দেশ

তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে ফ্রেশার্স নিয়োগ দু’দশকে সর্বনিম্ন

নয়াদিল্লি: দেশে কর্মসংস্থানের বেহাল দশা। দেশের তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রেও নতুন কর্মপ্রার্থীদের নিয়োগও ধাক্কা খেয়েছে।  তলানিতে নেমেছে ফ্রেশার্স নিয়োগ। একটি সংস্থার সমীক্ষায় এমনই তথ্য উঠে এসেছে। এইচআর সংস্থা এক্সফেনোর তথ্য অনুসারে,  ২০২৩-২৪ অর্থবর্ষে ভারতের সফটওয়্যার সংক্রান্ত সংস্থাগুলি মাত্র ৬০ থেকে ৭০ হাজার ‘ফ্রেশার্স’ নিয়োগ করেছে। যা গত দু’দশকের মধ্যে সবচেয়ে কম। বিশ্বজুড়ে আর্থিক বৃদ্ধি শ্লথ হওয়ার প্রভাব ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে পড়েছে বলে জানানো হয়েছে। করোনা মহামারীর আগে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে প্রত্যেক বছর ২ লক্ষের কাছাকাছি ফ্রেশার্স নিয়োগ করা হত। কিন্তু সেই সংখ্যা এখন নিম্নমুখী। গত আর্থিক বছরে দেশের প্রথমসারির পাঁচটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাই কম নিয়োগ করেছে। একমাত্র টিসিএস ক্যাম্পাসিংয়ের মাধ্যমে ৪০ হাজার ফ্রেশার্স নিয়োগ করেছিল। এক তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও শান্তনু রুজের বক্তব্য, ‘সকলেই প্রথম পাঁচে থাকা সংস্থাগুলিতে নিজেদের কেরিয়ার শুরু করতে চায়। কিন্তু এই সংস্থাগুলি নিয়োগ করছে না। প্রত্যেকের কাছেই বিষয়টি চ্যালেঞ্জিং।’ 
তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলি নিয়োগ কমিয়ে দেওয়ায় সমস্যায় পড়েছে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজগুলিও। একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্লেসমেন্ট সেলের ডেপুটি ডিরেক্টর অঞ্জনি ভাটনগরের বক্তব্য, ‘প্রত্যেক বছর এই সময় তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলি জানিয়ে দেয়, পরের বছরের জন্য কতজনকে তারা নিয়োগ করবে। আগস্ট মাসের মধ্যে সংস্থাগুলি ক্যাম্পাসে প্লেসমেন্ট শুরু করে দেয়। কিন্তু গত বছরের মতো এই বছরও একই পরিস্থিতি হতে পারে বলে আশঙ্কা করছি।’ টিসিএসের পাশাপাশি ইনফোসিস বা উইপ্রোর মতো সেরা তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলি মার্চ, এপ্রিল থেকে প্লেসমেন্টের প্রস্তুতি শুরু করে দেয়। কিন্তু এই বছর এখনও পর্যন্ত তারা কোনও উদ্যোগ নেয়নি। ভাটনগর জানান, তাঁদের ৭০ শতাংশ পড়ুয়াই তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে চাকরি খোঁজে। কিন্তু এভাবে চললে তাদের সমস্যায় পড়তে হবে। তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের অধিকার সংক্রান্ত সংগঠন ন্যাসেন্টস ইনফরমেশন টেকনলজি এমপ্লয়িজ সেনেট বা এনআইটিইএসের সভাপতি হরপ্রীত সিং সালুজা জানিয়েছেন, গত দু’বছর ধরে ১০ হাজারের বেশি ফ্রেশার্স মূল চাকরি পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে। দু’হাজারকে ফ্রেশার্সকে চাকরি না দেওয়ার জন্য ইনফোসিসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদনও জানিয়েছে এনআইটিইএস। তবে তথ্যপ্রযুক্তি মহলের আশা, চলতি আর্থিক বছরে সংস্থাগুলি ফের ফ্রেশার্স নিয়েোগের সংখ্যা বাড়াবে। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সংস্থা ফ্রেশার্স নিয়োগের যে লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে, তাতে আশার আলো দেখা যাচ্ছে। তবে শীর্ষ তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলি কম নিয়োগ করার ফলে সুবিধা হয়েছে বিভিন্ন স্টার্ট আপ সংস্থার। একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসেব, স্টার্ট আপে নিয়োগের পরিমাণ গত আর্থিক বছরে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে।
1Month ago
কলকাতা
রাজ্য
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

পারিবারিক সম্পত্তি সংক্রান্ত আইনি কর্মে ব্যস্ততা। ব্যবসা সম্প্রসারণে অতিরিক্ত অর্থ বিনিয়োগের পরিকল্পনা।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৮৫ টাকা৮৪.৫৯ টাকা
পাউন্ড১০৬.৪৩ টাকা১০৯.৯৫ টাকা
ইউরো৮৯.৬৩ টাকা৯২.৭৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা