Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

সেঙ্গোল যেন কোনও মতেই নত না হয়
পি চিদম্বরম

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বিকৃতিতে ওস্তাদগণ এবং বিজেপির বাজনদারদের দেওয়া সেঙ্গোলের চমকপ্রদ ব্যাখ্যা শুনে 
থাকলে তাঁদের সমাধি থেকেই উঠে আসবেন তিরুবল্লুবর, এলাঙ্গো আদিগল, আভাইয়ার এবং সঙ্গম কবিরা। প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর বাজনদারদের ব্যাখ্যায় সেঙ্গোল হয়ে উঠেছে এক অস্থায়ী শক্তির প্রতীক। একজন পুরোহিত কিংবা একজন বিদায়ী শাসকের হাত থেকে নতুন শাসককে সেঙ্গোলের কাল্পনিক হস্তান্তরকে ক্ষমতা হস্তান্তর হিসেবে চিত্রিত করা হয়েছে।
কীভাবে ইতিহাস এবং একটি নীতিশাস্ত্রীয় প্রণালী নির্লজ্জভাবে বিকৃত করা যায় তারই প্রদর্শনী হল ২৮ মে। একদল লোক ভেরি বাজাল, দরবারি লোকজন শাসকের প্রতি গদগদ হল এবং সংসদের দুটি কক্ষের জন্য একটি নতুন ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠান রূপান্তরিত হল প্রকারান্তরে রাজ্যাভিষেকে। লর্ড মাউন্টব্যাটেন এবং চক্রবর্তী রাজাগোপালাচারীকে (রাজাজি) একটি রাজকীয় অনুষ্ঠানের সাক্ষী 
হওয়ার জন্য তলব করা হয়েছিল, সেটি একটি গণতান্ত্রিক সাধারণতন্ত্রের পক্ষে অসঙ্গতিপূর্ণ ছিল। যে অনুষ্ঠানটির আয়োজন ধর্মনিরেপক্ষ হওয়াই কাম্য ছিল, সেখানে শৈব অধিনাম বা মঠগুলির 
নিভৃতচারী প্রধানদের আমন্ত্রণ জানিয়ে তার মধ্যে ব্যাপক মাত্রায় ধর্মীয় ভাবাবেগ যোগ করা হল, এই ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক।
টেলিভিশনের পর্দায় এই অনুষ্ঠান দেখার সময় দর্শকরা  নিশ্চয়, গত ২৫ জুলাই রাষ্ট্রপতি মুর্মুর সাদামাঠাভাবে শপথ গ্রহণের সঙ্গে  এদিনের রাজকীয় আয়োজনের বৈপরীত্য খেয়াল করেছেন। এবং জনগণ, বিশেষ করে কর্ণাটকবাসী এই ভেবে বিস্মিত হবেন যে, ‘কে কাকে ক্ষমতা হস্তান্তর করলেন?’
সেঙ্গোলের সংজ্ঞা দিয়েছেন কবি
প্রখ্যাত তামিল কবি ও দার্শনিক তিরুবল্লুবর ৩১ খ্রিস্টপূর্বাব্দে তাঁর যে অমর পদগুলি লিখেছিলেন সেগুলি বিখ্যাত তিরুক্কুরাল গ্রন্থে পাওয়া যায়। ‘সম্পদ’ নামক অংশে সন্নিবেশিত হয়েছে সেঙ্গোনমাই (ন্যায় রাজদণ্ড) এবং কোডুঙ্গোনমাই (নিষ্ঠুর রাজদণ্ড) শিরোনামের দুটি অধ্যায়। তার দুই চরণের ৫৪৬ সংখ্যক শ্লোকে রয়েছে—
       ‘বেলান্দ্রি বেন্দ্রি তরুবতু মন্নবন
       কোল আদুউম কোদতু এনিন’
কোল হল রাজদণ্ড। শ্লোকটির অর্থ হল—‘এটি তেমন কোনও বর্শা নয় যে শাসকের জন্য জয় এনে দেবে, এটি হল সেই কোল বা রাজদণ্ড’। তবে কবির লেখা শেষ তিনটি শব্দ চিহ্নিত করা যায়: এ হল 
সেই কোল বা রাজণ্ড যেটি কোনওভাবেই নত হবে না। এই রাজদণ্ড অবশ্যই ঋজুশির থাকবে। এটা কোনওভাবেই নত করা উচিত নয়। একই চিন্তাভাবনা প্রধানমন্ত্রীর শপথগ্রহণেও অনুসৃত হয়—‘... সংবিধান ও আইন অনুসারে সব ধরনের 
মানুষকে ন্যায়বিচার দেব—এইসময় আমার মধ্যে কোনও প্রকার ভয় অথবা পক্ষপাতিত্ব, স্নেহ কিংবা অসদুদ্দেশ্য ক্রিয়াশীল থাকবে না।’ কোল হল ন্যায়দণ্ডের প্রতীক—তার বেশিও নয়, কমও নয়। যদি নত না-হয়, তবেই এটি সেঙ্গোল আর নত হলেই নিষ্ঠুর দণ্ড।
সেঙ্গোল হল ন্যায়ের শাসনের প্রতীক, কোনওভাবেই ক্ষমতার প্রতীক নয়। যে শাসক রাজদণ্ড ধারণ করেন তিনি ন্যায়সঙ্গত শাসন করারই প্রতিশ্রুতি দেন। তিরুবল্লুবর সেঙ্গোলকে শাসকের চারটি গুণের মধ্যে একটি বলেছেন: ‘একজন ভালো রাজার চারটি গুণ হল—দান, করুণা, ন্যায়পরায়ণ শাসন এবং দুর্বলের (দরিদ্রদের) সুরক্ষা’ (কুরাল ৩৯০)। সেঙ্গোনমাইয়ের বিপরীত একটি অধ্যায়ের শিরোনাম কোডুঙ্গোনমাই, এটিকে একটি নিষ্ঠুর বা অন্যায় শাসন হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।
সেঙ্গোলের প্রশস্তিমূলক সঙ্গীত
কিংবদন্তি চোল রাজা করিকালানকে তাঁর ‘অরণোদু পুনর্ন্দা তিরনারী সেঙ্গোল’-এর জন্য প্রশংসা করেন এক সঙ্গম কবি, যার অর্থ হল তাঁর জ্ঞানী শাসনের সঙ্গে নীতির বিবাহ হয়েছিল। অন্য এক সঙ্গম কবি শাসককে ‘ইরেরকু নিজন্দ্র কোলিন’ বলে বর্ণনা করেছেন। এই কথার অর্থ হল—শাসক নিশ্চিত করেছেন যে, যেসব কৃষক খাদ্য উৎপাদন করেছেন তাঁদের কোনওরকম দুর্দশার সম্মুখীন হতে হবে না। মহাকাব্য শীলপ্পা঩টিকারমের রচয়িতা জৈন সন্ন্যাসী এলাঙ্গো আদিগল। কান্নাগীর প্রতি অবিচারের জন্য শোক প্রকাশ করেছিলেন তিনি এবং যে-রাজার কারণে সেঙ্গোল নত হয়েছিল সেই রাজার পতনেরও ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন তিনি।
জনগণের কবি আভাইয়ার সহজ ভাষায় কবিতা রচনা করেছেন। তাঁর একটি বিখ্যাত কবিতা এইরকম:
     ‘যখন বাঁধ উঁচু হবে, তখন তাতে বেশি জল সঞ্চিত হবে,/     যখন জলধারণ বেড়ে যাবে, তখন বেশি ধান ফলবে,/     যখন ধান বেশি উঠবে, পরিবারগুলির শ্রীবৃদ্ধি ঘটবে,/      যখন পরিবারগুলির শ্রীবৃদ্ধি ঘটবে,/তখন উঁচুতে উঠবে রাজদণ্ড,/      এবং, যখন রাজদণ্ড ঋজুশির হয়ে উঠবে, তখন উঠে দাঁড়াবেন শাসকও। 
যে রাজদণ্ড বেঁকে বা নত হয়ে গিয়েছে, সেটি অন্যায় বা নিষ্ঠুর শাসনের চিহ্ন। কোনও একটি অংশের পক্ষে কিংবা অন্য একটি অংশের বিপক্ষে পক্ষপাতিত্ব করা যাবে না। কোনও সম্প্রদায়, ধর্ম বা ভাষার বিরুদ্ধে বদমতলব চরিতার্থ করার  কোনও জায়গা নেই।
সমসাময়িক কিছু দৃষ্টান্ত হল—ঘৃণার ভাষণ, নজরদারি, লাভ জিহাদ বা বুলডোজার বিচার—এগুলির কোনও স্থান হতে পারে না। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনেরও (সিএএ) কোনও জায়গা থাকতে পারে না। কারণ এই আইন প্রতিবেশী 
দেশের মুসলমান, নেপালের খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ এবং শ্রীলঙ্কার তামিলদের প্রতি বৈষম্যমূলক। যে ‘কৃষি আইন’ দেশের কৃষকদের, ব্যবসায়ী ও একচেটিয়া কারবারিদের করুণার পাত্র করে রাখে, তার কোনও জায়গা হতে পারে না। মহারাষ্ট্র থেকে একটি 
প্রকল্প ছিনিয়ে গুজরাতে নিয়ে যাওয়ার যে মানসিকতা, কোনও জায়গা হতে পারে না তারও। একজন ন্যায়পরায়ণ শাসকের রাজনৈতিক দল কোনও নির্বাচনে মুসলিম বা খ্রিস্টান সম্প্রদায়কে 
সম্পূর্ণ উপেক্ষা করে প্রার্থী বাছাই করতে পারে না, যেমনটা দেখা গেল সদ্য সমাপ্ত কর্ণাটক রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনে। কিংবা, বিচারপ্রার্থী পদকজয়ী ক্রীড়াবিদদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ আন্দোলনকে একজন ন্যায়পরায়ণ শাসকের পুলিস বলপূর্বক ভেঙে দিতে পারে না। 
সেঙ্গোলকে অপবিত্র করবেন না
রাজদণ্ডকে ক্ষমতার সঙ্গে সমান করে দেখার অর্থ, সেঙ্গোলের ধারণাকে অপবিত্র করা। এই প্রসঙ্গে লর্ড মাউন্টব্যাটেন এবং রাজাজিকে টেনে আনা মানে শুধুমাত্র ইতিহাসকে বিকৃত করা নয়, বরং একজন বাস্তববাদী ভাইসরয় ও একজন জ্ঞানী পণ্ডিত-রাজনীতিককে ছোট করা এবং তাঁদের সাধারণজ্ঞানকেও কটাক্ষ করা। 
স্পিকারের উপবেশনের স্থানে পোডিয়ামের ঔজ্জ্বল্য সেঙ্গোল বা঩ড়িয়ে তুলুক। এটি হয়ে উঠুক সংসদের কার্যক্রমের নীরব সাক্ষী। সেঙ্গোল সোজা হয়ে দাঁড়াবে—যদি সংসদ মুক্ত বিতর্কের জায়গা হয়; যদি সংসদ বাকস্বাধীনতা এবং মতপ্রকাশের স্বাধীনতার জন্য পূর্ণরূপে উন্মুক্ত থাকে; সংসদে যদি দ্বিমত ও ভিন্নমত প্রকাশের স্বাধীনতা থাকে; এবং যদি অবিচার বা অসাংবিধানিক আইনের বিরুদ্ধে সংসদে ভোট দেওয়ার স্বাধীনতা থাকে। আসুন, আমরা আশা করি, সেঙ্গোল এবং তার অর্থ—সেঙ্গোনমাই (সুশাসন)—জয়ী হবে।
 লেখক সাংসদ ও ভারতের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী। মতামত ব্যক্তিগত
05th  June, 2023
মিথ্যে ফানুস ওড়ানোতেই ক্ষতি বিজেপির
তন্ময় মল্লিক

