Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

যে মর্যাদা নেতাজির অবশ্যপ্রাপ্য

নেতাজি সংক্রান্ত গোপন ফাইলপত্র প্রকাশ্যে আনবে ভারত সরকার। ১৪ অক্টোবর, ২০১৫ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই ঘোষণা করে ভারতের রাজনীতিতে আলোড়ন ফেলে দিয়েছিলেন। ২০১৬ সালের ২৩ জানুয়ারি একশোটি গোপন ফাইল প্রকাশ করে বাহবা কুড়িয়েছিলেন তিনি। প্রকাশ করা হয়েছিল ফাইলগুলির ডিজিটাল সংরক্ষণ। তার কয়েক মাস আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছায় প্রকাশ পেয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ সরকারের হেফাজতে রক্ষিত আরও ৬৪টি গোপন নথি। নেতাজির অন্তর্ধান রহস্য উন্মোচন নিয়ে দেশবাসীর আগ্রহ, কৌতূহল বহুদিনের। অনেকের সন্দেহ, কংগ্রেস দল এবং তাদের একের পর এক সরকারের ইচ্ছেতেই নেতাজি এক রহস্য রয়ে গিয়েছেন। সেটি উন্মোচন না-হওয়ার কারণও কংগ্রেসের অনাগ্রহ। নেতাজির প্রতি অমর্যাদা নামক জনপ্রিয় ইস্যু—কংগ্রেস-বিরোধী রাজনীতিতে বরাবর ইন্ধন জুগিয়ে চলেছে। ইস্যুটি নিয়ে কংগ্রেস-বিরোধীদের মধ্যে প্রতিযোগিতার কথাও সুবিদিত। বিশেষ করে বাংলার রাজনীতিতে নেতাজি আবেগের বিকল্প নেই। বিজেপিকে বানিয়ার পার্টি হিসেবে দেগে দেন কেউ কেউ। কিন্তু বাস্তব হল, জনসঙ্ঘের উত্তরসূরি বিজেপির প্রাণপুরুষ আসলে এক বঙ্গসন্তান—শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। কিন্তু কয়েক বছর আগে পর্যন্ত বাংলার রাজনীতিতে বিজেপি একটি এলেবেলে দল হিসেবে গণ্য হয়েছে। আরএসএস এবং বিজেপি নেতৃত্বকে এটি বড় দাগা দিত। তারা মনে করে, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের প্রশাসনিক ক্ষমতা তাদের দখলে না-এলে শ্যামাপ্রসাদের স্বপ্ন অপূর্ণ থেকে যাবে। তাই বিজেপির মস্তিষ্ক বলে যাঁরা পরিচিত তাঁরা প্ল্যান করেছেন, আবেগপ্রবণ বাঙালির হৃদয় দখল করতে হলে তাদের আবেগ নিয়েই খেলতে হবে। সেই বিচারে নেতাজির চেয়ে ভালো হাতিয়ার আর কিছু আপাতত নেই। 
নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় এসেই এই অস্ত্রে শান দিতে শুরু করেন। সেটা বুঝতে পেরে পাল্টা চাল দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের তৃণমূল সরকার কেন্দ্রের মোদি সরকারের আগেই কিছু নেতাজি ফাইল প্রকাশ করেছিল। কোনও সন্দেহ নেই তাতে আরও চাপে পড়ে গিয়েছিল মোদি সরকার। কথা দিয়ে কথা না-রাখার ‘ঐতিহ্য’ আঁকড়ে থাকতে পারেনি, ২৩ জানুয়ারি ২০১৬-তে কেন্দ্র কিছু ফাইল প্রকাশ করেছিল। আমরা জানি, ক্রমে দেশবাসী উপলব্ধি করেছিল দুই সরকারের তরজায় যা-কিছু প্রকাশ পেয়েছে, তা বহ্বারম্ভে লঘুক্রিয়ার অতিরিক্ত নয়। এতে নেতাজি অন্তর্ধান রহস্য উন্মোচনের কোনও ম্যাজিকই নেই। দেশবাসী যে খুশি হয়নি তা মালুম হতেই দ্বিতীয় মোদি সরকার প্রতিষ্ঠার আগে আরও একাধিক মাস্টার স্ট্রোক দেন মোদিজি। আজাদ হিন্দ বাহিনীর সম্মানে লালকেল্লায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের রস আইল্যান্ডের নামকরণ করেন নেতাজির নামে। ২০১৯-এর ২৩ জানুয়ারি লালকেল্লায় উদ্বোধন করেন নেতাজি মিউজিয়াম। এটি নেতাজি ও আজাদ হিন্দ ফৌজকে উৎসর্গ করা হয়। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীর সামনে আরও কয়েকটি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন: নেতাজিকেই ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রীর স্বীকৃতি দেওয়া হবে এবং ২১ অক্টোবর দিনটিকে সরকারের তরফে ‘আজাদ হিন্দ দিবস’ হিসেবে পালন করা হবে। দিনটি সাধারণতন্ত্র দিবস (২৬ জানুয়ারি) এবং স্বাধীনতা দিবসের (১৫ আগস্ট) মতোই মর্যাদা পাবে।  
সুভাষচন্দ্রকে নিয়ে এতটা আবেগ যে সরকারের সেই সরকার নেতাজির ১২৫তম জন্ম দিবস উদযাপনের ক্ষেত্রে গড়িমসি করছে কেন? এই প্রশ্ন তুলেছে রাজনৈতিক মহল। গত ২১ অক্টোবর কেন্দ্রীয় সংস্কৃতিমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল ঘোষণা করেছিলেন, এই বিষয়ে ভারত সরকার একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি তৈরি করবে। তারপর পাঁচ সপ্তাহের বেশি অতিক্রান্ত। কিন্তু সেই কমিটির হদিশ নেই। অথচ, রাজ্য সরকার ২০২১ সাল জুড়ে নেতাজিকে নিয়ে নানা ধরনের কর্মসূচি পালনের জন্য তৈরি হচ্ছে। দু’জন নোবেলজয়ীকে নিয়ে বিদ্বজ্জনদের একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গড়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে, বসু পরিবার দিল্লিতে খোঁজখবর নিয়ে কেন্দ্রের ভূমিকায় রীতিমতো হতাশ। কারণ, সংস্কৃতিমন্ত্রী তাঁর একটি পারিবারিক অনুষ্ঠান নিয়ে এতই ব্যস্ত যে নেতাজির বিষয়ে উদ্যোগী হওয়ার ফুরসত পাননি! এই ঘটনা দেশবাসীকে নিঃসন্দেহে ব্যথিত করেছে। প্রধানমন্ত্রীর উচিত, ব্যক্তিগতভাবে বিষয়টিতে নজর দেওয়া। নেতাজির জন্মদিনটিকে দেশপ্রেম দিবসের মর্যাদা দান এবং জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করার দাবিটিও আন্তরিকভাবে বিবেচনা করা উচিত। নেতাজি যে নিছক সঙ্কীর্ণ রাজনীতির বোড়ে নন, সত্যিকার মর্যাদালাভের অধিকারী—এটি প্রমাণের দায় এখন প্রধানমন্ত্রীর।  
মন জয়ের চেষ্টা!

