল্পপতির চরিত্রে দারুণ মানিয়েছে অনিল কাপুরকেও। রাগী বাবার চরিত্রে অভিনয় এবং ভুল বোঝার পর তাঁর পরিবর্তন অনবদ্য কায়দায় ফুটিয়ে তুলেছেন তিনি। সাধারণ ঘরের মেয়ে থেকে রণবীরের প্রেমিকা পরে স্ত্রী, সবেতেই দারুণ অভিনয় করেছেন রশ্মিকা মান্দানা। জখম অবস্থায় স্বামীর সেবা থেকে শুরু করে সম্পর্কের তলানিতেও তিনি রণবীরের পাশেই। বুঝিয়ে চলেছেন ঠিক-ভুল। হয়ে উঠেছেন রিল লাইফের পারফেক্ট ঘরণী। সামান্য অংশে দেখা গেলেও নজর কেড়েছেন শক্তি কাপুরও। তবে ছবির শেষের দিকে ববি দেওলের এন্ট্রি অনবদ্য। অ্যাকশন, খুন-খারাপি, হাতাহাতি, যৌনতা সব কিছুকেই অন্য স্তরে পৌঁছে দিয়েছেন তিনি। ছবির শেষাংশে রয়েছে এক্কেবারে অন্য চমক। ফলে দ্বিতীয় পার্টের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। 
শৌণক সুর

4th     December,   2023
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