রাখালের গোরুর পালে বাঘ পড়ার গল্পটা মনে আছে? রাখাল মাঠে গোরু চরাতে গিয়ে অন্যদের ঠকিয়ে মজা নেওয়ার জন্য বাঘ, বাঘ বলে চিৎকার করত। তারপর একদিন সত্যি সত্যিই গোরুর পালে বাঘ হানা দিল। রাখাল তখন প্রাণভয়ে চিৎকার করলেও কেউ এল না। বিশদ

জুটির লড়াই: মোদি-শাহ বনাম রাহুল-প্রিয়াঙ্কা
সমৃদ্ধ দত্ত

নেহরু-প্যাটেল থেকে রাহুল-প্রিয়াঙ্কা। বাজপেয়ি-আদবানি থেকে মোদি-শাহ। স্বাধীনতার পর থেকে ভারতীয় রাজনীতির অন্যতম চিত্তাকর্ষক প্রবণতা হল একটি করে রাজনৈতিক জুটির আবির্ভাব হওয়া এবং তাঁদের একজোট হয়ে দেশ পরিচালনা অথবা রাজনীতিকে প্রভাবিত করা।
বিশদ

21st  June, 2024
মোদির চ্যালেঞ্জ এখন ত্রিমুখী!
মৃণালকান্তি দাস

জওহরলাল নেহরুর মন্ত্রিসভার শেষ দিকে দপ্তরবিহীন মন্ত্রী ছিলেন লালবাহাদুর শাস্ত্রী। নেহরু তাঁকে একবার অসমে পাঠাতে চাইলেন। সফরের সবকিছু বুঝে নিয়ে শাস্ত্রী নেহরুর রুম থেকে বেরিয়ে আসেন। নেহরুর হঠাৎ খেয়াল হল, অসমে তো এখন হাড় কাঁপানো শীত।
বিশদ

20th  June, 2024
বাংলা দখলের গেরুয়া স্বপ্ন, লক্ষ্য অতীত
হারাধন চৌধুরী

সমস্যা ভিতর থেকে বুঝতে হলে ফিরে যেতে হবে সাতচল্লিশে। স্বাধীনতার লড়াইয়ে পূর্ববঙ্গের মানুষের ভূমিকা দেশের বাকি অংশের তুলনায় কম ছিল না। সকলেই লড়াই করেছিলেন স্বাধীন ভারতের স্বপ্ন নিয়ে। সে-বছর আগস্ট মাসের ১৫ তারিখের মধ্য রাত্রি তাঁদের সেই স্বপ্ন চুরমার করে দিয়েছিল।
বিশদ

19th  June, 2024
মোদির ভোট-দিদির ভোট
শান্তনু দত্তগুপ্ত

ব্রাজিলের ওয়ার্কার্স পার্টি পোর্তো আলেগ্রেতে ক্ষমতায় আসে ১৯৯০ সালে। তখন শহরের ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ মানুষই ঝুপড়িবাসী। রাস্তা নেই, জল নেই। বিদ্যুৎ বলে একটা বস্তু আছে বটে, কিন্তু তার সংযোগ নেই। বাড়িতে শৌচাগার বা নিকাশি ব্যবস্থাও নেই। পোর্তো আলেগ্রের অধিকাংশই নিরক্ষর।
বিশদ

18th  June, 2024
প্রত্যাখ্যাত নীতিতেই ফের আস্থা মোদির
পি চিদম্বরম

গত ৯ জুন যে নতুন সরকার শপথ নিল, তার গল্পটি অল্প কয়েকটি শব্দে বেঁধে ফেলা যেতে পারে: মানুষ পরিবর্তনের পক্ষে ভোট দিয়েছে, কিন্তু নরেন্দ্র মোদি বেছে নিয়েছেন তাঁর ধারাবাহিকতা। 
বিশদ

17th  June, 2024
সরকার গড়েও মুষড়ে কেন বিজেপি
হিমাংশু সিংহ

এত বড় জয়, টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় ফেরার অতুল কীর্তি, তবু বিজেপি ও সঙ্ঘ পরিবারের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ এত ডিফেন্সিভ কেন? শপথ নিয়েও শাসকের অন্দরে উল্লাস নেই, স্বতঃস্ফূর্ত হাসিটুকুও উধাও, উপর থেকে নিচুস্তর পর্যন্ত সবাই ব্যস্ত আত্মরক্ষায়। বিশদ

16th  June, 2024
লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিছক ভোটব্যাঙ্ক নয়
তন্ময় মল্লিক

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার কি শুধুই ভোটব্যাঙ্ক? লোকসভা ভোটে বাংলায় জোর ধাক্কা খাওয়ার পর বিজেপির অনেক নেতা লক্ষ্মীর ভাণ্ডারকে ‘ঢাল’ করে ব্যর্থতা ঢাকতে চাইছেন। তাঁরা এমন ভাব করছেন যেন লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের জন্যই বিজেপির বাংলায় ভরাডুবি হয়েছে। বিশদ

15th  June, 2024
মানুষকে অপমান করা হচ্ছে কেন?
সমৃদ্ধ দত্ত

আমরা আউশগ্রামের প্রেমগঞ্জ অথবা বাবুইসোল কিংবা প্রতাপপুরে থাকি। সকাল ৬টার মধ্যে বাড়ির সব কাজ সেরে জঙ্গলে চলে যাই। খেজুর পাতা আনতে। ব্যাপারটা কঠিন। সেই পাতা রোদে শুকাতে দেওয়া হয়। ঝাঁটা তৈরি হবে। বিশদ

14th  June, 2024
গণতন্ত্রের সবচেয়ে বড় বিনোদন!
মৃণালকান্তি দাস

চার্চিল নাকি বলেছিলেন, ‘পাবলিক ওপিনিয়ন’ বলে কিছু হয় না, পুরোটাই ‘পাবলিশড ওপিনিয়ন’! বিশদ

13th  June, 2024
পরমাত্মা এখন পরজীবী, প্রণত শরিক পদে
সন্দীপন বিশ্বাস

হে পরমাত্মা, হে নন বায়োলজিক্যাল প্রাণ, ধ্যানের খেলা যখন ভাঙল, তখন আপনি উঠে দেখলেন আপনার একচ্ছত্র সাম্রাজ্য চুরমার, আপনার শৌর্যের ঢক্কানিনাদ মাটিতে লুটোপুটি খাচ্ছে। দীর্ঘ ভোটপর্বের সমাপ্তি হয়েছে। আপনিও শপথ নিয়ে ফের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। বিশদ

12th  June, 2024
 ভোট, শেয়ার বাজার এবং কিছু শিক্ষা
 শান্তনু দত্তগুপ্ত

অধৈর্যদের টাকা ধৈর্যশীলদের অ্যাকাউন্টে পাঠানোর সবচেয়ে ভালো মাধ্যম কী? উত্তরটা দিয়ে গিয়েছেন ওয়ারেন 
বাফে—স্টক মার্কেট। তাঁর কথাটা বাজার দুনিয়ায় প্রায় মিথ হয়ে গিয়েছে। তা সে মার্কিন মুলুক হোক, বা ভারত। নিউটনের তৃতীয় সূত্রের মতো জীবনের নানা ওঠাপড়ার সঙ্গে জুড়ে গিয়েছে বাফের বিশ্লেষণ।
বিশদ

11th  June, 2024
একনজরে
চলতি টি-২০ বিশ্বকাপের প্রথম হ্যাটট্রিক করলেন প্যাট কামিন্স। অ্যান্টিগায় সুপার এইটের ম্যাচে বাংলাদেশের মাহমুদুল্লাহ, মেহেদি হাসান ও তৌহিদ হৃদয়কে পরপর তিন বলে ফেরালেন তিনি। ...

হামাস দমনের লড়াইয়ে বড়সড় সাফল্য পেল ইজরায়েলি সেনা। উত্তর গাজায় হামলা চালিয়ে হামাসের এক শীর্ষ কমান্ডারকে খতম করেছে নেতানিয়াহুর দেশ। তার নাম আহমেদ হাসান সালামে ...

বাড়ির সদস্যরা গিয়েছিলেন বাইরে। সেই সুযোগে আলমারিতে থাকা সোনা ভর্তি পুঁটুলি নিয়ে চম্পট দিয়েছিল ‘বিশ্বস্ত’ পরিচারিকা। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। গ্রেপ্তারের পাশাপাশি চুরি যাওয়া সমস্ত সোনার জিনিসই উদ্ধার করল মধ্যমগ্রাম থানা। ...

রতুয়া জুনিয়র বেসিক স্কুলে মিড ডে মিলে অনিয়ম ও স্কুলের বেহাল পরিকাঠামো নিয়ে সরব হলেন অভিভাবকরা।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সৃজনশীল কর্মে উন্নতি ও প্রশংসালাভ। অপ্রয়োজনীয় ব্যয় যোগ। আধ্যাত্মিক ভাবের বৃদ্ধি ও আত্মিক তৃপ্তি। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৫১৯ - ব্রিটেনে দাসপ্রথা বাতিল
১৫৫৫ - হুমায়ুন সিন্ধু নদী পার হয়ে লাহোর দখল করে নেন এবং সিকান্দর সুরিকে দিল্লীর সিংহাসন থেকে উৎখাত করেন
১৫৫৫- সিরহিন্দ যুদ্ধে জয়লাভের পর হুমায়ুনকে সম্রাট আকবরের উত্তরাধিকার ঘোষণা
১৬৩৩- ‘পৃথিবী সূর্যের চারদিকে ঘুরছে ’- এই অভিমতের জন্য গ্যালিলিও গ্যালিলির বিচার শুরু
১৮১৪- লন্ডনে লর্ডসের ক্রিকেট মাঠে প্রথম ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়
১৯০৪ - আন্তর্জাতিক ফুটবল ফেডারেশন (ফিফা)-এর জন্ম
১৯৩৯- সুভাষচন্দ্র বসু জাতীয় কংগ্রেস ত্যাগ করে ফরোয়ার্ড ব্লক প্রতিষ্ঠা করেন
১৯৮৬ - বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিখ্যাত ‘হ্যান্ড অফ গড’  গোলটি করেন  দিয়েগো মারাদোনা। ম্যাচটিতে আর্জেন্তিনা ২-১ গোলে জয়লাভ করে
১৮৮৯- কবি কালীদাস রায়ের জন্ম
১৮৯৮- লেখক এরিখ মরিয়া রেমার্কের জন্ম
১৯০০- বিপ্লবী গণেশ ঘোষের জন্ম
১৯০৪- আন্তর্জাতিক ফুটবল ফেডারেশনের (ফিফা) জন্ম
১৯২২- সঙ্গীত পরিচালক, আবহসঙ্গীত পরিচালক ও যন্ত্র সঙ্গীত শিল্পী ভি বালসারার জন্ম
১৯৩২- অভিনেতা অমরীশ পুরীর জন্ম
১৯৪১- অভিনেতা স্বরূপ দত্ত-র জন্ম
১৯৪৮ - পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত ভারতীয় সন্তুরবাদক পণ্ডিত ভজন সোপরির জন্ম
১৯৫৯- অভিনেতা তুলসী লাহিড়ীর মৃত্যু
১৯৬৪- মার্কিন লেখক ড্যান ব্রাউনের জন্ম
১৯৭৬ - সংস্কৃত-তন্ত্র পণ্ডিত ও দার্শনিক গোপীনাথ কবিরাজের মৃত্যু
১৯৮৬- বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিখ্যাত ‘হ্যান্ড অফ গড‘ গোলটি করেন  মারাদোনা, ম্যাচটিতে আর্জেন্টিনা ২-১ গোলে জয়লাভ করে
২০২০ - বিশিষ্ট জ্যোতির্বিজ্ঞানী অমলেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৮২.৭৭ টাকা ৮৪.৫১ টাকা
