বিনোদন

‘আমাকে সহজে বোকা বানানো যায় না’

আমাজন প্রাইমে মুক্তি পেল ‘পঞ্চায়েত’ ওয়েব সিরিজের তৃতীয় সিজন। চরিত্রের আঙ্গিক থেকে ব্যক্তিগত জীবন— খোলামেলা আড্ডায় ‘পঞ্চায়েত’-এর মুখ্য অভিনেতা 
জিতেন্দ্র কুমার।


নতুন সিজনে আপনার চরিত্রের কোনও পরিবর্তন হল?
আমার চরিত্রের ব্যাপ্তি আরও বেড়েছে। প্রথম ও দ্বিতীয় সিজনে যা দেখানো হয়েছিল, তার থেকে আরও বড় আঙ্গিক তুলে ধরা হয়েছে এই সিজনে। রোমান্টিক ট্র্যাক রয়েছে। রিঙ্কুর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গতি পেয়েছে। মাঝে অন্যত্র বদলি করা হলেও সচিবজি (জিতেন্দ্রর চরিত্র) ফের ফুলেরাতে ফিরে আসবে। কেন এই গ্রামে আবার সে ফিরে এল, তা ঘিরেই সিরিজের গল্প অনেকটা আবর্তিত। পাশাপাশি একটা ষড়যন্ত্রের গল্পও রয়েছে। 

চিত্রনাট্যের কাজ চলাকালীনই কি আপনি পরিচালক ও লেখকদের সঙ্গে আলোচনা করতেন? 
হ্যাঁ করতাম। তবে প্রচুর পরিবর্তন করার সুযোগ ছিল না। কারণ পরিচালকের নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। তবে আমিও নিজের আইডিয়া শেয়ার করতাম। আসলে প্রথম থেকেই পরিচালক ও লেখক এত ভালো করে কাজ করেছেন, যে বিরাট কোনও পরিবর্তনের কথা মনেই হয়নি কখনও।  

পর্দার আপনার চরিত্রের মতো কাউকে বাস্তবে চেনেন?  
(হেসে) না, না। সরাসরি এমন কাউকে দেখিনি। আর আমি নিজেও ওর মতো নই। আমি সম্পূর্ণ আলাদা। হ্যাঁ, অনেক সহজ সরল মানুষদের সঙ্গে আমার আলাপ রয়েছে। সহজেই যাঁদের চালিত করতে পারেন অন্য কেউ। তবে আমাকে সহজে বোকা বাননো যায় না। 

হিট সিনেমা, ওয়েব সিরিজে কাজের পর আপনার ব্যক্তিগত জীবনে কতটা পরিবর্তন হল? 
‘পঞ্চায়েত’, ‘শুভ মঙ্গল জ্যাদা সাবধান’-এর পর আমার কাজের জগতে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। আমি যে ধরনের চিত্রনাট্যে কাজ করার স্বপ্ন দেখতাম, তেমন প্রচুর অফার পেয়েছি। আগে আমি এই ধরনের গল্প খুঁজতাম। আশা করতাম, দর্শক আমার কাজ পছন্দ করবেন। স্ক্রিন টেস্ট দিতাম অনেক, যাতে আমি নজরে পড়ি। সেগুলি কমেছে। এখন ভালো অফার পাই। সেগুলির মধ্যে সবচেয়ে ভালো কাজগুলি বেছে নেওয়ার সুযোগ পাই এখন। তবে ব্যক্তিগত জীবনে কোনও পরিবর্তন হয়নি। আমি দশ বছর আগে যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকতাম, এখনও সেখানেই থাকি। হ্যাঁ একটা বড় টিভি কিনেছি। আর সবকিছু একরকমই আছে। বন্ধুর সংখ্যাও বাড়েনি।
 
দ্বিতীয় ও তৃতীয় সিজন মুক্তির মাঝে অনেক দিনের ব‌্যবধান ছিল। চরিত্রে ফিরতে কীভাবে প্রস্তুতি নিলেন? 
হ্যাঁ, একটা লম্বা ব্যবধান ছিল। চরিত্রে ঢুকতেও সময় লেগেছে। তবে শ্যুটিং শুরুর আগে আমি বেশ কয়েকটা প্রিয় এপিসোড দেখেছিলাম। সেগুলি অনেকটা সাহায্য করেছে। শ্যুটিং শুরুর আগে আমাদের স্ক্রিপ্ট রিডিং ওয়ার্কশপ হয়েছিল। তাই সংলাপ, অন্যান্য চরিত্র সম্পর্কে ধারণা ছিল। তবে চরিত্রগুলি এক থাকলেও দৃশ্যগুলি, ঘটনাগুলি সম্পূর্ণ নতুন। তাই পরিশ্রম করতে হয়েছে। পরিচালক খুব সাহায্য করেছেন। 

সোশ্যাল মিডিয়া সম্পর্কে আপনার দৃষ্টিভঙ্গি কী?
ইতিবাচক ও নেতিবাচক, দু’টি দিকই রয়েছে। ছবি, সিরিজের প্রচার চলে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সহজেই অনেক মানুষের কাছে পৌঁছানো যায়। প্রচুর নতুন তথ্য জানা যায়। অন্যদিকে, তরুণ প্রজন্ম ঘণ্টার পর ঘণ্টা সোশ্যাল মিডিয়ায় কাটায়। এর আসক্তি ক্রমেই বেড়ে চলেছে। 
শামা ভগত • মুম্বই
23d ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

উচ্চশিক্ষায় নামী স্বদেশি/ বিদেশি প্রতিষ্ঠানে সুযোগ পেতে পারেন। স্ত্রীর স্বাস্থ্য বিষয়ে চিন্তা। কর্মে অগ্রগতি।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার ৮২.৫৬ টাকা৮৪.৩০ টাকা
পাউন্ড১০৪.৩৩ টাকা১০৭.৮১ টাকা
ইউরো৮৮.০৪ টাকা৯১.১৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা