Bartaman Patrika
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
 

ইলেকট্রনিক্সের ইতি!
আলোয় চলবে নতুন
যুগের কম্পিউটার

কী এই ফো টো নি ক্স ?
‘ফোটন’ শব্দটির উৎপত্তি গ্রিক শব্দ ‘ফোট’ থেকে যার অর্থ হল ‘আলো’। যেমন ফোটোগ্রাফি শব্দের মানে আলোর কারসাজি। ফোটোনিক্স হল, এমন এক টেকনোলজি যা দিয়ে প্রবল বেগে ধাবিত ফোটনকে বাইরে থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। সমস্যার সমাধান লুকিয়ে এখানেই। আচ্ছা তাহলে যদি সার্কিটে কারেন্ট বা ইলেকট্রন না পাঠিয়ে তার বদলে লাইট বা একগুচ্ছ ফোটন পাঠিয়ে একই কাজ করা যায়? ফোটন চলে আলোর গতিতে, ইলেকট্রনের থেকে বহুগুণ জোরে। আবার বোসন কণা বলে এরা একে অপরকে আকর্ষণ বা বিকর্ষণ করে না। তাই অপটিক্যাল সার্কিটে ইলেক্ট্রনিক সার্কিটের তুলনায় নয়েজ (Noise) অনেক কম হয়। এছাড়াও, ধারকত্বের সমস্যা আলোর ক্ষেত্রে একেবারেই খাটে না। প্রসঙ্গত, ফোটোনিক্সের যুগান্তকারী আবিষ্কারগুলির সঙ্গে একাধিক ভারতীয় বিজ্ঞানী যেমন সি ভি রমন, সত্যেন বসু, জর্জ সুদর্শন নরিন্দর সিং কাপানি, মণি ভৌমিকের নাম ওতপ্রোতভাবে জড়িত রয়েছে।
রক্তিম হালদার: বর্তমানে ‘কোয়ান্টাম সুপ্রিমেসি’র মাহেন্দ্রক্ষণে দাঁড়িয়ে তামাম বিশ্ব। এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন একটাই — তাহলে কি আজকের যুগের সাধারণ ইলেকট্রনিক কম্পিউটারের বদলে খুব শীঘ্রই বাজারে আসতে চলেছে ‘কোয়ান্টাম কম্পিউটার’? না, কোটি কোটি টাকা ঢাললেও সেরকম সম্ভাবনা এখনই নেই। বিজ্ঞানীরা অথবা গুগল, আইবিএমের মতো বহুজাতিক সংস্থাগুলির ধারণা কিন্তু এমনটাই। কেন? প্রথমত, এই কোয়ান্টাম প্রযুক্তি এখনও একদমই সূচনা-পর্বে। সুপার কন্ডাক্টিং পদার্থ দিয়ে তৈরি এই কম্পিউটার শুধুমাত্র অতিশীতল (প্রায় শূন্য কেলভিন) উষ্ণতায় সঠিকভাবে কাজ করবে যা আপনার আমার ধরা ছোঁয়ার বাইরে। শুধুমাত্র ল্যাবরেটরিতেই সম্ভব। দ্বিতীয়ত, মজার ব্যাপার হল কোয়ান্টাম কম্পিউটারের অলৌকিক দক্ষতার পরিসর সীমিত। ব্যাঙ্কিং, ই-কমার্স বা কিছু বিশেষ গবেষণায় কোয়ান্টাম কম্পিউটার দক্ষ হলেও দৈনন্দিন অতিসাধারণ সব কাজ, যা বাড়ির ডেস্কটপ বা ‘পিসি’ দিয়ে করা যায়, সেই কাজে এই কম্পিউটার আজকের ইলেকট্রিক কম্পিউটারগুলির থেকে আদৌ পারদর্শী হবে কি না তর্কসাপেক্ষ। বরং ইলেকট্রনিক কম্পিউটারের বদলে শীঘ্রই যা বাজারে আসতে চলেছে তা হল ‘ফোটনিক কম্পিউটার’। আনতে চলেছে ইনটেল, আইবিএম অ্যাপলের মতো বড় বড় সংস্থাগুলি। ইলেকট্রনিক্সের সঙ্গে এর তফাতটা কোথায়?
ভেবে দেখুন, আমাদের হাতের মুঠোয় বন্দি তন্বী স্মার্ট ফোন, ডেস্কের উপর রাখা ছিমছিমে টেলিভিশন কিংবা ল্যাপটপ, এই ইলেকট্রনিক যন্ত্রগুলো সবই চলে তড়িৎ শক্তিতে। সে বোঝে শুধু ভোল্টেজের ওঠানামা। যদি ভোল্টেজ কম দেওয়া হয় তবে বোঝে ‘০’ আর বেশি দিলে (সাধারণত ৫ ভোল্ট) ‘১’। যা কিছু কাজ, জটিল গাণিতিক হিসেব-নিকেশ, রকেট উৎক্ষেপণ থেকে গেম খেলা, চ্যাট বা সিনেমা দেখা, সবই হয় এই ‘০’ ও ‘১’-এর কম্বিনেশনে। শুধুমাত্র দুটি ‘বিট’ ০ এবং ১ এর সমন্বয়ে তৈরি এহেন গাণিতিক শাখাকে বলে ‘বাইনারি সিস্টেম’, যা ডিজিটাল ইলেকট্রনিক্সে ব্যবহার হয়।
ইলেকট্রনিক যন্ত্রে উপযুক্ত সেমিকন্ডাক্টিং মাধ্যম যেমন সিলিকন-এ তড়িৎ বা ইলেকট্রনের প্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করে তাকে নিজের সুবিধা মতো কাজে লাগানো হয়। যন্ত্রগুলির মধ্যে থাকে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র ‘স্যুইচ’ বা ট্রানজিস্টার। যা ভিতরের সার্কিটের মধ্যে তড়িৎ প্রবাহের পরিমাণ ও অভিমুখকে আমাদের প্রয়োজন অনুসারে নিয়ন্ত্রণ করে। বাইরে থেকে কি-প্যাডের মাধ্যমে আমরা আসলে এই স্যুইচগুলোই অন বা অফ করে সার্কিটের ভোল্টেজে নিয়ন্ত্রণ করে থাকি। আজকের উন্নত কম্পিউটারে এরকম কয়েক কোটি স্যুইচ বা ট্রানজিস্টার থাকে। যেগুলিকে আমরা বাইরে থেকে নিমেষের মধ্যে অন বা অফ করতে পারি।
কম্পিউটারের স্পিড কত বেশি হবে তা অনেকাংশে নির্ভর করে কত দ্রুত এই স্যুইচগুলো অফ বা অন করা যায়। এককথায় কম্পিউটারের ক্লক-স্পিড-এর উপর। যেমন, আমাদের কম্পিউটারের এই ক্লকগুলির স্পিড সাধারণত গিগা (১০৯) হার্ৎজ হয়। যার অর্থ হল, এই কম্পিউটারের কন্ট্রোলিং স্যুইচগুলি সেকেন্ডে প্রায় ১০৯ (একশো কোটি) বারের বেশি অন-অফ করা যায়। ‘Windows’-এর ‘run’-এ গিয়ে ‘dxdiag’ টাইপ করলেই প্রসেসর স্পিড কত তা দেখা যায়। বুঝতেই পারছেন, সেকেন্ডে কয়েকশো কোটি সংখ্যাটা নেহাতই ছোট নয়। কিন্তু, সাতশো কোটি মানুষের দৈনন্দিন চাহিদা এতেও মেটে না।
কী করে এই কম্পিউটারগুলিকে আরও ছোট, গতিশীল ও সুদক্ষ করে তোলা যায়, তার জন্য নিরন্তর গবেষণা চলছে। সমস্যা এখানেই। ইলেকট্রন ধাতব তারের মধ্যে দিয়ে অপেক্ষাকৃত কম গতিতে চলাচল করে। এই গতি আলোর বেগের কয়েকশো ভাগের এক ভাগ। আবার ইলেকট্রনিক সার্কিট ইচ্ছেমতো ছোট করা সম্ভব না। কারণ, যখনই দু’টি ইলেট্রনিক সার্কিট কাছাকাছি আসে, তখন তাদের মধ্যে তড়িৎ-কণা বা চার্জ জমিয়ে রাখার ক্ষমতা বহুগুণ বেড়ে যায়। এই ঘটনাকে বলে ধারকত্ব বা Capacitance. এরা তখন পাত্রের মতো ইলেকট্রনগুলিকে এদের মধ্যে বন্দি করে ফেলে। ফলে, আমরা যতই তাড়াতাড়ি বাইরে থেকে স্যুইচগুলিকে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করি না কেন, বন্দি ইলেকট্রনগুলি সহজে নড়াচড়া করতে পারে না। তাই কম্পিউটারের স্পিডও তার আকার যত ছোট হয়, তত কমতে শুরু করে। এই সমস্যার সমাধানেই আজ আমরা আলোকবিজ্ঞানের একটি শাখা ফোটোনিক্স বা আলোক-কণা বিজ্ঞানের শরণাপন্ন।
ইলেকট্রনিক্সের মতোই আলোকবিজ্ঞানের ব্যবহার সর্বত্র। হাজার কোটি আলোকবর্ষ দূরে দুই দানবিক যমজ কৃষ্ণগহ্বরের সংঘর্ষে তৈরি অতি দুর্বল মহাকর্ষীয় তরঙ্গের পরিমাপ থেকে অতিক্ষুদ্র অণু-পরমাণুর কম্পনের মাধ্যমে এক সেকেন্ডের এক কোটি ভাগের এক ভাগ সময় মাপার নিখুঁত ঘড়ি তৈরি পর্যন্ত বিস্তার আলোকবিজ্ঞানের। আবার সমুদ্রের নীচে পাতা মাইলের পর মাইল দীর্ঘ অপটিক্যাল ফাইবার কেবলের সৌজন্যে আজ আমাদের বাড়িতে দ্রুত-গতি ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট যা আমার আপনার নিত্যসঙ্গী। আলোক ঝলমল পুজো প্যান্ডেলের LED লাইট, ছানি অপারেশনে ব্যবহৃত লেসার রশ্মি বা আপনার টেবিলে অযত্নে লালিত ধুলোমাখা সিডি, সবই আলোকবিজ্ঞানের দান।
খামখেয়ালি আলোর দ্বৈতসত্তাও রয়েছে। সে কখনও তরঙ্গধর্মী, আবার কখনও কণাধর্মী। যে কোনও বস্তু থেকে যখন আলো তরঙ্গের মতো প্রতিফলিত হয় তখন আমরা বস্তুটিকে দেখতে পাই। আবার আলোককে ছোট ছোট একগুচ্ছ কণা বা ফোটনের সমন্বয় হিসেবে না ভাবলে আলোক-তড়িৎক্রিয়ার ব্যাখ্যা করা সহজসাধ্য হয় না। আইনস্টাইন এই আলোক-তড়িৎক্রিয়া আবিষ্কারের মাধ্যমে আলোক কণাধর্ম প্রমাণ করেই ১৯২১ সালে পদার্থ বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পান। এই আলোক-কণা বা ফোটন ভরহীন, চার্জবিহীন এক ধরনের বোসন কণা যা আলোর বেগে ছুটে চলে।
ফোটোনিক কম্পিউটারগুলিতে থাকে ছোট ছোট লেজার। লেজার অন থাকলে ১, আর বন্ধ থাকলে ০ বোঝায়। নিরলস গবেষণায় আবিষ্কৃত হয়েছে অপিটক্যাল ট্রানজিস্টার বা স্যুইচ। যা আলোর গতিবিধি এবং লেজারগুলির অন-অফ নিয়ন্ত্রণ করে। শুরুতে তামার তারের বিকল্প হিসেবে আসে, অতিসূক্ষ্ম কাচের তার। যাদের বলে অপটিক্যাল ওয়েভ গাইড। এরা মানুষের চুলের প্রায় ১০০ ভাগের এক ভাগ হলেও বিনাবাধায় আলোকে সার্কিটের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে নিমেষে পৌঁছে দেয়। দেখা যায়, ফোটনিক টেকনোলজি ব্যবহার করে আরও ছোট আকারের কম্পিউটার তৈরি করা যায়, যার ক্লক-স্পিড কমপক্ষে কয়েক হাজারগুণ বেশি (১০১২ বা টেরা-হার্ৎজ)। এছাড়াও ফোটন ভর ও চার্জহীন হওয়ায়, ফোটোনিক্স সার্কিটে খুব কম তাপ উৎপন্ন হয়। ফলে শক্তির অপচয় কমে।
নতুন যুগের কম্পিউটারে ইলেকট্রনিক্সের বদলে যে ফোটোনিক্স আসতে চলেছে, তা বুঝতে পেরেছে আমেরিকা, কানাডা, ইংল্যান্ড, জামার্নি, ফ্রান্স, সুইজারল্যান্ড, চীন, জাপান, তাইওয়ান, সিঙ্গাপুর ও অস্ট্রেলিয়ার মতো উন্নত দেশগুলি। সেজন্য সেখানকার বিশ্ববিদ্যালগুলিতে পুরোদমে শুরু হয়েছে ফোটনিক্সের গবেষণা। ভারতের প্রথম সারির গবেষণাকেন্দ্র এবং আইআইটি গুলিতেও ফোটোনিক্স নিয়ে পড়াশোনা ও রিসার্চ করার সুযোগ তৈরি হয়েছে। অর্থাৎ, কয়েক ধাপ এগিয়ে এই ফোটোনিক্সই আমাদের উন্নততর ‘কোয়ান্টাম কম্পিউটার’ তৈরির লক্ষ্যে বিপ্লব আনতে চলেছে। এক কথায় ইলেকট্রনিক যুগের অবসান অবশ্যম্ভাবী। নতুন যুগের সূচনা হবে আলোকবিজ্ঞানের হাতেই।
.......................................................
(লেখক: খড়্গপুর আইআইটির ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের গবেষক)
08th  December, 2019
 কৃত্রিম ত্বক নিয়ে মানুষ
হয়ে উঠবে রোবট

 সৌম্য নিয়োগী: রোবটরাও এবার হয়ে উঠবে মানুষের মতো! কৃত্রিম নয়, যন্ত্রমানবের শরীরেও থাকবে ব্যথা-বেদনা-ভালোবাসার মতো অনুভূতি। রোবটকে জড়িয়ে ধরলে সে লজ্জা পাবে। ভালোবেসে জড়িয়েও ধরবে। হাতে হাত রেখে মনও পড়তে পারবে সে। ঠান্ডা-গরম, হাসি-কান্না, আশঙ্কা — সব‌মিলিয়ে ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়ই কাজ করবে যন্ত্র শরীরে।
বিশদ

08th  December, 2019
যন্ত্র কখনই চেতনা সম্পন্ন হবে না
বেদান্ত দর্শন তুলে ধরে বসু বিজ্ঞান
মন্দিরে বলে গেলেন সুভাষ কাক

 দেবজ্যোতি রায়: আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উন্নতিতে অনেক কাজই আর মানুষকে করতে হচ্ছে না। করে দিচ্ছে যন্ত্র। কর্মচ্যুত হচ্ছেন বহু চাকুরিজীবী। এআইয়ের অগ্রগতির ফলে বর্তমান গোটা বিশ্বজুড়ে একটা অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। আশঙ্কা, সংশয়ের প্রহর গুনছে তামাম দুনিয়া।
বিশদ

08th  December, 2019
 গুগল ইন্ডিয়ার শীর্ষ পদে সঞ্জয় গুপ্ত

ডিজনি ভারত শাখার প্রাক্তন শীর্ষ আধিকারিক সঞ্জয় গুপ্তকে কান্ট্রি ম্যানেজার এবং সেলস ও অপারেশনসের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিয়োগ করল মার্কিন তথ্যপ্রযুক্তি জায়ান্ট গুগল। আগামী বছরের শুরুতে তিনি নতুন পদে কাজ শুরু করবেন। এই পদে ছিলেন রঞ্জন আনন্দন।
বিশদ

08th  December, 2019
কী করে বুঝবেন ফোন
ট্যাপ হচ্ছে কি না?

 একটি উপায় হচ্ছে অ্যান্টি-ভাইরাস বা অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার অ্যাপ বা মোবাইল এন্ড টু এন্ড সিকিউরিটির উপর অনেক অ্যাপ প্লে স্টোরে রয়েছে। সেরকম অ্যাপ যদি ডাউনলোড করা হয়, তারা কিন্তু একটা সঙ্কেত দেবে যে কিছু একটা হতে চলেছে বা কোনও প্রিভিলেজ অ্যাক্সেস দেওয়া হয়েছে।
বিশদ

10th  November, 2019
বিজ্ঞানের টুকিটাকি 

চন্দ্র অভিযানের জন্য নাসার নতুন স্পেসস্যুট, পরতে পারবেন যে কেউ
নতুন অভিযানের জন্য চাই নতুন পোশাক। আগামী আর্টেমিস চন্দ্র অভিযানের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে নাসা। তার জন্য বিশেষ স্পেসস্যুট বা মহাকাশ অভিযানের উপযুক্ত পোশাক প্রস্তুত করে ফেললেন বিজ্ঞানীরা। সাংবাদিক সম্মেলন করে তা প্রকাশ্যে নাসার প্রধান জিম ব্রিডেনস্টাইন।   বিশদ

10th  November, 2019
নজরদারির নয়া ফাঁদ হোয়াটসঅ্যাপ 

সন্দীপ সেনগুপ্ত (ফাউন্ডার ডিরেক্টর, ইন্ডিয়ান স্কুল অব অ্যান্টি হ্যাকিং): আপনার তথ্য কি সুরক্ষিত? বা আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই কেউ আপনার উপর নজরদারি চালাচ্ছে না তো? ফেসবুকে তথ্য চুরির বিষয়টি এখন আর কারও অজানা নয়। কিন্তু, অনেকেই হোয়াটসঅ্যাপের সুরক্ষা ব্যবস্থার উপর ভরসা রেখেছিল।  
বিশদ

10th  November, 2019
কোয়ান্টাম কম্পিউটিংয়ের সূচনা গুগলের 

তবে কি ‘কোয়ান্টাম সুপ্রিমেসি’র যুগ শুরু হল! মার্কিন তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা গুগলের সর্বশেষ আবিষ্কার বিশ্বজুড়ে তেমন শোরগোলই ফেলে দিয়েছে। তারা দাবি করেছে, কম্পিউটিং বা পারফরম্যান্স বিবেচনায় প্রচলিত সব কম্পিউটারকে ছাপিয়ে গিয়েছে গুগল। অর্থাৎ, তারা নাকি কোয়ান্টাম কম্পিউটার তৈরি করে ফেলেছে। 
বিশদ

10th  November, 2019
ডিএসএলআরের দিন শেষ! ফোনে আসছে ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা 

সৌম্য নিয়োগী: ৪৮ মেগাপিক্সেল এখন অতীত। বাজার কাঁপাতে এসে গিয়েছে ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার স্মার্টফোন। তবে তা কতদিন টিকতে পারবে তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। কারণ, স্যামসাং এনে ফেলেছে এমন এক প্রযুক্তি যা শুনলে আপনি হাঁ হয়ে যাবেন। আর তা হল ১০৮ মেগাপিক্সেল ইমেজ সেন্সর। স্মার্টফোন ক্যামেরার সংজ্ঞা বদলে দেবে এই নয়া সেন্সর। 
বিশদ

13th  October, 2019
কৃষকদের জন্য ট্রাক্টর, ফার্ম মেশিনারি ভাড়া দেওয়ার জন্য মোবাইল অ্যাপ আনল কেন্দ্র 

কৃষকদের সুবিধার্থে দু’টি অ্যাপ চালু করেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। একটি ‘সিএইচসি-ফার্ম মেশিনারি’ এবং দ্বিতীয়টি হল ‘কৃষি কিষাণ’। বহুভাষী ‘সিএইচসি-ফার্ম মেশিনারি’ অ্যাপটির মাধ্যমে কৃষকরা ট্র্যাক্টর এবং অন্যান্য ফার্ম মেশিনারি ভাড়া নিতে পারবেন। সম্প্রতি কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার এই অ্যাপ দু’টির উদ্বোধন করেন।  
বিশদ

13th  October, 2019
আর ব্যাঙ্ক নয়, ঋণ এবার স্মার্টফোনেই

সোহম কর: জরুরি পরিস্থিতি। হঠাৎ করে প্রয়োজন হয়ে পড়েছে মোটা টাকার। কী করবেন কিছুই বুঝে উঠতে পারেন না। হাতের কাছে ক্রেডিট কার্ডও নেই যে আপদকালীন টাকার প্রয়োজনটা মিটিয়ে ফেলবেন। উপায়? ছোটাছুটির কোনও দরকার নেই। প্রযুক্তি আর ইন্টারনেট এক লহমায় সেই সমস্যার সমাধান করে দিয়েছে। হাতে শুধু স্মার্টফোন থাকলেই হল। 
বিশদ

13th  October, 2019
দিল্লির কুয়াশাই দক্ষিণ এশিয়ার উষ্ণায়নের কারণ, বলছে গবেষণা 

মৃণালকান্তি দাস: ফি বছর অক্টোবর-নভেম্বর থেকে জমাট ধোঁয়াশায় শ্বাস-বন্ধের আশঙ্কায় ভুগছে দিল্লি। কুয়াশা দেখলে কু ডাকে অনেকের মনেই। রাজধানীর বাসিন্দারা খুব ভালো ভাবেই জানেন, এই যন্ত্রণা থেকে অদূর ভবিষ্যতেও তাঁদের নিষ্কৃতির সম্ভাবনা নেই বিন্দুমাত্র। 
বিশদ

13th  October, 2019
পৃথিবী থেকে চন্দ্রপৃষ্ঠ
চন্দ্রযান-২-এর পথ পরিক্রমা

  জিএসএলভি রকেটের যান্ত্রিক ত্রুটির জন্য শুরুতেই পিছিয়ে গিয়েছিল উৎক্ষেপণ। তারপর ২২ জুলাই চন্দ্রযান-২-এর সফল উৎক্ষেপণ ঘটান ইসরোর বিজ্ঞানীরা। আর ফিরে তাকাতে হয়নি। পরিকল্পনামাফিক পৃথিবীর কক্ষপথ ছাড়িয়ে এগতে থাকে সেটি। একের পর এক লাফ দিতে দিতে পৌঁছে যায় চাঁদের কক্ষপথে।
বিশদ

11th  October, 2019
বায়ুসেনার যুদ্ধবিমানে সওয়ার আপনিও

সুদীপ্ত সেন: ভারতীয় বায়ুসেনার অংশ হতে চান? না, আপনাকে কোনও পরীক্ষায় বসতে বা শারীরিক সক্ষমতার প্রমাণ দিতে হবে না। শুধু স্মার্ট ফোনের প্লে স্টোর থেকে ‘ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্স: দ্যা কাট অ্যাবভ’ গেমটি ডাউনলোড করে নিন। ব্যস! যুদ্ধবিমানের ককপিটে আপনি। এমআই-১৭ কপ্টার, মিরাজ, সুখোই উড়িয়ে শত্রু শিবিরে হামলা চালানোর জন্য তৈরি। 
বিশদ

29th  September, 2019
আইফোন ১১ সিরিজ: পাওয়া-না পাওয়া
টু কি টা কি

বেশ কয়েক মাসের জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সদ্য আইফোন ১১ সিরিজ বাজারে এনেছে অ্যাপল। প্রি বুকিং শুরু হয়ে গিয়েছে মার্কিন মুলুকে। ভারতে পাওয়া যাচ্ছে ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে। এই মুহূর্তে যাঁদের কাছে আগের মডেলগুলি রয়েছে, তাঁদের অনেকেই ‘আপগ্রেড’ হওয়ার ইচ্ছায় নতুন মডেলটি কে‌‌নার পরিকল্পনা করছেন। তবে, এর বিরুদ্ধ মতও আছে। 
বিশদ

29th  September, 2019
একনজরে
অর্পণ সেনগুপ্ত, কলকাতা: স্কুলের কাছে ‘প্রায়র পারমিশন’ (পিপি) এসে পৌঁছনোর আগেই শিক্ষক পদপ্রার্থীদের হাতে তা চলে আসছে। আর তার প্রতিলিপি নিয়েই স্কুলে যোগ দিতে চলে আসছেন শিক্ষকরা। রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলে এই ঘটনা ঘটছে। বদলির আবেদন করা শিক্ষকদের হাতে এই পিপি ...

সংবাদদাতা, পুরাতন মালদহ: ডেঙ্গু নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছে চাঁচলে। এই সপ্তাহেই চাঁচলের খরবা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে। কলকাতার একটি নার্সিংহোমে চিকিৎসা চলাকালীন মৃত্যু হয় তাঁর।  ...

ওয়েলিংটন, ৯ ডিসেম্বর (এএফপি): ছবির মতো সুন্দর হোয়াইট আইল্যান্ড। ভ্রমণের আনন্দে মশগুল পর্যটকের দল। ভরদুপুরে হঠাৎ করে জেগে উঠল আগ্নেয়গিরি। সোমবার নিউজিল্যান্ডের এই ঘটনায় মৃত্যু হল অন্তত পাঁচজনের। জখম ১৮ জন। সরকারি সূত্রে খবর, আটকে পড়েছেন বহু পর্যটক। তাঁদের উদ্ধারের ...

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: অজ্ঞাতপরিচয় এক সাধুর মৃত্যু হল রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। রবিবার রাতে তারাপীঠের শ্মশান থেকে অসুস্থ ওই সাধুকে উদ্ধার করে রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে তারাপীঠ থানার পুলিস। সেখানে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের ক্ষেত্রে শুভ। সরকারি ক্ষেত্রে কর্মলাভের সম্ভাবনা। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য আসবে। প্রেম-ভালোবাসায় মানসিক অস্থিরতা থাকবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব মানবাধিকার দিবস,
১৮৭০- ঐতিহাসিক যদুনাথ সরকারের জন্ম,
১৮৮৮- শহিদ প্রফুল্ল চাকীর জন্ম,
২০০১- অভিনেতা অশোককুমারের মৃত্যু  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৪৪ টাকা ৭২.১৪ টাকা
পাউন্ড ৯২.০৭ টাকা ৯৫.৩৭ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৪ টাকা ৮০.২৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,২৮৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৩২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৮৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ত্রয়োদশী ১১/২৬ দিবা ১০/৪৪। কৃত্তিকা ৫৯/২৯ শেষ রাত্রি ৫/৫৭। সূ উ ৬/৯/৩১, অ ৪/৪৮/৪৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫২ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৫ গতে ১১/৮ মধ্যে। রাত্রি ৭/২৯ গতে ৮/২২ মধ্যে পুনঃ ৯/১৬ গতে ১১/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১/৪৩ গতে ৩/৩০ মধ্যে পুনঃ ৫/১৭ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৭/২৮ গতে ৮/৪৮ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৮ গতে ২/৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৮ গতে ৮/৮ মধ্যে। 
২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ত্রয়োদশী ১০/২/৪৮ দিবা ১০/১২/৫। কৃত্তিকা ৬০/০/০ অহোরাত্র, সূ উ ৬/১০/৫৮, অ ৪/৪৯/১৩, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩ মধ্যে ও ৭/৪৫ গতে ১১/৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩৫ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ৯/২৩ গতে ১২/৪ মধ্যে ও ১/৫২ গতে ৩/৩৯ মধ্যে ও ৫/২৭ গতে ৬/১২ মধ্যে, কালবেলা ১২/৪৯/৫৩ গতে ২/৯/৩৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৯/২৬ গতে ৮/৯/৩৯ মধ্যে।
 
মোসলেম: ১২ রবিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ইতিহাসে আজকের দিনে
বিশ্ব মানবাধিকার দিবস ১৮৬৮- বিশ্বের প্রথম ট্রাফিক বাতি লন্ডনের প্যালেস অব ...বিশদ

04:28:18 PM

আজকের রাশিফল  
মেষ: প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য আসবে। বৃষ: অর্থভাগ্য খুব ভালো না হলেও ...বিশদ

07:11:04 PM

ইতিহাসে আজকের দিনে 
বিশ্ব মানবাধিকার দিবস১৮৭০- ঐতিহাসিক যদুনাথ সরকারের জন্ম,১৮৮৮- শহিদ প্রফুল্ল চাকীর ...বিশদ

07:03:20 PM

ঘুড়ির সুতোয় গলা কেটে মৃত স্কুলছাত্র 
চিনা মাঞ্জার বলি স্কুলছাত্র। সুতোর ধারে গলা কেটে মৃত্যু হল ...বিশদ

06:20:33 PM

২৪৮ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

04:02:02 PM

আইলিগ: ইস্ট বেঙ্গল ৪-১ গোলে হারাল নেরোকাকে 

04:01:36 PM