Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

মোদিজি কি ‘সবকা বিশ্বাস’ অর্জন করতে পারবেন?
পি চিদম্বরম

নরেন্দ্র মোদি এবার যে জনাদেশ পেয়েছেন তা অনস্বীকার্যভাবে বিপুল। যদিও, অতীতে লোকসভা নির্বাচনে একটি পার্টি ৩০৩-এর বেশি আসন জেতার একাধিক দৃষ্টান্ত আছে। যেমন ১৯৮০ সালে ইন্দিরা গান্ধী ৩৫৩ এবং ১৯৮৪ সালে রাজীব গান্ধী ৪১৫ পেয়েছিলেন। কিন্তু, পরিস্থিতি ছিল ভিন্ন: একটি অত্যন্ত অপ্রিয় জোট সরকারের বিরুদ্ধে সাহসী সংগ্রামের মূল্য অর্জন করেছিলেন ইন্দিরা গান্ধী, কারাবাসসহ নানাবিধ হয়রানি সহ্য করেছিলেন তিনি, বস্তুত একা লড়ে সেইসব মানুষের সমর্থন ফিরিয়ে এনে জয়ী হয়েছিলেন তিনি, যারা তাঁর দলকে এবং তাঁকেও (রায়বেরিলিতে) হারিয়েছিল। আর রাজীব গান্ধীর বিপুল জয়ের নেপথ্যে ছিল প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর হত্যার কারণে সহানুভূতির ঢেউ।
বিপুল জনসমর্থন
বিজেপির জয়টা শুধু বিপুলসংখ্যক আসনেই (৩০৩) নয়, দলটি যেভাবে সুইপ করেছে তার ব্যাপ্তিটা অবাক-করা। বিজেপি তিনটিমাত্র রাজ্যে দাঁত ফোটাতে পারেনি—কেরল, তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশ। জয়ের ব্যবধানটাও অবিশ্বাস্য রকমের বড়, দু’টি দলের সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতার ক্ষেত্রে সাধারণত যা হয়ে থাকে তার তুলনায় খুব বড়। এই প্রসঙ্গে যে রাজ্যগুলির নাম করতে হয় সেগুলি হল—গুজরাত, রাজস্থান, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড ও অসম।
প্রামাণ্য সংখ্যা কিছু নেই ঠিকই, কিন্তু নির্বাচন এবং সমীক্ষাগুলি নিশ্চিত করেছে যে, প্রত্যাশা মতোই হিন্দিভাষী এবং হিন্দি-জানা রাজ্যগুলির উচ্চবর্ণের মানুষজন বিজেপিকে ঢেলে ভোট দিয়েছে। একই কাণ্ড করেছে অন্যান্য অগ্রসর শ্রেণীও (ওবিসি)। বিস্মকরভাবে এও লক্ষ করা যাচ্ছে যে, দলিত, মুসলিম এবং খ্রিস্টানদেরও একটি উল্লেখযোগ্য অংশ বিজেপির পক্ষে ভোট দিয়েছে। তাদের ‘মোটিভেশন’
আলাদা হতে পারে, কিন্তু বাস্তবটা হল তারা ভোটটা দিয়েছে বিজেপিকে।
ভোট পেয়েছে, আস্থা নয়
আমি মনে করি, মোদিজি সুখী কিন্তু তৃপ্ত নন। একটি জিনিস মোদিজি উপলব্ধি করেছেন, যেটা সম্ভবত, তাঁর দলের অন্যরা বুঝতে
পারেননি: দলিত, মুসিলম, খ্রিস্টান এবং