পাউন্ড ১০৪.১৬ টাকা ১০৭.৬৩ টাকা
ইউরো ৮৮.০৭ টাকা ৯১.১৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৭৩,২৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৭৩,৬০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৭০,০০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৯০,৬৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৯০,৭৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ আষাঢ়, ১৪৩১, শনিবার, ২২ জুন, ২০২৪। পূর্ণিমা ৪/১৩ দিবা ৬/৩৮। মূলা নক্ষত্র ৩২/২৩ অপরাহ্ন ৫/৫৪। সূর্যোদয় ৪/৫৬/৫২, সূর্যাস্ত ৬/২০/১। অমৃতযোগ দিবা ৩/৩৯ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৭/৩ গতে ৭/৪৫ মধ্যে পুনঃ ১১/১৮ গতে ১/২৫ মধ্যে পুনঃ ২/৫০ গতে উদয়াবধি। মাহেন্দ্রযোগ প্রাতঃ ৫/৫০ মধ্যে পুনঃ ৯/২৫ গতে ১২/৫ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৭ মধ্যে পুনঃ ১/১৯ গতে ২/৫৯ মধ্যে পুনঃ ৪/৪০ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৭/৪০ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৮ গতে উদয়াবধি। 
৭ আষাঢ়, ১৪৩১, শনিবার, ২২ জুন, ২০২৪। পূর্ণিমা দিবা ৬/৩৩। মূলা নক্ষত্র সন্ধ্যা ৬/৪০। সূর্যোদয় ৪/৫৫, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ৩/৪২ গতে ৬/২৪ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪ গতে ৭/৪৭ মধ্যে ও ১১/২১ গতে ১/২৯ মধ্যে ও ২/৫৫গতে ৪/৫৫ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৫/৫৬ মধ্যে ও ৯/২৯ গতে ১২/৯ মধ্যে। কালবেলা ৬/৩৬ মধ্যে ও ১/২০ গতে ৩/১ মধ্যে ও ৪/৪২ গতে ৬/২৩ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৪২ মধ্যে ও ৩/৩৬ গতে ৪/৫৫ মধ্যে। 
১৫ জেলহজ্জ।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ইতিহাসে আজকের দিনে
১৫১৯ - ব্রিটেনে দাসপ্রথা বাতিল ১৫৫৫ - হুমায়ুন সিন্ধু নদী পার হয়ে লাহোর দখল করেন ...বিশদ

08:15:33 AM

আপনার আজকের দিনটি
মেষ: অপ্রয়োজনীয় ব্যয় যোগ। বৃষ: ব্যবসায় কেনাবেচা বাড়বে ও অর্থকড়ি লাভ হবে। মিথুন: বিদ্যাচর্চায় শুভ। কর্কট: মেয়াদি ...বিশদ

08:11:22 AM

টি-২০ বিশ্বকাপ: ইংল্যান্ডকে ৭ রানে হারিয়ে ম্যাচ জিতল দঃ আফ্রিকা

21-06-2024 - 11:36:31 PM

ইউরো কাপ: পোল্যান্ডকে ৩-১ গোলে হারাল অস্ট্রিয়া

21-06-2024 - 11:31:03 PM

ইউরো কাপ: পোল্যান্ড ১-অস্ট্রিয়া ৩ (৭৮ মিনিট)

21-06-2024 - 11:15:17 PM

ইউরো কাপ: পোল্যান্ড ১-অস্ট্রিয়া ২ (৬৭ মিনিট)

21-06-2024 - 11:04:07 PM