একটি শিশু যখন আধো আধো কথা বলতে শুরু করে তখন মিষ্টিই শোনায়। কিন্তু বড়বেলায় সেই আধো আধো কথা থেকে গেলে তা হয় হাস্যকর। কখনও মনে হয় বয়স কম দেখানোর অপচেষ্টা। বাংলাকে বঞ্চিত রেখে প্রধানমন্ত্রীর ভাঙা বাংলায় ভাষণ বা কবিতা পাঠের বঙ্গপ্রেম অনেকটা সেরকমই! বিশদ

01st  December, 2020
কৃষকদের সঙ্গে কথা বলুন মোদি

দু’মাসের বেশি হয়ে গেল মোদি সরকার বিতর্কিত কৃষি বিলগুলি পাশ করিয়ে নতুন আইনে পরিণত করেছে। সংসদে বিল উত্থাপনের শুরু থেকেই বিরোধিতা করেছিল সমস্ত বামপন্থী দল, অকালি দল, কংগ্রেস, তৃণমূল প্রভৃতি। বিজেপি-বিরোধী বেশিরভাগ দলই এই বিল তথা আইনের বিপক্ষে ছিল। বিশদ

30th  November, 2020
মন্দের ভালো

আমাদের দেশে বহু মানুষের কাছে এখনও শিক্ষার আলো পৌঁছয়নি। পণ্ডিতদের কাছে অর্থনীতিতে মন্দা, জিডিপি বৃদ্ধির হার ঋণাত্মক হওয়া ইত্যাদি বিষয় গুরুত্ব পেলেও আম জনতা এই বিষয়গুলি নিয়ে বিশেষ মাথা ঘামায় না। শিক্ষিত সমাজ বিষয়গুলির গুরুত্ব বুঝলেও দেশের সাধারণ মানুষ বিশেষত গরিব মানুষ অত শত বোঝে না। বিশদ

29th  November, 2020
স্বাস্থ্য বিপ্লব

দারিদ্র হল একটা দুষ্টচক্রের নিয়ন্তা। অশিক্ষা। তার থেকে অপুষ্টি। সেখান থেকে দুর্বল সমাজ। এই সমস্ত মন্দের কারণ হল দারিদ্র। অর্থাৎ একটা খারাপ থেকে আর একটা খারাপের মধ্য দিয়ে সমাজটাকে নিরন্তর টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে যায় দারিদ্র। দরিদ্র সমাজের আয়ের বেশিরভাগটা খাদ্যের পিছনে খরচ হয়ে যায়। বিশদ

28th  November, 2020
বোর্ডের পরীক্ষা: উচিত সিদ্ধান্ত

লড়াই এখনও অব্যাহত। যে চ্যালেঞ্জ করোনা ভাইরাস ছুঁড়ে দিয়েছে তার মোকাবিলা সমানতালে চলছে। ভারতে আটমাস পেরিয়ে গিয়েছে। তবু বিশেষজ্ঞরা, সরকার, সাধারণ মানুষ কেউই নিশ্চিত নয় এই সংগ্রাম কবে শেষ হবে। এ এমন এক যুদ্ধ যাতে জয়লাভের বিকল্প নেই। অতএব অনেক ভেবেচিন্তেই পদক্ষেপ করতে হচ্ছে। বিশদ

27th  November, 2020
কবে ভ্যাকসিন: ধোঁয়াশা রইল

একেই বলে চর্বিতচর্বণ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানেনই না দেশে কবে থেকে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ শুরু হবে বা তার ক’টি ডোজ। অথবা তার দাম কী! আর যদি জানেনও তাহলেও তিনি এব্যাপারে ভারতবাসীকে দিশা দেখাতে ব্যর্থ হলেন। বিশদ

26th  November, 2020
ভ্যাকসিন: ভীষণ স্বস্তির কথা

ইউনিক আইডেনটিফিকেশন আধার ইন্ডিয়া-র তরফে পশ্চিমবঙ্গের জন্য ২০২০ সালের মে মাসে প্রজেক্টেড পপুলেশন ছিল ৯ কোটি ৯৬ লক্ষের কিছু বেশি। সেই হিসেবে ভারতের চতুর্থ বৃহৎ জনসংখ্যার রাজ্য হল পশ্চিমবঙ্গ। অর্থাৎ ১০ কোটি জনসংখ্যার চাপ নিয়ে ২০২১ সালে প্রবেশ করতে চলেছে আমাদের রাজ্য। ভারত একটি গরিব দেশ। বিশদ

25th  November, 2020
এত দেরিতে বোধোদয়!

পরিযায়ী শব্দটার সঙ্গে আমরা অল্প বিস্তর পরিচিত। আমাদের মাতামাতি মূলত পরিযায়ী পাখিদের ঘিরে। শীতের সময়ে দূরদূরান্ত থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ে আসা পরিযায়ী পাখি দেখার আকর্ষণ কম নয়। আর মানুষের ক্ষেত্রে? বিশদ

24th  November, 2020
জঙ্গিদের লক্ষ্য যদি ভ্যাকসিন 

করোনা মহামারী শতাব্দীর সবচেয়ে বড় বিপদ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। তবে সভ্য সমাজের এই চিন্তার উল্টো দিকে হেঁটে চলেছে জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি। তারা এটাকে বরং এক দুর্লভ মওকা হিসেবে বেছে নিয়েছে। জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি জানে, এই পরিস্থিতিতে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলি মানুষকে বাঁচাতে নানাভাবে ব্যস্ত রয়েছে। বিশদ

23rd  November, 2020
মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা

করোনাকালে বহু মানুষেরই আয় কমেছে, অথচ বেড়েছে জিনিসপত্রের দাম। দু’মাস এক জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকার পর ফের বাড়ল পেট্রল-ডিজেলের দাম। তাই আশঙ্কাও বাড়ল। এমনিতেই গরিব-মধ্যবিত্তের এখন নুন আনতে পান্তা ফুরানোর অবস্থা। মূল্যবৃদ্ধির আঁচে দগ্ধ আম জনতা। প্রায় সব খাদ্যপণ্যের দাম ঊর্ধ্বমুখী। বিশদ

22nd  November, 2020
জীববৈচিত্র রক্ষার দায়িত্ব মানুষের

জীববৈচিত্রের জন্য ভারত একটি উল্লেখযোগ্য দেশ। গোরু, মহিষ, ছাগল, কুকুর, বিড়াল, হাঁস, মুরগির মতো অল্প কিছু প্রাণী গৃহপালিত। কিন্তু এর বাইরে জলে, জঙ্গলে আছে আরও কয়েকশো প্রাণী। কিছু নিরীহ, কিছু হিংস্র। মানুষের সংস্রবের বাইরে, প্রাকৃতিক পরিবেশে যেসব প্রাণী রয়েছে ভারতে তাদের সংরক্ষণ করা হয় মূলত তিনভাবে। বিশদ

21st  November, 2020
শাঁখের করাত! 

শুধু আবেগ নয়, প্রশ্নটা অধিকারের। তথ্য জানার অধিকার। নেতাজি অন্তর্ধান রহস্যের প্রকৃত সত্যটা কী তা জানার অধিকার দেশবাসী, বিশেষ করে বাংলার মানুষের আছে। এ প্রসঙ্গে কেন্দ্রের হাতে কী তথ্য আছে তা জানতে আগ্রহী বঙ্গবাসী। নেতাজির বিষয়ে যাবতীয় তথ্য এবার অন্তত কেন্দ্র সামনে আনুক। 
বিশদ

20th  November, 2020
স্বাগত উন্নয়নের রাজনীতি 

নির্ঘণ্ট ঘোষণা শুধু বাকি। সে নিতান্তই আনুষ্ঠানিকতা। এটুকু উপেক্ষা করলে পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ঢাকে কাঠি কিন্তু পড়ে গিয়েছে। কোভিড পরিস্থিতিতে ভোট গ্রহণ নিয়ে যে আশঙ্কা ছিল সেটাও দূর করে দিয়েছে বিহার। পাশের রাজ্যে সফল ভোট গ্রহণের পর নতুন সরকারও তৈরি হয়ে গিয়েছে।  
বিশদ

19th  November, 2020
দাম: আশু সুরাহা চায় মানুষ 

সাম্প্রতিক অতীতে ভারতে অর্থনীতির অবনমনের শুরু ডিমানিটাইজেশন থেকে। নোট বাতিলের ধাক্কায় ভারতবাসীর জীবন-জীবিকার যখন নাভিশ্বাস ওঠার উপক্রম, ঠিক সেইসময়ই নামিয়ে আনা হয় আরও এক আঘাত। চাপিয়ে দেওয়া হয় ত্রুটিপূর্ণ জিএসটি। নোটবন্দির ভয়াবহ হানার চার বছর ইতিমধ্যেই পেরিয়ে গিয়েছে। বিশদ

18th  November, 2020
তৎপর হতেই বায়ুদূষণ কমল 

পশ্চিমবঙ্গে নানা জাতি ও ধর্মের মানুষের বাস। ভিন রাজ্যের বহু মানুষকে বাংলা আপন করে নিয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই এখানে অন্যান্য অনেক রাজ্যের তুলনায় জনঘনত্ব বেশি। এই কারণে যে-কোনও ধরনের সংক্রমণ মোকাবিলার কাজটি করাও এখানে বেশ কঠিন। তবে হাল ছাড়েনি বাংলার প্রশাসন।   বিশদ

17th  November, 2020
ভরসার দৃষ্টান্ত

শরৎ-হেমন্ত হল পশ্চিমবঙ্গে উৎসবের কাল। প্রধান উৎসব দুর্গাপুজো। তার রেশ কাটার আগেই চলে আসে কালীপুজো। কালীপুজোর দিন পুরো বাংলায় পালিত হয় আলোর উৎসব—দীপাবলি। দীপাবলি আলোর উৎসব হলেও বাঙালি এদিন শুধু রকমারি প্রদীপ জ্বালিয়ে এবং বিদ্যুতের আলোয় সবদিক সাজিয়ে আর সন্তুষ্ট হয় না। আলোর উৎসবের আনন্দকে বহুবর্ধিত করে নিতে বাজি পোড়ায়। বিশদ

16th  November, 2020
একনজরে
পরিবার পরিকল্পনার অধিকাংশ সূচকে দেশে এক নম্বরে বাংলা। কেন্দ্রীয় সরকারের অক্টোবর মাসের তথ্য থেকে একথা জানা গিয়েছে। এই সূচকগুলির মধ্যে গর্ভনিরোধক ওষুধ বা পিল থেকে শুরু করে বন্ধ্যাত্বকরণ, মেয়েদের আইইউসিডি থেকে শুরু করে ছেলেদের নিরোধ ব্যবহার— অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেশে শীর্ষে ...

কৃষক বিক্ষোভের আঁচ ছড়াল দেশান্তরেও। কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। বিক্ষোভরত ‘রোদে পোড়া, তামাটে’ মানুষগুলোর পরিবার ও বন্ধুদের জন্য চিন্তিত বলে জানিয়েছেন তিনি। ...

উম-পুন পরবর্তী ক্ষতিপূরণে দুর্নীতির যাবতীয় অভিযোগের তদন্ত করবে কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটার জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ক্যাগ)। কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি থোট্টাথিল বি রাধাকৃষ্ণাণ ও অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ মঙ্গলবার তিন মাসের মধ্যে তদন্তসাপেক্ষে ক্যাগকে রিপোর্ট দাখিল করতে বলেছে। ...

সীমান্তে পাচার রুখতে আরও কঠোর হচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সীমান্ত বরাবর কোথাও যেন কাঁটাতারবিহীন এলাকা না থাকে, তা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নেওয়া শুরু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। দুই দেশের সীমান্তের মধ্যে কাঁটাতার নেই মালদহের যে সব সীমান্তে, ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সম্পত্তিজনিত মামলা-মোকদ্দমায় সাফল্য প্রাপ্তি। কর্মে দায়িত্ব বৃদ্ধিতে মানসিক চাপবৃদ্ধি। খেলাধূলায়  সাফল্যের স্বীকৃতি। শত্রুর মোকাবিলায় সতর্কতার ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৭৬: কিউবার প্রেসিডেন্ট হলেন ফিদেল কাস্ত্রো
১৯৮৪: ভোপাল গ্যাস দুর্ঘটনায় কমপক্ষে আড়াই হাজার মানুষের মৃত্যু
১৯৮৮: পাকিস্তানের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হলেন বেনজির ভুট্টো
১৯৮৯: ভারতের সপ্তম প্রধানমন্ত্রী হলেন ভিপিসিং 



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৩.১৭ টাকা ৭৪.৮৮ টাকা
পাউন্ড ৯৭.২১ টাকা ১০০.৬৪ টাকা
ইউরো ৮৬.৯৬ টাকা ৯০.১২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৮,৯৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৬,৪৭০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭,১৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬০,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬১,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭, বুধবার, ২ ডিসেম্বর ২০২০, দ্বিতীয়া ৩০/৪৪ সন্ধ্যা ৬/২৩। মৃগশিরা নক্ষত্র ১১/২২ দিবা ১০/৩৮। সূর্যোদয় ৬/৪/৪৩, সূর্যাস্ত ৪/৪৭/২৫। অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৬ মধ্যে পুনঃ ৭/২৯ গতে ৮/১২ মধ্যে পুনঃ ১০/২১ গতে ১২/৩০ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪০ গতে ৬/৩৩ মধ্যে পুনঃ ৮/২০ গতে ৩/২৫ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/৪৬ গতে ৭/২৯ মধ্যে পুনঃ ১/১৩ গতে ৩/২২ মধ্যে। বারবেলা ৮/৪৫ গতে ১০/৫ মধ্যে পুনঃ ১১/২৬ গতে ১২/৪৭ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৪৫ গতে ৪/২৫ মধ্যে। 
 ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭, বুধবার, ২ ডিসেম্বর ২০২০, দ্বিতীয়া সন্ধ্যা ৫/৪। মৃগশিরা নক্ষত্র দিবা ১০/২৪। সূর্যোদয় ৬/৬, সূর্যাস্ত ৪/৪৮। অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৬ মধ্যে ও ৭/৩৮ গতে ৮/২০ মধ্যে ও ১০/২৮ গতে ১২/৩৫ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৬/৩৬ মধ্যে ও ৮/২৫ গতে ৩/৩২ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/৫৬ গতে ৭/৩৮ মধ্যে ও ১/১৭ গতে ৩/২৪ মধ্যে। কালবেলা ৮/৪৬ গতে ১০/৭ মধ্যে ও ১১/২৭ গতে ১২/৪৭ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৪৬ গতে ৪/২৬ মধ্যে। 
১৬ রবিয়ল সানি।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আপনার আজকের দিনটি
মেষ: সম্পত্তিজনিত মামলা-মোকদ্দমায় সাফল্য প্রাপ্তি। বৃষ: নানা উপায়ে অর্থপ্রাপ্তির সুযোগ। ...বিশদ

04:29:40 PM

ইতিহাসে আজকের দিনে
  ১৯৭৬: কিউবার প্রেসিডেন্ট হলেন ফিদেল কাস্ত্রো ১৯৮৪: ভোপাল গ্যাস ...বিশদ

04:28:18 PM

আইএসএল: হায়দরাবাদ ও জামশেদপুরের ম্যাচ ১-১ গোলে ড্র

09:33:58 PM

জিএসটি ফাঁকি: কলকাতা সহ রাজ্যের ১০৪টি ময়দা মিলে হানা আধিকারিকদের

06:29:00 PM

তৃতীয় একদিনের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ১৩ রানে জয়ী ভারত

05:15:15 PM

কোভ্যাক্সিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ: টিকা নিতে নাইসেডে ফিরহাদ হাকিম

04:15:35 PM