হতদরিদ্রদের ভোট পাওয়াটাই যথেষ্ট নয়, জরুরি
হল তাদের আস্থা অর্জন করা। প্রথম দফার
শেষে তিনি জানতেন যে ওইসব শ্রেণীর আস্থা উপভোগ করেননি, তাই তাঁর গোড়ার দিকের স্লোগান ‘সবকা সাথ, সবকা বিকাশ’-এর
সঙ্গে পরে যোগ করেছিলেন ‘সবকা বিশ্বাস’।
এটি একটি স্মার্ট পদক্ষেপ ছিল ঠিকই কিন্তু এর ঝঞ্ঝাটও অনেক। নিশ্চিত প্রতিবন্ধকতা ছিল কয়েকটি নাম—গিরিরাজ সিং, সাধ্বী নিরঞ্জন জ্যোতি এবং সঞ্জীব বাল্যন। অন্য কয়েকজন, নির্বাচিত কিন্তু পরিত্যক্ত অথবা নির্বাচিত এবং প্রতীক্ষিত—মহেশ শর্মা, অনন্তকুমার হেগড়ে, সাক্ষী মহারাজ, সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর এবং অন্যরা অজ্ঞাত।
গিরিরাজ সিং, একজন ক্যাবিনেট মন্ত্রী, তিনি ইতিমধ্যেই জোটসঙ্গী দু’টি দলের নেতাদের সম্পর্কে অন্যায় মন্তব্য করে বসেছেন, একটি ইফতারে যোগ দেওয়ার কারণে। এজন্য বিজেপি সভাপতির ভর্ৎসনার পরেও তিনি কিন্তু দুঃখ প্রকাশ করেননি। ভোটের পর সাক্ষী মহারাজ একজন কয়েদির (২০১৭ সালে দেশ তোলপাড় হয়ে-যাওয়া উন্নাও ধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্ত এক বিধায়ক) সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ধন্যবাদ জানিয়ে আসেন, তাঁর জয়ের কারণে। তারপর কিন্তু তাঁকে আর ভর্ৎসনা করা হল না।
শৈশবে বা অল্প বয়সে যেসব কুসংস্কার মজ্জাগত হয়ে গিয়েছে সেসব থেকে মুক্তিলাভ সহজ ব্যাপার নয়। যদি আরএসএস এবং বিজেপির প্রবীণ নেতাদের কথায় সময়ে সময়ে এই সমস্ত কুসংস্কারে প্রকট হয় তবে কোনও লাভ নেই (‘ঈদের জন্য বিদ্যুৎ, দেওয়ালিতে বিদ্যুৎ নয়’, ‘এমন নির্বাচন ক্ষেত্র যেখানে সংখ্যালঘুরাই সংখ্যাগুরু)। কোনও লাভ নেই যদি না দলিত এবং মুসলিমদের পিটিয়ে হত্যার ঘটনা বন্ধ করা হয় এবং প্রতি সপ্তাহে এই ধরনের অন্তত একটি অভিযোগ নথিবদ্ধ করা হয়। উপলব্ধি বদলে সাহায্য করবে না, যদি বিজেপির নির্বাচিত ৩০৩ জন এমপির ভিতরে মুসলিম সমাজ থেকে একজনমাত্র থাকেন।
ভীতি, কল্যাণ
আর একটি ভয়ংকর সমস্যা আছে। দু’টিমাত্র শর্ত পূরণ করতে পারলেই বিজেপি এই শ্রেণীগুলির আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হবে। প্রথম শর্ত হল—কারও ভয়-ভীতির মধ্যে বসবাস করা উচিত নয়। দ্বিতীয় শর্তটি হল—তাদের আর্থিক সংগতির ধারাবাহিক শ্রীবৃদ্ধি। আজ এই দু’টি শর্তের কোনোটিই পূরণ হয়নি; এই দু’টি শর্ত পূরণে সরকার কী পদক্ষেপ করবে, কীভাবে এগবে সেটা দেখার জন্য আমাদের আগ্রহ থাকবে।
নির্দিষ্ট কিছু শ্রেণীর মানুষের মন থেকে ভীতি দূর করতে কঠোর পদক্ষেপ জরুরি। প্রত্যেক সময়ে রেহাই দেওয়ার ব্যাপার রয়েছে, এই ধরনের কুকর্ম এবং সেটা যারা ঘটাচ্ছে দু’টিকেই শাস্তির আওতায় আনা আবশ্যক। সমস্তরকম শাস্তি এড়িয়ে যারা এসব করে যাচ্ছে এবং ভীতির পরিবেশ কায়েম করছে, বিজেপি নেতৃত্ব কি তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করবে? এটি একটি বড় জিজ্ঞাসা যে, হালফিল পরিস্থিতি দেখে এসব হবে বলে ভরসা হয় না, কিন্তু আমার আশা, যারা দণ্ডনীয় আচরণকে প্রশ্রয় দিয়ে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বের ক্ষমতা এবার তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োগ করা হবে।
দ্বিতীয় শর্তের পুরোটা, বস্তুত, সরকারের একার হাতে নেই। অসন্তুষ্ট শ্রেণীগুলির আর্থিক শ্রীবৃদ্ধি ঘটবে যদি কেবলমাত্র তাদেরকে দেওয়া যায় বেশি চাকরি; চাকরির বেশি বেশি নিরাপত্তা; উচ্চ আয়; এবং সরকারি পণ্য ও পরিষেবাতে তাদের অধিকার। উচ্চ এবং ন্যায্য অর্থনৈতিক বৃদ্ধির সুযোগ এনে দেয় চাকরি এবং আয়। সেখানে ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষ যে ভয়াবহ বার্তা রেখে গেল তাতে করে উচ্চ এবং ন্যায্য বৃদ্ধির আশা নেই।
দলিত, মুসলিম, খ্রিস্টান এবং দারিদ্রসীমার নীচের শ্রেণীগুলি, আমার সন্দেহ হয়, বিজেপি প্রার্থীদের ভোট দিয়েছিল এই ভেবে যে অন্য কোনও প্রার্থীই এই লড়াইতে জেতার ক্ষমতা রাখেন না এবং ‘উইনিং’ সাইডে নিশ্চিত করেই আর কোনও প্রার্থীর দেখা মিলবে না। এটা ছিল বিচক্ষণতার ভোট; এ কোনও আস্থার ভোট ছিল না। তাদের আস্থা অর্জনে বিজেপিকে আরও অনেকটা করতে হবে।
এটি একটি অস্বাভাবিক পরিস্থিতি। বিজেপি এই সরকার গড়েছে তাদের আবেগবিহ্বল বা প্যাশনেট সাপোর্টারদের (যাদের দৃষ্টিতে মোদিজি কোনও ভুলই করতে পারেন না) এবং অসন্তুষ্ট শ্রেণীগুলির (যাদের দৃষ্টিতে মোদিজি, যতদূর সম্ভব, কোনও ঠিক কাজ করেননি) ভোট নিয়ে। করিৎকর্মা মোদিজি এই অজানা সাগর কীভাবে পাড়ি দেন সেটা দেখার জন্যই আমরা অধীর আগ্রহে প্রতীক্ষা করব।
10th  June, 2019
লকডাউনেই থামবে করোনার অশ্বমেধের ঘোড়া
সন্দীপন বিশ্বাস

 এ এক অন্য পৃথিবী। এই পৃথিবী দেখার জন্য আমরা কেউই প্রস্তুত ছিলাম না। কিন্তু হঠাৎই বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো অতি দ্রুত আমরা মুখোমুখি হলাম এই অন্য পৃথিবীর। যেখানে গাছের পাতা ঝরার মতোই ঝরে পড়ছে মানুষের প্রাণ। বিশদ

ঘরে থাকতে অক্ষম যে ভারত
শান্তনু দত্তগুপ্ত

 রণবীর সিং। বয়স ৩৮ বছর। ডেলিভারি এজেন্টের কাজ করতেন দিল্লিতে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণার পর হাঁটতে শুরু করেছিলেন তিনি। জাতীয় সড়ক ধরে। যেভাবে হোক গ্রামে পৌঁছতে হবে। গ্রাম মানে মধ্যপ্রদেশের কোথাও একটা... দিল্লি থেকে বহুদূর।
বিশদ

31st  March, 2020
ভীরু এবং আধখেঁচড়া
ব্যবস্থা, তবু স্বাগত
পি চিদম্বরম

গত ১৯ মার্চ, শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করলেন যে ২২ মার্চ, রবিবার দেশজুড়ে ‘জনতা কার্ফু’ পালন করা হবে। আমি ভেবেছিলাম প্রধানমন্ত্রী জল মাপছেন, জনতা কার্ফুর শেষে তিনি নানা ধরনের লকডাউন ঘোষণা করবেন। কিন্তু রবিবার কোনও ঘোষণা শোনা গেল না। বিশদ

30th  March, 2020
 করোনা যুদ্ধের অক্লান্ত সৈনিক ডাক্তারবাবুরা,
দোহাই ওদের গায়ে আর কেউ হাত তুলবেন না
হিমাংশু সিংহ

পৃথিবীব্যাপী এক ভয়ঙ্কর যুদ্ধ চলছে। অদৃশ্য জৈবযুদ্ধ। এলওসিতে দাঁড়িয়ে মেশিনগান হাতে কোনও সেনা নয়, রাফাল নিয়ে শত্রু ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলাও নয়। হাসপাতালের আইসিইউতে নিরস্ত্র ডাক্তারবাবুরা বুক চিতিয়ে এই নির্ণায়ক যুদ্ধ লড়ছেন রাতের পর রাত ক্লান্তিহীন। বিশদ

29th  March, 2020
এ লড়াই বাঁচার লড়াই,
এ লড়াই জিততে হবে
তন্ময় মল্লিক

 এখন দোষারোপের সময় নয়। এখন আঙুল তোলার সময় নয়। এখন সমালোচনার সময় নয়। এখন লড়াইয়ের সময়। এ এক কঠিন লড়াই। এ লড়াই বাঁচার লড়াই। এ লড়াই জিততে হবে।
বিশদ

28th  March, 2020
মিসাইল বানানোর চেয়ে ডাক্তার
তৈরি অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ
মৃণালকান্তি দাস

লিউয়েনহুক যখন সাড়ে তিনশো বছর আগে আতশ কাঁচের নীচে কিলবিল করা প্রাণগুলোকে দেখতে পেয়েছিলেন, তখনও তিনি জানতেন না যে তিনি এক নতুন দুনিয়ার সন্ধান পেয়ে গিয়েছেন। তিনিই প্রথম আণুবীক্ষণিক প্রাণের দুনিয়াকে মানুষের সামনে উন্মোচিত করেন। ওই ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র প্রাণগুলোর নাম দেন ‘অ্যানিম্যালকুলস’। বিশদ

27th  March, 2020
করোনা ছুটছে গণিতের অঙ্ক মেনে,
থামাতে হবে ‘হাতুড়ি’র ঘা দিয়েই
ডাঃ সৌমিত্র ঘোষ

 জানেন কি, গণিতের নিয়ম মেনেই ভারত সহ গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে নোভেল করোনা ভাইরাস? একজন আক্রান্ত থেকে গুণিতক হারে অন্যদের মধ্যে ছড়াচ্ছে এই মারণ ভাইরাস! আর অসতর্কতার কারণে মাত্র এক-দু’সপ্তাহে আক্রান্তের সংখ্যা এক ঝটকায় অনেকটা বাড়ছে। ঠিক যেমন হয়েছে চীন, ইতালি, স্পেনের মতো দেশগুলিতে।
বিশদ

27th  March, 2020
পাহাড়প্রমাণ চ্যালেঞ্জ, অস্ত্র নাগরিক সচেতনতা
শান্তনু দত্তগুপ্ত

ডাঃ সুশীলা কাটারিয়া। জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যাঁদের জন্য পাঁচটা মিনিট সময় বের করার আর্জি জানিয়েছিলেন, ডাঃ কাটারিয়া তাঁদেরই মধ্যে একজন। গুরুগ্রামে একটি হাসপাতালের ইন্টারনাল মেডিসিনের ডিরেক্টর তিনি। বয়স ৪২ বছর। গত ৪ মার্চ যখন তাঁকে বলা হয়েছিল, আপনার দায়িত্বে ১৪ জন ইতালীয় পর্যটককে ভর্তি করা হচ্ছে, তখনও তিনি রোগের নাড়িনক্ষত্র ভালোভাবে জানেন না। 
বিশদ

24th  March, 2020
মন্বন্তরে মরিনি আমরা, মারী নিয়ে ঘর করি
 সন্দীপন বিশ্বাস

পৃথিবীর গভীর গভীরতর অসুখ এখন। আর এই ‘অসুখ’ থেকে বারবার মানুষ লড়াই করে ফিরে এসেছে। প্রতিবার অস্তিত্বের সঙ্কটের মুখে দাঁড়িয়ে একযোগে লড়াই করে মানুষ এগিয়ে গিয়েছে উত্তরণের পথে। প্রকৃতির কোনও মারণ আক্রমণেই সে পিছিয়ে পড়েনি। তাই মানুষ বারবার ঋণী মানুষেরই কাছে।  
বিশদ

23rd  March, 2020
কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াই এবং তারপর
পি চিদম্বরম

আপনি এই লেখা যখন পড়ছেন, ততক্ষণে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) মোকাবিলায় ভারত এগতে পারল না কি পিছনে পড়ে গেল। সরকার ব্যস্ত ভিডিও কনফারেন্সে, আক্রান্ত দেশগুলি থেকে ভারতীয়দের দেশে ফিরিয়ে আনতে এবং করোনা থেকে বাঁচার জন্য নির্দেশিকা (হাত জীবাণুমুক্ত করা, নাক-মুখ ঢেকে রাখা এবং মাস্ক পরা) জারিতে।  
বিশদ

23rd  March, 2020
ভয় পাবেন না, গুজব ছড়াবেন না, জনতা কার্ফুতে ঘরে থাকুন, বিশ্বযুদ্ধে ভাইরাস পরাজিত হবেই
হিমাংশু সিংহ

 এক মারণ ভাইরাসের ভয়ঙ্কর সংক্রমণের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী মহাযুদ্ধ চলছে। এই যুদ্ধের একদিকে করোনা আর অন্যদিকে গোটা মানবজাতির অস্তিত্ব। প্রবীণ মানুষরা বহু স্মৃতি ঘেঁটেও এমন নজির মনে করতে পারছেন না যেখানে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া একটা রোগ ঘিরে এমন ত্রাস, আতঙ্ক দানা বেঁধেছে মানুষের মনে।
বিশদ

22nd  March, 2020
লড়াই
তন্ময় মল্লিক

 করোনা ভাইরাস। এই দু’টি শব্দই গোটা বিশ্বকে কাঁপিয়ে দিচ্ছে। করোনা আতঙ্কে থরহরি কম্প গোটা পৃথিবী। চীন, জার্মানি, ইতালি, আমেরিকা, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স সহ বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলিকে ক্ষতবিক্ষত করে করোনা এবার থাবা বসাতে শুরু করেছে তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলিতে।
বিশদ

21st  March, 2020
একনজরে
সংবাদদাতা, মালদহ: মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেও করোনা পরীক্ষার দাবি উঠেছে। ইতিমধ্যেই এ ব্যাপারে জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে জেলা প্রশাসনের কাছে।   ...

মেলবোর্ন, ৩১ মার্চ: গাড়ি থেকে চুরি গেল অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দলের অধিনায়ক টিম পেইনের ওয়ালেট। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার হোবার্টে। করোনার জেরে গোটা অস্ট্রেলিয়া জুড়ে চলছে লকডাউন। ...

