উত্তরবঙ্গ

তিস্তায় ত্রস্ত পাহাড়-ডুয়ার্স, জলপাইগুড়িতে ভারী বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি ও সংবাদদাতা, দার্জিলিং, নাগরাকাটা: ফের ভয়ঙ্কর তিস্তা। সিকিম পাহাড়ে প্রবল বর্ষণের জেরে তিস্তা নদী ফুলেফেঁপে উঠেছে। যার জেরে কালিম্পং পাহাড় থেকে ডুয়ার্সের একাংশ কার্যত বিপর্যস্ত। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে দুই জায়গার প্রায় ১৮টি গ্রামে ঢুকে পড়ে নদীর জল। প্রায় দেড় হাজার মানুষ বিপন্ন। শুধু তাই নয়, কিছু জায়গায় তিস্তার জলস্তরের উচ্চতা হয়ে গিয়েছে ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের সমান। তিস্তার দোসর জলঢাকা। ইতিমধ্যেই এই নদীর অসংরক্ষিত এলাকায় বিপদ সঙ্কেত জারি করেছে সেচদপ্তর। এদিকে বর্ষার শুরুতেই রেকর্ড বৃষ্টি জলপাইগুড়িতে। ২৪ ঘণ্টায় এখানে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ১১৫ মিলিমিটার। সবমিলিয়ে পাহাড় ও ডুয়ার্সের বাসিন্দারা রীতিমতো আতঙ্কিত। পরিস্থিতির মোকাবিলায় ময়দানে ঝাঁপিয়েছে প্রশাসন। 
কয়েক দিন ধরে সিকিম পাহাড়ে ঝোড়ো ইনিংস শুরু করেছে বর্ষা। যার জেরে তিস্তা ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে কালিম্পংয়ের লিকুভির, মেল্লি, ২৭ মাইল, ২৯ মাইল ও তিস্তাবাজারে নদীর জল উঠে গিয়েছে। সংশ্লিষ্ট গ্রামগুলির বাসিন্দাদের কেউ প্রতিবেশী, আবার কেউ আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। সকালে তিস্তাবাজারে ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর দিয়ে প্রবাহিত হয় তিস্তা। দুপুরের দিকে সেখান থেকে জল কিছুটা নামে। এখন তিস্তার জলস্তরের উচ্চতা জাতীয় সড়কের সমান। এছাড়া সংশ্লিষ্ট জাতীয় সড়কের একাধিক জায়গা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই সড়ক দিয়ে শিলিগুড়ি থেকে কালিম্পং ও সিকিমের সরাসরি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। এদিন কালিম্পং জেলা প্রশাসন এব্যাপারে জরুরি বৈঠক করে। কালিম্পংয়ের জেলাশাসক বালাসুহ্মণ্যম টি বলেন, জেলায় ১০টি ত্রাণ শিবির প্রস্তুত করা হলেও কেউ এখনও সেখানে আশ্রয় নেননি। তিস্তার গতিবিধি নিয়ে গ্রামে গ্রামে মাইকে প্রচার চলছে। মানুষের সুরক্ষায় জাতীয় সড়কের তিনটি জায়গা দিয়ে যান চলাচল নিয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। জিটিএ’র মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক শক্তিপ্রসাদ শর্মা বলেন, লিকুভির, মেল্লি, তিস্তাবাজার, ২৯ মাইল, ২৭ মাইল প্রভৃতি এলাকায় প্রায় ৫০টি বাড়িতে নদীর জল ঢুকলেও তা নেমে গিয়েছে। পরিস্থিতির উপর নজর রাখা হয়েছে। 
তিস্তার ভয়ঙ্কর ঢেউ আছড়ে পড়েছে জলপাইগুড়িতেও। জেলার ক্রান্তি ব্লকের চ্যাংমারি গ্রাম পঞ্চায়েত নদীর দাপট বেশি। এখানকার ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামগুলি পরিদর্শন করেন ক্রান্তি ব্লকের বিডিও রিমিল সোরেন, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি পঞ্চানন রায় সহ অন্যান্যরা। চ্যাংমারি পঞ্চায়েতের প্রধান আব্দুল সামাদ বলেন, সাহেববাড়িতে ২৫টি, পূর্ব দলগাঁওয়ে ২৫টি ও পশ্চিম দলগাঁওয়ের ৩৫টি বাড়িতে তিস্তার জল দাঁড়িয়ে আছে। দুর্গতদের অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে ও প্রাথমিক স্কুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট এলাকায় দেড় হাজার বিঘা চাষের জমি জলের তলায়। বাদাম, করলা, পটল, ঝিঙে প্রভৃতি সব্জি চাষে ক্ষতি হয়েছে। ওই ব্লকের চাপাডাঙা পঞ্চায়েতের মৌয়ামারি এলাকায় ৭০টি ও বাসুসুব্বায় ৩০টি বাড়ি জলমগ্ন। মাল ব্লকের বাগরাকোট পঞ্চায়েত এলাকায় প্রায় ৪০টি বাড়ি জলমগ্ন। ডাবগ্রামের লালটং ও চমকডাঙি বনবস্তির অবস্থাও একই। এদিকে, নাগরাকাটায় বেড়েছে সুখানি নদীর জল। তা সুখানি সেতুর উপর দিয়ে বইছে। ফলে মনমোহনধুরা ও নাগরাকাটার মধ্যে যোগাযোগ কার্যত বিচ্ছিন্ন। এদিকে তিস্তাকে নিয়ন্ত্রণ করতে গজলডোবায় তিস্তা ব্যারেজ থেকে কিছু জল ছাড়া হয়েছে। এরজেরে ভুটানের সঙ্গে সংযুক্ত জলঢাকাতে নদীতে বেড়েছে জলস্তর। তাই জলঢাকা নদীর অসংরক্ষিত এলাকায় হলুদ সঙ্কেত জারি করে সেচদপ্তর।
1Month ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

গুরুজনের থেকে অর্থকড়ি লাভ হতে পারে। স্বার্থান্বেষী আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দূরত্ব রেখে চলুন। মনে চাঞ্চল্য।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৮১ টাকা৮৪.৫৫ টাকা
পাউন্ড১০৬.৫৫ টাকা১১০.০৬ টাকা
ইউরো৮৯.৫৫ টাকা৯২.৭১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা