বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

অর্ধেকেরও বেশি বুথে নেই সভাপতি, রিপোর্ট, পূর্ব বর্ধমানে বিজেপির দুর্বল সংগঠন

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: তৃণমূলের বিরুদ্ধে ইস্যুর অভাব নেই। কিন্তু সাংগঠনিক দুর্বলতার কারণে পূর্ব বর্ধমানে বিজেপি তা কাজে লাগাতে পারছে না। জেলার অর্ধেক বুথে এখনও তাদের সভাপতি নেই। সংগঠনের এই দশায় ক্ষুদ্ধ রাজ্য নেতৃত্ব। দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে ইস্পাতনগরীর দু’টি বিধানসভা কেন্দ্র রয়েছে। দুর্গাপুরের এই দু’টি বিধানসভা কেন্দ্র ছাড়া অন্যান্য এলাকায় বিজেপির সংগঠন নড়বড়ে। জেলার মঙ্গলকোট, কেতুগ্রাম, রায়না, মন্তেশ্বরের বহু বুথে তাদের কমিটি নেই। সংখ্যালঘু অধ্যুষিত বুথগুলিতে গেরুয়া শিবির কোনওদিনই সংগঠন মজবুত করতে পারেনি। হিন্দু প্রভাবিত বহু বুথেও এখনও তারা মাথা তুলতে পারেনি। 
দলের এক নেতা বলেন, প্রতিটি বুথে গিয়ে জেলার নেতাদের জনসংযোগ বাড়ানোর জন্য বলা হয়েছে। কিন্তু সংগঠন না থাকার জন্য বহু গ্রামে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। গত লোকসভা নির্বাচনের আগে গলসি, বুদবুদ, রায়না, খণ্ডঘোষের মতো বহু এলাকায় দাপিয়ে প্রচার করা গিয়েছিল। ওই এলাকার সেই সময়ের সক্রিয় কর্মীরা নিষ্ক্রিয় হয়ে গিয়েছেন। দলের বর্ষীয়ান নেতা নরেশ কোনার বলেন, তাঁদের নিষ্ক্রিয় হওয়ার পিছনে একাধিক কারণ রয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনের ফল বেরনোর পর কর্মীদের খারাপ অবস্থার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছিল। জেলার অনেক নেতার মোবাইল বন্ধ ছিল। বহুবার ফোন করেও তাঁদের পাওয়া যায়নি। প্রভাবশালীরা নিজেদের সেফজোনে রেখেছিলেন। তাছাড়া সেইসময় ক্ষতিগ্রস্ত কর্মীদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ছিল। সেটাও অনেকে পাননি। নতুন করে এখন আবার তাঁরা কোন ভরসায় ময়দানে নামবেন? দলের আর এক নেতা বলেন, এখন নেতারা ‘গ্রাম চলো অভিযান’-এ নেমেছেন। এধরনের কর্মসূচি আরও আগে করার কথা ছিল। আর কয়েকদিন পর লোকসভা নির্বাচন। অথচ এখনও সব বুথে কমিটি গঠন করা গেল না। এটা চরম ব্যর্থতা ছাড়া আর কিছু নয়। বুথস্তরে সংগঠন মজবুত না হলে শাসকদলের বিরুদ্ধে হাজার ইস্যু থাকলেও তা কাজে লাগানো যাবে না। কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প রয়েছে। সেগুলি সম্পর্কেও গ্রামের বাসিন্দাদের জানানো যাচ্ছে না। 
দলীয় সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, রাজ্য নেতারা জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করে সংগঠন মজবুত করার নির্দেশ দিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু তারপরও সেই নির্দেশ কার্যকর করা যাচ্ছে না। জেলার এক সময়ের প্রথম সারির নেতারা দলের বাইরে রয়েছেন। তাঁরা কোনও কর্মসূচিতে যোগ দিচ্ছেন না। ওই নেতাদের সক্রিয় করতে রাজ্য থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সেটাও জেলা নেতারা করতে পারেননি। বর্ধমান সাংগঠনিক জেলার বিজেপির পর্যবেক্ষক কৃষ্ণ ঘোষ বলেন, বুথ কমিটি গঠনের কাজ চলছে। আমাদের প্রতিটি কর্মসূচি সফলভাবে চলছে। ‘গ্রাম চলো অভিযান’এ গিয়ে এলাকার বাসিন্দাদের কাছে থেকে যথেষ্ট সাড়া পাচ্ছি। লোকসভা নির্বাচনে এবারও আমাদের সাফল্য আসবে।

23rd     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