নয়াদিল্লি, ৩১ মার্চ (পিটিআই): করোনার বিস্তার রুখতে জীবাণুনাশক স্প্রে করতে হবে। আর তা করবে স্বয়ংক্রিয় ড্রোন। এই প্রযুক্তি বানিয়ে ফেললেন গুয়াহাটি আইআইটির পড়ুয়ারা।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকারকে আর্থিক সাহায্য করার লক্ষ্যে তৃণমূল বিধায়কদের কাছ থেকে দলীয় তহবিলে ১০ হাজার টাকা করে চেয়েছেন মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বাড়তি অর্থ পাওয়ার যোগ রয়েছে। পদোন্নতির পাশাপাশি কর্মস্থান পরিবর্তন হতে পারে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ পক্ষে থাকবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

এপ্রিল ফুলস ডে
১৬২১- শিখ ধর্মের নবম গুরু তেগ বাহাদুরের জন্ম,
১৮৮৯- রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের প্রতিষ্ঠাতা কে বি হেডগেওয়ারের জন্ম,
১৯৩৭- মহম্মদ হামিদ আনসারির জন্ম,
১৯৪১- ক্রিকেটার অজিত ওয়াদেকারের জন্ম,
১৯৮৪- ক্রিকেটার মুরলী বিজয়ের জন্ম 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৬৪ টাকা ৭৬.৩৬ টাকা
পাউন্ড ৭৬.৩৬ টাকা ৯৪.৮৪ টাকা
ইউরো ৮১.৭৩ টাকা ৮৪.৭৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

১৮ চৈত্র ১৪২৬, ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, (চৈত্র শুক্লপক্ষ) অষ্টমী ৫৫/১৯ রাত্রি ৩/৪১। আর্দ্রা ৩৪/৫০ রাত্রি ৭/২৯। সূ উ ৫/৩৩/১, অ ৫/৪৮/১১, অমৃতযোগ দিবা ৭/১২ মধ্যে পুনঃ ৯/৩৮ গতে ১১/১৬ মধ্যে পুনঃ ৩/২১ গতে ৪/২৯ মধ্যে। রাত্রি ৬/৩৫ গতে ৮/৫৬ মধ্যে ১০/৩০ মধ্যে। বারবেলা ৮/৩৬ গতে ১০/৮ মধ্যে পুনঃ ১১/৪১ গতে ১/১৩ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩৬ গতে ৪/৪ মধ্যে।
১৮ চৈত্র ১৪২৬, ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, অষ্টমী ৪১/১৫/৩৫ রাত্রি ১০/৪/৫৮। আর্দ্রা ২২/৩০/৫২ দিবা ২/৩৫/৫। সূ উ ৫/৩৪/৪৪, অ ৫/৪৮/৩১। অমৃতযোগ দিবা ৭/১২ মধ্যে ও ৯/৩২ গতে ১১/১২ মধ্যে ও ৩/২১ গতে ৫/১ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ১/৩২ গতে ৫/৩৪ মধ্যে। কালবেলা ৮/৩৮/১১ গতে ১০/৯/৫৪ মধ্যে।
 ৭ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
অসমে আরও ৮ জনের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাস 

09:36:35 PM

মহারাষ্ট্রে আরও ১ করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু 

08:36:01 PM

কালিম্পংয়ে কোভিড-১৯-এ মৃত মহিলার ৪ আত্মীয়ও করোনা আক্রান্ত 
করোনা আক্রান্ত হলেন কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে মৃত কালিম্পংয়ের মহিলার চার ...বিশদ

08:12:00 PM

রাজ্যে আরও ১ করোনা আক্রান্তের মৃত্যু 
কয়েকদিনের যমে মানুষে টানাটানির ইতি। মৃত্যু হল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ...বিশদ

07:46:00 PM

স্থানীয়দের প্রতিরোধ, ধাপায় হল না করোনায় মৃতের শেষকৃত্য 
স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রতিরোধের জেরে ধাপা শ্মশানে হল না করোনা আক্রান্ত ...বিশদ

07:24:05 PM

করোনা: ব্রিটেনে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫০০-র বেশি মানুষের মৃত্যু হল 

07:22:24 PM