Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

 মহাত্মা গান্ধীর জীবনে মহিলাদের প্রভাব

জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর (১৮৬৯-১৯৪৮) জীবনে একাধিক নারীর উপস্থিতি লক্ষ করা যায়। গান্ধীর জীবনে এঁরা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্নভাবে উপস্থিত থেকে গভীর প্রভাব বিস্তার করেছেন। তাঁদের সম্পর্ক কখনও পারিবারিক, কখনও আশ্রমিক, আবার কখনও স্বাধীনতা আন্দোলনকেন্দ্রিক— এমনভাবে বহু স্তর বিভাজিত ছিল। অধিকাংশ সময়ে দেখা যায় গান্ধীকে কেন্দ্রীয় চরিত্র হিসাবে এবং তাঁকে ঘিরে আবর্তিত হচ্ছেন বাকি মহিলারা। অলক্ষে তিনিই যেন তাঁর পুরুষোচিত চারিত্রিক গুণে নিয়ন্ত্রণ করছেন অন্যদের। কিন্তু তথাপি গান্ধীর সর্বজনীন ক্যারিশ্মায় কখনও ম্লান হয়ে যায়নি নারীচরিত্রগুলি। পারিবারিক ক্ষেত্রে পত্নী কস্তুরীবাঈয়ের ভূমিকা ছিল উল্লেখযোগ্য। গান্ধীর জীবনাচরণকে তিনি বারে বারে প্রভাবিত করেছেন। মাত্র ১৩ বছর বয়সে বালক ও ছাত্রাবস্থায় বিবাহ করেন কস্তুরবাকে (১৮৬৯-১৯৪৪)। বাল্যবিবাহ হলেও কখনও অসংযমী ছিলেন না দু’জনে। বিবাহ হয় ১৮৮২ সালে। গান্ধী ব্যারিস্টারি পাশ করে দক্ষিণ আফ্রিকা গেলে স্ত্রীকেও সঙ্গে নিয়ে যান এবং বিলাতি আদবকায়দা ও খাদ্যাভ্যাসে অভ্যস্ত করান। পরে সবরমতী আশ্রমে আশ্রমিক জীবনের কড়া অনুশাসন গ্রহণ করতে বাধ্য হন কস্তুরবা। তবু মুখ বুঝে নতমস্তকে গান্ধীর সব আদেশ মান্য করেন। চারটি পুত্র সন্তানের জননী হয়েও শরীরের যত্ন নেননি সেভাবে কোনওদিন। ভগ্নস্বাস্থ্য নিয়েও অকপটে ঘরে-বাইরে কাজ করে গেছেন। গান্ধী তাঁকে ভালোবেসে ‘বা’ বলে সম্বোধন করতেন।
আশ্রমিক জীবনে ব্রহ্মচর্য ছিল অবশ্য পালনীয় কর্তব্য। এ ব্যাপারে গান্ধীর সচিব প্যারেলালের বোন সুশীলা নায়ার এবং সম্পর্কে তাঁর নাতনি মনু গান্ধী ছিলেন সর্বাগ্রে। তাঁদের অন্তরঙ্গ সম্পর্ক ও ব্রহ্মচর্য পালনের বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি নিয়ে জাড অ্যাডামস ‘গান্ধী, নেকেড অ্যামবিশন’ নামে একটি বিতর্কিত বইও লেখেন। বিভিন্ন সময়ে মনু আর সুশীলার ওপর গান্ধী এতটাই নির্ভর করতেন যে তাঁদের ত্রিকোণ সম্পর্ক দৃষ্টিকটু বলে মনে হতো। সম্পর্কে নাতি কানু গান্ধীর স্ত্রী আভা গান্ধীকেও মাঝে মাঝে মোহনদাস কাছে টেনে নিতেন। ব্রহ্মচর্য চর্চায় নারী-পুরুষের সম্পর্কের পাশ ফেল নিয়ে তিনি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতেন। কঠোর আশ্রমিক জীবন যাতে মেয়েদের বিপথগামী না করে— তাও তাঁর পর্যবেক্ষণের বিষয় ছিল।
স্বাধীনতা আন্দোলনকেন্দ্রিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে তিন বঙ্গললনা— সুচেতা মজুমদার, সরোজিনী চট্টোপাধ্যায় ও অরুণা গাঙ্গুলির ভূমিকা বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এঁরা প্রত্যেকেই গান্ধীর খুব কাছে এসেছেন, তাঁর বিভিন্ন আন্দোলন— অসহযোগ, সত্যাগ্রহ, ভারত ছাড়ো প্রভৃতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছেন, প্রয়োজনে কারারুদ্ধও হয়েছেন। তবে বৈবাহিক সূত্রেই এই তিন বঙ্গললনা ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে আজও স্মরণীয় হয়ে আছেন, পরিচিতি লাভ করেছেন। এঁরা যথাক্রমে হলেন— সুচেতা কৃপালনী (১৯০৮-৭৪), সরোজিনী নাইডু (১৮৭৯-১৯৪৯), অরুণা আসফ আলি (১৯০৯-১৯৯৬)। এছাড়া জওহরলাল নেহরুর বোন বিজয়লক্ষ্মী পণ্ডিতও (১৯০০-১৯৯০) গান্ধীর সংস্পর্শে আসেন এবং পরাধীনতা থেকে ভারত মুক্তির শপথে দীক্ষিত হন। গান্ধীর জীবনে দুই বিদেশিনীর প্রভাব ও আত্মনিবেদনও এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য। ইংরেজ মহিলা ম্যাডেলেইন স্লেড গান্ধীর আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে ভারতে আসেন এবং সেবাগ্রাম আশ্রমে মীরা বেন (১৮৯২-১৯৮২) নামে গান্ধীর সেবায় আত্মনিয়োগ করেন। তিনি এতটাই অন্তরঙ্গ ছিলেন যে গান্ধীকে ‘Beloved Bapu’ বলে সম্বোধন করতেও কুণ্ঠিত ছিলেন না। তাঁর একাধিক ব্যক্তিগত চিঠি নিয়ে ত্রিদিপ সুহরুদ ও টমাস ওয়েবার ‘বিলাভেড বাপু: গান্ধী-মীরা বেন করেসপন্ডেন্স’ নামে এক সংকলন গ্রন্থও প্রকাশ করেন। সরলা বেনও (১৯০১-৮২) তাঁর প্রকৃত নাম ক্যাথেরিন মেরি হেইলম্যান ত্যাগ করে গান্ধীর সেবাধর্মে আত্মোৎসর্গ করেন।
সুমিত তালুকদার
10th  August, 2019
স্ত্রীর উন্নতিতে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন স্বামী 

স্ত্রীর আয় বেশি বলে স্বামীকে হীনম্মন্যতা ও নিরাপত্তার অভাবে ভুগতে দেখার দৃশ্য বলিউডের অনেক ছবিতেই রয়েছে। ‘অভিমান’ থেকে শুরু করে ‘ম্যায়, মেরি পত্নী ওউর ওহ’র মতো ছবিতে এমন ঘটনা দেখা যায়। যুক্তরাজ্যের বাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকের গবেষণাতেও এ তথ্য উঠে এসেছে। গবেষণায় ছয় হাজার দম্পতির তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়।  
বিশদ

11th  January, 2020
গ্র্যামির মনোনয়নে নারীরাই জয়ী 

কিছুদিন আগে অবধিও সঙ্গীত বিশ্বে ছিল পুরুষের জয়-জয়কার। দু’বছর আগে তাই গ্র্যামির মঞ্চে বলা হয়েছিল, ‘নারীরা জেগে ওঠো, চিৎকার করে অস্তিত্বের জানান দাও।’ ২০২০ সালের গ্র্যামি মনোনয়নে দেখা গেল, নারীরা জেগে উঠেছে, চিৎকার করেছে। সেই চিৎকারে বর্ণময় হয়ে উঠেছে চারপাশ। 
বিশদ

11th  January, 2020
আশালতা চতুষ্পাঠীতে মেয়েরা সংস্কৃত পড়ছেন 

উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার হাসনাবাদ রেল স্টেশনের পাশে অধ্যক্ষ অনিলকুমার দাশের ‘আশালতা চতুষ্পাঠী’তে মুসলিম, আদিবাসী, হিন্দু, তফসিলি ও খ্রিস্টান মহিলারা খুব আগ্রহ সহকারে সংস্কৃত ভাষা শিক্ষা করছেন। 
বিশদ

11th  January, 2020
শেষ পৌষের বাউলমেলায় 

মাধবের মন্দিরে একসময় আশালতা দাসী, কর্তাল ঠুকে গাইতেন, ‘ওপারে বন্ধু আমার/এপারেতে স্বজন/ মনের ভিতর তুই আমার অতি আপনজন’! সেই ইতিহাসের অজয় নদ! তার তীরে বীরভূমের ইলামবাজারের অদূরে, প্রাচীন কেন্দুলী গ্রাম। এ অঞ্চলের অন্ত‌্যজ শ্রেণীর মেয়েরাও গাইত মাটির গান। 
বিশদ

11th  January, 2020
নবনীতার আলো 

নবনীতা দেবসেনের গল্প, ভ্রমণ বা কবিতায় মন ডুবিয়ে বাস্তবের থেকে বহু বহু দূরে পাড়ি জমান পাঠকরা। তাঁর জন্মদিনের প্রাক্কালে তাঁর প্রতি আমাদের শ্রদ্ধার্ঘ্য
বিশদ

11th  January, 2020
নারী পাইলটকে স্বাগত জানাল ভারতীয় নৌবাহিনী 

প্রথমবারের মতো কোনও নারী পাইলটকে স্বাগত জানাল আমাদের দেশের নৌবাহিনী। সাব-লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী নামের ওই নারী যখন একটি বিমানের নিয়ন্ত্রণ হাতে নেন, তখন তা আমাদের দেশের সশস্ত্র বাহিনীর জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক বলেই ধরে নেওয়া হয়েছে। 
বিশদ

04th  January, 2020
নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত মেয়েরা অবহেলার শিকার

নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত ছেলে ও মেয়ের চিকিৎসায় হাসপাতালে কোনও পার্থক্য হয় না। তবু তীব্র নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত মেয়ের মৃত্যু বেশি হয়। অন্যদিকে ছেলেশিশু ভর্তি হয় বেশি। গবেষকরা বলছেন, হাসপাতালে ভর্তি করাতে পরিবার ছেলেদের অগ্রাধিকার দিয়ে থাকতে পারে।  
বিশদ

04th  January, 2020
সর্বকালের সেরা আফ্রিকান কৃষ্ণাঙ্গ কোটিপতি নারী 

যুক্তরাষ্ট্রের টেলিভিশন জগতের খুব পরিচিত মুখ ওপরাহ্‌ উইনফ্রে। মিসিসিপির নিভৃত পল্লিতে ১৯৫৪ সালের ২৯ জানুয়ারি অবিবাহিত এক মায়ের ঘরে জন্ম তাঁর। কেরিয়ারের শুরুতে টেলিভিশন উপস্থাপিকা হিসেবে আগমন তাঁর। আর তাতেই বাজিমাত করেন। ১৯৮০-র দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে তিনি বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।  
বিশদ

04th  January, 2020
আপসহীন শর্বরী 

বেশ কয়েক বছর আগের ঘটনা, কলকাতা হাইকোর্টে তখনকার প্রধান বিচারপতি জে.এন. প্যাটেল স্বয়ং কথা বলতে চাইলেন সি.আই.ডি-র ইনস্পেক্টর শর্বরী ভট্টাচার্যের সঙ্গে। প্রধান বিচারপতির ডাক পেয়ে শশব্যস্ত হয়ে ছুটলেন শর্বরী। আর্দালি প্রথমে তাঁকে চেম্বারে ঢুকতে দিতে চাননি কিন্তু হাইকোর্টেরই এক আইনজীবীর নজরে পড়ে যান তিনি। 
বিশদ

04th  January, 2020
নারী মনের নানা দিক 

নারী মনের ওপর বয়সের প্রভাব পড়ে বিভিন্ন সময়। একদম অল্প বয়সে যখন সে বালিকা তখন তার মন থাকে চঞ্চল, উচ্ছল। এরপর কৈশোর আসে। মেয়েদের শরীরে তখন বদল ঘটে। হরমোনের প্রভাব পড়ে শরীর ও মনে। এরপর যৌবন। তখন মনের আবেগ ও শরীরের তেজ সবচেয়ে বেশি থাকে। তারপর ক্রমশ বার্ধক্য গ্রাস করে নারী মনকে।  
বিশদ

04th  January, 2020
লিঙ্গবৈষম্য ও সংস্কার 

ঘটনা এক: সান্ধ্যকালীন এক অনুষ্ঠান বাড়িতে উপস্থিত হয়েছে লোপা। মাঝ বয়েস ছুঁই ছুঁই লোপা এক কন্যাসন্তানের জননী। হাসি, মজা, কথাবার্তায় মহিলা মহলে উপস্থিত বেশ কয়েকজন নীল ষষ্ঠীর ব্রত উপবাসের কথা বলছিলেন। পুত্রসন্তানের জননী বলে কোথাও যেন কৌলীণ্য বেশি তাদের। 
বিশদ

28th  December, 2019
নিজের জ্ঞান সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চান সুপর্ণা 

চীনে এবার মিসেস ইউনিভার্স ২০১৯ অনুষ্ঠিত হবে। গ্র্যান্ড ফাইনাল হবে ৩০ ডিসেম্বর। তার আগেই কলকাতার থেকে প্রতিযোগী হিসেবে অংশগ্রহণ করছেন সুপর্ণা মুখোপাধ্যায়। তিনি এই বিষয়ে বর্তমান পত্রিকাকে নানা কথা জানালেন। 
বিশদ

28th  December, 2019
নারীর সম্মান রক্ষায় কল্পতরু শ্রীরামকৃষ্ণ 

আজকের দিনে নবজাগরণের অন্যতম অঙ্গ হল নারীর ন্যায্য অধিকার সচেতনতার আন্দোলন। সমাজের সকল স্তরে নারীর অবমাননা আজকের দিনে এমন এক চরম অবস্থায় পৌঁছেছে যে তার আমূল সংস্কার একান্তভাবে প্রয়োজন। আমাদের আর্য সভ্যতার উষালগ্নে বৈদিক যুগ ছিল নারীর স্বর্ণযুগ, সেই যুগে নারী ছিল উজ্জ্বল জ্যোতিষ্ক। 
বিশদ

28th  December, 2019
 কলকাতার বড়দিন ও শতাব্দীপ্রাচীন গির্জা

 কলকাতার বড়দিনে যে সব শতাব্দীপ্রাচীন চার্চ গির্জায় মানুষের ঢল নামে সেই সম্পর্কে পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। দক্ষিণ কলকাতার খিদিরপুরে যে সব শতাব্দীপ্রাচীন চার্চ গির্জা যুগ যুগ ধরে হিন্দু মুসলমানের মসজিদের পাশাপাশি অবস্থান করে সম্প্রীতির সাক্ষ্য বহন করে চলেছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল সেন্ট স্টিফেন্স চার্চ।
বিশদ

21st  December, 2019
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্যপালের দায়িত্ব নিয়ে এই প্রথম নির্বিঘ্নে কোনও সমাবর্তনে হাজির হলেন জগদীপ ধনকার। আর সেই অনুষ্ঠানে গিয়েও সরকারের উদ্দেশ্যে খোঁচা দিতে ছাড়লেন না ...

সংবাদদাতা, গঙ্গারামপুর: যে রাধে সে যেমন চুলও বাঁধে, তেমনি যিনি চোর-ডাকাত-অপরাধীর পিছনে ছুটে বেড়ান, তিনি আবার সাহিত্যচর্চাও করেন। হরিরামপুর থানায় কর্তব্যরত পুলিস কর্মী তাপস মণ্ডল ডিউটির চাপ সামলেও সামান্য যেটুকু অবসর পেয়েছেন, তাতেই একটি বই লিখে ফেলেছেন।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কথা রাখতে ব্যর্থ মোহন বাগান কর্তারা। তাঁরা আনতে পারলেন না নতুন ইনভেস্টর কিংবা স্পনসর। শেষ পর্যন্ত এটিকের সঙ্গে সংযুক্তিকরণের পথেই হাঁটতে হল ...

দিব্যেন্দু বিশ্বাস, নয়াদিল্লি, ১৬ জানুয়ারি: শুধুমাত্র নামের আদ্যক্ষর ব্যবহার করে টিকিট বুকিং করা যাবে না। দিতে হবে পুরো নাম এবং পদবি। দালালরাজ আটকাতে এবার টিকিট ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

গুরুজনের চিকিৎসায় বহু ব্যয়। ক্রোধ দমন করা উচিত। নানাভাবে অর্থ আগমনের সুযোগ। সহকর্মীদের সঙ্গে ঝগড়ায় ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৪১: মহান বিপ্লবী সুভাষচন্দ্র বসুর মহানিষ্ক্রমণ
১৯৪২: মার্কিন মুষ্টিযোদ্ধা মহম্মদ আলির জন্ম
১৯৪৫: গীতিকার ও চিত্রনাট্যকার জাভেদ আখতারের জন্ম
২০১০: কমিউনিস্ট নেতা তথা পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর মৃত্যু 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯. ২০ টাকা ৭২.৩৪ টাকা
পাউন্ড ৯০.১৯ টাকা ৯৪.৫৮ টাকা
ইউরো ৭৭.১০ টাকা ৮০.৮৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০, ৩৯৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮, ৩২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৮, ৯০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬, ৩০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬, ৪০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২ মাঘ ১৪২৬, ১৭ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার, সপ্তমী ২/৪০ দিবা ৭/২৮। চিত্রা ৪৭/৪ রাত্রি ১/১৩। সূ উ ৬/২৩/৭, অ ৫/৯/৫১, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৯ মধ্যে পুনঃ ৮/৩২ গতে ১০/৪১ মধ্যে পুনঃ ১২/৫০ গতে ২/১৭ মধ্যে পুনঃ ৩/৪৪ গতে অস্তাবধি। বারবেলা ৯/৪ গতে ১১/৪৫ মধ্যে। কালরাত্রি ৮/২৮ গতে ১০/৭ মধ্যে। 
২ মাঘ ১৪২৬, ১৭ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার, সপ্তমী ১২/৪/১৯ দিবা ১১/১৫/২৬। হস্তা ০/৩/৫ প্রাতঃ ৬/২৬/৫৬ পরে চিত্রা নক্ষত্র দং ৫৬/৯/৪১ শেষরাত্রি ৪/৫৩/৩৪। সূ উ ৬/২৫/৪২, অ ৫/৮/৫৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৮ মধ্যে ও ৮/৩২ গতে ১০/৪৩ মধ্যে ও ১২/৫৫ গতে ২/২৩ মধ্যে ও ৩/৫১ গতে ৫/৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩ গতে ৮/৪৭ মধ্যে ও ৩/৪৪ গতে ৪/৩৬ মধ্যে। কালবেলা ১০/২৬/৫৫ গতে ১১/৪৭/১৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/২৮/৮ গতে ১০/৭/৪৩ মধ্যে । 
মোসলেম: ২১ জমাদিয়ল আউয়ল 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ভারত ৩৬ রানে জিতল 

09:55:34 PM

অস্ট্রেলিয়া ২৩৫/৫ (৪০ ওভার), টার্গেট ৩৪১ 

08:50:02 PM

অস্ট্রেলিয়া ১৫১/২ (২৬ ওভার), টার্গেট ৩৪১

07:46:57 PM

অস্ট্রেলিয়াকে ৩৪১ রানের টার্গেট দিল ভারত 

05:12:00 PM

নির্ভয়া কাণ্ড: দোষীদের ফাঁসি ১ ফেব্রুয়ারি 
নির্ভয়া কাণ্ডে চারজন দোষীদের ফাঁসি ২২ জানুয়ারির বদলে হবে ১ ...বিশদ

05:08:00 PM

ভারত ২৪৯/৩ (৪০ ওভার) 

04:25:39 PM