বিকিকিনি

নিরাময়ের ঠিকানা

পেইন ম্যানেজমেন্ট হোক বা লাইফস্টাইল সংক্রান্ত অন্য রোগ, বৈদিক ভিলেজ-এ আছে উপশমের পথ। লিখছেন অন্বেষা দত্ত।  

আধুনিক জীবনযাপনে এখন আমরা এতটাই অভ্যস্ত যে অজান্তে শরীরে বাসা বাঁধছে নানারকম রোগ। এইসব রোগ যেন নিত্যসঙ্গী। সেগুলির নিরাময়ে ভরসাযোগ্য ঠিকানা হতে পারে বৈদিক ভিলেজের প্রাকৃতিক চিকিৎসা। ন্যাচারোপ্যাথি আগেও ছিল এখানে। তার সঙ্গে যোগ করা হয়েছে কোলন হাইড্রোথেরাপি। যেটি খুবই উপযোগী বলে দাবি করছে সংস্থা। 
আয়ুর্বেদিক চিকিৎসক প্রভাত কুমার বল (সিনিয়র আয়ুর্বেদিক চিকিৎসক, বৈদিক ওয়েলনেস আয়ুর্বেদ অ্যান্ড ন্যাচারোপ্যাথি) জানালেন, সারা শরীর একেবারে ভিতর থেকে ডিটক্স করার উপায় রয়েছে কোলন হাইড্রোথেরাপিতে। শরীর থেকে সম্পূর্ণ বর্জ্য নিষ্কাশন করে তা পুরোপুরি সতেজ করে দিতে পারে এই থেরাপি। যা চলে ৪০ মিনিট ধরে। তবে যিনি এই থেরাপির মধ্যে দিয়ে যাবেন, তার সম্পূর্ণ চেকআপের পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, তিনি আদৌ উপযোগী কি না। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় বা কোনও সার্জারি হয়ে থাকলে তখনই এই থেরাপি চালানো সম্ভব নয়। কোলাইটিস, কনস্টিপেশন কিংবা ওবেসিটির সমস্যায় এই থেরাপি বেশ উপযোগী। কিছু কিছু শরীরে জৈবিকভাবে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থাকে। তাঁরা যতই জল খান, সব্জি খান, সমস্যা মেটে না। তাঁরা এক মাসে একবার এই থেরাপির সাহায্য নিলে উপকৃত হতে পারেন, জানালেন চিকিৎসক। বিনা কষ্টে শরীরের ভিতর পর্যন্ত সাফ হয়ে যায়। তবে এটি পাইলস-এর চিকিৎসা নয়। কোষ্ঠকাঠিন্য কমানোর ক্ষেত্রে বেশি কার্যকর।
পেইন ম্যানেজমেন্ট-এর নানা উপায় পাবেন এখানে। শরীরের ব্যথা-বেদনার নির্মূল করার জন্য নিমকাঠের শয্যায় শুইয়ে দেওয়া হয় আয়ুর্বেদিক ম্যাসাজ। যেমন, ‘অভ্যানম’। এই ম্যাসাজে রিল্যাক্স করানো হয় গোটা শরীর। রক্ত সঞ্চালন ভালো হয় এতে। আধুনিক জীবনের ব্যস্ততা আরামের সময় ক্রমেই কমাচ্ছে। তাই ক্লান্ত শরীর-মন পুনরুজ্জীবনে কাজ দেবে এক ঘণ্টার এই মাসাজ। কাজের চাপের উপর নির্ভর করে মাসাজ দেওয়া হয়। যাদের কায়িক শ্রম বেশি, তাদের ১৫ দিনে একবার এই মাসাজ নেওয়া উচিত। আবার যাদের কম, তাদের জন্য মাসে একটা মাসাজই যথেষ্ট। যারা ডায়াবেটিক, তাদের জন্যও এই মাসাজ ভালো।    
জীবনে টেনশন কমাতে ‘শিরোধারা’ খুব উপযোগী। মাথার উপর টাঙানো পাত্র থেকে টপ টপ করে তেল পড়ে কপালে। সেটি ধীরে ধীরে মাথা থেকে শুরু করে রিল্যাক্স করানোর কাজটি করে। সিসেমি অয়েল এবং নারকোল তেল থাকে এই মিশ্রণে। এই তেল শরীরে মিশে যাওয়ার কিছু স্তর থাকে। ‘অভ্যানম’ প্রথমে, যাতে শরীর তেল টেনে নেয়। শরীরকে আরাম দেওয়ার মতো কিছু হার্বস একটি বিশেষ ব্যাগে ভরা হয়। সেটা আবার ডোবানো হয় হার্বাল অয়েল-এ। সারা শরীরে উষ্ণ তেল ওই ব্যাগের মাধ্যমে বড় বড় স্ট্রোক দিতে দিতে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। এটি মাসল, লিগামেন্ট, হাড় সব কিছু রিল্যাক্স করতে সাহায্য করে। রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। শেষ স্তর ‘শিরোবস্তি’। তেল যাতে শরীরে থেকে যায়। এর মধ্যে শিরোধারা এবং শিরোবস্তি টেনশন, স্ট্রেস এবং মন শান্ত করার দারুণ উপায়। মাইগ্রেনের জন্যও শিরোধারা খুব ভালো। এছাড়া পঞ্চকরণ আছে, যার মধ্যে আছে নাস্যম। নাকের ভিতরে তেল দিয়ে ক্লেনজিং করানো হয়। এই পদ্ধতিতেও মাইগ্রেনের সমস্যা কমে। ডায়াবেটিক, সোরিয়াসিস, আর্থ্রারাইটিস-এও কাজ দেয় এই চিকিৎসা। বয়স্কদের জন্যও নানা চিকিৎসা হয়। ধরা যাক, অশীতিপর মানুষ, যাঁর হাঁটু প্রতিস্থাপন সম্ভব নয়, তার জন্য বৈদিক ভিলেজে পেইন ম্যানেজমেন্ট চিকিৎসা কাজে দিতে পারে। সময় লাগে এক সপ্তাহ থেকে ২৮ দিন মতো। আছে আয়ুর্বেদিক থেরাপি, আকুপাংচার, স্পাইন বাথ এবং ব্যথা কমানোর বেশ কিছু আয়ুর্বেদিক ওষুধ। 
রয়েছে স্টিম বাথ। একটি কন্টেনারের মতো জায়গায় রোগীকে বসানো হয়। উপর থেকে ঢাকনা চাপা দিয়ে আস্তে আস্তে আসে জলের স্রোত। এইভাবেই আরাম দেওয়া হয় স্পাইন ও হিপ বাথে। শিড়দাঁড়া ও হিপ-এ করা হয় ওয়াটার স্প্রে। এতে আরামদায়ক অনুভূতি হয়। ক্রমশ মাসল রিল্যাক্স হয়, জয়েন্ট-এর ব্যথাও লাঘব হয়। হাইপারটেনশনেও উপযোগী এই স্পাইন বাথ। হিপ বাথে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়, এটি ব্যাক পেইন কমাতেও কাজ দেয়। 

 
2Months ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

পারিবারিক সম্পত্তি সংক্রান্ত আইনি কর্মে ব্যস্ততা। ব্যবসা সম্প্রসারণে অতিরিক্ত অর্থ বিনিয়োগের পরিকল্পনা।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৮৫ টাকা৮৪.৫৯ টাকা
পাউন্ড১০৬.৪৩ টাকা১০৯.৯৫ টাকা
ইউরো৮৯.৬৩ টাকা৯২.৭৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা