বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিনোদন
 

ওটিটি ডেবিউ নিয়ে আমি নার্ভাস: করিনা

ওটিটিতে পা রাখতে চলেছেন বলিউড অভিনেত্রী করিনা কাপুর খান। সুজয় ঘোষ পরিচালিত ‘জানে জান’ ছবির তিনি যে আসল ‘জান’ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আগামী ২১ সেপ্টেম্বর করিনার জন্মদিনে নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাবে এই ছবি। প্রাক রিলিজ আড্ডায় নানা কথা ভাগ করে নিলেন নায়িকা।
 
জন্মদিন সাধারণত কেমন ভাবে পালন করেন?
পার্টি করার চেয়ে এখন পরিবার আর সন্তানদের সঙ্গেই জন্মদিন কাটাতে বেশি ভালো লাগে।

ওটিটি ডেবিউ নিয়ে কি নার্ভাস লাগছে?
সত্যিই নার্ভাস আমি। কেরিয়ারের প্রথম ছবির সময়ও এতটা নার্ভাস ছিলাম না (হাসি)। টেলিভিশনে ছবির প্রোমো দেখার পর আরও বেশি নার্ভাস লাগছে। কারণ বাড়িতে বসে সকলে এখন আমায় খুব কাছ থেকে দেখবেন। আমরা সকলে অনেক পরিশ্রম করেছি। সুজয় দুর্দান্ত ছবি বানিয়েছে। 

কালিম্পংয়ে শ্যুটিং করার অভিজ্ঞতা কেমন?
দার্জিলিং আর কালিম্পং অন্যান্য জায়গার থেকে অনেকটাই আলাদা, অত্যন্ত সুন্দর। এই ছবির উপযুক্ত লোকেশন। থ্রিলারধর্মী ছবির জন্য সঠিক মুড তুলে ধরা অত্যন্ত জরুরি। শ্যুটিংয়ের পর আমরা ঘুরে বেড়াতাম। আর প্রচুর মোমো খেতাম।

ডেবিউয়ের জন্য এই চরিত্র বেছে নিলেন কেন?
ওটিটিতে এর আগে আরও অনেক প্রস্তাব এসেছে। মানুষ ওটিটি তো খুব কাছে থেকে দেখেন। তাই দুর্দান্ত চিত্রনাট্য আর গল্পের প্রয়োজন। অভিনয়ও দুরন্ত করতে হবে। কারণ এটা অন্য রকম এক মাধ্যম। সব মিলিয়ে সুজয়ের ছবিটা আমার ডেবিউয়ের জন্য সঠিক মনে হয়েছে।

সুজয়ের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন?
সুজয় পরিচালক হিসাবে দুর্দান্ত। সবসময় অভিনেতাদের ব্যতিক্রমী কিছু করতে বাধ্য করেন। অভিনেতাদের মানসিকভাবে নিংড়ে নেন। এই ছবিটি মা আর তার সন্তানকে ঘিরে। আমি সবসময় সুজয়ের সঙ্গে থ্রিলার ছবিতে কাজ করতে চেয়েছি। ওঁর ‘কাহানি’, ‘বদলা’- এইসব ছবিগুলো দুর্দান্ত। 

বাস্তবে মা হওয়ায় কি পর্দায় মায়ের চরিত্র করতে সুবিধে হয়েছে?
আমার ব্যক্তিগত জীবনকে নিজের কাজের জগতে টেনে নিয়ে আসি না। তবে হয়তো অবচেতন ভাবে আমার মা সত্ত্বাটা আমাকে কিছুটা সাহায্য করেছে।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কি ছবি নির্বাচনের ধরনে বদল এসেছে?
অবশ্যই। এক ধরনের চরিত্র করতে কেউই চান না। আমিও নিজেকে নানা চরিত্রে দেখতে চাই। সুজয়, হংসল মেহেতা-র মতো পরিচালকদের সঙ্গে কাজ করার সিদ্ধান্ত আমি ভেবেচিন্তেই নিয়েছি।

সইফের সঙ্গে কাজের ব্যাপারে আলোচনা করেন?
হ্যাঁ, করি। এই ছবিটা করার জন্য মূলত সইফই প্রথম উৎসাহ দিয়েছিল। 

শর্মিলা ঠাকুর ১৪ বছর পর বাংলা ছবিতে কাজ করতে চলেছেন। ওঁর এই ক্যামব্যাক আপনার কেমন লাগছে?
উনি জীবন্ত কিংবদন্তিদের মধ্যে একজন। বাংলা সিনেমায় কাজ করা মানে ওঁর ঘরে ফেরা। 

বলিউডের বহু অভিনেতা হলিউডেও কাজ করছেন। আপনার কী পরিকল্পনা?
এখনই আমার সেরকম কোনও আগ্রহ নেই। কারণ আমি এখানকার কাজ নিয়ে অত্যন্ত ব্যস্ত। তাছাড়া আমি দুই সন্তানের মা। ওদের সময় দিতে হবে। ওরা এখন খুবই ছোট। ওদের এখন আমাকে অনেক বেশি প্রয়োজন।
দেবারতি ভট্টাচার্য, মুম্বই

19th     September,   2023
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